Home » Tag Archives: প্রধানমন্ত্রী

Tag Archives: প্রধানমন্ত্রী

জাতিসংঘ ৭৬তম অধিবেশনে যোগ দিতে দেশ ছাড়লেন প্রধানমন্ত্রী

জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদের ৭৬তম অধিবেশনে যোগ দিতে শুক্রবার (১৭ সেপ্টেম্বর) সকালে হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইনসের ভিভিআইপি ফ্লাইটে (বিজি-১৯০১) যুক্তরাষ্ট্রের উদ্দেশে ঢাকা ছেড়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

সফরসূচি অনুযায়ী, যুক্তরাষ্ট্রের পথে প্রথমে ফিনল্যান্ড যাবেন প্রধানমন্ত্রী। ৯টা ২৩ মিনিটে দেশটির রাজধানী হেলসিংকির উদ্দেশে প্রধানমন্ত্রীকে বহনকারী উড়োজাহাজটি ঢাকা ত্যাগ করে।

করোনা মহামারির মধ্যে ১৯ মাস পর আবার বিদেশ সফরে গেলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। যুক্তরাষ্ট্রে যাওয়া ও ফেরত আসার পথে ফিনল্যান্ডে অবস্থান করবেন তিনি।

স্থানীয় সময় বিকেল পৌনে ৪টার সময় ফিনল্যান্ডের হেলসিংকি ভানতা আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে পৌঁছানোর কথা রয়েছে প্রধানমন্ত্রীর। সেখানে আনুষ্ঠানিকতা শেষে তিনি সফরকালীন আবাসস্থল হেলসিংকির হোটেল ক্যাম্পে যাবেন।

সফরকালে পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আব্দুল মোমেন, পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলমসহ ৮০ সদস্যের প্রতিনিধি দল প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে রয়েছেন। এ ছাড়াও ব্যবসায়ীদের একটি প্রতিনিধিদলও তার সঙ্গী হয়েছেন।

Facebooktwitterlinkedinrssyoutubemailby feather

করোনা শুরুর পর প্রথম বিদেশ সফরে যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী

মহামারি করোনাভাইরাসের শুরুর দীর্ঘ প্রায় ১৮ মাস পর প্রথমবারের মতো জাতিসংঘের ৭৬তম সাধারণ অধিবেশনে (ইউএনজিএ) যোগ দিতে দুই সপ্তাহের সফরে দেশের বাইরে যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। শুক্রবার ঢাকা ছাড়বেন তিনি। এরই মধ্যে সফরের সব প্রস্তুতি সম্পন্ন হয়েছে।

প্রধানমন্ত্রী কার্যালয়ের কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, এবারের সফরে প্রধানমন্ত্রী ফিনল্যান্ড হয়ে নিউইয়র্ক যাবেন। ফিনল্যান্ডে যাত্রা বিরতি থাকবে তার। এ বিষয়ে বিস্তারিত জানাতে ১৬ সেপ্টেম্বর বিকেলে পররাষ্ট্রমন্ত্রী তার দপ্তরে ব্রিফিং করবেন।

তবে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সূত্রে পাওয়া সূচি অনুযায়ী- শুক্রবার (১৭ সেপ্টেম্বর) দেশত্যাগের পর ফিনল্যান্ডের হেলসিঙ্কিতে ১৭-১৮ সেপ্টেম্বর তিনি যাত্রা বিরতি করবেন। ১৯ সেপ্টেম্বর নিউইয়র্কে পৌঁছাবেন শেখ হাসিনা। ১৯-২৪ সেপ্টেম্বর প্রধানমন্ত্রী নিউইয়র্কে অবস্থান করবেন এবং ২৪ সেপ্টেম্বর জাতিসংঘ অধিবেশনে ভাষণ দেবেন।

নিউইয়র্কে সরকারি সফর শেষে প্রধানমন্ত্রী ওয়াশিংটন ডিসি সফর করবেন। সেখানে তিনি ২৫ থেকে ৩০ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত অবস্থান করবেন। পরে ৩০ সেপ্টেম্বর শেখ হাসিনা ওয়াশিংটন থেকে ঢাকার উদ্দেশে রওনা হবেন। ফিনল্যান্ডে যাত্রা বিরতির পর ১ অক্টোবর তিনি দেশে ফিরবেন।

