Home » Tag Archives: এসএসসি

Tag Archives: এসএসসি

দুই বিকল্পে হতে পারে এসএসসি-এইচএসসির ফলাফল

নিজস্ব প্রতিবেদক,২৮ জুন ২০২১:

করোনার কারণে ফের কঠোর লকডাউন দেওয়ায় এসএসসি-এইচএসসি পরীক্ষা হওয়ার সম্ভাবনাও কমছে। এ জন্য পাবলিক পরীক্ষার বিষয়ে বিকল্প পদ্ধতি নিয়ে চিন্তাভাবনা শুরু করেছেন নীতি-নির্ধারকরা। এ ক্ষেত্রে ফলাফল দেওয়ার জন্য দুটি বিকল্প পদ্ধতি গ্রহণযোগ্য হতে পারে বলে মনে করছেন সংশ্লিষ্টরা।

সূত্র জানিয়েছে, দুই বিকল্পের মধ্যে একটি পূর্ববর্তী পরীক্ষার ফলাফলের ভিত্তিতে। দ্বিতীয়টি সংক্ষিপ্ত সিলেবাসের ওপর অ্যাসাইনমেন্ট জমা নিয়ে মূল্যায়ন। এরইমধ্যে করোনার কারণে এইচএসসি ও সমমানের ফরম পূরণ স্থগিত করা হয়েছে। রোববার (২৭ জুন) এই স্থগিতাদেশ দেওয়া হয়।

এর আগে এসএসসি ও এইচএসসির সংক্ষিপ্ত সিলেবাস প্রকাশ করা হয়েছে। এ সিলেবাসের আলোকেই যথাক্রমে ৬০ ও ৮৪ দিন তাদের ক্লাস নেওয়ার কথা ছিল। এরপর ১৫ দিন সময় দিয়ে পরীক্ষা নেওয়ার পরিকল্পনা ছিল। কিন্তু করোনার প্রকোপ ঊর্ধ্বমুখী থাকায় সশরীরে পরীক্ষা নেওয়ার বিষয়ে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের উদ্যোগ বাস্তবায়ন নিয়ে গভীর সংশয় তৈরি হয়েছে।

ঢাকা শিক্ষা বোর্ডের সচিব অধ্যাপক তপন কুমার সরকার এ বিষয়ে বলেন, ‘সশরীরে পরীক্ষার জন্য প্রস্তুতি নিয়ে আমরা এগিয়ে যাচ্ছি। বিকল্প কোনো কিছু থাকলে কর্তৃপক্ষই সিদ্ধান্ত নেবে।’

সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, পরীক্ষা সশরীরে নেওয়া না গেলে দুটি বিকল্পই কার্যকর হতে পারে। এরমধ্যে জেএসসি ও এসএসসির ফলের ওপর মূল্যায়ন করা হতে পারে। গত বছর এসএসসির ৭৫ শতাংশ ও জেএসসির ২৫ শতাংশ নম্বর নিয়ে মূল্যায়ন করা হয়েছিল। তবে এসএসসি পরীক্ষার্থীদের ক্ষেত্রে জটিলতা রয়েছে। তারা শুধু জেএসসি দেওয়ায় এ পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে। তাদের জেএসসির ফল ও অ্যাসাইনমেন্টের আলো গ্রেড যোগ করে ফলাফল দেওয়া হতে পারে।

অন্য বিকল্পটি অ্যাসাইনমেন্টভিত্তিক হতে পারে। সংক্ষিপ্ত সিলেবাসের আলো এক মাস সময় দিয়ে অ্যাসাইনমেন্ট বাসায় বসে লিখে শিক্ষার্থীরা শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে জমা দেবে। এর আলোকে গ্রেডিং ও চূড়ান্ত ফল দেওয়া হবে। এ ছাড়া অ্যাসাইনমেন্ট ও পূর্ববর্তী পরীক্ষার ফল মিলিয়েও এসএসসি ও এইচএসসির ফল তৈরি করা হবে বলে জানা গেছে।


Facebooktwitterlinkedinrssyoutubemailby feather

এসএসসি পরীক্ষা–২০২১: সংক্ষিপ্ত সিলেবাস অনুসারে রসায়ন

বহুনির্বাচনি প্রশ্ন
অধ্যায় ১১

1. কয়লার প্রধান উপাদান কী?

