Home » দৈনিক শিক্ষা

দৈনিক শিক্ষা

অনলাইনে শিক্ষার্থীদের জন্ম নিবন্ধন করার নির্দেশ

নিজস্ব প্রতিবেদক | ১১ মে, ২০২১
ষষ্ঠ থেকে দ্বাদশ শ্রেণির শিক্ষার্থীদের জন্ম নিবন্ধন অনলাইনে করার নির্দেশনা দিয়েছে সরকার। বাংলাদেশ শিক্ষাতথ্য ও পরিসংখ্যান ব্যুরো (ব্যানবেইস) রোববার (৯ মে) এ নির্দেশনা দিয়ে উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসারদের কাছে চিঠি পাঠিয়েছে।

এতে বলা হয়, বাংলাদেশ শিক্ষাতথ্য ও পরিসংখ্যান ব্যুরো বাস্তবায়নাধীন ‘এস্টাবলিশমেন্ট অব ইন্টিগ্রেটেড অ্যাডুকেশনাল ইনফরমেশন ম্যানেজমেন্ট সিস্টেম (আইইআইএমএস)’ শীর্ষক প্রকল্পের আওতায় সরকারের সিআরভিএস ব্যবস্থার আলোকে মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক স্তরের যষ্ঠ থেকে দ্বাদশ শ্রেণি পর্যন্ত সব শিক্ষার্থীর ডেটাবেজ প্রস্তুত ও ইউনিক আইডি দেওয়ার লক্ষ্যে মাঠ পর্যায়ে শিক্ষার্থী তথ্য ছক (হার্ডকপি) পূরণের কাজ চলমান রয়েছে।

যে সব শিক্ষার্থীর জন্ম নিবন্ধন নম্বর অনলাইনের মাধ্যমে দেওয়া হয়নি সে সব শিক্ষার্থীর জন্ম নিবন্ধন নম্বর অনলাইনের মাধ্যমে করে ফরমে লিপিবদ্ধ করার জন্য অনুরোধ করা হলো। কেননা শিক্ষার্থীর জন্ম সনদ নম্বর ও জন্ম তারিখ অনলাইনে রেজিস্ট্রার জেনারেলের কার্যালয়ের ডাটাবেজে যাচাই করার পর ইউআইডি দেওয়া হবে। হাতে লেখা জন্ম সনদের নম্বর অনলাইনে ভেরিফাই করা যাবে না।

Facebooktwitterlinkedinrssyoutubemailby feather

বুয়েটের ভর্তি পরীক্ষা পেছালো

নিজস্ব প্রতিবেদক | ১০ মে, ২০২১
করোনা পরিস্থিতির কারণে বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের ২০২০-২১ শিক্ষাবর্ষের ভর্তি পরীক্ষা পেছানো হল। রোববার (৯ মে) দুপুরে ভর্তি পরীক্ষা আয়োজক কমিটির সভায় এ সিদ্ধান্ত হয়।

বুয়েট জানিয়েছে, পরিস্থিতি বিবেচনা করে ভর্তি পরীক্ষার নতুন তারিখ একাডেমিক কাউন্সিলের মিটিংয়ে ঠিক করা হবে।

পূর্ব ঘোষণা অনুযায়ী আগামী ৩১ মে, ১ জুন এমসিকিউ পদ্ধতিতে ভর্তির প্রাথমিক বাছাই ও ১০ জুন লিখিত পরীক্ষা হওয়ার কথা ছিলো। তবে সাম্প্রতিক করোনা পরিস্থিতিতে সরকার ঘোষিত লকডাউনের কারণে এ সময় পরীক্ষা নেয়া সম্ভব হচ্ছে না।

Facebooktwitterlinkedinrssyoutubemailby feather

অনলাইনে লিখিত পরীক্ষা সম্ভব নয়

নিজস্ব প্রতিবেদক:

অনলাইনে সর্বোচ্চ এমসিকিউ পরীক্ষা নেয়া সম্ভব। রচনামূলক সম্ভব নয় বলে জানিয়েছেন আন্তঃশিক্ষা বোর্ডের সমন্বয়ক ও ঢাকা শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান প্রফেসর নেহাল আহমেদ।

