Home » Tag Archives: শিক্ষা

Tag Archives: শিক্ষা

শিক্ষপ্রতিষ্ঠানে ক্লাসের সংখ্যা এখনই বাড়ছে না: শিক্ষামন্ত্রী

গাজীপুর প্রতিনিধি,২১ অক্টোবর ২০২১ঃ

শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি বলেছেন, এ মুহূর্তে আমরা শিক্ষপ্রতিষ্ঠানে ক্লাসের সংখ্যা বাড়াতে পারছি না। নতুন বছর শুরু হলে এবং তখন সংক্রমণ আরও কমে গেলে আমরা আশা করছি ক্লাসের সংখ্যা বাড়াতে পারবো।

আরো খবরঃ বিশ্বকাপের মূলপর্বে বাংলাদেশ

তিনি বলেন, এখন যে অবস্থা আছে তাতে সন্তানদের স্কুলে পাঠানোর ক্ষেত্রে অভিভাবকরা যে পুরোপুরি স্বস্তিতে আছে, তা নয়। সে কারণে স্কুল-কলেজে শিক্ষার্থীদের উপস্থিতির হার কোথাও কোথাও কম আছে। আস্তে আস্তে যখন সব ক্লাস শুরু হবে তখন আবার তাদের উপস্থিতি বাড়বে, এটা নিশ্চিত।

বৃহস্পতিবার বিকেলে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যের কনফারেন্স রুমে অধিভুক্ত কলেজসমূহে ২০২০-২০২১ শিক্ষাবর্ষে স্নাতক (সম্মান) ১ম বর্ষে ভর্তিকৃত শিক্ষার্থীদের ওরিয়েন্টশন প্রোগ্রাম (ভার্চুয়ালি) উদ্বোধন শেষে সাংবাদিকদের বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তরে শিক্ষামন্ত্রী এসব কথা বলেন।

শিক্ষামন্ত্রী আরও বলেন, করোনা অতিমারীর কারণে কিছু প্রত্যন্ত অঞ্চলে স্বাভাবিক সময়ের চেয়ে বাল্যবিয়ে বেশি হয়েছে। বাল্যবিয়ে হয়ে যাওয়া মেয়েদের আবার ক্লাসে ফিরিয়ে আনতে আমরা কাজ করছি। তারা অনেকেই স্থানান্তরিত হয়ে গেছে। অতিমারীর কারণে এক শহর থেকে আরেক শহরে বা শহর থেকে গ্রামে চলে গেছে। স্থানান্তরিত হলেও তারা যেখানেই আছে সেখানকার শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে যাতে তারা ক্লাসে অংশগ্রহণ করেন তার জন্য আমরা চেষ্টা করছি।

দীপু মনি বলেন, করোনাকালে কিছু শিক্ষার্থী হয়তো ঝরে গেছে। আরও কিছুদিন গেলে আমরা বুঝতে পারবো সত্যিকার অর্থে কতজন ঝরে পড়েছে। আর কতজন করোনা অতিমারিরর কারণে কিংবা ঋতু পরিবর্তনজনিত অসুস্থতার কারণে হয়তো ক্লাসে উপস্থিতির হার কম। আর কিছুদিন গেলে আমরা বুঝতে পারবো সত্যিকার কোন কারণে কতজন ক্লাসে আসছে না কিংবা কতজন আসলে ঝরে গেছে। তখন প্রতিটি ক্ষেত্রে আমাদের পক্ষে স্প্যাসিফিক ব্যবস্থা নেয়া সহজ হবে। আমরা এ বিষয়টি দেখছি।

অনার্স শিক্ষকদের এমপিওভুক্তির বিষয়ে জানতে চাইলে শিক্ষামন্ত্রী বলেন, এ সিদ্ধান্ত শুধু শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের ওপর নির্ভর করে না। তাদের এমপিওভুক্তির বিষয়টি অর্থ মন্ত্রণালয়ের সঙ্গে সম্পৃক্ত। তৃতীয় শিক্ষকের ব্যাপারে আমরা এ মুহূর্তে কোনো সুখবর দিতে পারছি না। তবে এ বিষয়ে আমরা কাজ করছি।

