জেলার খবর

দামুড়হুদায় দুজন প্রধান শিক্ষকের মৃত্যু স্বরনে স্বরণসভা ও উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসারের বিদায় অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত

চুয়াডাঙ্গা প্রতিনিধি :চুয়াডাঙ্গা জেলার দামুড়হুদা উপজেলার উপজেলা শিক্ষা অফিসার নুরজাহানের অবসর জনিত কারণে বিদায় অনুষ্ঠান ২জন শিক্ষকের মৃত্যুতে মিলাদ মাহফিলের আয়োজন করা হয়েছে। দামুড়হুদা উপজেলা প্রধান শিক্ষক সমিতির আয়োজনে সকল প্রধান শিক্ষদের সহায়তায় বৃহষ্পতিবার বেলা ১১টা থেকে প্রাথমিক শিক্ষকদের মিলনায়তনে রবিউল হক ও ওয়াহিদ মুরাদের মৃত্যু স্বরনে মিলাদ মাহফিল ও উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসারের বিদায় অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়।
নবাগত উপজেলা শিক্ষা অফিসার সাকী সালামের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ইনষ্টাক্ট্রর জামাল উদ্দিন। অনুষ্ঠানের শুরুতে প্রধান শিক্ষক রবিউল হক ও ওয়াহিদ মুরাদের মৃত্যু স্বরনে আলোচনা সভা ও মিলাদ মাহফিলের আয়োজন করা হয়। ২য় পর্বে বিদায়ী উপজেলা শিক্ষা অফিসারের বিদায় অনুষ্ঠান উপলক্ষে সৃতিœচারন করেন বিভিন্ন পর্যায়ের অতিথিবৃন্দ। এ সময় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন সহকারী উপজেলা শিক্ষা অফিসার আশরাফুল আলম,তাজকীর আহমেদ, আবিদ আজাদ, মমতাজ পারভীন, প্রধান শিক্ষক সমিতির সভাপতি আলাউদ্দিন ও সাধারন সম্পাদক স্বরুপ দাস। প্রধান শিক্ষক আরতি হালসানার প্রানবন্ত উপস্থাপনায় শিক্ষকদের পক্ষ থেকে বক্তব্য রাখেন সিনিয়ার সহসভাপতি হেলেনা পারভীন,কুতুব উদ্দিন, যুগ্ন সম্পাদক শামসুন্নাহার, সাংগাঠনিক সম্পাদক ইয়াছ নবী, সহকারী শিক্ষক সমিতির সাধারন সম্পাদক হারুন অর রশিদ, প্রধান শিক্ষক আইয়ুব আলী, ,প্রধান শিক্ষক সাহাবুদ্দিন,হারুন অর রশিদ প্রমুখ।

Facebooktwittergoogle_plusredditpinterestlinkedinmail

শিক্ষিকার হামলাকারীর উপযুক্ত শাস্তির নির্দেশ মন্ত্রণালয়ের

চট্রগ্রাম প্রতিনিধি : চট্টগ্রামের পটিয়ায় শ্রেণিকক্ষে ঢুকে শিক্ষিকার হাত-পা ভেঙে দেওয়া বখাটের সর্বোচ্চ শাস্তি এবং আহত শিক্ষিকার সুচিকিৎসার ব্যবস্থা নিশ্চিতের নির্দেশ দিয়েছে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়।

সচিবালয়ে নিজ দফতরে বুধবার দুপুরে এ কথা জানান প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সচিবের দায়িত্বে থাকা অতিরিক্ত সচিব মো. নজরুল ইসলাম খান। তিনি বলেন, ‘বখাটের হাতে শিক্ষক আহত হওয়ার খবর পেয়ে বুধবার সকালেই আমরা দ্রুত ব্যবস্থা নিয়েছি। আসামি ধরাও পড়েছে। আমি ডিসিকে বলেছি, আইনগতভাবে বখাটের সর্বোচ্চ শাস্তি নিশ্চিতে যা যা করার তা করুন। হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের সঙ্গেও কথা বলেছি, তাদের বলেছি আহত শিক্ষকের যেন স্পেশালি কেয়ার নেওয়া হয়।’

‘আমি চট্টগ্রামের ডিসি (জেলা প্রশাসক) ও উপ-পরিচালককে বলেছি, এ ব্যাপারে সর্বোচ্চ অ্যাটেনশন দিতে হবে। তাদের দু’জনকেই হাসপাতালে গিয়ে শিক্ষিকাকে দেখতে বলেছি। আরো কোনো সহায়তা করার থাকলে আমরা করব’ যোগ করেন নজরুল ইসলাম। এ বিষয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা অবহিত আছেন বলেও জানান তিনি। হামলার বিষয়টি প্রধানমন্ত্রীও অবগত বলে জানায় মন্ত্রণালয়।

পটিয়া উপজেলার দক্ষিণ ভূর্ষি ‌ইউনিয়নের পূর্ব ডেঙ্গামারা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে মঙ্গলবার ক্লাস চলাকালে সহকারী শিক্ষিকা মিসফা সুলতানাকে (২৫) খন্তা দিয়ে পিটিয়ে হাত-পা ভেঙে দেয় এক বখাটে। স্থানীয়রা তাকে দ্রুত উদ্ধার করে প্রথমে পটিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স নিয়ে যায়। পরে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে তাকে স্থানান্তর করা হয়। এরইমধ্যে হামলাকারী আহসান উল্লাহ টুটুলকে (৩০) আটক করেছে পুলিশ। টুটল একই এলাকার আনোয়ার হোসেনের ছেলে।