ক. কার্বন খ. হাইড্রোকার্বন

গ. মিথেন ঘ. বিউটেন

2. বাংলাদেশের প্রাপ্ত প্রাকৃতিক গ্যাসে মিথেনের পরিমাণ কত?

ক. ৪০% খ. ৭৫%

গ. ৯০% ঘ. ৯৯.৯৯%

3. প্রাকৃতিক গ্যাসে পেন্টেনের পরিমাণ কত ভাগ?

ক. ৩% খ. ৪%

গ. ৬% ঘ. ৭%
বিজ্ঞাপন

4. পেট্রোলিয়ামে শতকরা কত ভাগ কেরোসিন থাকে?

ক. ৫% খ. ১০%

গ. ১৩% ঘ. ২০%

5. অপরিশোধিত তেলকে (১৭০-২৭০) ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রায় উত্তপ্ত করলে কোনটি পাওয়া যায়?

ক. ন্যাপথা খ. ডিজেল

গ. পেট্রেল ঘ. কেরোসিন

6. নিচের কোনটি অসম্পৃক্ত বদ্ধ শিকল হাইড্রোকার্বন?

ক. সাইক্লোপ্রোপেন

খ. সাইক্লোবিউটেন

গ. সাইক্লোপ্রোপিন ঘ. প্রোপিন

7. অ্যালকেনের সাধারণ সংকেত কোনটি?

ক. CnH2n+2 খ. CnH2n

গ. CnH2n-2 ঘ. CnH2n+1

সঠিক উত্তর

অধ্যায় ১১: 1. ক 2. 3. ক 4. গ 5. খ 6. গ 7. ক

বাকি অংশ ছাপা হবে আগামীকাল

তাপসী বণিক, সহযোগী অধ্যাপক
কলেজ অব ডেভেলপমেন্ট অল্টারনেটিভ, ঢাকা

Facebooktwitterlinkedinrssyoutubemailby feather

এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষায় পাস ৮২ দশমিক ৮৭ শতাংশ

নিজস্ব প্রতিবেদক | ৩১ মে, ২০২০
২০২০ খ্রিষ্টাব্দের এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষায় গড় পাস করেছে ৮২ দশমিক ৮৭ শতাংশ শিক্ষার্থী। গতবার এই পাসের হার ছিল ৮২ দশমিক ২০ শতাংশ। চলতি বছর এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষায় পাসের হার বেড়েছে। ১ লাখ ৩৫ হাজার ৮৯৮ শিক্ষার্থী চলতি বছর জিপিএ-৫ পেয়েছে। জিপিএ-৫ পেয়েছিল ১ লাখ ৫ হাজার ৫৯৪ জন। গতবারের তুলনায় এবছর পাস ও জিপিএ-৫ পাওয়া শিক্ষার্থীর সংখ্যা বেড়েছে।

আজ রোববার (৩১ মে) বেলা ১০টায় ভিডিও কনফারেন্সে মাধ্যমে এসএসসি ও সমমানে পরীক্ষার ফল ঘোষণা করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এসময় যুক্ত ছিলেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি ও শিক্ষা উপমন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল। পরে শিক্ষামন্ত্রী ফলের বিস্তারিত বিশ্লেষণ সংবাদিকদের সামনে তুলে ধরেন।