এ সময় মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী আকম মোজাম্মেল হক, যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী মো. জাহিদ আহসান রাসেল, জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য ড. অধ্যাপক মো. মশিউর রহমান, রেজিস্ট্রার মোল্লা মাহফুজ আল-হোসেন, জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের জনসংযোগ, তথ্য ও পরামর্শ দপ্তরের ভারপ্রাপ্ত পরিচালক মো. ফয়জুল করিম প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

এছাড়া একইদিন বিকেলে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের ২৯তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে বিশ্ববিদ্যালয় চত্বরে কবুতর ও বেলুন উড়িয়ে সিনেট হলরুমে কেক কাটা এবং আলোচনা অনুষ্ঠানে অংশ নেন শিক্ষামন্ত্রী দীপু মনি। এ সময় বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক-কর্মকর্তা-কর্মচারীরাও অংশ নেন। পরে এক মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে গানে অংশ নেন বিশিষ্ট কণ্ঠশিল্পী রেজওয়ানা চৌধুরী বন্যা এবং ঢাকার সরকারি সঙ্গীত কলেজ সুরের ধারা কলেজ অব মিউজিকের শিল্পীরা।

প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ১৮ অক্টোবর যা চালু করতে হবে

ডেস্ক,১৩ অক্টোবর ২০২১:
বঙ্গবন্ধু বুক কর্নারের মতোই দেশের প্রতিটি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে এবার শেখ রাসেল বুক কর্নার স্থাপন করা হবে। আগামী ১৮ অক্টোবর শেখ রাসেল দিবসে বুক কর্নার চালু করা হবে। যেসব বিদ্যালয় এই সময়ের মধ্যে চালু করতে পারবে না সেসব বিদ্যালয়কে চলতি বছরের মধ্যে বুক কর্নার স্থাপনের কাজ শেষ করতে হবে।

প্রাথমিক শিক্ষা অধিদফতরের মহাপরিচালক আলমগীর মুহম্মদ মনসুরুল আলম বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, বঙ্গবন্ধু কর্নার করেছি। একই সঙ্গে ডেডিকেটেড করা হচ্ছে শেখ রাসেল বুক কর্নার। শেখ রাসেল ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ল্যাবরেটরি স্কুলের চতুর্থ শ্রেণির ছাত্র ছিলেন। সেই দায়বোধ থেকে আমরা গুরুত্বের সঙ্গে এটি করছি। আগামী ১৮ অক্টোবর শেখ রাসেল দিবসে বুক কর্নার চালু হবে। আর চলতি বছরের মধ্যে দেশের সব প্রাথমিক বিদ্যালয়ে বুক কর্নার স্থাপন কাজ শেষ করতে হবে।

লাইব্রেরিতে কী ধরনের বই সংরক্ষণ করা হবে জানতে চাইলে মহাপরিচালক আলমগীর মুহম্মদ মনসুরুল আলম বলেন, ‘মূলত শিশুতোষ বই থাকবে। শিশু একাডেমির যেসব বই রয়েছে সেগুলো রাখা হবে।’

আরো পড়ুনঃ   দেশের ৮০ প্রাথমিক বিদ্যালয়ের জন্য সুখবর

মন্ত্রণালয় সূত্রে জানা গেছে, প্রাথমিক ও গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রী মো. জাকির হোসেনের সভাপতিত্বে গত ২৯ আগস্ট এক প্রস্তুতিমূলক সভা অনুষ্ঠিত হয়। ওই সভার সিদ্ধান্ত অনুযায়ী গত ২৩ সেপ্টেম্বর ‘শেখ রাসেল দিবস ২০২১’ উদযাপন উপলক্ষে সচিবের সভাপতিত্বে আরও একটি সভা অনুষ্ঠিত হয়। ওই সভার সিদ্ধান্তে জানানো হয়, সারাদেশে প্রাথমিক বিদ্যালয়ে শেখ রাসেল বুক কর্নার স্থাপন করতে হবে। এ বিষয়ে মন্ত্রণালয় ও অধিদফতরের আওতাধীন দফতর, সংস্থার কর্মপরিকল্পনা তৈরি ও পরবর্তী প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয় সভায়।

এই সিদ্ধান্তের আলোকে প্রাথমিক শিক্ষা অধিদফতরের মহাপরিচালক আলমগীর মুহম্মদ মনসুরুল আলম সারাদেশের সব প্রাথমিক বিদ্যালয়ে বুক কর্নার স্থাপনের নির্দেশ দেন।