Facebooktwittergoogle_plusredditpinterestlinkedinmail

গাংনীতে শিক্ষা সফরের ৫ বাসে ডাকাতি

মেহেরপুর-কুষ্টিয়া সড়কের গাংনীর শুকুরকান্দি নামক স্থানে শিক্ষা সফর বাসে ডাকাতির ঘটনা ঘটেছে। ডাকাতদল অস্ত্রের মুখে মেহেরপুর পৌর ডিগ্রী কলেজের শিক্ষা সফরের ৫টি যানবাহন থেকে নগদ টাকা, স্বর্ণালংকার ও মোবাইল ফোনসহ ৩ লক্ষাধিক টাকার মালামাল লুট করে নিয়ে গেছে ডাকাতদল। রোববার ৩টার দিকে এ ঘটনা ঘটে।

পুলিশ জানায়, রোববার মেহেরপুর পৌর ডিগ্রী কলেজ থেকে ৬টি বাস ভাড়া করে নঁওগা জেলার পাহাড়পুরের সোমপুর বোদ্ধ বিহারে শিক্ষা সফর শেষে মেহেরপুর ফিরছিল। রাত ৩টার দিকে মেহেরপুর-কুষ্টিয়া সড়কের গাংনীর শুকুরকান্দি নামক স্থানে পৌঁছালে ডাকাতদল গাছ কেটে রাস্তায় ফেলে অস্ত্রের মুখে ঘন্টাব্যাপী ৫টি বাসে ডাকাতি করে পালিয়ে যায়। পরে পুলিশ গিয়ে তাদের উদ্ধার করে।

কলেজছাত্রী ডরিন জানান, আমাদের বহনকারী বাসটি হঠাৎ থেমে যায়। এরপর মুখ বাঁধা কয়েকজন ডাকাত বাসের ভেতরে অস্ত্র হাতে প্রবেশ করে আমাদের কাছে যা আছে সব দিয়ে দিতে বলে। আমরা ভয়ে সবকিছু তাদের হাতে তুলে দিই। জীবনের প্রথম এই ধরনের ঘটনার মুখোমুখি হয়ে খুব ভয় পেয়ে গেছিলাম।

মেহেরপুর পৌর কলেজের অধ্যক্ষ একরামুল আযিম বলেন, আমার কলেজের ৫টি বাসে ২৬০ জন শিক্ষার্থী নিয়ে শিক্ষা সফর শেষে মেহেরপুরে আসার পথে গাংনীতে ডাকাত দলের কবলে পড়ি। এসময় ডাকাতদল অস্ত্রের মুখে বাসগুলোতে ডাকাতি করে পালিয়ে যায়। পরে পুলিশ গিয়ে আমাদের উদ্ধার করে। এ ঘটনায় কেউ আহত হয়নি। শিক্ষাথীদের মোবাইল, স্বর্ণালংকার ও নগদ টাকা লুট করে ডাকাতরা।

গাংনী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আনোয়ার হোসেন ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, পুলিশ খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছানোর আগে ডাকাতদল পালিয়ে যায়। ডাকাতদের ধরার চেষ্টা চলছে।

Facebooktwittergoogle_plusredditpinterestlinkedinmail

লিটিল এনজেলস ইন্টারন্যাশনাল স্কুলের শিক্ষা সফর অনুষ্ঠিত

নিজস্ব প্রতিনিধি : দামুড়হুদা  উপজেলার দর্শনার প্রানকেন্দ্রে অবস্থিত লিটিল এনজেলস  ইন্টারন্যাশনাল স্কুলের বার্ষিক শিক্ষা সফর অনুষ্ঠিত হয়েছে। ৩রা মার্চ শুক্রবার বিনোদনের এক মনোমুগ্ধকর পরিবেশ ইব্রাহিম পার্কে এ শিক্ষা সফর অনুষ্ঠিত হয়। শিশুদের বিনোদন, সংস্কৃতিমনা ও মেধাবিকাশের জন্য প্রতি বছর এ শিক্ষা সফরের আয়োজন করা হয়।

বার্ষিক এ শিক্ষা সফরে উপস্থিত ছিলেন স্কুলের প্রতিষ্ঠাতা বিশিষ্ট শিক্ষানুরাগী স্বরুপ দাস, অধ্যক্ষ বিকাশ কুমার, সহ অত্র স্কুলের শিক্ষক-শিক্ষিকা, ছাত্র-ছাত্রী ও অভিভাবক এ শিক্ষা সফরে অংশ নেন।

শিক্ষা সফরে সকলকে আনন্দ দেয়ার জন্য লটারীর আয়োজন করা হয়। লটারীর ড্র. এর মাধ্যমে ১৫ জন বিজয়ীদের পুরষ্কার প্রদান করা হয়।

