Home » টপ খবর

টপ খবর

সরকারি কর্মচারীদের বেতন ৬০ শতাংশ বৃদ্ধির দাবি

ডেস্ক, ২১ মে ২০২২:
নতুন জাতীয় বেতন স্কেল প্রদান না করা পর্যন্ত সরকারি কর্মচারীদের অন্তবর্তীকালীন ৬০ শতাংশ বেতন বাড়ানোর দাবি জানিয়েছে তৃতীয় শ্রেণির সরকারি কর্মচারীরা। দাবি আদায়ে আগামী ২৪ মে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বরাবর স্মারকলিপি দেবে সংগঠনটি।

আরো খবরঃ ফাঁকিবাজ শিক্ষকদের চিহ্নিত করে শাস্তিযোগ্য বদলি

শনিবার ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির সাগর-রুনি মিলনায়তনে এক সংবাদ সম্মেলনে এ দাবি জানানো হয়। সংবাদ সম্মেলনে সমিতির সভাপতি মো. লুৎফর রহমান, কার্যকরী সভাপতি নূরুন্নবী ও রায়হান চৌধুরীসহ বিভিন্ন পর্যায়ের নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে সমিতির মহাসচিব মো. ছালজার রহমান বলেন, ২০১৫ সালে সর্বশেষ জাতীয় বেতন স্কেল প্রদানের পর বিগত সাত বছরে গ্যাস, বিদ্যুৎ, পানি, চিকিৎসা ব্যয়সহ নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যসামগ্রীর মূল্য প্রতিনিয়ত অস্বাভাবিকভাবে বৃদ্ধি পাওয়ায় সীমিত আয়ের সরকারি কর্মচারীদের জীবনযাপন কষ্টসাধ্য হয়ে পড়েছে। এ অবস্থায় নতুন জাতীয় বেতন স্কেল প্রদান অত্যাবশ্যক।

নিজেদের দাবি তুলে ধরে তিনি বলেন, বেতনের ১০০ শতাংশ বাড়ি ভাড়া, ৪ হাজার টাকা চিকিৎসা ভাতা, দৈনিক ৫০ টাকা যাতায়াত ভাতা, দৈনিক ১০০ টাকা টিফিন ভাতা, সন্তান শিক্ষা ভাতা ন্যূনতম ২ হাজার টাকা, গ্যাস, বিদ্যুৎ, পানির বিল ভাতা হিসাবে প্রদান, ১০০ শতাংশ পেনশন, ১:৪০০ হারে গ্রাচুয়িটি, চাকরির বয়সসীমা ৬৫ বছর, সমুদয় পাওনা ছুটির বেতন প্রদান করতে হবে।

সংবাদ সম্মেলনে দাবি আদায়ের লক্ষ্যে কর্মসূচি ঘোষণা করে বলা হয়, দাবি বাস্তবায়নে আগামী ২৪ মে প্রধানমন্ত্রী বরাবর স্মারকলিপি প্রদান, ২৬ মে থেকে ৯ জুন পর্যন্ত রাজধানীর বিভিন্ন দফতর ও প্রতিষ্ঠান, প্রশাসনিক বিভাগ ও জেলাগুলোতে দাবির সমর্থনে কর্মচারী সমাবেশ করা হবে। দাবি বাস্তবায়ন না হলে ১১ জুন জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করা হবে।

ফাঁকিবাজ শিক্ষকদের চিহ্নিত করে শাস্তিযোগ্য বদলি

গাজীপুর প্রতিনিধি,২১ মে ২০২২ঃ
মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক বলেছেন, আমার জানামতে গাজীপুরে সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে প্রায় হাজার শিক্ষক রয়েছেন। তাদের মধ্যে চার থেকে পাঁচ শতাংশ স্কুলে সময়মতো আসেন না। স্কুলে তাদের করণীয় করেন না, কাজে ফাঁকি দেন। যাদের কারণে স্কুলের লেখাপড়ার মান নষ্ট হচ্ছে।

আরো খবরঃ প্রাথমিকের শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষায় প্রক্সি দিতে গিয়ে আটক ৩

তিনি বলেন, আমি বলবো তাদের চিহ্নিত করে শাস্তিমূলক বদলি করা প্রয়োজন। আর ভালোদেরও মূল্যায়ন করা হোক। ভালো কাজের জন্য আমরা প্রশংসা করবো, আবার খারাপ কাজের জন্য আমরা নিন্দাও করবো।

শনিবার দুপুরে গাজীপুর শহরে শহীদ আহসান উল্লাহ মাস্টার অডিটোরিয়ামে অনুষ্ঠিত প্রধান শিক্ষকদের মাসিক সমন্বয় সভা ও বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতার পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথির বক্তব্যে মন্ত্রী এসব কথা বলেন।

এতে সভাপতিত্ব করেন প্রাথমিক শিক্ষা (ঢাকা বিভাগ)-এর উপ-পরিচালক তাহমিনা খাতুন। অন্যন্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, গাজীপুরের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা) অঞ্জন কুমার সরকার, জেলা প্রথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মো. মোফাজ্জল হোসেন প্রমুখ। এর আগে স্বাগত বক্তব্য রাখেন জয়দেবপুর পিটিআই’র সুপারিনটেন্ডেন্ট মো. রফিকুল ইসলাম তালুকদার।

অনুষ্ঠানে গাজীপুর সদর উপজেলার ১৬৬টি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ও জয়দেবপুর প্রাইমারি টিচার্স ট্রেনিং ইনস্টিটিউট (পিটিআই) বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা উপস্থিত ছিলেন।

সভাশেষে প্রধান অতিথি বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতায় ১০বিভিন্ন ইভেন্টে বিজয়ীদের মধ্যে পুরস্কার বিতরণ করেন।

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি আবেদন নিয়ে নানা প্রশ্নোত্তর

ডেস্ক,২১ মে ২০২২: জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের ২০২১-২২ শিক্ষাবর্ষের ভর্তি আবেদন আগামী রোববার (২২ মে) বিকাল ৪টা থেকে শুরু হবে। এ আবেদন প্রক্রিয়া আগামী ৯ জুন রাত ১২টা পর্যন্ত চলবে।

এ ভর্তি আবেদন নিয়ে ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থীদের মধ্যে বেশ কিছু বিষয়ে প্রশ্ন জেগেছে। ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থীদের সেসব প্রশ্নের বিষয়ে জানার চেষ্টা করেছে দ্যা ডেইলি ক্যাম্পাস। জেনে নেওয়া যাক, জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি আবেদনে কিছু প্রশ্নোত্তর।

প্রশ্ন ১: জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ে অনার্স (স্নাতক) ভর্তি আবেদনের শুরু ও শেষ কবে?