এবার মোট পরীক্ষার্থী ছিল ২০ লাখ ৪৭ হাজার ৭৯৯ জন পরীক্ষার্থী। এর মধ্যে পাস করেছে ১৬ লাখ ৯০ হাজার ৫২৩ জন। গতবার মোট পরীক্ষার্থীর সংখ্যা ছিল পরীক্ষার্থী ছিল ২১ লাখ ২৭ হাজার ৮১৫ জন। এর মধ্যে পাস করেছে ১৭ লাখ ৪৯ হাজার ১৬৫ জন।

জানা গেছে, ৯টি সাধারণ বোর্ডে এসএসসিতে পাসের হার ৮৩ দশমিক ৭৫ শতাংশ। গতবছর ৮টি সাধারণ শিক্ষা বোর্ডের পাসের হার ছিল ৮২ দশমিক ৮০ শতাংশ। চলতিবছর এসএসসিতে জিপিএ-৫ পেয়েছে ১ লাখ ২৩ হাজার ৪৯৭ জন। গত বছর শুধু এসএসসিতে জিপিএ-৫ পেয়েছিল ৯৪ হাজার ৫৫৬ জন পরীক্ষার্থী।

২০২০ খ্রিষ্টাব্দের এসএসসি পরীক্ষায় ঢাকা বোর্ডে ৮২ দশমিক ৩৪ শতাংশ শিক্ষার্থী পাস করেছে। এবার মোট জিপিএ-৫ পেয়েছে ৩৬ হাজার ৪৭ জন।

কুমিল্লা বোর্ডে ৮৫ দশমিক ২২ শতাংশ শিক্ষার্থী পাস করেছে। এবার মোট জিপিএ-৫ পেয়েছে ১০ হাজার ২৪৫ জন।

চট্টগ্রাম বোর্ডে ৮৫ দশমিক ৭৫ শতাংশ শিক্ষার্থী পাস করেছে। এবার মোট জিপিএ-৫ পেয়েছে ৯ হাজার ৮ জন।

রাজশাহী বোর্ডে ৯০ দশমিক ৩৭ শতাংশ শিক্ষার্থী পাস করেছে। এবার মোট জিপিএ-৫ পেয়েছে ২৬ হাজার ১৬৭ জন।

বরিশাল বোর্ডে ৭৯ দশমিক ৭০ শতাংশ শিক্ষার্থী পাস করেছে। এবার মোট জিপিএ-৫ পেয়েছে ৪ হাজার ৪৮৩ জন।

যশোর বোর্ডে ৮৭ দশমিক ৩১ শতাংশ শিক্ষার্থী পাস করেছে। এবার মোট জিপিএ-৫ পেয়েছে ১৩ হাজার ৭৬৪ জন।

সিলেট বোর্ডে ৭৮ দশমিক ৭৯ শতাংশ শিক্ষার্থী পাস করেছে। এবার মোট জিপিএ-৫ পেয়েছে ৪ হাজার ২৬৩ জন।

দিনাজপুর বোর্ডে ৮২ দশমিক ৭৩ শতাংশ শিক্ষার্থী পাস করেছে। এবার মোট জিপিএ-৫ পেয়েছে ১২ হাজার ৮৬ জন।

ময়মনসিংহ বোর্ডে ৮০ দশমিক ১৩ শতাংশ শিক্ষার্থী পাস করেছে। এবার মোট জিপিএ-৫ পেয়েছে ৭ হাজার ৪৩৪ জন।

মাদরাসা বোর্ডের অধীনে দাখিল পরীক্ষায় পাসের হার ৮২ দশমিক ৫১ শতাংশ। গত বছর দাখিলে পাসের হার ছিল ৮৩ দশমিক ০৩ শতাংশ। জিপিএ-৫ পেয়েছিল ৬ হাজার ২৮৭ জন পরীক্ষার্থী।

এসএসসি ও দাখিল ভোকেশনালে পাসের হার ৭২ দশমিক ৭০ শতাংশ। গত বছর ছিল ৭২ দশমিক ২৪ শতাংশ। জিপিএ ফাইভ পেয়েছে ৪ হাজার ৭৫১ জন।

