Home » প্রযুক্তি

প্রযুক্তি

প্রথমবারের মতো সব সিমে মোবাইল ডাটার মেয়াদ আনলিমিটেড

‌নিজস্ব প্র‌তি‌বেদক,২৮ এ‌প্রিল ২০২২

মোবাইল ডাটার মেয়াদের সীমাবদ্ধতা তুলে নিলো অপারেটরগুলো। প্রথমবারের মতো গ্রামীণফোন, রবি, টেলিটক এবং বাংলালিংক গ্রাহকরা মোবাইলের মেয়াদ বিহীন ডাটা প্যাকেজ কেনার সুযোগ পাচ্ছেন।

বৃহস্পতিবার (২৮ এপ্রিল) মোবাইলের আনলিমিটেড ডাটা প্যাকেজ এবং নিরবচ্ছিন্ন মাসিক ইন্টারনেট প্যাকেজের উদ্বোধন করেন ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার।

জানা যায়, প্রাথমিকভাবে আনলিমিটেড ডাটা প্যাকেজের মধ্যে গ্রামীণফোনে ১ হাজার ৯৯ টাকায় ১৫ জিবি ও ৪৪৯ টাকায় ৫ জিবি প্যাকেজ কেনা যাবে।

এছাড়া রবিতে ৩১৯ টাকায় ১০ জিবি, বাংলালিংকে ৩০৬ টাকায় ৫ জিবি এবং টেলিটকে ৩০৯ টাকায় ২৬ জিবি ও ১২৭ টাকায় ৬ জিবি পাওয়া যাবে।

আনলিমিটেড ডাটা প্যাকেজের মেয়াদ হবে এক বছর।

ফেসবুকের নাম পরিবর্তন হয়ে যা হলো

ডেস্ক,২৯ অক্টোবর ২০২১ঃ

নাম পরিবর্তন করেছে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম জায়ান্ট ফেসবুক ইনকরপোরেশন। বৃহস্পতিবার (২৮ অক্টোবর) নতুন নাম ঘোষণা করেন ফেসবুকের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মার্ক জাকারবার্গ। এখন থেকে ‘মেটা’ নামে ব্যবসায়িক সব কার্যক্রম পরিচালনা করবে কোম্পানিটি।

আরো খবরঃ চীনকে টেক্কা দেওয়ার অগ্নি-৫ ক্ষেপণাস্ত্রের সফল পরীক্ষা করল ভারত

এমন একটি সময় নতুন নামটি ঘোষণা করা হলো যখন ব্যবসায়িক কৌশল নিয়ে যুক্তরাষ্ট্রে ক্রমবর্ধমান সরকারি তদন্তের মুখোমুখি হচ্ছে ফেসবুক। সরকার ও বিরোধী দলের নেতাদের ব্যাপক সমালোচনার মুখোমুখি হচ্ছে প্রযুক্তি জায়ান্টটি।

কেন এই নামবদল সে সম্পর্কেও জানিয়েছেন জুকারবার্গ। আগামী দিনে নতুন পথচলার জন্য পদক্ষেপ বলেই জানিয়েছেন তিনি।

আর কেন মেটা নামটি বেছে নেওয়া সেই সম্পর্কে জুকারবার্গ লিখেছেন, ‘ক্লাসিকস পড়তে বরাবরই ভালোবাসি। গ্রিক শব্দ ‘বিয়ন্ড’ (অনন্ত) থেকে এসেছে মেটা শব্দটি। ব্যক্তিগতভাবে যে শব্দ বেছে নেওয়ার কারণ আরও অনেক কিছু তৈরি করা বাকি। আমাদেরও পথচলার অনেক নতুন পথ বাকি, সেই ধারণা থেকেই এই নামকরণ।’

২০০৪ সালের ৪ ফেব্রুয়ারি পথচলা শুরু করেছিল ফেসবুক। তারপর থেকে মার্ক জুকারবার্গের হাত ধরে ক্রমশ শাখা-প্রশাখা বিস্তার করেছে ফেসবুক।

ইনস্টাগ্রাম, মেসেঞ্জার, অকুলাসের মতো শাখার পাশাপাশি জনপ্রিয় মেসেজিং অ্যাপ হোয়াটসঅ্যাপ সবই এই মুহূর্তে ছিল মাদার কোম্পানি ফেসবুকের অধীনস্থ। কিন্তু নতুন নামকরণে নতুন পথচলা শুরুর ইঙ্গিত দিলেন মার্ক জুকারবার্গ।

থ্রিজি-ফোরজি ইন্টারনেট সেবা বন্ধ

অনলাইন ডেস্ক,১৫ অক্টোবর, ২০২১ঃ
দেশের বিভিন্ন এলাকা থেকে মুঠোফোনে দ্রুতগতির ইন্টারনেট সেবা না পাওয়ার খবর আসছে। গ্রাহকদের কাছ থেকে এমন তথ্য পাওয়া যাচ্ছে। এর ফলে বিপাকে পড়তে হচ্ছে তাদের। সংশ্লিষ্টরা বলছেন, কারিগরি ত্রুটির কারণে এমন অবস্থা তৈরি হতে পারে।