উত্তর: ২২ মে বিকাল ৪টা থেকে ৯ জুন রাত ১২.০০ টা পর্যন্ত।

প্রশ্ন ২: এ বছর আবেদনের যোগ্যতা কি বা আবেদন করতে কত পয়েন্ট লাগবে?

উত্তর: বিজ্ঞান ও বাণিজ্য বিভাগের শিক্ষার্থীদের এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষায় আলাদা আলাদাভাবে জিপিএ ৩.৫০ পয়েন্ট করে থাকতে হবে। এছাড়া মানবিক শাখার শিক্ষার্থীদের এসএসসি পরীক্ষা জিপিএ ৩.৫০ পয়েন্ট ও এইচএসসি পরীক্ষা জিপিএ ৩.০০ পয়েন্ট থাকতে হবে। এদিকে যে সকল শিক্ষার্থীরা ২০১৮/২০১৯ সালে এসএসসি ও ২০২০/২০২১ সালে এইচএসসি পাস করেছেন তারা ভর্তি আবেদন করতে পারবেন।

প্রশ্ন ৩: আবেদন কিভাবে করবো বা আবেদন করার পদ্ধতি কি?

উত্তর: এক নজরে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি আবেদন প্রক্রিয়া

প্রশ্ন ৪: আবেদন করতে কত টাকা লাগবে?

উত্তর: আবেদন ফি ২৫০ টাকা

প্রশ্ন ৫: টাকা কি কলেজে গিয়ে জমা দিতে হবে?

উত্তর: না! কলেজ কর্তৃক নির্ধারিত মোবাইল ব্যাংকিংয়ের মাধ্যমে করতে হবে। এরপর সেটার কপি প্রিন্ট করে আবেদন পত্রের সঙ্গে জমা দিতে হবে।

প্রশ্ন ৬: আবেদন করতে কি কি কাগজপত্র লাগবে?

SSC+HSC পরীক্ষার রোল
রেজিস্ট্রেশন নম্বর
১ কপি পাসপোর্ট সাইজের রঙ্গিন ছবি
একটি সচল মোবাইল নম্বর

প্রশ্ন ৭: কাগজপত্র কিভাবে জমা দিতে হবে ??

উত্তর: যে কলেজের জন্য আবেদন করবেন সেই কলেজে গিয়ে জমা দিতে হবে।

প্রশ্ন ৮: এসএসসিতে জিপিএ ৩.৫০ পয়েন্ট এর নিচে আছে, এইচএসসিতে জিপিএ ৩.০০/৩.৫০ পয়েন্ট এর উপরে আমি কি আবেদন করতে পারবো?

উত্তর: না! সম্ভব না।

প্রশ্ন ৯: ২০২০ সালে এইচএসসি পাশ করেছি, আমি কি জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ে অনার্সের (স্নাতক) জন্য আবেদন করতে পারবো?

উত্তর: হ্যাঁ পারবেন, যদি এসএসসি পাসের সাল ২০১৮ হয়।

প্রশ্ন ১০: ২০১৭ সালে এসএসসি পাস করেছি, আমি কি আবেদন করতে পারবো?

উত্তর: না। অনার্সে (স্নাতক) আবেদন করতে পারবেন না।

প্রশ্ন ১১: যাদের পয়েন্ট উপর্যুক্ত শর্তের কম বা পাসের সাল কম তারা কি করবে?

উত্তর: তারা জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের ডিগ্রি প্রোগ্রামে ভর্তি হতে পারবেন।

প্রশ্ন ১২: আমার পয়েন্ট রয়েছে। পছন্দের কলেজ ও সাবজেক্টে ভর্তি হতে পারব?

উত্তর: এগুলো নিশ্চিতভাবে বলা যায় না, সম্ভাবনা বলা যায়। এটা নির্ভর করবে কোন কলেজে কেমন পয়েন্ট নিয়ে কোন সাবজেক্ট চয়েস দেওয়ার ওপরে।

প্রশ্ন ১৩: বিভাগীয়/জেলা/উপজেলা পর্যায়ের কলেজ কোনগুলো?

উত্তর: বিভাগের মূল শহরে যে কলেজগুলো রয়েছে, সেগুলো বিভাগীয় কলেজ। জেলার কলেজগুলো জেলা পর্যায়ের। আর উপজেলার কলেজগুলো উপজেলা পর্যায়ের কলেজ।

প্রশ্ন ১৪: কয়টি সাবজেক্ট চয়েস দেওয়া যায়?

উত্তর: যতগুলো সাবজেক্ট শো করবে তার সবগুলো।

প্রশ্ন ১৫: আমার পছন্দের কলেজে কি কি সাবজেক্ট আছে, কয়টি সীট আছে জানবো কিভাবে?

উত্তর: কলেজ ও সাবজেক্ট চয়েস দেওয়ার সময়ে দেখা যাবে।

প্রশ্ন ১৬: কয়টি কলেজ চয়েস দেওয়া যায়?

উত্তর: প্রথমে ১টি। চান্স না হলে প্রত্যেক রিলিজ স্লিপে ৫টি কলেজ।

প্রশ্ন ১৭: সাবজেক্ট চয়েস কিভাবে দেবো/কোন সাবজেক্ট ভালো হবে?

উত্তর: নিজের সবচেয়ে বেশি পছন্দের বিষয়গুলো প্রথম দিকে রাখবেন। মনে রাখবেন। যে সাবজেক্টে পড়বেন না, সেটা কখনোই চয়েস লিস্টে রাখবেন না।

প্রশ্ন ১৮: আবেদন করে ফেলেছি ভুল হয়েছে। চয়েস লিস্ট চেঞ্জ করতে চাচ্ছি, কি করবো?

উত্তর: একবার নিজের সংশোধন করতে পারবেন। তবে অবশ্যই কলেজে কাগজপত্র জমা দেওয়ার আগে।
সুত্রঃ The Daily Campus

প্রাথমিকের শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষায় প্রক্সি দিতে গিয়ে আটক ৩

ডেস্ক,২১ মে ২০২২:

প্রাথ‌মিকের সহকা‌রী শিক্ষক নি‌য়োগ পরীক্ষায় প্রার্থীর বদ‌লে প্রক্সি দেওয়ার আগেই প্রতারকচক্রের তিন সদস্যকে আটক করেছে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব ৮) এর সদস্যরা। এসময় তা‌দের কাছ থে‌কে বিভিন্ন প্রার্থীর বিভিন্ন পরীক্ষায় অংশগ্রহণের ৩৬টি অনলাইনের আবেদন কপি, বিভিন্ন ব্যাংকের ৩৬টি চেকবই, ৭টি মুড়ি, জালিয়াতির কাজে ব্যবহৃত মোবাইল ফোন, বিভিন্ন ব্যক্তির নামে সিলমোহর, নগদ টাকা, ডায়েরি উদ্ধার করা হয়।