এদিকে আগামী ১৮ অক্টোবর দিবসটি পালনে রবিবার ১০ (অক্টোবর) অফিস আদেশ জারি করে প্রাথমিক শিক্ষা অধিদফতর। অফিস আদেশটি সব বিভাগের উপ-পরিচালককে সোমবার পাঠানো হয়েছে বলে জানান প্রাথমিক শিক্ষা অধিদফতরের মহাপরিচালক।

ওই অফিস আদেশে বলা হয়, ‘শেখ রাসেল দিবস, ২০২১’ পালনের জন্য মাঠ পর্যায়ে ব্যানার, ফেস্টুনের মাধ্যমে সাজসজ্জাকরণ, রচনা, চিত্রাঙ্কন, কুইজ প্রতিযোগিতা এবং আলোচনা সভা আয়োজন করতে হবে।

প্রাথমিকের ক্লাস চলবে ৯টা হতে সোয়া ৪টা পর্যন্ত

নিজস্ব প্রতিবেদক | ০৮ সেপ্টেম্বর, ২০২১
সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়েও রোববার থেকে শ্রেণিকক্ষে সরাসরি পাঠদান শুরু হতে যাচ্ছে। প্রথম শিফটে সকাল ৯টা থেকে ক্লাস শুরু হয়ে বেলা ১২টা পর্যন্ত চলবে। আর দ্বিতীয় শিফটে সাড়ে ১২টা থেকে শুরু হয়ে বিকেল সোয়া ৪টায় শেষ হবে।
কবে কোনদিন কোন বিষয়ের ক্লাস নেওয়া হবে সে বিষয়ে একটি খসড়া রুটিন তৈরি করছে প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তর। রুটিনে প্রতিদিন দুই শিফটে দুই শ্রেণির ক্লাস নেওয়ার কথা বলা হয়েছে। দু’একদিনের মধ্যেই রুটিনটি চূড়ান্ত করে বিদ্যালয়ে পাঠানো হবে বলে জানা গেছে।

আরো পড়ুন :  প্রাথমিকের কখন কোন ক্লাস?

প্রস্তাবিত ক্লাস রুটিনে বলা হয়েছে, করোনা পরিস্থিতিতে স্বাস্থ্যবিধি মেনে তিন ফুট দূরত্ব রেখে শিক্ষার্থীদের ক্লাসে বসাতে হবে। সপ্তাহের শনিবার থেকে বৃহস্পতিবার পঞ্চম শ্রেণির ক্লাস নেওয়া হবে। এছাড়া শনিবার প্রথম শ্রেণির ক্লাস, রোববার তৃতীয় শ্রেণির, মঙ্গলবার দ্বিতীয় শ্রেণির ও বুধবার চতুর্থ শ্রেণির ক্লাস নেওয়া হবে। প্রথম শিফটে সকাল ৯টা থেকে ক্লাস শুরু হয়ে বেলা ১২টা পর্যন্ত চলবে। আর দ্বিতীয় শিফটে সাড়ে ১২টা থেকে শুরু হয়ে বিকেল সোয়া ৪টায় শেষ হবে।
বাংলাদেশ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যারয় প্রধান শিক্ষক সমিতির খুলনা বিভাগের সাধারন সম্পদক স্বরুপ দাস বলেন, আমরা আমদের প্রস্তুতি শেষ করেছি। তিনি অভিভাবকদের উদ্দেশ্যে বলেন,যখন সন্তানদের স্কুলে পাঠানোর আগে অভিভাবকরা যেন সন্তানের রোগের কোন উপসর্গ আছে কীনা বা বাড়িতে কেউ অসুস্থ আছেন কীনা, তার দিকে নজর রাখেন।
করোনা পরিস্থিতির মধ্যে শিক্ষার্থীদের স্কুলে প্রবেশের আগে হ্যান্ড স্যানিটাইজার দেওয়া, প্রতিদিন একজন শিক্ষার্থীকে দুটি করে মাস্ক বিতরণ করা, তিন ফুট দূরত্ব বজায় রেখে ক্লাসে বসানো, শরীরের তাপমাত্রা মাপতে থার্মোমিটার ব্যবহার করা, ওয়াশরুম, ক্লাসরুম, খেলার পাঠ পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন করে ক্লাসের উপযোগী করতে অধিদফতর থেকে নির্দেশ দেয়া হয়েছে। তবে সব সরকারি বিদ্যালয়ের পরিবেশ পরিস্থিতি এক না হওয়ায় প্রধান শিক্ষকদের সঙ্গে আলোচনা করে ক্লাস রুটিন, ক্লাস রুমে শিক্ষার্থী বসানোর বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়ার অনুরোধ জানান তিনি।