আরো পড়ুনঃ আজ থেকে ভারতে পর্যটন ভিসা চালু

ডাক ও টেলিযোগাযোগমন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার আজ শুক্রবার সকালে শিক্ষাবার্তাকে বলেন, ‘আমি সকালে জানতে পেরেছি, আমাদের থ্রিজি এবং ফোরজি ইন্টারনেট সেবা বিঘ্নিত হয়েছে। এ ব্যাপারে আমি সংশ্লিষ্ট বিভাগ ও দপ্তরকে নির্দেশনা দিয়েছি বিষয়টি খতিয়ে দেখার জন্য। তারা এরই মধ্যে বিঘ্নিত হওয়ার কারণ চিহ্নিত করতে পেরেছে। আশা করছি, শিগশিরই ইন্টারনেট সেবা স্বাভাবিক হবে।’

অপারেটর সূত্রে জানা গেছে, আজ শুক্রবার ভোর পাঁচটা থেকে মুঠোফোনে দ্রুতগতির থ্রিজি ও ফোরজি ইন্টারনেট সেবা বন্ধ রয়েছে। এই অচলাবস্থা দ্রুতই কেটে যাবে। বিষয়টি সমাধানে কাজ করছে কর্তৃপক্ষ।

তবে তাৎক্ষণিকভাবে এ বিষয়ে বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশনের (বিটিআরসি) বক্তব্য পাওয়া যায়নি।

আজ শুক্রবার বেলা ১১টার দিকে সাতক্ষীরা থেকে মাহফুজ নামের এক গ্রাহক বলেন, ‘সকালে ঘুম থেকে উঠেই দেখি, ইন্টারনেট সংযোগ পাওয়া যাচ্ছে না। এর পর থেকে কয়েকবার ফোন বন্ধ আর চালু করলাম। কিন্তু, হচ্ছে না। আরও কয়েকজনের সঙ্গে কথা বললাম। তাদেরও একই অবস্থা। সেজন্য ওয়াইফাই কার্ড কিনে আনলাম বাজার থেকে। ওয়াইফাই চলছে।’

পরীক্ষামূলক ফাইভ-জি চালু ডিসেম্বরে ॥ মোস্তাফা জব্বার

ডাক ও টেলিযোগাযোগমন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার জানিয়েছেন, রাজধানী ঢাকায় আগামী ডিসেম্বর মাসে ফাইভ-জি সেবা পরীক্ষামূলকভাবে চালু হবে।

সেটা ১২ ডিসেম্বর ডিজিটাল বাংলাদেশ দিবসে বা ১৬ ডিসেম্বর বিজয় দিবসে হতে পারে।

আরো পড়ুনঃ ‘শিক্ষার্থী আক্রান্ত হলেও শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ হবে না’

সরকারী মোবাইল ফোন অপারেটর টেলিটক পরীক্ষামূলকভাবে এই ফাইভ-জি সেবা চালু করবে।

শনিবার ফাইভ-জি নিয়ে এক আলোচনা সভায় এ কথা জানান তিনি। ‘ফাইভ-জি ইকোসিস্টেম ইন বাংলাদেশ এ্যান্ড আপকামিং টেকনোলজিস’ শীর্ষক এই অনলাইন আলোচনা সভার আয়োজন করে টেলিকম রিপোর্টার্স নেটওয়ার্ক বাংলাদেশ (টিআরএনবি)।

শিক্ষক বাতায়ন থেকে কিভাবে কনটেন্ট ডাউনলোড করবেন?

শিক্ষক বাতায়ন হতে কন্টেন্ট ডাউনলোড করতে হলে আপনাকে আগে কোন শ্রেণী ও বিষয়ের কন্টেন্ট ডাউনলোড করবেন তা নির্ধারণ করতে হবে।

এর জন্য আপনাকে পোর্টালের নেভিগেশন মেনুর দিকে লক্ষ্য করতে হবে। এখানে দুইভাবে আপনি আপনার প্রয়োজনীয় কন্টেন্ট খুঁজে পাবেন।

প্রথমত সার্চ এর মাধ্যমে। দ্বিতীয়ত পুরো কন্টেন্টের মধ্য থেকে। নেভিগেশন মেন্যুর দিকে লক্ষ্য করুন। নিচের ছবিটির মত দেখতে পাবেন।

১। নেভিগেশন মেন্যুর এই অংশে আপনি আপনার প্রয়োজনীয় কন্টেন্ট খুজে পেতে সার্চ বক্সের সাহায্য নিতে পারবেন। এখানে আপনার খোঁজার বিষয়বস্তু মানে আপনি কি খুঁজতে চাইছেন তা লিখুন। এরপর প্রতিষ্ঠানের ধরণ, শ্রেণী ও বিষয় নির্ধারণ করে ডানের সার্চ আইকনটিতে ক্লিক করুন।
২। কিছুক্ষনের মধ্যে অনেকগুলো কন্টেন্ট দেখতে পাবেন। এবার আপনার পছন্দ মত কন্টেন্টের শিরোনামের উপর ক্লিক করুন। কন্টেন্ট পাতাটি ওপেন হলে, নিচের দিকে শেয়ার বাটনের শেষে Download লেখা লিংক দেখতে পাবেন। এখানে ক্লিক করুন। কিছুক্ষণের মধ্যে আপনার কাঙ্খিত কন্টেন্ট ডাউনলোড হয়ে যাবে।
৩। এখানে আপনি শিক্ষক বাতায়নে রক্ষিত কন্টেন্ট এর বিভিন্ন শ্রেণীভাগ দেখতে পাবেন। আপনি যে ধরণের কন্টেন্ট চান তা নির্ধারণ করে ক্লিক করুন। তারপর পূর্বের মত কাঙ্খিত কন্টেন ডাউনলোড করুন।
৪। এখানে সাধারণ, কারিগরি ও মাদ্রাসা শিক্ষার প্রতিটি শ্রেণী ও বিষয়ের কন্টেন্ট এর শ্রেণীভাগ করা আছে। এখানে আপনার কাঙ্খিত শ্রেণী ও বিষয়ের কন্টেন্ট খুঁজে পেতে বিষয়টির উপর ক্লিক করুন। উক্ত বিষয়ের সকল কন্টেন্ট শ্রেণী ক্রম অনুসারে আসলে সেখান থেকে আপনার কাঙ্খিত কন্টেন্ট পূর্বের নিয়মের মত ডাউনলোড করুন।
শিক্ষক বাতায়নের রেজিষ্ট্রেশন করার নিয়ম জানতে, এ লিংকে ক্লিক করুন।