শুক্রবার (২০ মে) রা‌তে বিষয়‌টি নিশ্চিত করেছেন র‌্যাব ৮ বরিশালের কোম্পানি অধিনায়ক ও উপ পরিচালক মেজর মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর আলম।

আটকরা হ‌লেন- বরগুনার আমতলী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের স্বাস্থ্য সহকারী ও তালতলী উপ‌জেলার উত্তর ঝাড়াখা‌লি এলাকার বা‌সিন্দা মাহাবুবু আলম তু‌হিন (৪২), একই উপ‌জেলার বড় পারা এলাকার রিয়াজ হো‌সেন (২৯) ও বরগুনা সদর থানার কদমতলার উত্তর ইট বাড়িয়া এলাকার আল আমিন (২৯)।

র‌্যাব জানায়, গোপন সংবা‌দের ভি‌ত্তি‌তে শুক্রবার সকা‌লে ব‌রিশাল লঞ্চঘা‌টের দুই নম্বর গে‌টের সাম‌নে থে‌কে তিন যুবক‌কে আটক করা হয়।

প‌রে তাদের মধ্যে মাহাবুব আলম তু‌হিন‌কে জিজ্ঞাসাবাদ করেলে, সে জানায়- শিক্ষক নি‌য়োগ পরীক্ষাসহ বি‌ভিন্ন চাকরির পরীক্ষায় অর্থের বি‌নিম‌য়ে চাক‌রি প্রার্থী‌দের প‌ক্ষে মেধাবী ছাত্রদের দি‌য়ে পরীক্ষা দেওয়া‌নো কাজ করে থাকে তারা। এরজন্য প্রতি চাকরি প্রার্থীর থে‌কে ৮ থে‌কে ১০ লাখ টাকা নি‌য়ে থা‌কেন তারা। টাকা লেন‌দে‌নের ক্ষে‌ত্রে বি‌ভিন্ন ব্যাংকের চেক ব্যবহার ক‌রে চক্রটি।

পরে আটককৃত রিয়াজ ও আল আমিন র‌্যাবকে জানায়, প্রাথমিক বিদ্যাল‌য়ের সহকা‌রী শিক্ষক নি‌য়োগ পরীক্ষা দি‌তে তারা ঢাকা থে‌কে ব‌রিশা‌লে এসেছে। পরীক্ষায় প্রক্সি পরীক্ষার্থী হি‌সে‌বে অংশগ্রহ‌ণের জন্য মাহাবুব আলম তুহি‌নের কাছ থে‌কে ৩০ হাজার ক‌রে টাকা নিয়ে‌ছেন তারা। পরীক্ষায় অংশগ্রহ‌ণের পর পরীক্ষার্থী উত্তীর্ণ হ‌লে আরও ২ লক্ষ টাকা দেওয়ার কথা ছি‌ল।

এ ঘটনায় আটকদের বিরু‌দ্ধে ব‌রিশাল কোতয়ালি ম‌ডেল থানায় র‌্যাব-৮ এর ডিএডি এনামুল হক বাদী হ‌য়ে মামলা দা‌য়ের করেছেন বলে জানিয়েছেন র‌্যাবের-৮ এর উপ প‌রিচালক মেজর জাহাঙ্গীর আলম।

৫ ঘণ্টা পর খুলনার সঙ্গে সারা দেশের রেল যোগাযোগ স্বাভাবিক

চুয়াডাঙ্গা প্রতিনিধি, ২১ মে ২০২২
পাঁচ ঘণ্টা পর খুলনার সঙ্গে সারা দেশের রেল যোগাযোগ স্বাভাবিক হয়েছে। কালবৈশাখী ঝড়ে রেললাইনের ওপর থেকে ভেঙে পড়া গাছ অপসারণ করার পর বেলা সাড়ে ১১টার দিকে ট্রেন চলাচল স্বাভাবিক হয়।

আলমডাঙ্গার স্টেশন মাস্টার নাজমুল হুসাইন বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, শনিবার ভোরে কালবৈশাখীর তাণ্ডবে আলমডাঙ্গা-হালসার মাঝামাঝি জায়গায় রেললাইনের ওপর বেশ কিছু গাছ ভেঙে পড়ে। এতে সারা দেশের সঙ্গে খুলনার ট্রেন চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। পাঁচ ঘণ্টার ব্যবধানে গাছগুলো অপসারণ করা হলে ট্রেন চলাচল স্বাভাবিক হয়।

এর আগে শনিবার ভোরে আলমডাঙ্গা উপজেলায় আধা ঘণ্টারও বেশি সময় ধরে কালবৈশাখী ঝড় তাণ্ডব চালায়। এতে উপজেলার কয়েকটি ইউনিয়নে কয়েকশ বাড়িঘরের চালা উড়ে যায়। বিদ্যুতের খুঁটিসহ উঠতি ফসল, ধান, পান বরজের ব্যাপক ক্ষতি হয়। আলমডাঙ্গা-হালসার মাঝামাঝি স্থানে রেললাইনের ওপর গাছ ভেঙে পড়ে। এতে ভোর সাড়ে ৫টা থেকে ট্রেন চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। এছাড়া কুষ্টিয়া-চুয়াডাঙ্গা সড়কে গাছ ভেঙে পড়ায় সড়ক পথে যান চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। পরে আলমডাঙ্গা ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের কর্মীরা সড়কের গাছ অপসারণ করলে যান চলাচল স্বাভাবিক হয়।

তৃতীয় গণবিজ্ঞপ্তি: ভুল চাহিদায় সুপারিশপ্রাপ্তদের এনটিআরসিএতে তথ্য পাঠানোর নির্দেশ

নিজস্ব প্রতিবেদক,১৮ মে ২০২২: তৃতীয় গণবিজ্ঞপ্তিতে বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ভুল চাহিদায় সুপারিশপ্রাপ্তদের আগামী ২৬ জুনের মধ্যে তথ্য পাঠানোর নির্দেশ দিয়েছে বেসরকারি শিক্ষক নিবন্ধন ও প্রত্যয়ন কর্তৃপক্ষ (এনটিআরসিএ)।

বুধবার (১৮ মে) এক বিজ্ঞপ্তিতে এই নির্দেশনা দেয় এনটিআরসিএ।

নির্দেশনায় বলা হয়, ৩য় নিয়োগ বিজ্ঞপ্তির আওতায় যারা এমপিও পদে সুপারিশপ্রাপ্ত হয়ে বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে যোগদান করেছেন কিন্তু পদ সংক্রান্ত জটিলতা, জাতীয়করণ, ভুল চাহিদা ইত্যাদি কারণে এমপিওভুক্ত হতে পারেননি কিংবা সুপারিশপ্রাপ্ত হয়ে কোনো শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে যোগদান করতে পারেননি, তাদেরকে আগামী ২৬ জুন বিকেল ৫টার মধ্যে ছক অনুসারে প্রয়োজনীয় তথ্য প্রমাণসহ এনটিআরসিএ’র কার্যালয়ে সরাসরি আবেদনপত্র পৌঁছানোর জন্য অনুরোধ করা হলো।

