Home » টপ খবর » করোনার দুর্দিনে টেলিমেডিসিনই হোক সমাধান

করোনার দুর্দিনে টেলিমেডিসিনই হোক সমাধান

করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাবে বিশ্বজুড়ে ডাক্তারের নিয়মিত পরামর্শ নেওয়া অসম্ভব হয়ে দাঁড়িয়েছে। এ ধরনের পরিস্থিতিতে টেলিমেডিসিন অ্যাপ্লিকেশন হয়ে উঠতে পারে খুবই কার্যকরি একটি সমাধান।

বৈশ্বিক মহামারি চলাকালে নিজের বাসা থেকে বের হওয়াই যখন অসম্ভব, তখন বিদেশে গিয়ে ডাক্তারি পরামর্শ নেওয়ার প্রশ্নই আসে না। এমন অবস্থায়, SeekMed-এর মতো একটি টেলিমেডিসিন অ্যাপের মাধ্যমে নিতে পারেন ভারতীয় বিশেষজ্ঞ ডাক্তারের পরামর্শ।

সংক্রামক কোভিড-১৯ (করোনাভাইরাস) ছড়িয়ে পড়েছে পুরো বিশ্বে। সারা বিশ্বে এখন পর্যন্ত এই ভাইরাসে প্রায় ২৫ লাখ মানুষ আক্রান্ত হয়েছে। মৃত্যু হয়েছে লক্ষাধিক মানুষের। ইতিমধ্যে বাংলাদেশেও এই ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে হাজারো মানুষ। আশঙ্কার ব্যাপারটি হচ্ছে, আক্রান্ত ব্যক্তির সংখ্যা প্রতিনিয়ত বেড়েই চলেছে। যে কারণে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখা হয়ে পড়েছে আরও জরুরি।
করোনা ভাইরাস ছড়িয়ে পড়ে মূলত তিনটি উপায়ে: ১) কোনো ব্যক্তি যদি আক্রান্ত কারও সংস্পর্শে আসে, তাহলে সে ভাইরাসটি দ্বারা সংক্রমিত হতে পারে। ২) আক্রান্ত ব্যক্তির হাঁচি-কাশির মাধ্যমে তার ৬ ফুট দূরত্বে অবস্থানরত যে কেউ এই ভাইরাসটি দ্বারা আক্রান্ত হতে পারে। ৩) জীবাণু ছড়িয়ে পড়েছে, এমন কোনো জায়গায় স্পর্শের মাধ্যমে বা জীবাণু যুক্ত হাতে মুখ বা চোখ স্পর্শ করার মাধ্যমে ভাইরাসটি শরীরে প্রবেশ করতে পারে। মারাত্মক ছোঁয়াচে এই ভাইরাসের কারণে যাঁরা চিকিৎসাসেবা প্রদান করছেন এবং যাঁদের চিকিৎসাসেবা গ্রহণ করা প্রয়োজন, উভয় পক্ষই কঠিন এক পরিস্থিতির সম্মুখীন হয়েছেন। যাঁরা সাধারণ চিকিৎসাসেবা গ্রহণ করতে চাইছেন, উদ্ভূত পরিস্থিতিতে তাঁরা নানা সমস্যার মুখোমুখি হচ্ছেন। অন্যান্য স্বাস্থ্য সমস্যায় থাকা ব্যক্তিরা অনেক ক্ষেত্রে সঠিক চিকিৎসাসেবা পাচ্ছেন না।

করোনাভাইরাস প্রতিরোধে সারা বিশ্বের প্রতিটি সরকার কঠোর পদক্ষেপ নিয়েছে, নিচ্ছে। ইতিমধ্যে আরোপ করতে হয়েছে ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা। চলে যেতে হয়েছে লকডাউনে। ফলে মুখ থুবড়ে পড়েছে মেডিকেল ট্যুরিজম। চীন, ইতালি, সিঙ্গাপুর ও ভারতের মতো দেশগুলোতে চিকিৎসা গ্রহণের জন্য যাওয়া হয়ে পড়েছে অসম্ভব। বিদেশে চিকিৎসাসেবা গ্রহণের জন্য অধিকাংশ বাংলাদেশি ভরসা করে প্রতিবেশী দেশ ভারতের ওপর। কিন্তু করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ভারতও এই মুহূর্তে রয়েছে লকডাউনে। জারি করেছে ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা। ঢুকতে দিচ্ছে না বাইরের কোনো নাগরিককে।