কিভাবে শিক্ষক বাতায়নের সদস্য হবেন

শিক্ষক বাতায়নে সদস্য হতে গেলে অবশ্যই নিবন্ধন করতে হবে। কেবল নিবন্ধিত সদস্যরা মাল্টিমিডিয়া কন্টেন্ট আপলোড করতে পারবে।

কারো কন্টেন্টে মতামত ও রেটিং প্রদানের জন্য আপনাকে অবশ্যই শিক্ষক বাতায়নে নিবন্ধন করতে হবে।
লগইন ও নিবন্ধন পাতার ঠিকানা https://www.teachers.gov.bd/user_login

ব্রাউজারের নতুন পাতায় লগইন করুন + নিবন্ধন করুন লেখা পাতাটি ওপেন হলে নিবন্ধন করুন লিংকটিতে ক্লিক করুন।

নিচের ছবির মত নিবন্ধন পাতাটি লক্ষ্য করুন।

 

নিবন্ধন ফরমের প্রথম আপনার নাম লিখুন।

দ্বিতীয় বক্সে আপনার ইমেইল আইডি ইংরেজীতে লিখুন।

এরপর ইংরেজী সংখ্যায় মোবাইল নম্বর লিখুন।

পাসওয়ার্ড বক্স দুটিতে একই পাসওয়ার্ড লিখুন (ছয় সংখ্যা বা উপরে)।

সবশেষে তথ্যগুলো ভালোভাবে দেখে নিয়ে, নিচের > আইকনে ক্লিক করে প্রাথমিক নিবন্ধন কার্যক্রম সম্পন্ন করুন।

এরপর নতুন একটি পাতায় বিস্তারিত তথ্য পূরণের ফরম দেখতে পাবেন। এখানে আপনার নাম, পদবী, প্রতিষ্ঠানের নাম, ঠিকানা সহ বিস্তারিত তথ্যগুলো পূরণ করে সবশেষে আপডেট লেখা বাটনটি ক্লিক করে প্রোফাইল সম্পন্ন করুন।

বিঃ দ্রঃ- নিবন্ধন ছকে অনেক তথ্য সিলেক্ট বাটনে ক্লিক করে সিলেক্ট করতে হবে, আবার অনেক তথ্য লিখে পূরণ করতে হবে।

নিবন্ধন ছকের যে তথ্যগুলো আবশ্যিক তা বোঝাতে × চিহ্ন ব্যবহার করা হয়েছে।

স্বরুপ দাস

সেরা কনটেন্ট নির্মাতা

শিক্ষক বাতায়ন

 

৬৮ বছর ধরে লোহার ফুসফুস বুকে নিয়ে বেঁচে আছেন পল আলেকজান্ডার

পৃথিবীর একমাত্র ব্যক্তি, যিনি লোহার ফুসফুসের সাহায্যে বেঁচে আছে ৬৮ বছর। তার নাম হচ্ছে পল আলেকজান্ডার। পুরো জীবনটাই তিনি লোহার বাক্সে বন্দি হয়ে কাটিয়েছেন।

তবে লোহার ফুসফুস বুকে নিয়ে বেঁচে থাকার খবর হয়তো অনেকেই জানেন না। যদিও সব রোগীর ক্ষেত্রে আয়রন লাং কাজ করে না। তবে পল আলেকজান্ডার ১৯৫২ সাল থেকে এখনও পর্যন্ত লোহার ফুসফুস বুকে নিয়েই বেঁচে আছেন।

বর্তমানে আধুনিক ভেন্টিলেটর উদ্ভাবিত হয়েছে। তবে পল তার লোহার ফুসফুসই আকড়ে ধরে আছেন। ৮ বছর বয়স থেকেই পলকে চিকিৎসকরা শ্বাস নেওয়ার বিভিন্ন কৌশল শেখাতেন। প্রাথমিক অবস্থায় ২-৩ মিনিট লোহার ফুসফুস থেকে বেরিয়ে শ্বাস নেওয়া শিখেন পল। তবে তা বেশি দিনের জন্য নয়। মহামারি পোলিও আক্রান্ত হয়ে ৭ বছর বয়সে তার ফুসফুস অকেজো হয়েছিল।