এতে আরও বলা হয়, আবেদনপত্রের সাথে এনটিআরসিএ কর্তৃক ইস্যুকৃত নিয়োগ সুপারিশপত্র, যে আবেদনের ভিত্তিতে নিয়োগ সুপারিশ পেয়েছেন সে আবেদনপত্র বা এপ্লিকেন্টস কপি এবং এনটিআরসিএ’র নিবন্ধন সনদের কপি দাখিল করতে হবে। যারা উক্ত বিষয়ে ইতঃপূর্বে এনটিআরসি-তে আবেদন করেছেন, তাদেরকেও উল্লিখিত ছক অনুযায়ী তথা/প্রমাণসহ পুনরায় আবেদন করার জন্য অনুরোধ করা হলো।

নির্দেশনায় আরও বলা হয়েছে, যারা নন-এমপিও পদে আবেদন করে নন-এমপিও পদে সুপারিশ প্রাপ্ত হয়েছেন তাদের ক্ষেত্রে এ ধরণের আবেদন করার প্রয়োজন নেই। ২৬ জুনের পরে এ ধরনের কোনো আবেদন গ্রহণ করা হবে না।

এবার বাংলাদেশ ব্যাংক কর্মকর্তাদের বিদেশ ভ্রমণ বাতিল

নিজস্ব প্রতিবেদক,১৮ মে ২০২২:

বাংলাদেশ ব্যাংকের টাকায় কর্মকর্তা-কর্মচারীদের বিদেশ ভ্রমণের জন্য জারি করা সব আদেশ বাতিল হয়েছে। এছাড়া নতুন করে কেন্দ্রীয় ব্যাংকের টাকায় ও আংশিক অর্থায়নে বিদেশ ভ্রমণ বন্ধ রাখারও সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।

বুধবার (১৮ মে) বাংলাদেশ ব্যাংকের অভ্যন্তরীণ এক নির্দেশনায় এই তথ্য তুলে ধরা হয়েছে।

অর্থ মন্ত্রণালয়ের অর্থ বিভাগের পরিপত্রে বলা হয়, রাষ্ট্রায়ত্ত, স্বায়ত্তশাসিত, আধা সরকারি প্রতিষ্ঠান, রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানের নিজস্ব তহবিলের অর্থে বিদেশ ভ্রমণ বন্ধ থাকবে। তবে নিজস্ব অর্থায়নে চিকিৎসা ও হজ পালনের জন্য বিদেশে ভ্রমণ করা যাবে।

রিজার্ভের ওপর চাপ কমাতে ও ডলারের সংকট নিরসনে বিলাসপণ্য আমদানি নিরুৎসাহিত করছে বাংলাদেশ ব্যাংক। তার অংশ হিসেবে সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীদের বিদেশ ভ্রমণে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়েছে।

এর আগে গত সোমবার সরকারি কর্মচারী ও কর্মকর্তাদের রাষ্ট্রায়ত্ত, স্বায়ত্তশাসিত, আধা সরকারি প্রতিষ্ঠান, রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানের কর্মচারীদের বিদেশ ভ্রমণ বন্ধের নির্দেশ দেয় অর্থ মন্ত্রণালয়। এরপর এই সিদ্ধান্ত নেয় কেন্দ্রীয় ব্যাংক।

ক্লাসরুমে ফ্যান খুলে পড়ে চার ছাত্রী আহত

লালমনিরহাট প্রতিনিধি, ১৮ মে ২০২২:
লালমনিরহাট সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের শ্রেণিকক্ষে ফ্যান খুলে পড়ে চার ছাত্রী আহত হয়েছেন।

বুধবার দুপুরে ওই বিদ্যালয়ের নবম শ্রেণিতে ক্লাস চলাকালীন সময়ে এ ঘটনা ঘটে বলে জানা গেছে। আহতরা হলেন- নবম শ্রেণির ছাত্রী হিতৈষী রায়, সাবিহা, জাহান এরিনা ও সিফা।

বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক আব্দুল আওয়াল বলেন, নবম শ্রেণিতে সহকারী শিক্ষক সুব্রত রায়ের ইংরেজি ক্লাস চলছিল। এ সময় নবম শ্রেণির শ্রেণিকক্ষ থেকে ছাত্রীদের চিৎকার শুনে ছুটে গিয়ে দেখি সিলিং ফ্যান খুলে মাথায় পড়ে চার ছাত্রী আহত হয়েছে। আহত ছাত্রীদের মধ্যে হিতৈষী রায়ের কপালে কেটে যায়। বাকি তিন ছাত্রী হাতে ও পিঠে আঘাত পেয়েছে।

তিনি আরও বলেন, তাৎক্ষণিক আহত চার ছাত্রীকে সদর হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। আহত তিন ছাত্রীকে প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়া হয় এবং হিতৈষী রায়ের কপালে সেলাই দেয়া হয়েছে। তবে আঘাত গুরুতর না হওয়ায় প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়ে চার ছাত্রীকেই বাড়ি পাঠানো হয়েছে।

বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষিকা শামীমা বেগমের সাথে মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, আমি অসুস্থ, রংপুরে চিকিৎসা নিচ্ছি।

প্রতিটি মাদ্রাসা ভবনে থাকতে হবে সাইনবোর্ড

ডেস্ক,১৭ মে ২০২২ঃ দেশের অধিকাংশ মাদ্রাসা ভবনে নাম-ঠিকানা সম্বলিত কোনো সাইনবোর্ড নেই। এছাড়াও রাস্তার পাশে ও দৃশ্যমান স্থানে দিক-নির্দেশক চিহ্ন না থাকায় মাদ্রাসাগুলোর অবস্থান বা পরিদর্শনে সমস্যা হয়। যে কারণে এসব মাদ্রাসায় নাম ঠিকানাসহ সাইনবোর্ড স্থাপনের নির্দেশ দিয়েছে মাদ্রাসা শিক্ষা অধিদপ্তর।

আরো খবরঃ পদোন্নতি পাচ্ছেন মাধ্যমিকের ২৩৪ শিক্ষক

মঙ্গলবার প্রকাশিত মাদ্রাসা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক কে. এম. রুহুল আমীন এই নির্দেশনায় সই করেন।

এতে বলা হয়, মাদ্রাসাগুলো পরিদর্শন অথবাা দাপ্তরিক প্রয়োজনে সঠিক অবস্থান করা কষ্টসাধ্য হয়ে পড়ে। প্রাথমিক, মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক পর্যায়ের সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের দিক-নির্দেশক বা সাইনবোর্ড দৃশ্যমান স্থানে থাকলেও অধিকাংশ মাদ্রাসায় তা দেখা যায় না। এছাড়াও শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের নাম ঠিকানা সম্বলিত সাইনবোর্ড স্থাপনের বিষয়ে সরকারি নির্দেশনাও রয়েছে।