Facebooktwitterlinkedinrssyoutubemailby feather

১২ বছর ও এর বেশি বয়সী শিক্ষার্থীদের টিকার আওতায় আনা হবে: প্রধানমন্ত্রী

১২ বছর ও এর বেশি বয়সী ছাত্র-ছাত্রীদের করোনাভাইরাসের টিকার আওতায় আনার কথা জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

বুধবার (১৫ সেপ্টেম্বর) জাতীয় সংসদ অধিবেশনে জাতীয় পার্টির রুস্তম আলী ফরাজীর প্রশ্নের উত্তরে প্রধানমন্ত্রী এই পরিকল্পনার কথা জানান।

স্পিকার শিরীন শারমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে প্রশ্নোত্তর-পর্ব টেবিলে উপস্থাপিত হয়। এতে প্রধানমন্ত্রী বলেন, প্রতি মাসে যাতে এক কোটি ডোজের বেশি টিকা পাওয়া যায় তার ব্যবস্থা করা হয়েছে।

তিনি বলেন, ক্রমান্বয়ে দেশের ৮০ শতাংশ জনগোষ্ঠীকে টিকার আওতায় আনার পরিকল্পনা গ্রহণ করা হয়েছে। ২০২১ সালের ডিসেম্বরের মধ্যে লক্ষ্যমাত্রার ৫০ শতাংশ জনগোষ্ঠীকে টিকার আওতায় আনতে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার গাইডলাইন অনুসরণের ব্যবস্থা নেওয়া, ১২ বছর ও তদূর্ধ্ব সব ছাত্র-ছাত্রীদের টিকার আওতায় নিয়ে আসা, মন্ত্রণালয়ের দেওয়া প্রতিবন্ধীদের সুবর্ণকার্ডের মাধ্যমে রেজিস্ট্রেশন করে টিকা দেওয়ার ব্যবস্থা ও অগ্রাধিকারভিত্তিকে শ্রমিকদের টিকা প্রদান করা হবে।

পরিকল্পনা অনুযায়ী নির্ধারিত সময়ের মধ্যে টিকা প্রদান সম্ভব হবে বলেও প্রধানমন্ত্রী আশা প্রকাশ করেন।

Facebooktwitterlinkedinrssyoutubemailby feather

দ্রুত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে: প্রধানমন্ত্রী

ডেস্ক,২ সেপ্টেম্বর:
দ্রুত দেশের সব ধরনের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দেওয়ার নির্দেশনা দেয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। আজ বৃহস্পতিবার (০২ সেপ্টেম্বর) একাদশ জাতীয় সংসদের চতুর্দশ অধিবেশনে তিনি এ কথা জানান।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার নির্দেশনা অনুযায়ী শিক্ষার্থীদের টিকা দেয়া হবে। স্কুল পর্যায়ের শিক্ষার্থীদেরও টিকার ব্যবস্থা করা হচ্ছে। শিক্ষার্থীদের টিকা দিয়েই শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দেয়া হবে।

তিনি বলেন, দেশে করোনা টিকার আর কোনো সমস্যা নেই। যেখান থেকে যতটুকু পারছি আমরা নিয়ে আসছি।

শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলার বিষয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, খুব তাড়াতাড়ি স্কুল-কলেজ খুলে দেওয়ার জন্য আমি নির্দেশ দিয়েছি। ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে। শিক্ষকদের টিকা দেওয়া হচ্ছে। শিক্ষকদের পাশাপাশি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে যাঁরা কর্মরত আছেন, তাঁদের পরিবারসহ যেন টিকা দেওয়া হয়, সেই ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে।

এর আগে, গত বুধবার (২২ আগস্ট) মন্ত্রিপরিষদের নিয়মিত বৈঠকেও শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দেওয়ার কথা জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী। তিনি বলেছেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের পাশাপাশি স্কুল-কলেজগুলোও দ্রুত খুলে দেয়া এখন সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ। কারণ শিশুরা ঘরে থাকতে থাকতে তাদেরও যথেষ্ট কষ্ট হচ্ছে। সেই দিকে আমাদের নজর দেওয়া দরকার।