বিশ্বের একমাত্র ব্যক্তি, যিনি আজও লোহার ফুসফুসের এই মেশিনটি ব্যবহার করছেন। পল আজও বেঁচে আছেন। বর্তমানে তার বয় ৭৪ বছর। ডালাসে বসবাস করা পল তার জীবনে এবার ২য় মহামারির সম্মুখীন। করোনাভাইরাস তার জন্যও বেশ বিপজ্জনক।

নির্ধারিত দামে ইন্টারনেট না পেলে অভিযোগ করবেন যেভাবে

নিজস্ব প্রতিবেদক,১৪ জুন:

শহর ও প্রত্যন্ত অঞ্চলের ব্রডব্যান্ড ইন্টারনেটের দামের বৈষম্য দূর করে সবার জন্য সমান মূল্যে ইন্টারনেট তথা- এক দেশ এক রেট চালু করেছে বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশন (বিটিআরসি)। নির্ধারিত ‘এক রেটে’ না দিলে ব্যবস্থা নেয়া হবে বলেও জানানো হয় নিয়ন্ত্রক সংস্থার পক্ষ থেকে।

বিটিআরসি জানিয়েছে, দেশের যেকোনো প্রান্তে ব্রডব্যান্ড ইন্টারনেটের একই দাম নির্ধারণ করা হয়েছে। কেউ যদি এই রেটে সংযোগ না পান, তাহলে তিনি ১০০ নম্বর ডায়াল করে কমিশনে অভিযোগ জানাতে পারেন।

এছাড়া বিটিআরসির এই লিঙ্কে ঢুকেও অভিযোগ জানানো যাবে। কোনো সেবাদাতার নিয়ম ভাঙার সুযোগ নেই। এটা যদি কেউ করেন, তাহলে আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা নেয়া হবে।

বিটিআরসি জানিয়েছে, প্রতি সংযোগে সর্বোচ্চ ৮ জন গ্রাহককে শেয়ার্ড করতে পারবে ইন্টারনেট সার্ভিস প্রোভাইডাররা। এক্ষেত্রে ৫ এমবিপিএস ব্রডব্যান্ড ইন্টারনেটের দাম সর্বোচ্চ ৫০০ টাকা, ১০ এমবিপিএস ৭০০ থেকে ৮০০ টাকা ও ২০ এমবিপিএস-এর দাম ১১০০ থেকে ১২০০ টাকা নির্ধারণ করা হয়েছে।

রুদ্ধশ্বাস অপেক্ষার পর মঙ্গলের বুকে নাসার মহাকাশযান

আন্তর্জাতিক ডেস্ক ফেব্রুয়ারি ১৯, ২০২১
রুদ্ধশ্বাস অপেক্ষার শেষ হলো মার্কিন মহাকাশ গবেষণা সংস্থা নাসার। দীর্ঘভ্রমণ শেষে অবশেষে মঙ্গলের বুকে অবতরণ করলো নাসার মহাকাশযান ‌‘পারসেভারেন্স’। ঐতিহাসিক এই মুহূর্তের জন্য অপেক্ষা করছিলেন নাসার বিজ্ঞানীরা। বাংলাদেশ সময় বৃহস্পতিবার (১৮ ফেব্রুয়ারি) দিনগত রাত ২টা ৫৫ মিনিটে পারসেভারেন্স মঙ্গলে অবতরণ করার সঙ্গে সঙ্গে লস অ্যাঞ্জেলসের জেট প্রপালসন ল্যাবরেটরিতে উল্লাসে মেতে ওঠেন বিজ্ঞানীরা।

ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসি জানিয়েছে, ছয় চাকার এই স্বয়ংক্রিয় রোবট যানটি পৃথিবী থেকে তার ৪৭০ মিলিয়ন কিলোমিটার বা ৪৭ কোটি মাইল পথের যাত্রা শুরু করেছিল সাত মাস আগে। আজ তার যাত্রার অবসান হলো। জাজেরো নামে গভীর গর্তে (ক্র্যাটার) অবতরণ করে রোবট যান পারসেভারেন্স। আগামী দুই বছর মঙ্গলে অবস্থান করে সেখানে পাথর খননসহ সেখানে অতীতে কোনো প্রাণের অস্তিত্ব ছিল কিনা তা জানার চেষ্টা করবে যানটি।

সেইসঙ্গে সেখান থেকে তথ্য ও ছবিও পাঠাবে বিজ্ঞানীদের কাছে। এছাড়া বিলিয়ন বছর আগে সৃষ্টি হওয়া জাজেরো ক্র্যাটারের ধুলাবালুর মধ্যে থেকে নমুনা সংগ্রহ করবে রোবট যানটি, যা বিশ্লেষণ করে দেখা হবে গ্রহটিতে অতীতে জৈব কোনো কর্মকাণ্ডের সন্ধান ছিল কি না। সবচেয়ে লক্ষণযুক্ত ও সম্ভাবনাময় নমুনা পৃথিবীতে পাঠানো হবে ভবিষ্যত মিশনের প্রস্তুতির জন্য।

এর আগে, মঙ্গলগ্রহে নভোযান অবতরণের ১৪টি প্রচেষ্টা নেয়া হয়েছে। এর মধ্যে সফল হয়েছে আটটি আর এর সবগুলোই ছিল যুক্তরাষ্ট্রের মিশন। তবে ১৯৯৯ সালে একবার নাসার মঙ্গল মিশন ব্যর্থ হয়েছিল। এবছর মঙ্গলে আরেকটি সফলতার পালক যুক্ত করলো নাসা।