একারণে দেশের সকল কামিল/কাজিল/আলিম/দাখিল/এবতেদায়ী মাদ্রাসার মূলভবন ও প্রবেশপথে নাম ঠিকানা সম্বলিত সাইনবোর্ড এবং বড় রাস্তার পাশে কিংবা দৃশ্যমান স্থানে দিক-নির্দেশক চিহ্নসহ মাদ্রাসার নাম ঠিকানা সম্বলিত সাইনবোর্ড (বাংলায়) স্থাপনের জন্য অনুরোধ জানানো হয়েছে।

পদোন্নতি পাচ্ছেন মাধ্যমিকের ২৩৪ শিক্ষক

নিজস্ব প্রতিবেদক,১৭ মে ২০২২: সরকারি মাধ্যমিকের ২৩৪ জন শিক্ষককে পদোন্নতি দিচ্ছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়। এর মধ্যে জেলা শিক্ষা কর্মকর্তা ও সহকারী প্রধান শিক্ষক থেকেও প্রধান শিক্ষক পদে পদোন্নতি দেয়া হবে।

শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের দায়িত্বশীল সূত্র শিক্ষাবার্তাকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছে।

শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের উর্ধ্বতন এক কর্মকর্তা নাম প্রকাশ না করার শর্তে বলেন, পদোন্নতিযোগ্য ৪২৩ জন শিক্ষকের তথ্য মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তর (মাউশি) থেকে মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হয়। তবে অনেকের চাকরি জীবনে সমস্যা ও বার্ষিক গোপনীয় অনুবেদনে (এসিআর) সমস্যা থাকায় ডিপিসি সভায় অনেকেই পদোন্নতিযোগ্য হতে পারেননি। সর্বশেষ সভায় ২৩৪ জনের পদোন্নতি দেয়ার বিষয়টি চূড়ান্ত হয়।

মন্ত্রণালয় সূত্র জানায়, শিক্ষকদের পদোন্নতির ফাইলটি শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনির কাছে পাঠানো হয়েছে। তিনি ফাইলে স্বাক্ষর করলেই জিও জারি করা হবে। তবে সম্প্রতি শিক্ষামন্ত্রী দেশের বাইরে থাকায় ফাইলটি এখনো সই করা হয়নি।

জানতে চাইলে এ বিষয়ে মন্ত্রণালয়ের এক কর্মকর্তা বলেন, বিদেশ থেকেও শিক্ষামন্ত্রীর ফাইলে সই করার সুযোগ রয়েছে। কারণ ফাইলটি অনলাইনেই সাবমিট করা হয়েছে। বিদেশে তিনি ব্যস্ত থাকতে পারেন যেকারণে ফাইলটি তার নজরে আসেনি। আজ (মঙ্গলবার) সাইন করলে কালই জিও জারি করা হবে।

সারাদেশে মাধ্যমিক পর্যায়ে সরকারি বিদ্যালয় আছে ৩৫১টি। অধিকাংশ বিদ্যালয়ে ভারপ্রাপ্ত প্রধানশিক্ষক দিয়েই গোজামিলে চলছে কাজ। সম্প্রতি এই অচলাবস্থা দূর করতেই বিশেষ এ উদ্যোগ নিয়েছে সরকার। এর আগে সরকার ফিডারপদ পূর্ণ না হওয়ায় এ পদে পদোন্নতি দেয়া যায়নি।

নিয়ম অনুযায়ী প্রধান শিক্ষক হতে হলে সহকারী প্রধান শিক্ষক হিসেবে পাঁচ বছর কর্মরত থাকার বিধান ছিল। সহকারী প্রধান শিক্ষক পদে এমন অভিজ্ঞতা সম্পন্ন না থাকায় পদোন্নতি দেয়াও সম্ভব হচ্ছিলো না। কিন্ত ৫ বছরের চাকরির অভিজ্ঞতার যে নিয়ম ছিলো তা প্রমার্জন করে পদোন্নতি দিতে চলেছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়।

শিক্ষা মন্ত্রণালয় ও মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদপ্তরের একাধিক কর্মকর্তা বলেন, দীর্ঘদিন সরকারি মাধ্যমিক চলছিলো ভারপ্রাপ্ত প্রধানশিক্ষকদের উপর ভর করে। এছাড়াও জেলা পর্যায়ে ছিলো না জেলা শিক্ষা কর্মকর্তা। আশা করা হচ্ছে সামনে নতুন শিক্ষকদের যোগদান ও এই পদোন্নতি সম্পন্ন হলে সরকারি মাধ্যমিকে গতি ফিরবে।

এ দিকে পদোন্নতিযোগ্য হওয়ার পরও অকারণেই অনেকেই পদোন্নতি পাচ্ছেন না বলে অভিযোগ উঠেছে। তাদের একজন তেজগাঁও সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারী প্রধান শিক্ষক নাহিদ সুলতানা। সর্বশেষ ডিপিসি সভায় তাকে পদোন্নতি দেয়া হয়নি। কারণ হিসেবে বলা হয়েছে, তার এসিআর খারাপ।

নাহিদ সুলতানা জানান, আমার বিদ্যালয়ের তৎকালীন প্রধান শিক্ষিকা রেবেকা সুলতানার বিরুদ্ধে আর্থিক অনিয়ম ও দুর্নীতির তদন্ত করে মাউশি। শিক্ষকদের অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে এ তদন্ত করা হয়। এ তদন্তের সঙ্গে আমার কোনো সংশ্লিষ্টতা না থাকলেও সম্পূর্ণ আক্রোশের বশবর্তী হয়ে প্রধান শিক্ষিকা রেবেকা সুলতানা আমাকে ক্ষতিগ্রস্ত করার উদ্দেশ্যে এসিআর খারাপ দেন। বিষয়টি আমি শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সচিব, মাউশি মহাপরিচালক ও মাউশি উপ-পরিচালককে সাক্ষাৎ করে জানিয়েছি। এরপরও কর্তৃপক্ষ কোনো ব্যবস্থা নেয়নি।

এই সহকারী প্রধান শিক্ষক আক্ষেপ করে বলেন, আমার চাকরি জীবন শেষের দিকে। হয়তো প্রধান শিক্ষক পদে পদোন্নতি ছাড়াই আমাকে অবসরে যেতে হবে।

