প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকরা গেজেটেডই

জটিলতা অবসানের আদেশ জারি

ডেস্ক: অবশেষে সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ৪৮ হাজার প্রধান শিক্ষকের বেতন স্কেল নিয়ে সৃষ্ট জটিলতার অবসান হল। প্রধানমন্ত্রীর ঘোষণার দু’বছর পর এসব শিক্ষক তাদের ‘গেজেটেড’ মর্যাদা পেল। এ সংক্রান্ত আদেশ ইতিমধ্যে প্রকাশিত হয়েছে।  অর্থ মন্ত্রণালয় সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

অর্থ মন্ত্রনালয়ের সহকারী  সচিব শামীম আহসান স্বাক্ষরিত পত্রে বলা হয়েছে

সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক পদটি যেহেতু ২য় শ্রেণির বিধায় অর্থ বিভাগ কর্তৃক ২৭/১১/১৪ ইং তারিখের পত্রটি সংশোধন /পরিবর্তন করে নন গেজেটেড হিসাবে বেতন নির্ধারনের কোন সুযোগ নেই।

সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় প্রধান শিক্ষক সমিতির আহবায়ক রিয়াজ পারভেজ বলেন ২০১৪ সালের ৯ মার্চ জাতীয় শিক্ষা সপ্তাহের অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা প্রাথমিক শিক্ষকদের দ্বিতীয় শ্রেণীর গেজেটেড মর্যাদা দেয়ার ঘোষণা দেন। সে অনুযায়ী অন্যান্য মন্ত্রণালয়ের প্রয়োজনীয় অনুমোদন ও পরামর্শ নিয়ে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয় প্রধান শিক্ষকদের বেতন স্কেল ৬৪০০ টাকায় (সপ্তম পে-স্কেলের হিসেবে) উন্নীত করে। কিন্তু এটি দ্বিতীয় শ্রেণীর নন-গেজেটেড কর্মকর্তার বেতন গ্রেড। মন্ত্রণালয়ের এমন পদক্ষেপে নানা জটিলতা তৈরি হয়। অবশেষে তার একটা সমাধান হল।

এ প্রসঙ্গে জানতে চাইলে সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় প্রধান শিক্ষক সমিতির খুলনা বিভাগীয় আহবায়ক স্বরুপ দাস বলেন, ‘আমাদের প্রধান দাবি ছিল প্রধান শিক্ষকদের দ্বিতীয় শ্রেণীর গেজেটেড কর্মকর্তার মর্যাদা।অবশেষে আমাদের দাবী পুরন হবার দরুন প্রধান শিক্ষক সমিতির পক্ষ থেকে সরকারকে ধন্যবাদ জানাই।

Facebooktwittergoogle_plusredditpinterestlinkedinmail

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*