নাসার জেট প্রপালসন ল্যাবরেটরির পরিচালক মাইক ওয়াটকিনস পারসেভারেন্স টিমের এই সাফল্যকে অভিনন্দন জানিয়ে বলেন, ‌‘এই সাফল্য ভবিষ্যতে লাল গ্রহে (মঙ্গলে) মানুষের যাত্রার পথ তৈরি করবে।’

তিনি বলেন, ‘মঙ্গলে নভোচারী পাঠানোর জন্য আমরা এখনও প্রস্তুত নই, তবে আমরা রোবট পাঠিয়েছি।’

পারসেভারেন্স মঙ্গলে অবতরণের আগ পর্যন্ত উৎকণ্ঠা ছিল সবার মধ্যে। অবতরণের আগে পারসেভারেন্সের উপ-প্রকল্প ব্যবস্থাপক ম্যাট ওয়ালেস বলেন, ‘মঙ্গলের পৃষ্ঠে ভবিষ্যতের মিশন পাঠানোর আগে আমাদের আগে মঙ্গলে ঠিকমত অবতরণ করতে হবে। আর সেটাই সবচাইতে বড় চ্যালেঞ্জ।’

তিনি বলেন, ‘মহাকাশ মিশনে সবচেয়ে কঠিন চ্যালেঞ্জগুলোর অন্যতম হল সফল অবতরণ। মঙ্গলগ্রহে এর আগে যেসব মিশন পাঠানো হয়েছে তার মধ্যে ৫০ শতাংশ যান মঙ্গলের পিঠে সফলভাবে অবতরণ করতে ব্যর্থ হয়েছে। কাজেই আমাদের সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জ এখন জাজেরোতে রোবট যানটি নিরাপদে নামানো।’

জাতীয় পরিচয়পত্রের ভুল সংশোধন অনলাইনে

ডেস্ক রিপোর্ট,১৮ ডিসেম্বর:
২০০৮ সাল থেকে জাতীয় পরিচয়পত্র দেওয়া শুরু হয়েছে। শুরু থেকেই পরিচয়পত্রে বিভিন্ন রকম ভুলের অভিযোগ পাওয়া যায়। এসব তথ্যে একবার ভুল হলে নানা রকম হয়রানীতে পড়তে হয়। তবে আশার কথা হচ্ছে- জাতীয় পরিচয়পত্রের ভুল সংশোধন এখন একটি চলমান প্রক্রিয়া।

আপনারা জানেন, এখন অনলাইনের মাধ্যমেই ভুল তথ্য সংশোধন করার সুযোগ রয়েছে। এর জন্য শুরুতেই এনআইডি পোর্টালে ঢুকে একটি অ্যাকাউন্ট তৈরি করতে হবে। সেখানে এনআইডি নম্বর দিতে হবে। এরপর অ্যাকাউন্টে ঢুকলে সেখানে লিংক পাবেন অনলাইনে ফি পরিশোধের।

জানা যায়, ওকে ওয়ালেট বা রকেটের মাধ্যমে নির্ধারিত ফি পরিশোধ করা যাবে। এছাড়া সোনালী ব্যাংকের মাধ্যমেও পরিশোধ করতে পারবেন। পরিচয়পত্রে যে তথ্য আছে, তার যেকোনো একটি সংশোধন করতে চাইলে প্রথমবার আবেদনের জন্য ২০০ টাকা, দ্বিতীয়বার ৩০০ টাকা এবং পরবর্তী যতবার আবেদন করবেন ৪০০ টাকা ফি দিতে হবে।

এ ছাড়া কিছু তথ্য আছে, যেগুলো পরিচয়পত্রে লেখা নেই। সেগুলোও সংশোধন করা যায়। সেক্ষেত্রে প্রথমবার ১০০ টাকা, দ্বিতীয়বার ৩০০ টাকা এবং পরবর্তীতে প্রতিবার ৩০০ টাকা ফি দিতে হবে। ফি পরিশোধ হয়ে গেলে এডিট করার লিংকে তথ্য চলে যাবে। এরপর তথ্য সংশোধন অপশনে যেতে পারবেন।

তবে সংশোধনের জন্য কিছু কাগজের কপি আপলোড করতে হবে। যেমন-
১. নাম সংশোধনের ক্ষেত্রে জন্ম নিবন্ধন
২. মাধ্যমিক বা উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষার সনদপত্র
৩. পাসপোর্টের কপি
৪. ঠিকানা পরিবর্তনের জন্য বিদ্যুৎ বা পানির বিলের কাগজ
৫. বিয়ের পর স্বামীর নাম যোগ করতে চাইলে নিকাহনামা
৬. স্বামীর জাতীয় পরিচয়পত্রের ফটোকপি সংযুক্ত করতে হবে
৭. বিবাহ বিচ্ছেদের কারণে স্বামীর নাম বাদ দিতে চাইলে তালাকনামা সংযুক্ত করতে হবে।

কোন ধরনের সংশোধনে কী কী কাগজ প্রয়োজন, তা ওয়েবসাইটেই দেওয়া আছে। তথ্য সংশোধন অনুমোদন হয়ে গেলে একটি মেসেজ পাবেন। ওয়েবসাইটে গিয়ে নিজেই সংশোধিত এনআইডি প্রিন্ট করে লেমিনেট করে নিতে পারবেন।