Facebooktwittergoogle_plusredditpinterestlinkedinmail

এমপিকে প্রধান অতিথি না করায় স্কুলের অনুষ্ঠান পণ্ড

স্থানীয় এমপিকে প্রধান অতিথি না করায় শরীয়তপুরের ডামুড্যা উপজেলার একটি বিদ্যালয়ের বার্ষিক অনুষ্ঠান বন্ধ করে দেয়ার অভিযোগ উঠেছে।

শুক্রবার থেকে ডামুড্যা মীর আবদুল মজিদ উচ্চ বিদ্যালয়ে দুই দিনব্যাপী বার্ষিক ক্রীড়া, সাংস্কৃতিক ও পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠান শুরু হওয়ার কথা ছিল।

স্থানীয়দের অভিযোগ, শরীয়তপুর-৩ আসনের এমপি নাহিম রাজ্জাককে প্রধান অতিথি না করায় অনুষ্ঠানটি বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। তবে এমপি বর্তমানে সিঙ্গাপুরে অবস্থান করলেও উপজেলা আওয়ামী লীগ ও ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা বিদ্যালয়ের আশেপাশে কয়েকটি ককটেল বিস্ফোরণ ঘটিয়ে আতংক সৃষ্টি করে।

তবে পুলিশ বলছে, একই স্থানে বিদ্যালয়ের বার্ষিক ক্রীড়া অনুষ্ঠান ও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের কর্মিসভা আহ্বান করায় আইনশৃংখলার অবনতির আশংকায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

মীর আবদুল মজিদ উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী ও স্থানীয় সুত্রে জানা গেছে, শরীয়তপুর জেলার ডামুড্যা উপজেলার ধানকাঠি ইউনিয়নের চর পাতালিয়া এলাকার মীর আবদুল মজিদ উচ্চ বিদ্যালয়ে শুক্রবার থেকে দুই দিনব্যাপী বার্ষিক ক্রীড়া, সাংস্কৃতিক ও পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। এতে শরীয়তপুরের পুলিশ সুপার এবং শরীয়তপুর জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ছাবেদুর রহমান খোকা সিকদারকে প্রধান অতিথি করা হয়।

শুক্রবার সকাল ৮টা থেকে বার্ষিক ক্রীড়া অনুষ্ঠান শুরু হয়। এমপি নাহিম রাজ্জাককে প্রধান অতিথি না করায় সকাল ১০টার দিকে ডামুড্যা উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মাস্টার কামাল উদ্দিন আহম্মেদ, সাধারণ সম্পাদক আবদুর রহমান বাবলু সিকদার, ডামুড্যা উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আলমগীর হোসেন মাঝি, পৌরসভা মেয়র হুমাযূন কবীর বাচ্চু ছৈয়াল, উপজেলা ছাত্রলীগের ৩০/৪০জন নেতাকর্মী অনুষ্ঠান স্থলে এসে অনুষ্ঠান বন্ধ করে দেয়।

এ সময় বিদ্যালয়ের আশেপাশে ৪-৫টি ককটেল বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটে। এতে এলাকাবাসীর মধ্যে আতংক ও চরম ক্ষোভের সৃষ্টি হয়। এ ঘটনার পর বিদ্যালয়ে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

মীর আব্দুল মজিদ উচ্চ বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি প্রফেসর ওমর নুর মোস্তফা মীর বলেন, আলোচনার মাধ্যমে ক্রীড়া অনুষ্ঠান বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। এমপি দেশের বাইরে অবস্থান করছেন। তিনি ফিরলে আরও ভাল করে অনুষ্ঠান করা হবে।

ডামুড্যা থানার ওসি মো. মাহবুবুর রহমান চৌধুরী বলেন, ‘একই স্থানে বার্ষিক ক্রীড়া অনুষ্ঠান ও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের কর্মী সভা আহ্বান করায় অনুষ্ঠান বন্ধ হয়ে গেছে। আইনশৃংখলা অবনতি হওয়ার আশংকায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।’

ডামুড্যা পৌরসভার মেয়র হুমায়ুন কবীর বাচ্চু ছৈয়াল বলেন, ‘স্কুলের সভাপতি আমাদের দাওয়াত করে নিয়েছে। নিজেদের মধ্যে ভুল বোঝাবুঝির কারণে এটা বন্ধ হয়েছে। স্কুলের সভাপতি আমাদের বলেছেন, এমপি দেশে আসলে আলোচনা করে পরে অনুষ্ঠান করব।’

উপজেলা আওয়ামীগের সভাপতি কামাল উদ্দিন মাস্টার বলেন, স্থানীয়ভাবে একটু ভুল বোঝাবুঝি হয়েছে। এ কারণে আমরা অনুষ্ঠানস্থলে যাই, যাতে কোনো অপ্রীতিকর কোনো ঘটনা না ঘটে। বিদ্যালয় ম্যানেজিং কমিটির লোকজন ক্রীড়া অনুষ্ঠান বন্ধ রেখেছে।