কিন্ত এই মহামারির মাঝেও অন্যান্য রোগে জরুরি ডাক্তারি পরামর্শ প্রয়োজন হতেই পারে। হয়তো কোনো একটি রোগ আপনাকে অনেক দিন ধরেই ভোগাচ্ছে। এবং আপনার মনে হচ্ছে, এই রোগটি নিয়ে আর অবহেলা করা উচিত হবে না। অথবা হঠাৎ করেই আপনি কোনো একটি রোগে আক্রান্ত হয়েছেন। এবং আপনার দ্রুত ডাক্তারি পরামর্শ প্রয়োজন। কিন্তু মহামারী চলাকালে, যখন নিজের বাসা থেকে বের হলেই আপনি আক্রান্ত হতে পারেন একটি সংক্রামক রোগে, এমন অবস্থায় আপনি কীভাবে নেবেন বিশেষজ্ঞ ভারতীয় ডাক্তারের পরামর্শ?

ঠিক এই ক্ষেত্রেই সমাধান দিতে পারে SeekMed। ইন্টারনেটের এই যুগে, আপনি বাড়ির বাইরে পা না রেখেই নিতে পারেন কাঙ্ক্ষিত ডাক্তারের পরামর্শ। সুতরাং, SeekMed অ্যাপ্লিকেশনটি ব্যবহার করে ভারতে না গিয়েই নিন প্রখ্যাত ভারতীয় বিশেষজ্ঞ ডাক্তারদের পরামর্শ। SeekMed-এর অফিশিয়াল পেমেন্ট পার্টনার বিকাশের মাধ্যমে ঘরে বসেই পেমেন্ট করুন। এবং ভিডিও কলের মাধ্যমে গ্রহণ করুন প্রয়োজনীয় ডাক্তারি পরামর্শ।
প্রথম আলো:

Facebooktwitterredditpinterestlinkedinby feather
Facebooktwitterlinkedinrssyoutubemailby feather
Advertisements

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

shikkha_corona

করোনায় আরও ১৮৫ জনের মৃত্যু, শনাক্ত ৮ হাজার ৭৭২

নিজস্ব প্রতিবেদক | ১০ জুলাই, ২০২১ দেশে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে গত ২৪ ঘণ্টায় (শুক্রবার সকাল ৮টা থেকে শনিবার সকাল ৮টা পর্যন্ত) আরও ১৮৫ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে দেশে করোনায় ...

সীমিত আকারে অফিস খোলার নির্দেশ শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের

নিজস্ব প্রতিবেদক | ১০ জুলাই, ২০২১ লকডাউনের কঠোর বিধিনিষেধ চলাকালে জরুরি প্রয়োজনে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগের অফিস খোলা রাখার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। গতকাল শুক্রবার মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগ ...

student_shikka

সেপ্টেম্বরে হতে পারে ২০ বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি পরীক্ষা

নিজস্ব প্রতিবেদক,০৯ জুলাই ২০২১: আগামী সেপ্টেম্বরে অনুষ্ঠিত হতে পারে দেশের ২০টি সাধারণ এবং বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর গুচ্ছ পদ্ধতির ভর্তি পরীক্ষা। এর আগে আগস্ট মাসে এ ভর্তি পরীক্ষা নেয়ার কথা ...

শিক্ষাবার্তা_আকরাম

প্রাথমিকে নিয়োগ বিধিমালা নিয়ে সিনিয়র সচিব যা বললেন

ডেস্ক,৯ জুলাই : প্রাথমিক বিদ্যালয় দেশের গুরুত্বপূর্ণ একটি সরকারি প্রতিষ্ঠান। অথচ দীর্ঘদিনেও প্রায় ৪ লাখ শিক্ষকের এ প্রতিষ্ঠানে ছিলোনা নিয়োগ বিধিমালা। এ নিয়েই স্টাটাস দিয়েছেন সাবেক প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের ...

hit counter