তবে যাদের ইন্টারনেট ব্যবহারের সামর্থ নেই বা স্বাচ্ছন্দ্য বোধ করেন না; তাদের জন্য প্রতিটি উপজেলায় নির্বাচন অফিস আছে। সেখানে দু’জন করে ‘ডাটা এন্ট্রি অপারেটর’ রয়েছেন। তারাই সব ধরনের ডাটা এন্ট্রিতে সহযোগিতা করবেন। এটি পুরোটাই বিনা মূল্যে করবেন তারা।

এ ছাড়া প্রতিটি ইউনিয়ন পরিষদে যে ডিজিটাল সেন্টার রয়েছে; সেখানেও অনলাইনে এনআইডি সংক্রান্ত সেবা পাবেন। জাতীয় পরিচয়পত্রের ভুল সংশোধনের জন্য অ্যাকাউন্ট তৈরি করতে এ লিংকে প্রবেশ করবেন। আর ফি সম্পর্কে জানতে এ লিংকে প্রবেশ করবেন।

সূত্র: বিবিসি বাংলা

মোবাইল থেকে ডিলিট হওয়া ছবি উদ্ধার করবেন যেভাবে

আপনার মোবাইল থেকে ডিলেট হয়ে যাওয়া ফটো কিভাবে পুনরায় ফিরে পাবেন তা দেখুন :

Step-1: DiskDigger Photo Recovery এপসটি প্লে স্টোর থেকে ইনস্টল করে নিন।

Step-2: Start Basic Photo Scan এ ক্লিক করুন।আপনার ডিলেট হওয়া ফটোগুলো পর্যায়ক্রমে Recovery হওয়ার মাধ্যমে আসতে থাকবে।

Step-3: স্কিনে আসা ফটোগুলো থেকে যে ফটো টা আপনি পেতে চান সেই ফটোর বামপাশে টিক চিহ্ন (✓) দিন।

Step-4: ডান পাশের নিচে ডাউনলোড চিহ্নিত Recover অপশনে ক্লিক করুন।

Step-5: এখন আপনার রিকভার করা ফটোটি যেখানে ইচ্ছা নিতে পারেন। যেমন: আপনার ইমেইল কিংবা গুগল ড্রাইভে ফটোটি নিতে পারেন।
অথবা Save the files to a custom location on your device অপশনে ক্লিক করে ফটোটি রাখতে পারেন।

Step-6: Save the files to a custom location on your device এ ক্লিক করলে নিচে Allow access to Downloads এ ক্লিক করুন।

Step-7: Allow এ ক্লিক করলে আপনার কাজটি সম্পন্ন হয়েছে।

∆∆ ফটো রিকভারি হওয়ার পর আপনি আপনার ফটোটি কোথায় খুঁজে পাবেন তা দেখুন: Setting>Storage>Internal Shared Storage> Files.

✓✓✓ Save File এ আপনার ফটো গুলো সেইভ না করে ইমেইলে সেইভ করলে সহজেই আপনার আকাঙ্ক্ষিত ফটো গুলো পেয়ে যাবেন।

আসছে হোয়াটসঅ্যাপের আপডেট, যা থাকছে

ফেসবুকের মালিকানাধীন ম্যাসেজিং অ্যাপ হোয়াটসঅ্যাপ প্রায়ই তার ব্যবহারকারীদের জন্য নতুন আপডেট নিয়ে আসে। বেশ কিছুদিন ধরে গুঞ্জন, দ্রুতই আসছে হোয়াটসঅ্যাপের নতুন ফিচার, যেখানে ডেস্কটপ বা ওয়েব সংস্করণে যুক্ত হচ্ছে ফিঙ্গার প্রিন্ট সুবিধা।

হোয়াটসঅ্যাপের নতুন আপডেটে কী থাকছে, তা অফিশিয়ালি এখনো জানা না গেলেও ভারতীয় গণমাধ্যম ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস জানিয়েছে, ওয়েবে ফিঙ্গার প্রিন্ট সুবিধা ছাড়াও আরো যা থাকতে পারে সে তথ্য :

* আসন্ন আপডেটে হোয়াটসঅ্যাপে থাকতে পারে বিভিন্ন রিংটোন সেট করার সুবিধা। যার ফলে ব্যবহারকারীরা স্বতন্ত্র কল ও গ্রুপ কলের মধ্যে পার্থক্য বুঝতে পারবে।

* ডেস্কটপ বা ওয়েব সংস্করণের পর আপডেটে অ্যান্ড্রয়েড সংস্করণেও ব্যাকগ্রাউন্ড ডুডল পরিবর্তনের সুযোগ পেতে পারেন ব্যবহারকারীরা।

* অ্যান্ড্রয়েড সংস্করণে কল ধরা ও কল করার সিস্টেম আপডেট করা হবে।

* স্টিকার ও অ্যানিমেটেড স্টিকারগুলোতে আসছে পরিবর্তন। থাকবে একাধিক লুপ।

* ব্যবসায়ী অ্যাকাউন্টের জন্য শিগগিরই হোয়াটসঅ্যাপ শর্টকাট অ্যাক্সেস যুক্ত করতে পারে। ফলে তাৎক্ষণিক দেখা যাবে পোর্টফোলিও। এ ছাড়া অ্যাপে একটি নতুন কল বোতাম যুক্ত হতে পারে।