Facebooktwittergoogle_plusredditpinterestlinkedinmail

কালকিনিতে প্রাথমিক প্রধান শিক্ষককে লাঞ্ছিত। প্রধান শিক্ষক সমিতির প্রতিবাদ

নিজস্ব সংবাদদাতা, কালকিনি (মাদারীপুর) ॥ স্কুলে থেকে সোলার প্যানেল খুলে নিতে বাঁধা দেয়ায় মাদারীপুরের কালকিনিতে বিমল কৃষ্ণ বিশ্বাস নামের এক প্রাথমিক স্কুলের প্রধান শিক্ষককে শারীরিকভাবে লাঞ্ছিত করেছে ওই স্কুল ম্যানেজিং কমিরি সভাপতি।

পরে খবর পেয়ে থানা পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। এ ঘটনার তিব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছেন প্রাথমিক প্রধান শিক্ষক সমিতি, শিক্ষক সমাজ,প্রাথমিক শিক্ষক সমিতি। গতকাল সোমবার বিকালে এ ঘটনাটি ঘটেছে।

পুলিশ ও বিদ্যালয় সুত্রে জানাগেছে, উপজেলার ১৬ নং খাতিয়াল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ভবনে স্থাপনকৃত একটি সরকারি সোলার প্যানেল জোর পূর্বক নিজের বাড়িতে লাগানোর জন্য খুলে নিতে আসেন বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি শাহাআলম মাতুব্বর। এসময় ওই বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক বিমল বিশ্বাস বাঁধা দিলে তাকে শারীরিকভাবে লাঞ্ছিত করেন সভাপতি শাহাআলম মাতুব্বর।

এ ঘটনা জানাজানি হলে উপজেলার সকল শিক্ষক সমাজের মাঝে নিন্দার ঝড় ওঠে। এদিকে এ ঘটনায় ডাসার থানার এসআই মান্নান, উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মো. রফিকুল ইসলাম খবর পেয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন।

শিক্ষক সাহাদাত হোসেন ও এইচ এম জোবায়ের হোসেন বলেন, আমরা ওই সভাপতির দৃষ্টান্তমুলক বিচার চাই। প্রধান শিক্ষক বিমল কৃষ্ণ বিশ্বাস অভিযোগ করে বলেন, আমি সোলার প্যানেল খুলে নিতে বাঁধা দিলে আমাদের সভাপতি শাহাআলম মাতুব্বর আমাকে লাঞ্ছিত করেন।

অভিযুক্ত স্কুল কমিটির সভাপতি শাহাআলমের সাথে একাধিকবার যোগাযোগের চেষ্টা করেও তাকে পাওয়া যায়নি। উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষক সমিতির সভাপতি নিজামউদ্দিন ঢালী বলেন, ওই প্রধান শিক্ষক আমাদের কাছে অভিযোগ দিলে আমরা তার পাশে থাকবো।

এব্যাপারে উপজেলা ভারপ্রাপ্ত ইউএনও মো. শরীফুল ইসলাম বলেন, তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

প্রধান শিক্ষক সমিতির সাংগাঠনিক সম্পাদক খাইরুল ইসলাম বলেন উপজেলা থেকে নায্য বিচার না হলে সারা দেশে আন্দোলন সড়িয়ে পড়বে।

Facebooktwittergoogle_plusredditpinterestlinkedinmail

দৌলতপুরে ৮ম শ্রেণীর স্কুল ছাত্রী ধর্ষণের শিকার : ধর্ষক গ্রেপ্তার

নিজস্ব সংবাদদাতা, দৌলতপুর, কুষ্টিয়া ॥ কুষ্টিয়ার দৌলতপুরে ৮ম শ্রেণীর এক স্কুল ছাত্রী ধর্ষণের শিকার হয়েছে। পুলিশ ধর্ষককে গ্রেপ্তার করে সোমবার দুপুরে জেল হাজতে প্রেরণ করেছে। উপজেলার প্রাগপুর হাইস্কুলের ৮ম শ্রেণীর ওই স্কুল ছাত্রী ধর্ষণের শিকার হলে পুলিশ ধর্ষককে গ্রেপ্তার করে।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্র জানায়, প্রাগপুর হাইস্কুলের ৮ম শ্রেণীর স্কুল ছাত্রীকে আদাবাড়িয়া ইউনিয়নের গড়ুড়া গ্রামের আলাউদ্দিনের ছেলে জনি (২২) শনিবার দুপুরে কৌশলে ডেকে নিয়ে পার্শ্ববর্তী গাংনী উপজেলার বামুন্দি গ্রামে নিয়ে যায়। জনি ওই ছাত্রীকে তার ফুপার বাড়িতে নিয়ে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে এবং ওইদিন তাকে আটকিয়ে রেখে রাতেও কয়েকদফা ধর্ষণ করে। পরদিন রবিবার সকালে ধর্ষক জনি স্কুল ছাত্রীকে ভয়ভীতি প্রদর্শন করে ও ধর্ষণের কথা কাউকে না বলার হুমকি দিয়ে তার নিজ বাড়িতে পৌঁছে দেয়।

ধর্ষিতা কিশোরী ধর্ষণের ঘটনা তার পরিবারের লোকজনকে জানালে ধর্ষিতার পিতা বাদী হয়ে দৌলতপুর থানায় ধর্ষনের মামলা করে। মামলার সূত্র ধরে দৌলতপুর থানা পুলিশ রবিবার রাতে গড়ুড়া গ্রামে অভিযান চালিয়ে ধর্ষক জনিকে গ্রেপ্তার করে।