Facebooktwitterlinkedinrssyoutubemailby feather

জাতিকে সতর্ক থাকার আহ্বান জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী

এখনও যুদ্ধাপরাধী, পরাজিত শক্তি এবং ১৫ আগস্টের খুনি, মৃত‌্যুদণ্ডপ্রাপ্ত ব‌্যক্তিদের সন্তান, যুদ্ধাপরাধীদের দোসর এবং বংশধররা কিন্তু বাংলাদেশের বিরুদ্ধে চক্রান্ত, ষড়যন্ত্র চালিয়ে যাচ্ছে। যে আন্তর্জাতিক শক্তি আমাদের মহান মুক্তিযুদ্ধের বিরোধিতা করেছিল, তাদের কিছু কিছু এদের মদদ দিয়ে থাকে। কাজেই এ ব্যাপারে জাতিকে সতর্ক থাকতে হবে বলে মন্তব্য করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

মঙ্গলবার (৩১ আগস্ট) জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে বংলাদেশ ছাত্রলীগ আয়োজিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। প্রধানমন্ত্রী গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ‌্যমে রাজধানীর কৃষিবিদ ইনস্টিটিউট মিলনায়তনের অনুষ্ঠানে যুক্ত হন।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘স্বাধীনতার পর, সেই ১৯৭২ সাল থেকেই কিন্তু চক্রান্ত শুরু। সেই চক্রান্ত মোকাবিলা করেই বাংলাদেশকে তিনি (বঙ্গবন্ধু) এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছিলেন।’

‘যখন পরাজিত শক্তি দেখল যে, আর বাংলাদেশকে দমিয়ে রাখা যাবে না, তখনই কিন্তু ১৫ আগস্টের হত‌্যাকাণ্ড ঘটিয়েছিল তারা। এ কথা মনে রেখেই আমাদের পথ চলতে হবে যে, আমাদের পায়ে পায়ে শত্রু আছে পদে পদে বাধা আছে। আমাদের চলার পথ মসৃণ না, কণ্টাকাকীর্ণ। আমাদের চড়াই-উৎরাই পার হয়ে এগিয়ে যেতে হবে এবং আমরা এগিয়ে যাচ্ছি’,।

এ সময় বঙ্গবন্ধুর নেতৃত্বে আন্তর্জাতিকভাবে বিভিন্ন দেশের, বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের স্বীকৃতি আদায় করা থেকে শুরু করে প্রত্যেকটা আন্তর্জাতিক প্রতিষ্ঠানের সদস্য পদ লাভ করা এবং বাংলাদেশের উন্নয়নের পথ তৈরি করে পরিকল্পনা নিয়ে এগিয়ে যাওয়ার বিভিন্ন দিক তুলে ধরেন শেখ হাসিনা।

শেখ হাসিনা বলেন, ‘মুক্তিযুদ্ধের চেতনাকে ব্যর্থ হতে দেওয়া যাবে না। মুক্তিযুদ্ধের আদর্শকে সফল করতে হবে। জাতির পিতার স্বপ্নের ক্ষুধা-দারিদ্র্যমুক্ত ও উন্নত-সমৃদ্ধ বাংলাদেশ গড়তে হবে, এই সিদ্ধান্ত নিয়েই কিন্তু আমি ফিরে এসেছিলাম।’

দেশে ফিরে আসার পর তৎকালীন স্বৈরশাসকদের বিভিন্ন বাধার কথা উল্লেখ করে তাদের সমালোচনা করেন শেখ হাসিনা। তিনি বলেন, ‘জিয়াউর রহমান যতদিন বেঁচে ছিলেন, ততদিন এই ধানমন্ডির-৩২ নম্বর খুলে দেয়নি। যেতে দেয়নি। আর এই নামটা তো মুছেই ফেলে দিয়েছিল।’

Facebooktwitterlinkedinrssyoutubemailby feather

Responsive WordPress Theme Freetheme wordpress magazine responsive freetheme wordpress news responsive freeWORDPRESS PLUGIN PREMIUM FREEDownload theme free

hit counter