জানতে চাইলে মাউশির উপ-পরিচালক আজিজ উদ্দিন  বলেন, কোনো শিক্ষক যদি তার অধিস্থন শিক্ষকের এসিআর খারাপ দেন সেক্ষেত্রে আরেকটি সুযোগ থাকে। সেটি হলো ওই এসিআরে যিনি প্রতিস্বাক্ষর করেছেন। আমার জানা মতে তার তিন বছরের এসিআরে দুজন ডিডির প্রতিস্বাক্ষর রয়েছে। কিন্তু তারাও তৎকালীন প্রধান শিক্ষকের এসিআরের বিষয়ে বিরুপ কোনো মন্তব্য করেননি। যেকারণে তাকে পদোন্নতি দেয়া যায়নি।

প্রসঙ্গত, সর্বশেষ বিভাগীয় পদোন্নতি কমিটির বৈঠকের পর ৩০ ডিসেম্বর পদোন্নতি ঘোষণার কথা ছিলো। এর আগেই কিছু অসাধু কর্মচারীর যোগসাজশে অনেক শিক্ষকের বার্ষিক গোপনীয় অনুবেদন (এসিআর) হারিয়ে যায়। ফলে সর্বশেষ পদোন্নতি কমিটির যে বৈঠক ছিল তা স্থগিত করা হয়। কারণ হিসেবে জানা যায়, জানুয়ারি মাসেই অন্তত ৩০-৬০ জন শিক্ষক অবসরে যাবেন। যেকারণে নির্দিষ্ট সময়ে পদোন্নতির ঘোষণা না হওয়ায় পেছনের সিরিয়ালের একাধিক শিক্ষক পদোন্নতির সুযোগ পাবেন।

আজ সন্ধ্যা থেকে শুরু ঢাবি ভর্তির পরীক্ষার প্রবেশপত্র সংগ্রহ

নিজস্ব প্রতিবেদক,১৬ মে ২০২২ঃ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) ২০২১-২২ শিক্ষাবর্ষের স্নাতক প্রথম বর্ষে ভর্তি পরীক্ষার আবেদনকৃত শিক্ষার্থীরা আজকে থেকে তাদের পরীক্ষার প্রবেশপত্র ডাউনলোড করতে পারবেন।

আজ মঙ্গলবার সন্ধ্যা থেকে বিশ্ববিদ্যালয়ের ওয়েবসাইট থেকে প্রবেশপত্র ডাউনলোড করা যাবে।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অনলাইন ভর্তি কমিটির আহ্বায়ক এবং বিশ্ববিদ্যালয়ের কম্পিউটারবিজ্ঞান ও প্রকৌশল বিভাগের অধ্যাপক মো. মোস্তাফিজুর রহমান বাংলাদেশ জার্নালকে বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

আজ সন্ধ্যা ৬ টা থেকে ‘গ’ ও ‘খ’ ইউনিটের প্রবেশপত্র পাওয়া যাবে। এছাড়া অন্যান্য ইউনিটের প্রবেশপত্র ডাউনলোড করা যাবে রাত সাড়ে ৮টা থেকে। প্রত্যেকটি ইউনিটের পরীক্ষা শুরুর এক ঘণ্টা আগ পর্যন্ত প্রবেশপত্র ডাউনলোড করা যাবে।

এবার ৬ হাজার ৩৫টি আসনের জন্য ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ওয়েবসাইটের মাধ্যমে গত ২০ এপ্রিল থেকে শুরু করে ১০ মে পর্যন্ত আবেদন নেয়া হয়।‌ বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় ভর্তি অফিস থেকে পাওয়া সর্বশেষ তথ্য অনুযায়ী, ‘ক’ ইউনিটের ১ হাজার ৮৫১ টি আসনের বিপরীতে আবেদন করেছেন ১ লক্ষ ১৫ হাজার ৭২৬ জন। এ ছাড়া ‘খ’ ইউনিটের ১ হাজার ৭৮৮ আসনের বিপরীতে ৫৮ হাজার ৫৬৫ জন, ‘গ’ ইউনিটে ৯৩০ আসনের বিপরীতে ৩০ হাজার ৭০৪ জন, ‘ঘ’ ইউনিটে ১ হাজার ৩৩৬ আসনের বিপরীতে ৭৮ হাজার ৪৫ জন এবং ‘চ’ ইউনিটে ১৩০ আসনের বিপরীতে আবেদন করেছেন ৭ হাজার ৪৪০ জন। এ হিসেবে মোট আবেদনকারীর সংখ্যা ২ লক্ষ ৯০ হাজার ৪৮০ জন।

অনলাইনে আবেদনের পর চারটি রাষ্ট্রায়ত্ত বাণিজ্যিক ব্যাংকের (সোনালী, অগ্রণী, জনতা ও রূপালী) যেকোনো শাখায় প্রার্থীদের আবেদন ফি জমা দিতে হয়েছে। এ বছর ভর্তি আবেদন ফি ৬৫০ টাকা থেকে বাড়িয়ে ১ হাজার টাকা করা হয়। সে হিসেবে এবার মোট ২৯ কোটি ৪ লক্ষ ৮০ হাজার টাকার ফর্ম বিক্রি করেছে বিশ্ববিদ্যালয়।

এর আগে ৭ এপ্রিল নবাব নওয়াব আলী চৌধুরী সিনেট ভবন মিলনায়তনে উপাচার্যের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত বিশ্ববিদ্যালয়ের সাধারণ ভর্তি কমিটির সভায় পরীক্ষার তারিখ চূড়ান্ত করা হয়। ২০২২-২৩ শিক্ষাবর্ষ থেকে পাঁচটি ইউনিটের পরিবর্তে চারটি ইউনিটে যাথাক্রমে ক, খ, গ এবং চ পরীক্ষা নেয়ার সিদ্ধান্ত চূড়ান্ত করা হয়।

ভর্তি কমিটির সিদ্ধান্ত অনুযায়ী, আগামী ৩ জুন ব্যবসা শিক্ষা অনুষদভুক্ত ‘গ’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষার মাধ্যমে শুরু হবে এবারের ভর্তি পরীক্ষা। ৪ জুন কলা অনুষদভুক্ত ‘খ’ ইউনিট, ১০ জুন বিজ্ঞান অনুষদভুক্ত ‘ক’ ইউনিট এবং ১১ জুন সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদভুক্ত ‘ঘ’ ইউনিট এবং ১৭ জুন চারুকলা অনুষদভুক্ত ‘চ’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা (সাধারণ জ্ঞান) অনুষ্ঠিত হবে।

‘ক’, ‘খ’, ‘গ’ এবং ‘ঘ’ ইউনিটের পরীক্ষা বেলা ১১টা থেকে দুপুর সাড়ে ১২টা পর্যন্ত অনুষ্ঠিত হবে। ‘চ’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা (সাধারণ জ্ঞান) বেলা ১১টা থেকে সাড়ে ১১টা পর্যন্ত অনুষ্ঠিত হবে। শিক্ষার্থীদের সুবিধার্থে গত বছরের মতো এবারো ভর্তি পরীক্ষা ঢাকাসহ ৮টি বিভাগীয় শহরে অনুষ্ঠিত হবে।