এদিকে ধর্ষিতা স্কুল ছাত্রী সোমবার অসুস্থ হয়ে পড়লে তাকে স্থানীয় স্বাস্থ্যকেন্দ্রে ভর্তি করা হয়। স্কুল ছাত্রী ধর্ষণের বিষয়ে দৌলতপুর থানার ওসি আহমেদ কবীর হোসেন জানান, স্কুল ছাত্রী ধর্ষণের শিকার হলে ধর্ষণের ঘটনায় থানায় মামলা হয়েছে এবং অভিযুক্ত ধর্ষক জনিকে গ্রেপ্তার করে আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে।

Facebooktwittergoogle_plusredditpinterestlinkedinmail

জাতীয় শিক্ষা সপ্তাহ ২০১৭ এ আটঘরিয়ায় মাদ্রাসার শ্রেষ্ঠ শিক্ষক মোহাম্মদ আবু সাইদ

পাবনা প্রতিনিধি
জাতীয় শিক্ষা সপ্তাহ ২০১৭ এ পাবনার আটঘরিয়া উপজেলার মাদ্রাসা পর্যায়ে দেবোত্তর
দাখিল মাদরাসার আরবি শিক্ষক মোহাম্মদ আবু সাইদ শ্রেষ্ঠ শিক্ষক নির্বাচিত
হয়েছেন।
উপজেলার ১৮টি মাদরাসার মধ্যে তিনি শ্রেষ্ঠ শিক্ষক নির্বাচিত হয়েছেন।
তিনি দেবোত্তর দাখিল মাদরাসার আরবি শিক্ষক। তিনি ঐ মাদ্রাসায় ১৪মার্চ ২০০২
সালে আরবি শিক্ষক হিসেবে যোগদান করে তার সততা নিষ্ঠা,কর্ম দক্ষতার সাথে
দায়িত্ব পালন করে আসছেন। গত ১৫ ফেব্রুযারি আটঘরিয়া উপজেলায় জাতীয় শিক্ষা
সপ্তাহ ২০১৭ ইং উদযাপন উপলক্ষে অনুষ্ঠিত শিক্ষা সপ্তাহ উদযাপন কমিটির
সিদ্ধান্তে তাকে বিভিন্ন দিক পর্যালোচনা করে শ্রেষ্ঠ শিক্ষক নির্বাচিত করা হয়।
তিনি সবার কাছে দোয়া প্রার্থী। 2015 সালে বিদ্যালয়টি উপজেলার মধ্যে শ্রেষ্ঠ
প্রতিষ্টান হিসেবে স্বৃীকৃতি‌ পেয়েছিল।

Facebooktwittergoogle_plusredditpinterestlinkedinmail

ছাত্রীদের শ্লীলতাহানি করতে এক শিক্ষকের নানান ফাঁদ!

চাঁদপুর,২২ ফেব্রূয়ারী :: চাঁদপুর সরকারি কলেজের এক শিক্ষকের বিরুদ্ধে নানান ফাঁদ পেতে ছাত্রীদের শ্লীলতাহানি চেষ্টার অভিযোগ উঠেছে। তবে বিষয়টি তদন্তাধীন থাকায় কোনো মন্তব্য করতে রাজি হননি ওই শিক্ষক।
ভুক্তভোগী ছাত্রীদের অভিযোগে জানা গেছে, ওই শিক্ষক ছাত্রীদের ফোনে কুরুচিপূর্ণ প্রস্তাব পাঠানো, ছাত্রীদের সঙ্গে অন্যের ছবি সংযুক্ত করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছেড়ে দেয়ার ভয় দেখিয়ে ব্ল্যাকমেইলিং করা, প্রতারণার মাধ্যমে নিজ বাসায় ডেকে নিয়ে কফি খাওয়ানোর নাম করে বিয়ার খাইয়ে মাতাল করা এবং নানাভাবে শ্লীলতাহানির চেষ্টা করেছেন।

অভিযুক্ত ওই শিক্ষকের নাম মুসলিম সরদার মিশু। রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগের সহকারী অধ্যাপক তিনি। একই বিভাগের বেশ কয়েকজন ছাত্রী গত ১১ ফেব্রুয়ারি কলেজ অধ্যক্ষের কাছে তার বিরুদ্ধে লিখিত অভিযোগ করেছেন।

কলেজ অধ্যক্ষ অভিযোগের প্রেক্ষিতে অর্থনীতি বিভাগের বিভাগীয় প্রধান আয়শা আক্তারকে প্রধান করে এবং সহযোগী অধ্যাপক সুশীল কুমার সাহা ও শেখ মো. খলিলুর রহমানকে সদস্য করে তিন সদস্য বিশিষ্ট তদন্ত কমিটি গঠন করেছেন।

এদিকে অধ্যক্ষের কাছে লিখিত অভিযোগ করতে ছাত্রীদের প্ররোচিত করেছেন একই কলেজের শিক্ষক মেহেদী হাসান- এমন ধারণা থেকে তাকে প্রাণনাশের হুমকির অভিযোগ উঠেছে মুসলিম সরদার মিশুর বিরুদ্ধে।

