Home » Tag Archives: জবি

Tag Archives: জবি

কারাগারে বসে পরীক্ষা দিলেন দুই জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী

আদালতের নির্দেশে কেরানীগঞ্জে ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারে বসে পরীক্ষা দিয়েছেন জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের (জবি) ১২তম আর্বতনের ইসলামিক স্ট্যাডিজ বিভাগের মাছুদুর রহমান ও আতিকুর রহমান নামের দুই শিক্ষার্থী।

বৃহস্পতিবার (৭ অক্টোবর) সংবাদমাধ্যমকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক এ কে এম আক্তারুজ্জামান।

তিনি বলেন, আদালতের নির্দেশে স্বাস্থ্যবিধি মেনেই এ পরীক্ষা নেওয়া হয়েছে। দ্রুত পরীক্ষা শেষ করতে বন্ধের দিনেও পরীক্ষা নেওয়া হবে। এছাড়া কারাগারে থাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ইসলামিক স্টাডিজ বিভাগের দুই শিক্ষার্থী পরীক্ষা দেওয়ার জন্য আদালতে আবেদন করেন।

আদালত তাদের আবেদন মঞ্জুর করে পরীক্ষা নেওয়ার নির্দেশ দেন। তাই আদালতের আদেশে সংশ্লিষ্ট বিভাগের দুইজন শিক্ষক কেরানীগঞ্জের কেন্দ্রীয় কারাগারে গিয়ে তাদের পরীক্ষা নেন।

পূজার ছুটির পর পরীক্ষা দিতে চান জবির শিক্ষার্থীরা

দুর্গাপূজার ছুটির মধ্যে সেমিস্টার ফাইনাল পরীক্ষার তারিখ দেওয়ায় ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের (জবি) কিছু বিভাগের সনাতন ধর্মাবলম্বী শিক্ষার্থীরা। তারা পূজার ছুটির পর পরীক্ষা নেওয়ার দাবি জানিয়েছেন।

সনাতন ধর্মাবলম্বী শিক্ষার্থীদের অভিযোগ, দুর্গাপূজাকে ঘিরে তাদের নানা রকম প্রস্তুতি, পরিকল্পনা ও আচার-অনুষ্ঠান থাকে। পরিবারের সঙ্গে দুর্গাপূজা উদযাপন তাদের জন্য এক মিলনমেলায় পরিণত হয়। কিন্তু এবার পূজার মধ্যে পরীক্ষা হওয়ায় তারা তাদের বছরের সবচেয়ে বড় এই ধর্মীয় উৎসব থেকে বঞ্চিত হবেন।

আরও জানা গেছে, এ বছর নির্ধারিত তারিখ অনুযায়ী, আগামী ১১ অক্টোবর ষষ্ঠী, ১২ অক্টোবর সপ্তমী, ১৩ অক্টোবর অষ্টমী, ১৪ অক্টোবর নবমী এবং ১৫ অক্টোবর বিজয়া দশমী পালন করা হবে। তবে এর মধ্যেই জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন বিভাগ ও বর্ষের শিক্ষার্থীদের আটকেপড়া সেমিস্টার পরীক্ষা আগামী ৭ অক্টোবর থেকে সশরীরের শুরু হবে।

এ বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার প্রকৌশলী মো. ওহিদুজ্জামানের সঙ্গে মুঠোফোন যোগাযোগের চেষ্টা করা হলেও সম্ভব হয়নি।

স্বাস্থ্য বীমার আওতায় আসতে চান জবি শিক্ষার্থীরা

জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের (জবি) শিক্ষার্থীদের জন্য এখনো স্বাস্থ্য বীমা চালু হয়নি। প্রতিষ্ঠার প্রায় ১৬ বছর হতে চললেও শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের স্বাস্থ্য বীমার দাবি উঠলেও নজরে নেয়নি বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন। মহামারি করোনাভাইরাসে অনেক শিক্ষার্থী আক্রান্ত এবং সম্প্রতি কিছু শিক্ষার্থী চিকিৎসাকালীন সময়ে মৃত্যু হলে আবারও প্রশ্ন ওঠে ‘স্বাস্থ্য বীমা কবে হবে?’

সম্প্রতি ৯ সেপ্টেম্বর বাংলা বিভাগের ২০১৬-১৭ শিক্ষাবর্ষের শিক্ষার্থী আল-আমিন লেবু ১০৪° জ্বরে আক্রান্ত হয়ে মারা যান। কিন্তু টাকার অভাবে চিকিৎসা শুরু করতে পারেননি লেবু।

শিক্ষা ও গবেষণা ইনস্টিটিউটের ২০১৭-১৮ সেশনের শিক্ষার্থী রাহাত আরা রিমি মারা গেছেন ১১ জুলাই। তিনি জ্বর ও শ্বাসকষ্টে আক্রান্ত ছিলেন।