প্রাথমিক শিক্ষা অধিদফতরের পরিচালক (পলিসি ও অপারেশন) মনীষ চাকমা বলেন, আমরা একটি খসড়া ক্লাস রুটিন তৈরি করেছি। সেটি মন্ত্রণালয়ের অনুমোদনের অপেক্ষায় রয়েছে। অনুমোদন হলে সেটি সব বিদ্যালয়ে ও আমাদের ওয়েবসাইটে প্রকাশ করা হবে।

কিভাবে খুলবে স্কুল কলেজ তার গাইডলাইন প্রকাশ

নিজস্ব প্রতিবেদক,৫ সেপ্টেম্বর ২০২১:

করোনা ভা্রিইরাস স্থিতিতে আবার শিক্ষা কার্যক্রম চালুর প্রস্তুতি নিতে স্কুল কলেজগুলোকে শিক্ষার্থীদের স্বাস্থ্যবিধি মানতে উদ্বুদ্ধ করা, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান পরিচ্ছন্ন করারসহ মোট ১৯ দফা নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। প্রকাশ করা হয়েছে স্বাস্থ্যবিধি মেনে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলার গাইড লাইন। এ গাইড লাইন অনুসরণ করে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলোকে প্রস্তুত করতে বলা হয়েছে। আর আগামী ৯ সেপ্টেম্বরের মধ্যে এ নির্দেশনাগুলো বাস্তবায়ন করতে সব স্কুল-কলেজকে নির্দেশ দিয়েছে মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তর মাউশি।

আরো পড়ুন: এসএসসি–এইচএসসি ও পঞ্চম শ্রেণির ক্লাস প্রতিদিন

আজ রোববার (৫ সেপ্টেম্বর) শিক্ষা অধিদপ্তর থেকে সব স্কুল-কলেজগুলো খোলার প্রস্তুতি নিতে ১৯ দফা নির্দেশনা দিয়ে আদেশ জারি করা হয়েছে।

১৯ দফা নির্দেশনা হলো
*শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের প্রবেশ মুখসহ অন্যান্য স্থানে কোডিড-১৯ অতিমারি সম্পর্কিত স্বাস্থ্যবিধি প্রতিপালনে করণীয় বিষয়গুলো ব্যানার বা অন্য কোনো উপায়ে প্রদর্শনের ব্যবস্থা করতে হবে;

*শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের প্রবেশ পথে সব শিক্ষক-কর্মচারী শিক্ষার্থী-অভিভাবকদের তাপমাত্রা পরিমাপক যন্ত্রের মাধ্যমে নিয়মিত তাপমাত্রা মাপা ও তা পর্যবেক্ষণ করার ব্যবস্থা করতে হবে;

*শিক্ষার্থীদের ভিড় এড়ানোর জন্য প্রতিষ্ঠানের সবগুলো প্রবেশমুখ ব্যবহার করার ব্যবস্থা করা। যদি কেবল একটি প্রবেশমুখ থাকে সেক্ষেত্রে একাধিক প্রবেশমুখের ব্যবস্থা করার চেষ্টা করতে হবে;

*প্রতিষ্ঠান খোলার প্রথম দিনে শিক্ষার্থীদের আনন্দঘন পরিবেশে শ্রেণি কার্যক্রমে স্বাগত জানানোর ব্যবস্থা করতে হবে। প্রতিষ্ঠান খোলার প্রথম দিন শিক্ষার্থীরা কিভাবে স্বাস্থ্যবিধি মেনে প্রতিষ্ঠানে অবস্থান করবে এবং বাসা থেকে যাওয়া-আসা করবে সে বিষয়ে শিক্ষণীয় ও উদ্বুদ্ধকারী ব্রিফিং দেওয়ার ব্যবস্থা করতে হবে। এছাড়া মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তরের দেওয়া ভিডিও প্রদর্শনের ব্যবস্থা করতে হবে;

*প্রতিষ্ঠানের একটি কক্ষ প্রাথমিক চিকিৎসার ব্যবস্থাসহ আইসোলেশন কক্ষ হিসেবে প্রস্তুত রাখতে হবে:

*প্রতিষ্ঠানের সব ভবনের কক্ষ, বারান্দা, সিঁড়ি, ছাদ এবং আঙ্গিনা যথাযথভাবে পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন করার ব্যবস্থা করতে হবে;

*প্রতিষ্ঠানের সব ওয়াশরুম নিয়মিত সঠিকভাবে পরিষ্কার রাখা এবং পর্যাপ্ত পানির ব্যবস্থা করতে হবে;

*প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক, শিক্ষার্থী, কর্মচারী এবং অভিভাবক প্রবেশের সময় সরকার দেওয়া স্বাস্থ্যবিধি যথাযথভাবে প্রতিপালনের ব্যবস্থা করতে হবে।

*প্রতিষ্ঠানের সব শিক্ষক, শিক্ষার্থী ও কর্মচারীর সঠিকভাবে মাস্ক (সম্ভব হলে কাপড়ের মাস্ক) পরিধান করার বিষয়টি নিশ্চিত করতে হবে;

*প্রতিষ্ঠানের বিভিন্ন স্থানে সাবান বা হ্যান্ডওয়াশ দ্বারা হাত ধোয়ার এমন ব্যবস্থা করা যাতে শিক্ষার্থীরা ক্লাসে ঢোকার আগে সবাই সাবান দিয়ে হাত ধুঁতে পারে;

*শ্রেণিকক্ষে শিক্ষার্থীদের বসার ক্ষেত্রে স্বাস্থ্যবিধি যথাযথভাবে অনুসরণ করতে হবে। এক্ষেত্রে পারস্পারিক ৩ (তিন) ফুট শারীরিক দুরত্ব বজায় রাখার ব্যবস্থা করতে হবে;

*শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের খেলার মাঠ, ড্রেন ও বাগান যথাযথভাবে পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন করা এবং কোথাও পানি জমে না থাকে তা নিশ্চিত করার ব্যবস্থা করতে হবে;

*প্রতিষ্ঠানসমূহে শিক্ষক, শিক্ষার্থীদের উপস্থিতির সংখ্যা নিরুপণ করতে হবে;

*প্রতিষ্ঠানের সকল শিক্ষার্থীদের উপস্থিতি নিশ্চিত করার ব্যবস্থা করতে হবে;

*স্বাস্থ্যবিধি যথাযথভাবে প্রতিপালন করা হচ্ছে কিনা তা পর্যবেক্ষণ ও বাস্তবায়নের জন্য প্রতিষ্ঠানের শিক্ষকবৃন্দের সমন্বয়ে কমিটি গঠন করতে হবে। প্রয়োজনীয় স্বাস্থ্যবিধি মেনে আনন্দঘন শিখন কার্যক্রমের মাধ্যমে শ্রেণি কার্যক্রম পরিচালিত করতে হবে;

*প্রতিষ্ঠানের প্রয়োজনীয় অবকাঠামোগত মেরামত, বৈদ্যুতিক মেরামত এবং পানি সংযোগজনিত মেরামত সম্পন্ন করতে হবে;

*প্রতিষ্ঠানের ম্যানেজিং কমিটি ও অভিভাবকদের সাথে সভা করে এতদসংক্রান্ত বিষয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে।

করোনার কারণে গত বছরের ১৭ মার্চ থেকে দেশের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলোতে ছুটি চলছে। সরকারের সর্বশেষ ঘোষণা অনুযায়ী, ১১ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত ছুটি আছে। প্রাথমিক থেকে উচ্চমাধ্যমিক স্তর পর্যন্ত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান আগামী ১২ সেপ্টেম্বর থেকে খুলে দেওয়ার কথা রয়েছে। নতুন সিদ্ধান্তের ফলে ছুটি আর বাড়ছে না।

জাতিসংঘ শিশু তহবিল বা ইউনিসেফের গত ২৪ আগস্ট প্রকাশিত প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, কোভিড-১৯-এর কারণে স্কুল বন্ধের ক্ষেত্রে বাংলাদেশ বিশ্বের দ্বিতীয় দীর্ঘতম দেশ। দীর্ঘ বন্ধের ফলে প্রাক্-প্রাথমিক থেকে উচ্চশিক্ষা স্তর পর্যন্ত চার কোটির বেশি শিক্ষার্থী ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।