শিক্ষক মেহেদী হাসান জীবনের নিরাপত্তা চেয়ে রোববার চাঁদপুর মডেল থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেছেন (নং ৯৯৮)।

কলেজ অধ্যক্ষ ড. এএসএম দেলওয়ার হোসেন ছাত্রীদের লিখিত অভিযোগের সত্যতা স্বীকার করেন এবং তদন্ত কমিটির রিপোর্টের আলোকে ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে জানান।

চাঁদপুর মডেল থানার ওসি ওয়ালি উল্লাহ অলি শিক্ষক কর্তৃক আরেক শিক্ষকের বিরুদ্ধে জিডির বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন এবং বিষয়টি তদন্ত করছেন বলে জানান।

যোগাযোগ করা হলে শিক্ষক মুসলিম সরদার মিশু বলেন, ‘বিষয়টি যেহেতু তদন্তাধীন আছে তাই আমি কিছু বলতে চাই না। তবে সোমবার জেলা ও কলেজ ছাত্রলীগ নেতৃবৃন্দ অধ্যক্ষের সঙ্গে এ নিয়ে বসেছেন, তারাই এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেবেন।’

কলেজ শিক্ষক পরিষদের সম্পাদক মোহাম্মদ আলমগীর হোসেন বাহার বলেন, ‘ছাত্রীরা সচরাচর কোনো শিক্ষকের বিরুদ্ধে অভিযোগ দিতে চায় না। তারপরও যদি এ ঘটনা সত্যি হয়ে থাকে, তাহলে ওই শিক্ষকের কঠোর শাস্তি হওয়া উচিত।’

Facebooktwittergoogle_plusredditpinterestlinkedinmail

লালমনিরহাটে ২ শিক্ষককে পিটিয়ে আহত

লালমনিরহাট প্রতিনিধি, ২০ ফেব্রুয়ারী :

বিদ্যালয় ব্যবস্থাপনা কমিটি গঠন নিয়ে দ্বন্দ্বের জের ধরে প্রধান শিক্ষক ও সহকারী প্রধান শিক্ষককে পিটিয়ে হাসপাতালে পাঠিয়েছে কমিটির লোকজন।

আজ সোমবার বিকেলে লালমনিরহাটের কালীগঞ্জ হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন আহত শিক্ষকরা। এর আগে সকালে তাদের পিটিয়ে আহত করা হয়।

প্রত্যক্ষদর্শী ও শিক্ষকরা জানান, কালীগঞ্জের খন্ডরচড়া বহুমুখী উচ্চ বিদালয়ের ব্যবস্থাপনা কমিটি গঠন নিয়ে প্রধান শিক্ষক আব্দুল লতিফের সঙ্গে সাবেক সভাপতি গোলজার হোসেন মিন্টুর বেশ কিছু দিন ধরে দ্বন্দ্ব চলে আসছে। বিগত কমিটির মেয়াদোত্তীর্ণ হওয়ায় কালীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে আহ্বায়ক করে একটি কমিটি গঠন করা হয়েছে। আহ্বায়ক কমিটিতে সাবেক কমিটির সভাপতি গোলজার হোসেন মিন্টুকে না রাখায় প্রধান শিক্ষকের সঙ্গে দ্বন্দ্ব সৃষ্টি হয়। এ ঘটনার জের ধরে সোমবার সকালে বিদ্যালয় যাওয়ার পথে সহকারী প্রধান শিক্ষক ইন্দ্রজিৎ কুমারের উপর হামলা চালায় সাবেক সভাপতি গোলজার হোসেন মিন্টুর লোকজন। এর আগে রোববার প্রধান শিক্ষক আব্দুল লতিফের উপরও হামলা চালানো হয়।

স্থানীয়রা এগিয়ে এসে ইন্দ্রজিৎ কুমারকে উদ্ধার করে কালীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন। বর্তমানে তিনি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

প্রধান শিক্ষক আব্দুল লতিফ বলেন, ‘কতিপয় লোকজন অহেতুক আমার ও সহকারী প্রধান শিক্ষকের উপর হামলা করেছে। আমরা আইনের আশ্রয় নেব। বিষয়টি কালীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে অবহিত করেছি।’

এ ঘটনায় কালীগঞ্জ থানায় মামলা করা হবে বলে জানান প্রধান শিক্ষক আব্দুল লতিফ।

এ ব্যাপারে কালীগঞ্জ উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা আফরোজা বেগম বলেন, ‘বিষয়টি জেলা শিক্ষা কর্মকর্তাকে অবহিত করা হয়েছে। আইনগত ব্যবস্থা নিতে প্রধান শিক্ষককে বলা হয়েছে। সার্বিক পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণে রাখা হয়েছে।’

কালীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শাহীন আলম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, ‘প্রধান শিক্ষক আব্দুল লতিফকে আইনগত ব্যবস্থা নিতে অনুরোধ জানিয়েছি। এ ঘটনায় অবশ্যই মামলা হবে।’

কালীগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মকবুল হোসেন বলেন, ‘মামলার প্রস্তুতি চলছে। মামলা নথিভুক্ত হওয়ার পর আসামিদের গ্রেপ্তার করা হবে।’