মেসেঞ্জারে ঢুকতে পাসওয়ার্ড লাগবে

করোনাভাইরাস পরিস্থিতিতে ফেসবুকের মেসেঞ্জারের ব্যবহার বেড়েছে। মেসেঞ্জারে বার্তা আদান–প্রদানের সুবিধাটিকে আরও ব্যক্তিগত রাখার জন্য বিশেষ নিরাপত্তা ফিচার যুক্ত করার পরিকল্পনা করেছে ফেসবুক কর্তৃপক্ষ। মেসেঞ্জারে যুক্ত হচ্ছে ফেস আইডি, টাচ আইডি বা পাসকোড ব্যবস্থা। এতে ব্যবহারকারী মেসেঞ্জার ‘লক’ করে রাখতে পারবেন, যাতে অন্য কেউ ব্যক্তিগত বার্তা দেখতে না পারেন।

প্রযুক্তিবিষয়ক ওয়েবসাইট এনগ্যাজেট এক প্রতিবেদনে বলেছে, ফেসবুক বর্তমানে মেসেঞ্জারের নিরাপত্তা ফিচারগুলো নিয়ে পরীক্ষা করছে। এসব ফিচার চালু হলে ব্যবহারকারীকে তাঁর মেসেঞ্জারের ইনবক্সে ঢুকতে হলে পাসওয়ার্ড বা আইডি দিয়ে ঢুকতে হবে। ফোন আনলক করা থাকলেও মেসেঞ্জারে আইডি দিয়ে ঢুকতে হবে। অ্যাপ ছেড়ে যাওয়ার কতক্ষণ পর তা লক হবে, সে সময়ও ঠিক করে দেওয়ার সুবিধা থাকবে।

এনগ্যাজেটকে ফেসবুকের এক মুখপাত্র বলেছেন, ‘আমরা ব্যবহারকারীদের কাছে তাঁদের আরও বেশি পছন্দের ও নিয়ন্ত্রণের সুবিধা তুলে দিতে চাই, যাতে তাঁরা ব্যক্তিগত বার্তা সুরক্ষিত রাখতে পারেন। সম্প্রতি আমরা এ রকম ফিচার পরীক্ষা শুরু করেছি যাতে ডিভাইস সেটিংস ব্যবহার করে মেসেঞ্জার অ্যাপ খুলতে হবে। কেউ যাতে হুট করে বার্তা পড়ে ফেলতে না পারে, সে জন্যই প্রাইভেসির বাড়তি স্তর যুক্ত করা হচ্ছে।’

গত মাসেই ফেসবুক তাদের ভিডিও কনফারেন্সিং টুল ‘মেসেঞ্জার রুমস’ চালু করেছে। এতে ৫০ জন একসঙ্গে যুক্ত হতে পারেন এবং ফেসবুক অ্যাকাউন্ট না থাকলেও এতে যুক্ত হওয়া যায়। মেসেঞ্জার রুমস সৃষ্টির ফিচারটি আইওএস, অ্যান্ড্রয়েড, উইন্ডোজ ও ম্যাকওএস অপারেটিং সিস্টেমে চালু হয়েছে।

মধ্যরাত থেকেই মোবাইলে বাড়তি টাকা কাটা শুরু

নিজস্ব প্রতিবেদক |

মোবাইল ফোনের সিম কার্ড ব্যবহারের মাধ্যমে প্রদত্ত সেবার ওপর সম্পূরক শুল্ক বাড়িয়ে প্রস্তাবিত বাজেট ঘোষণার পরই মধ্যরাত থেকে এসএমএস, কথা বলা ও ইন্টারনেট ব্যবহারে গ্রাহকদের বাড়তি অর্থ গুনতে হচ্ছে। পাঁচ শতাংশ সম্পূরক শুল্ক বাড়ানোর প্রস্তাবে জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর) গ্রাহকের কাছ থেকে এই বাড়তি অর্থ নেওয়া শুরু করেছে।

২০২০-২০২১ অর্থবছরের প্রস্তাবিত বাজেটে অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল বৃহস্পতিবার (১১ জুন) মোবাইল ফোনের সিম বা রিম কার্ড ব্যবহারের মাধ্যমে প্রদত্ত সেবার ওপর সম্পূরক শুল্ক পাঁচ শতাংশ বাড়ানোর প্রস্তাব করেন।

পাঁচ শতাংশ সম্পূরক শুল্ক বাড়ানোর ফলে মোবাইল ফোনের সেবায় ১৫ শতাংশ ভ্যাট, এক শতাংশ সারচার্জ, ১৫ শতাংশ সম্পূরক শুল্ক এবং অন্যান্য খরচ মিলে ২৭ দশমিক ৭৭ শতাংশ থেকে বেড়ে হয়েছে ৩৩ দশমিক ২৫ শতাংশ।

মোবাইল ফোন অপারেটররা বলছে, আগে ১০০ টাকা খরচ করলে সরকারকে ২১ টাকা ৫৭ পয়সা দিতে হতো। পাঁচ শতাংশ সম্পূরক শুল্ক বাড়ায় এখন তা হবে ২৪ টাকা ৯৫ পয়সা। এই বাড়তি খরচ বৃহস্পতিবার দিবাগত মধ্যরাত থেকেই কার্যকর হয়েছে।