প্রাথমিকে শিক্ষক নিয়োগের অ্যাপ্লিক্যান্ট কপির সমস্যা সমাধানে কাজ চলমান

নিজস্ব প্রতিবেদক,১৬ মে ২০২২ঃ সরকারি প্রাথমিকের নিয়োগ পরীক্ষায় যেসব প্রার্থী মৌখিক পরীক্ষার জন্য উত্তীর্ণ হয়েছেন তাদের জন্য জরুরি নির্দেশনা দিয়েছে প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তর (ডিপিই)। কিন্তু ওয়েবসাইটে প্রবেশ করতে না পারায় অনেকে প্রয়োজনীয় ডকুমেন্ট তুলতে পারছেন না। খুব শিগগিরই এ সমস্যার সমাধান করা হবে বলে আশ্বাস দিয়েছে প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তর।

প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের পলিসি এন্ড অপারেশন বিভাগের এক কর্মকর্তা জানান, এটি নিয়ে হাজার হাজার প্রার্থীর সমস্যা হচ্ছে বলে অভিযোগ আসছে। সার্ভার জটিলতায় এ সমস্যা সৃষ্টি হয়েছে। টেলিটক এটি নিয়ে কাজ করছে। খুব শিগগিরই এ সমস্যার সমাধান হবে।

এর আগে গত শনিবার প্রকাশিত এক নির্দেশনায় বলা হয়, প্রার্থীকে আসল সনদসহ অনলাইনে আবেদনের আপলোডকৃত ছবি, আবেদনের কপি, লিখিত পরীক্ষার প্রবেশপত্র, নাগরিকত্ব সনদ, স্থায়ী ঠিকানার স্বপক্ষে স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান/ওয়ার্ড কাউন্সিলরের সনদপত্র, জাতীয় পরিচয় পত্র এবং শিক্ষাগত যোগ্যতার সনদসহ পোষ্য সনদ (প্রযোজ্য ক্ষেত্রে) ও অন্যান্য প্রয়োজনীয় কাগজপত্র কমপক্ষে নবম গ্রেডের গেজেটেড কর্মকর্তা কর্তৃক সত্যায়িত করে ২৩ মের মধ্যে (অফিস চলাকালীন) স্ব স্ব জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসে আবশ্যিকভাবে জমা দিয়ে প্রাপ্তি স্বীকারপত্র সংগ্রহ করতে হবে।

জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসে সকল সনদ ও প্রয়োজনীয় কাগজপত্রের ফটোকপি (সত্যায়িত) জমা প্রদানের সময় উক্ত কাগজপত্রের মূলকপি জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসারকে প্রদর্শন করতে হবে। মৌখিক পরীক্ষার জন্য নির্বাচিত প্রার্থীগণ ২৩ মে, ২০২২ তারিখের মধ্যে উপরে উল্লিখিত কাগজপত্র জমা দিতে ব্যর্থ হলে তাদের অনুকূলে মৌখিক পরীক্ষার কার্ড ইস্যু করা হবে না।

মৌখিক পরীক্ষার সময় উপরে বর্ণিত সকল সনদপত্র, প্রাপ্তি স্বীকারপত্র ও অন্যান্য কাগজপত্রের মূল কপি প্রার্থীকে সঙ্গে আনতে হবে। মৌখিক পরীক্ষার তারিখ পরবর্তীতে জানানো হবে এবং তা প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের ওয়েবসাইটে (www.dpe.gov.bd) প্রকাশ করা হবে।

প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগঃ দ্বিতীয় ধাপের নিয়োগ পরীক্ষার প্রবেশপত্র সংগ্রহের পরামর্শ

নিজস্ব প্রতিবেদক, ১৫ মে ২০২২
এবার তিন পর্যায়ে অনুষ্ঠিত হচ্ছে সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়গুলোর সহকারী শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষা। প্রথম ধাপের পরীক্ষা ও ফল প্রকাশ হয়েছে ইতোমধ্যেই। তবে এবার দ্বিতীয় ধাপের নিয়োগ পরীক্ষা আগামী ২০ মে শুক্রবার ১১টা থেকে ১২টা পর্যন্ত অনুষ্ঠিত হবে।

রোববার প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয় এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানিয়েছে।

এতে বলা হয়, পরীক্ষার্থীরা admit.dpe.gov.bd- ওয়েবসাইটে Username এবং Password দিয়ে অথবা এসএসসির রোল, বোর্ড ও পাশের সন দিয়ে লগ ইন করে প্রবেশপত্র ডাউনলোড করে রঙিন প্রিন্ট কপি সংগ্রহ করতে পারবেন।

প্রার্থীদেরকে অবশ্যই প্রবেশপত্রের রঙিন প্রিন্ট এবং নিজের জাতীয় পরিচয়পত্র সঙ্গে আনতে হবে। ওএমআর শিট পূরণের নির্দেশাবলী এবং পরীক্ষা সংক্রান্ত অন্যান্য তথ্য প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের ওয়েবসাইটে এবং প্রবেশ পত্রে পাওয়া যাবে।

এর আগে ২২ এপ্রিল প্রাথমিকে নিয়োগের প্রথম ধাপের পরীক্ষা হয় ২২ জেলায়। এর মধ্যে ১৪ জেলায় সম্পূর্ণ এবং ৮ জেলার আংশিক পরীক্ষা নেয়া হয়।

এর মধ্যে চাঁপাইনবাবগঞ্জ, মাগুরা, শেরপুর, গাজীপুর, নরসিংদী, মানিকগঞ্জ, ঢাকা, মাদারীপুর, মুন্সীগঞ্জ, লক্ষ্মীপুর, ফেনী, চট্টগ্রাম, মৌলভীবাজার, লালমনিরহাটে আবেদন করা পরীক্ষার্থীরা পরীক্ষায় বসেন।

সিরাজগঞ্জ, যশোর, ময়মনসিংহ, নেত্রকোণা, কিশোরগঞ্জ, টাঙ্গাইল, কুমিল্লা ও নোয়াখালীতে পরীক্ষায় বসেন আবেদনকারীদের একটি অংশ।

ভর্তির সুযোগ দাবিতে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য বরাবর স্মারকলিপি

নিজস্ব প্রতিবেদক,১৪ মে ২০২২ ঃ
জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ে ২০২১-২২ শিক্ষাবর্ষে ভর্তি আবেদনের সুযোগ দাবিতে উপাচার্য বরাবর স্মারকলিপি দিয়েছেন ২০২০ সালের এইচএসসি ইমপ্রুভমেন্টের শিক্ষার্থীরা। স্মারকলিপির সাথে ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থীদের একটি তালিকাও জমা দেওয়া হয়।