Facebooktwittergoogle_plusredditpinterestlinkedinmail

কাষ্টমস সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে আন্তঃক্রীড়া প্রতিযোগিতার পুরস্কার বিতরণ সম্পন্ন

চুয়াডাঙ্গা প্রতিনিধি ঃ চুয়াডাঙ্গা জেলার দামুড়হুদা উপজেলার দর্শনা পৌরসভাধীন কাষ্টমস সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের বার্ষিক আন্তঃক্রীড়া ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের পুরস্কার বিতরন উপলক্ষে এক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। সোমবার সকালে বিদ্যালয় প্রাঙ্গনে বিদ্যালয় প্রধান শিক্ষক হেলেনা পারভীনের সভাপতিত্বে¡ প্রধান অতিথি ছিলেন সহকারী উপজেলা শিক্ষা অফিসার আশরাফুল আলম। অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন প্রধান শিক্ষক সমিতির সাধারন সম্পাদক স্বরুপ দাস, প্রধান শিক্ষক আরতি হালসানা, শিক্ষক আনোয়ারা খাতুন, শিলা,মমতা, সীতা লীনা প্রমুখ। আলোচনাসভা শেষে প্রধান অতিথি বার্ষিক ক্রীড়া ও সাংস্কৃতিক প্রতিযোগিতায় বিজয়ীদের মাঝে পুরস্কার বিতরণ করেন।

Facebooktwittergoogle_plusredditpinterestlinkedinmail

৫ স্কুল ছাত্রকে কুপিয়ে আহত করল দুর্বৃত্তরা

সাভারে ৫  স্কুল ছাত্রকে কুপিয়ে আহত করেছে দুর্বৃত্তরা। শুক্রবার সন্ধ্যায় ব্যাংক কলোনি এলাকায় আ্যাসেড স্কুলের সামনে এ ঘটনা ঘটেছে।
আহতরা হলেন সাভার পৌর এলাকার ছায়াবীথি মহল্লায় বাসিন্দা ফজর আলীর ছেলে সাব্বির হোসেন (১৬), সবুজবাগ এলাকার বাসিন্দা সামসুল আলমের ছেলে সাদনাম হোসেন (১৬), ব্যাংক কলোনির ইব্রাহিম সরদারের ছেলে রিফাত (১৫), ছায়াবীথি এলাকার সোহরাব হোসেনের ছেলে সজিব (১৬) ও ফাহাদ হাসান (১৬)। তারা স্থানীয় অ্যাসেড স্কুলের দশম শ্রেণির ছাত্র।

এ ঘটনায় ওই স্কুলের ৩ শিক্ষার্থীকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ও ২ শিক্ষার্থীকে এনাম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন সাভার মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা এস এম কামরুজ্জামান। তিনি বলেন, খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গেছে। তদন্ত করে দোষীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

জানা গেছে, অ্যাসেড স্কুলের দশম শ্রেণির ছাত্র সাব্বির হোসেনের সঙ্গে সবুজবাগ এলাকার বাসিন্দা মঞ্জুর সঙ্গে একটি বিষয় নিয়ে কথা কাটাকাটি হয়। শুক্রবার বিকেলে সাব্বির হোসেনসহ অন্যরা কোচিংয়ের যাবার জন্য স্কুলের সামনে একত্রিত হয়। এ সময় মঞ্জুরের নেতৃত্বে ১০/১২ জনের একটি দল এসে বিভিন্ন ধারালো অস্ত্র নিয়ে তাদের ওপরে হামলা চালায়।

ঘটনাটি স্থানীয় এলাকাবাসীর নজরে পড়লে তাদের ধাওয়ার মুখে হামলাকারীরা পালিয়ে যায়। পরে আহত ছাত্রদের এলাকাবাসী উদ্ধার স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে পাঠায়। এ ঘটনায় আহত দুই শিক্ষার্থীর অবস্থা গুরুত্বর দেখে জরুরি বিভাগের ডাক্তার সাব্বির ও সাদনামকে এনাম মেডিক্যালে পাঠিয়ে দেন।

এ ব্যাপারে অ্যাসেড স্কুলের দশম শ্রেণির আহত ছাত্র রিফাত জানান, শুক্রবার বিকেল আমরা কোচিংয়ের উদ্দেশ্য স্কুলের সামনে সবাই একত্রিত হই। এ সময় মঞ্জুর নেতৃত্বে ১০/১২ জন সন্ত্রাসী রাম দা, চাপাতি, ছুরিসহ বিভিন্ন ধারালো অস্ত্র দিয়ে আমাদের হামলা করে। পরে এলাকাবাসীরা আমাদের রক্ষা করেন।

Facebooktwittergoogle_plusredditpinterestlinkedinmail

আজমপুর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে আন্তঃক্রীড়া প্রতিযোগিতার পুরস্কার বিতরণ সম্পন্ন