ব্যবস্থাপনা বিভাগের তৃতীয় বর্ষের (১৩ ব্যাচ) শিক্ষার্থী ইমরান পাভেল নামে এক শিক্ষার্থীর টাইফয়েড জ্বরে মৃত্যু হয় ২০২০ সালের ১৪ সেপ্টেম্বর।

শিক্ষার্থীদের মতে, জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের আবাসন ব্যবস্থা না থাকায় এবং বেশিরভাগ শিক্ষার্থীই মধ্যবিত্ত ও নিম্নমধ্যবিত্ত পরিবারের হওয়ায় যেখানে আবাসন খরচ মেটানো কষ্টকর, সেখানে স্বাস্থ্যসেবা অনিশ্চিত। কোনো শিক্ষার্থী অসুস্থ হয়ে পড়লে চিন্তায় পড়েন তাদের অভিভাবকরা। কিন্তু স্বাস্থ্য বীমা থাকলে সহজেই তারা তাদের চিকিৎসা করাতে পারবেন।

এছাড়াও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা মুজিববর্ষে ৮৫ টাকা বার্ষিক প্রিমিয়ামে শিক্ষার্থীদের স্বাস্থ্য বীমার ঘোষণা দেন। এ সুযোগটি এখনো নেয়নি বিশ্ববিদ্যালয়।

স্বাস্থ্য বীমার বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রকল্যাণ পরিচালক অধ্যাপক ড. মো. আইনুল ইসলাম বলেন, আমরা একবার আমাদের শিক্ষকদের সাথে এই বিষয়ে আলোচনা করেছিলাম। কিন্তু ইন্সুরেন্স যারা করে, তারা নানা প্রতিবন্ধকতা দেখিয়েছিল। তাই সেই সময়ে কাজটা এগোতে পারে নাই। এটি তো একটি ব্যাপক বিষয়, কতজন বীমায় থাকবে, না থাকবে সবকিছু স্টাডি করে এটা করা যেতে পারে।

এ বিষয়ে উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. ইমদাদুল হক বলেন, আমাদের বিশ্ববিদ্যালয়ের তো শিক্ষক, কর্মকর্তা, কর্মচারীদেরই স্বাস্থ্য বীমা নেই। এগুলো চালু থাকা দরকার, এগুলো থাকলে বিপদের সময় কাজে লাগে। কিন্তু অনেকে আবার এসব বিষয়ে ইন্টারেস্টও দেখায় না। কবে ডাক্তার দেখাবো, চিকিৎসা করাবো টাকা দেবো মাসে মাসে? তবে ইন্সুরেন্স তো এভাবেই হয়। বিপদ তো আর বলে আসে না। আমরা চিন্তাভাবনা করতেছি। আমাদের সাধারণ বীমা কর্মসূচি, প্রগতি এদের সাথে কথা বলতেছি। দেখবো কাদেরটা নিলে ভালো হয়, তবে চেষ্টা করবো সবার জন্যই নেওয়ার।

জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ে সশরীরে পরীক্ষা হলেও ক্লাস চলবে অনলাইনে

মহামারি করোনাভাইরাসের কারণে চলতি বছরের ৭ অক্টোবর থেকে সশরীরে সেমিস্টার ফাইনাল পরীক্ষা নেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় (জবি) প্রশাসন। তবে করোনা সংক্রমণ বেড়ে গেলে পরীক্ষা হবে অনলাইনে। শ্রেণিকক্ষে শুধু পরীক্ষা হলেও ক্লাস চলবে অনলাইনে। এ সময় পরিবহন ব্যবস্থা চালু থাকবে।

বুধবার (৮ সেপ্টেম্বর) বিশ্ববিদ্যালয় সূত্রে এ তথ্য জানা যায়। গত মঙ্গলবার বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. ইমদাদুল হকের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত এক বিশেষ সভায় এসব সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

সভার সিদ্ধান্ত অনুযায়ী, আগামী ৭ অক্টোবর, ২০২১ হতে বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভাগ ও ইনস্টিটিউটে সশরীরে পরীক্ষা গ্রহণের সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়েছে। তবে যদি সার্বিক পরিস্থিতির কারণে সশরীরে পরীক্ষা গ্রহণ করা সম্ভব না হয়, তবে অনলাইনে পরীক্ষা গ্রহণ করা হবে। অনুষদের ডিন ও বিভাগের চেয়ারম্যান ও ইনস্টিটিউটের পরিচালকরা আলোচনাক্রমে পরীক্ষার রুটিন প্রদান করবেন এবং পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক পরীক্ষা গ্রহণ সংক্রান্ত ব্যাপারে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করবেন। ক্যাম্পাসে শিক্ষার্থীদের সশরীরে পরীক্ষা গ্রহণের জন্য পরিবহন সুবিধা প্রদান করা হবে।

বিশ্ববিদ্যালয়ের কলা অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. চঞ্চল কুমার বোস বলেন, ‘বৈঠকে আলোচনার বিষয় ছিল পরীক্ষা অনলাইনে না সশরীরে হবে। ৭ অক্টোবর সশরীরে পরীক্ষার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। যদি এর মধ্যে করোনার সংক্রমণ বেড়ে যায়, তাহলে ওই তারিখে অনলাইনে পরীক্ষা হবে।

জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ে ১৪৮ কোটি ৮৭ লাখ টাকার বাজেট পাস

সোমবার (৬ সেপ্টেম্বর) বিকালে উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. ইমদাদুল হকের সভাপতিত্বে বিশ্ববিদ্যালয়ের ৮৫তম সিন্ডিকেট সভাতে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের (জবি) ২০২০-২১ অর্থ বছরের সংশোধিত বাজেট এবং ২০২১-২২ অর্থ বছরের মূল রাজস্ব (অনুন্নয়ন) বাজেট ও অনলাইন পরীক্ষার নীতিমালা পাস হয়েছে।

মঙ্গলবার (৭ সেপ্টেম্বর) বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থ ও হিসাব দপ্তর সূত্রে এ তথ্য জানা যায়।

সিন্ডিকেট সভায় জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যায়ের ২০২০-২১ অর্থ বছরের সংশোধিত বাজেট ১২৮ কোটি ৬ লাখ ৪৫ হাজার টাকা এবং ২০২১-২২ অর্থ বছরের ১৪৮ কোটি ৮৭ লাখ টাকার মূল রাজস্ব (অনুন্নয়ন) বাজেট পাস হয়।

উল্লেখযোগ্য খাতের মধ্যে গবেষণা খাতে গত অর্থ বছরের (২০২০-২১ ) বাজেট ২ কোটি টাকা থেকে বৃদ্ধি করে ২০২১-২২ অর্থ বছরে ৫ কোটি টাকায় উন্নীত করা হয়েছে।

এছাড়াও মূলধন অনুদান (যন্ত্রপাতি, যানবাহন, তথ্য যোগাযোগ প্রযুক্তি, অন্যান্য অনুদান) খাতে ৮ কোটি ৪৬ লাখ, আবর্তক অনুদান (শিক্ষক, কর্মকর্তা, কর্মচারীদের বেতন ও ভাতাদি) খাতে ৯৮ কোটি ৩৭ লাখ টাকা, পণ্য ও সেবা সহায়তা খাতে ৩২ কোটি ৯০ লাখ টাকা, পেনশন ও অবসর সুবিধা খাতে ২ কোটি ৩০ লাখ টাকা, অন্যান্য অনুদান খাতে ১ কোটি ৮৪ লাখ টাকা বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে।

অনলাইনে পরীক্ষার দাবিতে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের স্মারকলিপি

মহামারি করোনাভাইরাসের সংক্রমণের কারনে আটকে থাকা সেমিস্টার পরীক্ষাগুলো সেপ্টেম্বরের মধ্যে দ্রুত অনলাইনে পরীক্ষা নেওয়ার দাবিতে প্রশাসনের হস্তক্ষেপ চেয়ে স্মারকলিপি দিয়েছেন জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের (জবি) শিক্ষার্থীরা।

মঙ্গলবার (৩১ আগস্ট) জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের সাধারণ শিক্ষার্থীদের পক্ষ থেকে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. ইমদাদুল হক, কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক ড. কামালউদ্দিন আহমদ ও প্রক্টর ড. মোস্তফা কামাল বরাবর স্মারকলিপি পাঠানো হয়েছে। জমা দেওয়ার সময় বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন শিক্ষাবর্ষের শিক্ষার্থীরা উপস্থিত ছিলেন।

এতে বলা হয়, দীর্ঘ ১৭ মাস ধরে মহামারির কারণে বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধ। ইতোমধ্যে, আমরা অনলাইনে ২টি সেমিস্টার পরীক্ষার ক্লাস, মিডটার্ম পরীক্ষা, অ্যাসাইনমেন্ট, ভাইভাও সম্পন্ন করেছি। কিছু দিন আগে জবি শিক্ষার্থীদের একটি জরিপে দেখা যায়, প্রায় ৭৬ শতাংশ জবি শিক্ষার্থী অনলাইনে সেমিস্টার পরীক্ষা দিতে সম্মতি প্রকাশ করেছে। এমতাবস্থায় শিক্ষার্থীদের পড়াশোনা ও সেশনজটের কথা বিবেচনা করে আমাদের অনলাইনে সেমিস্টার পরীক্ষা নেওয়ার সুযোগ করে দেওয়া হোক।

এ বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক ড. কামালউদ্দিন আহমদ শিক্ষার্থীদের বলেন, আমি এ ব্যাপারে সর্বোচ্চ গুরুত্ব দেবো এবং পরীক্ষা নেওয়ার জন্য প্রয়োজনীয় সব পদক্ষেপ নেবো।

Responsive WordPress Theme Freetheme wordpress magazine responsive freetheme wordpress news responsive freeWORDPRESS PLUGIN PREMIUM FREEDownload theme free

hit counter