স্কুল খুললে কোন শিক্ষার্থীর কোন দিন ক্লাস

ডেস্ক,৩ সেপ্টেম্বর ২০২১:
দীর্ঘ প্রায় দেড় বছর বন্ধের পর ১২ সেপ্টেম্বর থেকে প্রাথমিক থেকে উচ্চমাধ্যমিক স্তর পর্যন্ত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দেওয়া হলেও শুরুতে একসঙ্গে সব শ্রেণির ক্লাস হবে না। ধাপে ধাপে বিভিন্ন শ্রেণির ক্লাস হবে।

এ বিষয়ে জানতে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের দপ্তরের সঙ্গে যোগাযোগ করলে জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তা এম এ খায়ের শিক্ষাবার্তাকে বলেন, এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষার্থী এবং আগামী বছরের পরীক্ষার্থীদের প্রতিদিনই ক্লাস নেয়া হবে। শুরুতে একসঙ্গে সব শ্রেণির ক্লাস হবে না। ধাপে ধাপে বিভিন্ন শ্রেণির ক্লাস হবে। এছাড়াও একই সঙ্গে অনলাইন ও টেলিভিশনের ক্লাসও চলবে।

প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের একটি সূত্র জানায়, বিদ্যালয়ে কোন শিক্ষার্থীর কোন দিন ক্লাস হবে তা হয়তো আগামী ৫ সেপ্টেম্বরের আন্তঃমন্ত্রণালয় সভার বৈঠকে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেয়া হবে, এবং সিদ্ধান্তই মাঠ পর্যায়ে বাস্তবায়ন করা হবে।

শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের একটি সূত্র জানায়, উচ্চমাধ্যমিক স্তর পর্যন্ত করোনা সংক্রমণের হার ৫ শতাংশ থেকে ১০ শতাংশের মধ্যে নামলে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলা যায় কি না সে বিষয়ে করোনা– সংক্রান্ত কারিগরি পরামর্শক কমিটির পরামর্শ চাওয়ার সিদ্ধান্ত হয়েছিল। সেই সিদ্ধান্ত চাওয়ার পরিপ্রেক্ষিতে বৃহস্পতিবার রাতে বৈঠকে বসে কারিগরি কমিটি। সেখানেই শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দেয়ার পক্ষে মত উঠে আসে। শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দেয়ার বিষয়ে আগামী রোববার আন্তমন্ত্রণালয় সভা ডাকা হয়েছে। সেখানে এ বিষয়ে বিস্তারিত জানানো হবে।

ষষ্ঠ-নবম শ্রেণির ১৪তম সপ্তাহের অ্যাসাইনমেন্ট প্রকাশ

ডেস্ক,৩১ আগষ্ট ২০২১:
২০২১ শিক্ষাবর্ষের ষষ্ঠ থেকে নবম শ্রেণির শিক্ষার্থীদের ১৪তম সপ্তাহের অ্যাসাইনমেন্ট প্রকাশ করেছে মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদফতর। মঙ্গলবার (৩১ আগস্ট) রাতে এ সংক্রান্ত নির্দেশনা এবং অ্যাসাইনমেন্ট প্রকাশ করা হয়।

অধিদফতরের আদেশে বলা হয়, কোভিড-১৯ অতিমারির কারণে জাতীয় শিক্ষাক্রম ও পাঠ্যপুস্তক বোর্ড (এনসিটিবি) প্রণীত ষষ্ঠ থেকে নবম শ্রেণির শিক্ষার্থীদের জন্য ২০২১ শিক্ষাবর্ষের পুনর্বিন্যাস করা পাঠ্যসূচির আলোকে নির্ধারিত গ্রিড অনুযায়ী ১৪তম সপ্তাহের অ্যাসাইনমেন্ট বিতরণ করা হলো। বিতরণ করা অ্যাসাইনমেন্ট সকল শিক্ষার্থীকে প্রদান ও গ্রহণের ক্ষেত্রে স্বাস্থ্যবিধি সংক্রান্ত বিধিনিষেধ যথাযথভাবে অনুসরণ করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে।
ষষ্ঠ ও সপ্তম শ্রেণির ইসলাম ও নৈতিক শিক্ষা, হিন্দুধর্ম ও নৈতিক শিক্ষা, খ্রিস্টান ধর্ম ও নৈতিক শিক্ষা, বৌদ্ধ ধর্ম ও নৈতিক শিক্ষা বিষয়ের অ্যাসাইনমেন্ট দেওয়া হয়।