চুয়াডাঙ্গা প্রতিনিধি ঃ চুয়াডাঙ্গা জেলার দামুড়হুদা উপজেলার দর্শনা পৌরসভাধীন ৩ নং ওয়ার্ডের আজমপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের বার্ষিক আন্তঃক্রীড়া ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের পুরস্কার বিতরন উপলক্ষে এক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। বৃহস্পতিবার সকালে বিদ্যালয় প্রাঙ্গনে বিদ্যালয় পরিচালনা পরিষদের সভাপতি প্যানেল মেয়র রবিউল হকের সভাপতিত্বে¡ প্রধান অতিথি ছিলেন সহকারী উপজেলা শিক্ষা অফিসার আশরাফুল আলম। অনুষ্ঠানে অন্যান্যদের মধ্যে আরো বক্তব্য রাখেন প্রধান শিক্ষক স্বরুপ দাস,এস এম সি সদস্য জুয়েল, শিক্ষক আতিকুর রহমান, মেরিনা পারভিন, আব্দুল হামিদ প্রমুখ। আলোচনাসভা শেষে প্রধান অতিথি বার্ষিক ক্রীড়া ও সাংস্কৃতিক প্রতিযোগিতায় বিজয়ীদের মাঝে পুরস্কার বিতরণ করেন।

Facebooktwittergoogle_plusredditpinterestlinkedinmail

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় পরীক্ষার আগেই কেন্দ্র সচিবের পকেটে প্রশ্ন, পরে অব্যাহতি

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আশুগঞ্জ উপজেলার আড়াইসিধা কে বি উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষককে প্রশ্নপত্র ফাঁসের দায়ে কেন্দ্র সচিবের দায়িত্ব থেকে অব্যাহতি দেয়া হয়েছে।ওই শিক্ষকের নাম মো. আশারাফ উদ্দিন।

আশুগঞ্জ উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কার্যালয় সূত্রে জানা যায়, রোববার (১২ ফেব্রুয়ারি ) সারা দেশের মতো আশুগঞ্জেও সকাল ১০টায় গণিত পরীক্ষার প্রস্তুতি শুরু হয়। কিন্তু তার আগেই আড়াইসিধা কে বি উচ্চ বিদ্যালয়ের কেন্দ্র সচিব আশরাফ উদ্দিন সাধারণ গণিত প্রশ্নের বান্ডেল খুলে একটি প্রশ্ন নিজের প্যান্টের পকেটে ভরে ফেলেন।

এক শিক্ষক বিষয়টি দেখে আশুগঞ্জ উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মো. আবুল হোসাইনকে ফোনে জানান। শিক্ষা কর্মকর্তা আশুগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মো. আমিরুল কায়সারকে বিষয়টি অবহিত করেন। ইউএনও আবার জানান অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা) মো. আসাদুজ্জামানকে। সঙ্গে সঙ্গেই অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা) ব্রাহ্মণবাড়িয়া থেকে ঘটনাস্থলে রওয়ানা দেন এবং নির্দেশ দেন, প্রধান শিক্ষক মো. আশারাফ উদ্দিনকে যেন নিজ কক্ষে আটকে রাখা হয়।

ঘটনাস্থলে গিয়ে বিষয়টি তদন্ত করে প্রধান শিক্ষক মো. আশরাফ উদ্দিনের প্যান্টের পকেট থেকে আজকের পরীক্ষার সাধারণ গণিতের প্রশ্নপত্র উদ্ধার করা হয়। পরে তাঁকে কেন্দ্রসচিবের দায়িত্ব থেকে অব্যাহতি দেওয়া হয় এবং এসএসসি পরীক্ষা চলাকালীন কেন্দ্রে প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয় বলে জানান অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা) মো. আসাদুজ্জামান।

Facebooktwittergoogle_plusredditpinterestlinkedinmail

দামুড়হুদাায় নবাগত উপজেলা শিক্ষা অফিসার কে ফুলেল শুভেচ্ছা

বিশেষ প্রতিনিধি::
চুয়াডাঙ্গার দামুড়হুদা উপজেলার নবাগত উপজেলা  শিক্ষা অফিসার সাকী সালাম  কে  ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানান প্রাথমিক প্রধান শিক্ষক সমিতির নেতৃবৃন্দ। দামুড়হুদা উপজেলার প্রাথমিক শিক্ষার মান উন্নয়নে কার‌্যকার ভুমিকা রাখার দায়িত্ব নেয়া শিখন শেখানো কাজকে অগ্রাধিকার সম্পূর্ন দূর্নীতি মুক্ত প্রাথমিক শিক্ষা গড়ার অঙ্গিকার নেয়ায়  প্রাথমিক প্রধান শিক্ষক সমিতির পক্ষ থেকে কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন করেন সমিতির সাধারন সম্পাদক স্বরুপ দাস। নবাগত শিক্ষা অফিসার মহোদয় ন্যাপ থেকে  ইতিপূর্বে বিভিন্ন ট্রেনিং সম্পন্ন করেছেন। তাঁর অর্জিত অভিজ্ঞতা উপজেলার শিক্ষার হার বৃদ্ধি, উন্নত শিক্ষায় ব্যাপক ভূমিকা রাখবে বলে আমরা আশাবাদ প্রকাশ করা হয়।

Facebooktwittergoogle_plusredditpinterestlinkedinmail

Responsive WordPress Theme Freetheme wordpress magazine responsive freetheme wordpress news responsive freeWORDPRESS PLUGIN PREMIUM FREEDownload theme free