কর্মকর্তা ছাড়াই চলছে ৮ থানার শিক্ষা কার্যক্রম

চট্টগ্রাম প্রতিনিধি | ফেব্রুয়ারি ২২, ২০১৭

উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা (ইউইও) ছাড়াই চলছে চট্টগ্রামের ৮ শিক্ষা থানার প্রাথমিক শিক্ষা কার্যক্রম। ২-৩ বছর ধরে সহকারী উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তাকে দিয়ে ভারপ্রাপ্ত ও অতিরিক্ত দায়িত্ব পালনের মাধ্যমে এ পদের কার্যক্রম চলমান রাখা হলেও সংকট নিরসনে নেই কোন কার্যকর উদ্যোগ।

প্রাথমিক শিক্ষা কার্যক্রমের পাশাপাশি পাবলিক পরীক্ষা ও নির্বাচনের দায়িত্ব এবং মামলার তদন্ত প্রতিবেদন জমা দেওয়ার কাজও করতে হয় তাদের। তবে খোদ সহকারী উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তার (এইউইও) ৯৬টি পদের মধ্যে ৪১টি পদই বর্তমানে শূন্য।

অনুসন্ধানে জানা যায়, চট্টগ্রামের ২০ শিক্ষা থানার মধ্যে ৮টি থানায়-কোতোয়ালী, পাহাড়তলী, সন্দ্বীপ, রাঙ্গুনিয়া, বোয়ালখালী, আনোয়ারা, চন্দনাইশ ও লোহাগাড়ায় বেশ কয়েকবছর ধরে উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তার (ইউইও) পদ খালি রয়েছে। সহকারী উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তারাই (এইউইও) এ পদগুলোতে ভারপ্রাপ্তের দায়িত্ব পালন করছেন। এর মধ্যে সহকারী উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা (এইউইও) হিসেবে ৫৫ জন কর্মরত থাকলেও ৪১টি পদ শূন্য রয়েছে।

চন্দনাইশ উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা (ভারপ্রাপ্ত) মো. আশরাফুল আলম সিরাজী বলেন, ২০১৩ সালের সেপ্টেম্বর মাস থেকে ভারপ্রাপ্ত শিক্ষা কর্মকর্তা হিসেবে দায়িত্ব পালন করছি। প্রাথমিক শিক্ষা কার্যক্রমের পাশাপাশি পাবলিক পরীক্ষা ও নির্বাচনের দায়িত্ব পালন করতে হয়। এমনকি ইদানিং জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট উপজেলার বিভিন্ন মামলার তদন্ত প্রতিবেদন জমার দায়িত্বও আমাদের দেওয়া হচ্ছে। এছাড়া উপজেলার ৯১টি স্কুল ও শিক্ষকদের নানা কাজ সম্পন্ন করতে ডিউটি টাইমের পরও রাত পর্যন্ত কাজ করতে হচ্ছে। করার তো কিছু নেই, সরকারি দায়িত্ব তো পালন করতেই হবে।

বোয়ালখালী উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা (ভারপ্রাপ্ত) লায়লা বিলকিস বলেন, সাবেক প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা জিয়াউল ইসলাম অবসর গ্রহণের পর ২০১৬ সালের ১ জানুয়ারি থেকে ভারপ্রাপ্ত শিক্ষা কর্মকর্তা হিসেবে অতিরিক্ত দায়িত্ব পালন করছি। উপজেলার ১০৭টি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে সুচারূপে দায়িত্ব পালন করা হচ্ছে।

পাহাড়তলী থানা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা (ভারপ্রাপ্ত) অঞ্জন চক্রবর্তী বলেন, গত ৩ বছর আগে শিখা বিশ্বাস অন্যত্র বদলি হওয়ার পর থেকে পাহাড়তলীতে শিক্ষা কর্মকর্তা হিসেবে ভারপ্রাপ্ত দায়িত্ব পালন করছি। এ উপজেলায় ২৯টি প্রাথমিক বিদ্যালয় রয়েছে।

সংকটের বিষয়ে জানতে চাইলে জেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা নাসরিন সুলতানা বলেন, চট্টগ্রামের ২০ শিক্ষা থানার মধ্যে ৮ থানায় ভারপ্রাপ্ত সিনিয়র সহকারী উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তারা (এইউইও) দায়িত্ব পালন করছেন। বর্তমানে পাবলিক সার্ভিস কমিশনের (পিএসসি) মাধ্যমে নিয়োগ প্রক্রিয়া চলমান রয়েছে। নিয়োগের বিষয়টি মন্ত্রণালয় দেখে। এখানে আমাদের জেলা অফিসের কোন হাত নেই। কোন থানায় কত জন অনুমোদিত ও কর্মরত কর্মকতা-কর্মচারী রয়েছে এ সংক্রান্ত তথ্য আমরা প্রাথমিক শিক্ষা অধিদফতরে প্রতি মাসেই পাঠিয়ে থাকি।

Facebooktwittergoogle_plusredditpinterestlinkedinmail

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

১৫তম বেসরকারি শিক্ষক নিবন্ধন পরীক্ষা ১৯ এ্রপ্রিল

নিজস্ব প্রতিবেদক,১৬ এপ্রিল: আগামী ১৯ এপ্রিল থেকে শুরু হবে ১৫তম বেসরকারি শিক্ষক নিবন্ধন পরীক্ষা। ওই দিন শুক্রবার সকাল ১০টা থেকে ১১টায় স্কুল ও স্কুল পর্যায়-২-এর প্রিলিমিনারি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। ওই ...

চাকরিতে প্রবেশের বয়সসীমা ৩৫!

নিজস্ব প্রতিবেদক,১৬ এপ্রিল : সরকারি চাকরিতে প্রবেশের বয়সসীমা ৩৫ ও অবসর গ্রহণের বয়সসীমা ৬২ করতে সংসদ অধিবেশনে সিদ্ধান্ত প্রস্তাব আনা হচ্ছে। দেশের শিক্ষিত তরুণ সমাজ এ দাবী নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে ...

ছাত্রীদের ফোন করে ‘কুপ্রস্তাব’

ডেস্ক,১৫ এপ্রিল: নাটোরের সিংড়া উপজেলার বিয়াম ল্যাবরেটরি স্কুলের গণিত শিক্ষক ফজলুর রহমানে  ছাত্রীদের  ফোন করে কুপ্রস্তাব দেওয়ার পাশাপাশি যৌন হয়রানি, ভোগান্তি, হুমকি দেওয়াসহ বিভিন্ন অভিযোগ উঠেছে। এ বিষয়ে ওই স্কুলের ...

শিক্ষার্থী মৃত্যুর ঘটনায় জাবিতে শোভাযাত্রা বাতিল

নিজস্ব প্রতিবেদক,১৪ এপ্রিল : জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের শিশিক্ষার্থী নুরুজ্জামান নিভৃত হৃদযন্ত্রের ক্রিয়া বন্ধ হয়ে মারা যাওয়ার ঘটনায় শোভাযাত্রা বাতিল করছে শিক্ষার্থীরা। বিশ্ববিদ্যালয় চিকিৎসা কেন্দ্রে রোগ শনাক্ত করতে না পাড়ায় সাভারের এনাম ...