শনিবার মুঠোফোনে আলাপকালে তিনি এসব কথা বলেন। নেহাল আহমেদ বলেন, আমরা আরো বৈঠক করে বিকল্প উপায়ে পড়ালেখা চালুর বিষয়ে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ে পরামর্শ পাঠাবো।

এদিকে দীর্ঘ ১৩ মাসের বেশি সময় ধরে বন্ধ রয়েছে দেশের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান। এই সময় হয়নি একাধিক পাবলিক পরীক্ষা। এমন পরিস্থিতিতে এসএসসি-এইচএসসিসহ পাবলিক পরীক্ষা অনলাইনে নেওয়া যায় কি-না এর জন্য শিক্ষা মন্ত্রণালয় দুটি কমিটি করে দিয়েছে।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে ঢাকা শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান ও আন্তঃশিক্ষা বোর্ডের সভাপতি অধ্যাপক নেহাল আহমেদ বলেন, আমরা চলতি বছরের এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষা ক্লাস করিয়েই নিতে চাই। সে লক্ষ্যে পরীক্ষার্থীদের জন্য সংক্ষিপ্ত সিলেবাস করা হয়েছে। কিন্তু করোনার কারণে আজকের সিদ্ধান্ত হয়তো কাল বদলাতে হচ্ছে। ফলে কবে পরীক্ষা নিতে পারব, তা এখনই বলা যাচ্ছে না। করোনা পরিস্থিতির দিকেই আমরা তাকিয়ে আছি।

জানা গেছে, এবারের এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষাসহ সব শ্রেণির ক্লাস-পরীক্ষা নিয়েই অনিশ্চয়তা তৈরি হয়েছে। ফলে বিকল্প উপায় খুঁজতে ঢাকা শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যানের নেতৃত্বে ১১ সদস্যের একটি কমিটি করেছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়। তারা এ বিষয়ে করণীয় ঠিক করবেন।

এর আগে গত ১ ফেব্রুয়ারি এসএসসি এবং ১ এপ্রিল থেকে এইচএসসি পরীক্ষা শুরুর কথা ছিল। কিন্তু করোনার কারণে পরীক্ষা নেওয়া সম্ভব হয়নি। তবে এসএসসির জন্য ৬০ কর্মদিবস এবং এইচএসসির জন্য ৮৪ কর্মদিবসের সংক্ষিপ্ত সিলেবাস করা হয়েছিল। এ ক্লাস করিয়ে দুই সপ্তাহ সময় দিয়ে দুটি পাবলিক পরীক্ষা নেওয়ার পরিকল্পনা ছিল। কিন্তু করোনার কারণে ২২ মে পর্যন্ত ছুটি বাড়ানোয় ক্লাস-পরীক্ষা নেওয়া অসম্ভব হয়ে পড়েছে।

এ বিষয়ে নেহাল আহমেদ বলেন, আমরা দুটি ভার্চুয়াল বৈঠক করেছি। অন্যান্য দেশে কী উপায়ে পড়ালেখা চলছে, কীভাবে পরীক্ষা নেওয়া হচ্ছে তা পর্যালোচনা করছি। কোনো দেশই করোনার সময়ে সরাসরি পাবলিক পরীক্ষা নেয়নি।

Facebooktwitterlinkedinrssyoutubemailby feather

এসএসসি-সমমানের ২৩ লাখ পরীক্ষার্থী দুশ্চিন্তায়, আগস্টে পরীক্ষার পরিকল্পনা

নিজস্ব প্রতিবেদক | ২৭ এপ্রিল, ২০২১:
সারাদেশের ১১টি শিক্ষা বোর্ডের প্রায় ২৩ লাখ মাধ্যমিক (এসএসসি) পরীক্ষার্থী দিশেহারা। কবে নাগাদ স্কুল খোলা হবে, কবে থেকে পরীক্ষা শুরু হবে- এসব প্রশ্নের উত্তর পাচ্ছেন না শিক্ষার্থী ও অভিভাবকরা।