তবে ইন্টারনেটের ক্ষেত্রে ভ্যাট পাঁচ শতাংশ হওয়ায় ডেটা ব্যবহারে কিছুটা কম খরচ হবে বলে জানায় অপারেটররা।

বিটিআরসির সর্বশেষ মার্চ মাসের হিসেবে, বর্তমানে দেশে চারটি মোবাইল ফোন অপারেটরের গ্রাহক সংখ্যা ১৬ কোটি ৫৩ লাখ ৩৭ হাজার। আর ইন্টারনেট গ্রাহক ১০ কোটি ৩২ লাখ ৫৩ হাজার।

মোবাইল অপারেটরদের সংগঠন অ্যাসোসিয়েশন অব মোবাইল টেলিকম অপারেটরস অব বাংলাদেশ (এমটব) বলছে, নিয়মিতভাবে করের বোঝা চাপিয়ে সরকার মোবাইল খাতকে ক্রমেই দুর্বল করে তুলছে। ফেলছে গ্রাহকদের ওপর বাড়তি চাপ। এমটব এই বাড়তি কর পুনর্বিবেচনার অনুরোধ করেছে।

বাজেট উত্থাপনের পরই এমটব মহাসচিব ব্রিগেডিয়ার জেনারেল (অব.) এসএম ফরহাদ এক বিবৃতিতে বলেন, দেশের অর্থনীতিতে মোবাইল টেলিকম খাতের অবদান যত উল্লেখযোগ্যই হোক না কেন, সরকার নিয়মিতভাবে প্রতিবছর এই খাতের ওপর আরও বেশি করে করের বোঝা চাপিয়ে একে আরও দুর্বল করে তুলছে; গ্রাহকদের ওপর ফেলছে বাড়তি চাপ। ফলে দেশের জিডিপিতে মোবাইলের বর্তমান অবদান সাত শতাংশ থেকে যে দুই অঙ্কের ঘরে যাওয়ার কথা বলা হয়েছিল, তা আর অর্জিত না-ও হতে পারে।

‘এ বছর সরকার মোবাইলের মাধ্যমে প্রাপ্ত সব রকম সেবার ক্ষেত্রে সম্পূরক শুল্ক ১০ শতাংশ থেকে বাড়িয়ে ১৫ শতাংশ করেছে। যা অত্যন্ত হতাশাজনক। এর ফলে গ্রাহকদের ওপর বাড়তি চাপ পড়বে। এ বিষয়ে এসআরও জারি হওয়ায় তা আজ দিবাগত রাত ১২টার পর থেকেই কার্যকর হবে।’

এমটব মহাসচিব বলেন, দেশে করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাবের কারণে এমনিতেই মানুষের মধ্যে যখন নাভিশ্বাস উঠেছে, মোবাইল হয়ে উঠেছে সব যোগাযোগের মূল চালিকা ও দেশ ডিজিটাল ইকনোমির দিকে এগিয়ে চলছে; ঠিক সে সময় এ ধরনের করের বোঝা কোনোভাবেই দেশের অর্থনীতির জন্য মঙ্গলজনক হবে না। এ বোঝা দরিদ্র মানুষের জন্য অসহনীয় হয়ে পড়বে এবং ডিজিটাল বাংলাদেশ বাস্তবায়নের পথে অন্তরায় হয়ে উঠবে। যা করোনা ভাইরাস সংকটের কারণে আরও বাড়বে। এতে মোবাইল শিল্প খাত আরও বেশি ক্ষতিগ্রস্ত ও দুর্বল হবে।

তিনি বলেন, আমরা মোবাইল খাতের পক্ষ থেকে অলাভজনক কোম্পানির জন্য বর্তমান ২ শতাংশ ন্যূনতম কর বিলোপ ও করপোরেট ট্যাক্স কমানোর জন্য পূর্বাপর অনুরোধ করলেও তা বিবেচনা করা হয়নি। যা চরম হতাশাজনক। আমরা সরকারকে টেলিকম খাতের বাজেটের বিষয়ে পুনর্বিবেচনা করার জন্য আবারও অনুরোধ করছি।

মোবাইল ফোন অপারেটরগুলোও পৃথক বিবৃতিতে বাড়তি খরচ কমানোর অনুরোধ করেছে।

১০৫ নম্বরে কল দিলেই এনআইডি সমস্যার সমাধান

ডেস্ক নিউজ: জাতীয় পরিচয়পত্র সংশোধন, হারানো এনআইডি তোলাসহ সব ধরনের সমস্যা সমাধানে ১০৫ নম্বরে কল দিলেই পাওয়া যাবে।

জানা গেছে, জাতীয় পরিচয়পত্রের সব সমস্যার সমাধান এবং পরামর্শ দিতে কল সেন্টার আগেই চালু করে নির্বাচন কমিশনের (ইসি) এনআইডি শাখা। তবে তা পর্যাপ্ত ছিলো না। গত সোমবার এ কার্যক্রম জোরদার করা হয়েছে। সকাল ৮টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত ফোন করে এ সেবা পাওয়া যাবে বলে জানানো হয়েছে।


Responsive WordPress Theme Freetheme wordpress magazine responsive freetheme wordpress news responsive freeWORDPRESS PLUGIN PREMIUM FREEDownload theme free

hit counter