চলতি বছর ২০ লাখ ৪৭ হাজার ৭৯৯ জন পরীক্ষার্থী পরীক্ষায় অংশ নেয়। গতবছর পরীক্ষার্থীর সংখ্যা ছিল ২১ লাখ ৩৫ হাজার ৩৩৩ জন। ১৭ হাজার ৪৮২টি স্কুল থেকে ১৬ লাখ ৩৫ হাজার ২৪০ জন পরীক্ষার্থী চলতি বছরের এসএসসিতে, ৯ হাজার ১১০টি মাদরাসা থেকে ২ লাখ ৮১ হাজার ২৫৪ জন পরীক্ষার্থী দাখিলে এবং ২ হাজার ২৯২টি কারিগরি প্রতিষ্ঠান থেকে ১ লাখ ৩১ হাজার ২৮৫জন শিক্ষার্থী এসএসসি ভোকেশনাল পরীক্ষায় অংশ নেয়।

Facebooktwitterlinkedinrssyoutubemailby feather

এসএসসির ফল পুনঃনিরীক্ষার আবেদন ৭ জুনের মধ্যে

নিজস্ব প্রতিবেদক | ৩০ মে, ২০২০
রোববার (৩১ মে) এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষার ফল প্রকাশের ঠিক পরের দিন অর্থাৎ ১ জুন থেকে শুরু হবে ফল পুন:নিরীক্ষার আবেদন। যারা আশানুরূপ ফল পাবেন না তাদের জন্য এই ব্যবস্থা।

১ জুন থেকে ৭ জুন পর্যন্ত ফল পুনঃনিরীক্ষার আবেদন করা যাবে। আন্তঃশিক্ষা বোর্ড সমন্বয় সাব-কমিটির সূত্র এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন। ঢাকা বোর্ডের পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক এস এম আমীরুল ইসলাম জানান, আগের নিয়মেই ফল পুনঃনিরীক্ষার আবেদন গ্রহণ করা হবে।

জানা গেছে ১ জুন থেকে ৭ জুন পর্যন্ত এসএমএসের মাধ্যমে ফল পুনঃনিরীক্ষার আবেদন করতে পারবেন শিক্ষার্থীরা। টেলিটক সংযোগ থেকে RSC <স্পেস> বোর্ডের নামের প্রথম তিন অক্ষর <স্পেস> রোল নম্বর <স্পেস> বিষয় কোড লিখে ১৬২২২ নম্বরে এসএমএস পাঠিয়ে পুনঃনিরীক্ষার আবেদন করা যাবে।

একই এসএমএসে একাধিক বিষয়ের জন্য আবেদন করা যাবে, এ ক্ষেত্রে বিষয় কোড পর্যায়ক্রমে ‘কমা’ দিয়ে লিখতে হবে।

ফিরতি এসএমএসে ফি বাবদ কত টাকা কেটে নেয়া হবে তা জানিয়ে একটি পিন নম্বর (পার্সোনাল আইডেন্টিফিকেশন নম্বর) দেয়া হবে।

আবেদনে সম্মত থাকলে RSC <স্পেস> YES <স্পেস> পিন নম্বর <স্পেস> যোগাযোগের জন্য একটি মোবাইল নম্বর লিখে ১৬২২২ নম্বরে এসএমএস পাঠাতে হবে।

প্রতিটি বিষয় ও প্রতি পত্রের জন্য ১২৫ টাকা হারে চার্জ কাটা হবে। যেসব বিষয়ের দুটি পত্র (প্রথম ও দ্বিতীয় পত্র) রয়েছে, সেসব বিষয়ের ফল পুনঃনিরীক্ষার আবেদন করলে মোট ২৫০ টাকা ফি কাটা হবে।

Facebooktwitterlinkedinrssyoutubemailby feather

Responsive WordPress Theme Freetheme wordpress magazine responsive freetheme wordpress news responsive freeWORDPRESS PLUGIN PREMIUM FREEDownload theme free

hit counter