শনিবার (১৪ মে) গাজীপুরে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্যাম্পাসে এই স্মারকলিপি জমা দেওয়া হয়। ইমপ্রুভমেন্টের শিক্ষার্থীদের পক্ষে মো. সারফারাজ উদ্দীন ও মো. রাফিউ হাসান স্মারকলিপি জমা দেন।

স্মারকলিপিতে শিক্ষার্থীরা জানান, আমরা ২০১৭ সালে মাধ্যমিক পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হলেও অনেকেই অসুস্থতা, পারিবারিক, অর্থনৈতিকসহ নানা প্রতিকূলতার জন্য অনিয়মিত হয়ে এবং মানোন্নয়ন পরীক্ষা দিয়ে ২০২০ সালে উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হই। যারা অনিয়মিত তারা জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ে ২০২০-২১ শিক্ষাবর্ষেই প্রথমবার ভর্তির জন্য আবেদন করে এবং যারা মানোন্নয়ন তারা ২০১৯-২০ শিক্ষাবর্ষে ভর্তি হতে আবেদন করার যোগ্যতা না থাকায় ২০২০-২১ শিক্ষাবর্ষে প্রথমবার ভর্তির জন্য আবেদন করে। পূর্ববর্তী বছরগুলোর সার্কুলার অনুযায়ী জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ে ২০২১-২২ শিক্ষাবর্ষে দ্বিতীয়বার ভর্তির আবেদনের সুযোগ থাকা সত্ত্বেও ইমপ্রুভমেন্টের শিক্ষার্থীরা আবেদনের সুযোগ থেকে বঞ্চিত হবে।

শিক্ষার্থীরা বলেন, মেডিকেল-ডেন্টাল ও রাবির ভর্তি পরীক্ষায় মাধ্যমিকে তিন শিক্ষাবর্ষ বিবেচনা করে দ্বিতীয়বার পরীক্ষার সুযোগ দেয়া হয়েছে। এছাড়াও ঢাবি, বিইউপিসহ অনেক বিশ্ববিদ্যালয়ই ভর্তি পরীক্ষায় অনেক বছর ধরে মাধ্যমিকে তিন-চার শিক্ষাবর্ষ বিবেচনা করে পরীক্ষার সুযোগ প্রদান করে আসছে।

তারা জানান, আমরা করোনাকালীন ব্যাচ বিভিন্ন কারণে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছি। অনেকেই নিজের আপনজন হারিয়েছে, অনেকে আর্থিক সমস্যার কারণে আবেদন করতে পারেনি। আমাদের নানা প্রতিকূলতার মধ্য দিয়ে যেতে হয়েছে। আমাদের উচ্চশিক্ষা গ্রহণের ইচ্ছা থাকলেও ২০১৭ সালে এসএসসি পাস করায় অনিশ্চয়তার মধ্যে আছি। নিজেদের ভবিষ্যত স্বপ্নকে বাস্তবায়নের লক্ষ্যে আমরা আপনাদের দিকে তাকিয়ে আছি।

শিক্ষার্থীরা জানান, আমাদের মধ্যে অনেক শিক্ষার্থী এখনো কোনো বিশ্ববিদ্যালয়েই ভর্তি হতে পারেনি বরং উচ্চশিক্ষার বদলে অনেকেই লেখাপড়া ছেড়ে বিভিন্ন কাজের সাথে যুক্ত হয়েছে। এই অবস্থায় জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ে মাধ্যমিক ২০১৭ এবং উচ্চমাধ্যমিক ২০২০ সালে উত্তীর্ণ (অনিয়মিত ও মানোন্নয়ন) শিক্ষার্থীদেরকে দ্বিতীয়বার ভর্তি আবেদনের সুযোগ দিয়ে শিক্ষার্থীদের স্বপ্ন পূরণে এগিয়ে আসবেন বলেই আমাদের প্রত্যাশা।

মৌখিক পরীক্ষার জন্য ডিপিইর জরুরি নির্দেশনা

নিজস্ব প্রতিবেদক,১৪ মে ২০২২ ঃ সরকারি প্রাথমিকের নিয়োগ পরীক্ষায় যেসব প্রার্থী মৌখিক পরীক্ষার জন্য উত্তীর্ণ হয়েছেন তাদের জন্য জরুরি নির্দেশনা দিয়েছে প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তর (ডিপিই)।

শনিবার প্রকাশিত সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে স্বাক্ষর করেন পরিচালক (পলিসি অ্যান্ড অপারেশন) মনিষ চাকমা।

এতে বলা হয়, প্রার্থীকে আসল সনদসহ অনলাইনে আবেদনের আপলোডকৃত ছবি, আবেদনের কপি, লিখিত পরীক্ষার প্রবেশপত্র, নাগরিকত্ব সনদ, স্থায়ী ঠিকানার সপক্ষে স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান/ওয়ার্ড কাউন্সিলর এর সনদপত্র, জাতীয় পরিচয় পত্র এবং শিক্ষাগত যোগ্যতার সনদসহ পোষ্য সনদ (প্রযোজ্য ক্ষেত্রে) ও অন্যান্য প্রয়োজনীয় কাগজপত্র কমপক্ষে নবম গ্রেডের গেজেটেড কর্মকর্তা কর্তৃক সত্যায়িত করে ২৩ মে’র মধ্যে (অফিস চলাকালীন) স্ব স্ব জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসে আবশ্যিকভাবে জমা দিয়ে প্রাপ্তি স্বীকারপত্র সংগ্রহ করতে হবে।

জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসে সব সনদ ও প্রয়োজনীয় কাগজপত্রের ফটোকপি (সত্যায়িত) জমা প্রদানের সময় উক্ত কাগজপত্রের মূলকপি জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসারকে প্রদর্শন করতে হবে। মৌখিক পরীক্ষার জন্য নির্বাচিত প্রার্থীগণ ২৩ মে, ২০২২ তারিখের মধ্যে উপরে উল্লিখিত কাগজপত্র জমা দিতে ব্যর্থ হলে তাদের অনুকূলে মৌখিক পরীক্ষার কার্ড ইস্যু করা হবে না।

মৌখিক পরীক্ষার সময় উপরে বর্ণিত সকল সনদপত্র, প্রাপ্তি স্বীকারপত্র ও অন্যান্য কাগজপত্রের মূল কপি প্রার্থীকে সঙ্গে আনতে হবে। মৌখিক পরীক্ষার তারিখ পরবর্তীতে জানানো হবে এবং তা প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের ওয়েবসাইট (www.dpe.gov.bd)-এ প্রকাশ করা হবে।

Responsive WordPress Theme Freetheme wordpress magazine responsive freetheme wordpress news responsive freeWORDPRESS PLUGIN PREMIUM FREEDownload theme free

hit counter