এছাড়া ষষ্ঠ, সপ্তম ও অষ্টম শ্রেণির কৃষি শিক্ষা, ষষ্ঠ, সপ্তম ও অষ্টম শ্রেণির গার্হস্থ্য বিজ্ঞানের অ্যাসাইনমেন্ট দেওয়া হয়।

আর নবম শ্রেণির জীব বিজ্ঞান, ফিন্যান্স ও ব্যাংকিং, পৌরনীতি ও নাগরিকতা, উচ্চতর গণিত, কৃষি শিক্ষা, গার্হস্থ্য বিজ্ঞান, অর্থনীতি এবং চারু ও কারুকলা বিষয়ের অ্যাসাইনমেন্ট দেওয়া হয়।

উপরিচালক, জেলা শিক্ষা অফিসার, উপজেলা ও থানা শিক্ষা অফিসার এবং শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান প্রধানদের প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে আদেশে।

আফগানিস্তানে একই শ্রেণিকক্ষে ছেলে-মেয়েরা পড়তে পারবে না

ডেস্ক | ৩০ আগস্ট , ২০২১
তালেবানের পক্ষ থেকে গতকাল জানানো হয়েছে, এখন থেকে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে ছেলে ও মেয়েদের একই শ্রেণিকক্ষে পড়ানো যাবে না। তবে নারীরা এখন বিশ্ববিদ্যালয়ে লেখাপড়া করতে পারবেন। তালেবান আরো জানিয়েছে, তাদের সর্বোচ্চ নেতা হাইবাতুল্লাহ আকুন্দজাদা শিগগিরই জনসমক্ষে আসবেন। বর্তমানে কান্দাহারে অবস্থান করছেন তিনি।

এদিকে আফগানিস্তানের রাজধানী কাবুলে আবারও বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটল। স্থানীয় সময় গতকাল রবিবার সন্ধ্যার দিকে কাবুল বিমানবন্দরের অদূরে আবাসিক ভবনে একটি রকেট আঘাত হানে। এতে এক শিশুর মৃত্যুর খবর নিশ্চিত করেছে পুলিশ। প্রায় একই সময়ে কাবুলে বিস্ফোরক পদার্থবোঝাই একটি গাড়ি লক্ষ্য করে ড্রোন হামলা চালিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। এই ড্রোন হামলার সঙ্গে আবাসিক ভবনে বিস্ফোরণের কোনো সম্পর্ক রয়েছে কি না, তা গতকাল রাত ১টা পর্যন্ত নিশ্চিত হওয়া যায়নি।

আজ শিক্ষক নিবন্ধনের ভাইভা পরীক্ষা যাদের

ডেস্ক,২ ডিসেম্বর:
বুধবার (২ ডিসেম্বর) ১৬তম শিক্ষক নিবন্ধনের প্রথম দিনের ভাইভা বা মৌখিক পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। এদিন স্কুল পর্যায়-২ এর ভাষা বিষয়ের মৌখিক পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। ভাইভা শুরু সকাল দশটায়। মোট ২৪০ জনের পরীক্ষা নেয়া হবে।

ভাইভা পরীক্ষা নিতে প্রার্থীদের ৮টি গ্রুপে ভাগ করেছে এনটিআরসিএ। গ্রুপ ভিত্তিক প্রার্থীদের কে কোন বোর্ডে পরীক্ষা দেবেন তা পরীক্ষা কেন্দ্র পৌঁছানোর পর জানানো হবে। আর কোন কর্মকর্তা কোন বোর্ডের দায়িত্ব পাবেন তা পরীক্ষা শুরুর আগে সকাল বেলা নির্ধারণ করা হবে।

প্রার্থীদের রোলভিত্তিক গ্রুপ বিন্যাস দৈনিক শিক্ষাবার্তা  পাঠকদের জন্য তুলে ধরা হল।

শিক্ষক নিবন্ধনের ভাইভা পরীক্ষা যাদের দৈনিকশিক্ষা

Responsive WordPress Theme Freetheme wordpress magazine responsive freetheme wordpress news responsive freeWORDPRESS PLUGIN PREMIUM FREEDownload theme free

hit counter