এ অবস্থায় গত রোববার ঢাকা শিক্ষা বোর্ড চেয়ারম্যান অধ্যাপক নেহাল আহমদের সঙ্গে কথা বলেছে শিক্ষাবার্তা ডটকমকে। তিনি জানিয়েছেন, যখনই বিদ্যালয় খুলে দেওয়া সম্ভব হবে, তার পর থেকে ৬০ কর্মদিবস ক্লাস নেয়া হবে। এর পর আরও ১৫ দিন সময় দিয়ে তবেই এসএসসি ও সমমান পরীক্ষা নেওয়া হবে।

চেয়ারম্যান বলেন, এরই মধ্যে এ বছরের পরীক্ষার জন্য সংক্ষিপ্ত সিলেবাস প্রকাশ করেছে জাতীয় শিক্ষাক্রম ও পাঠ্যপুস্তক বোর্ড (এনসিটিবি)। ওই সিলেবাসের ওপরই এসএসসির প্রশ্নপত্র প্রণয়ন করা হবে।

চেয়ারম্যান বলেন, ক্লাস না নিয়ে কোনোভাবেই পরীক্ষা নেওয়া হবে না। সারাদেশে এবার প্রায় ২৩ লাখ শিক্ষার্থী এসএসসি ও সমমান পরীক্ষায় অবতীর্ণ হবে। এর মধ্যে ঢাকা বোর্ডের রয়েছে প্রায় পাঁচ লাখ। এখনও ফরম পূরণ চলছে। লকডাউনের কারণে সময়সীমা বাড়ানো হয়েছে।

শিক্ষা মন্ত্রণালয় থেকে জানা গেছে, ২৩ মে স্কুল-কলেজ খুলে দেওয়ার সরকারি সিদ্ধান্ত এখনো বহাল আছে। সবকিছু ঠিকঠাক থাকলে ২৩ মে স্কুল-কলেজ এবং ২৪ মে সরকারি-বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় খুলে দেওয়া হবে। এর পর ৬০ কর্মদিবস পাঠদান শেষে মাধ্যমিক পরীক্ষা নিতে চায় সরকার। সব মিলিয়ে আগস্টের শেষে মাধ্যমিক পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। তবে, যেভাবে করোনার সংক্রমণ বৃদ্ধি পাচ্ছে তাতে নতুন করেও ভাবতেও হতে পারে ছুটির বিষয়ে।

শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি এর আগে সাংবাদিকদের বলেছিলেন, সবকিছু বিবেচনায় নিয়ে এবারের এসএসসি ও এইচএসসির একটি সংক্ষিপ্ত সিলেবাস প্রণয়ন করা হয়েছে। তা সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে পাঠানোও হয়েছে। বিদ্যালয় যখনই খোলা সম্ভব হবে, ওই সংক্ষিপ্ত সিলেবাস পড়িয়ে শেষ করে, আরও অন্তত দু’সপ্তাহ সময় দিয়ে তবেই পরীক্ষা নেয়া হবে।

যশোর শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান মোল্লা আমীর হোসেনও একই কথা বলেন। তিনি বিজ্ঞানের শিক্ষার্থীদের ঘরে বসেই ব্যাপক প্রস্তুতি নিয়ে রাখার পরামর্শ দেন। তিনি বলেন, পড়াশোনা চালিয়ে যেতে হবে। অনলাইন ক্লাসগুলো ঠিকভাবে করতে হবে।

পরীক্ষা আয়োজনের সব প্রস্তুতি সম্পন্ন করার কথা জানিয়েছেন চট্টগ্রাম শিক্ষা বোর্ডর চেয়ারম্যান অধ্যাপক প্রদীপ চক্রবর্তীও। শতভাগ প্রস্তুত রয়েছেন জানিয়ে তিনি বলেন, ‘আমরা পরীক্ষা নিয়েই শিক্ষার্থীদের ফল দিতে চাই। সে লক্ষ্যে আমাদের সব প্রস্তুতি সম্পন্ন করা হয়েছে। স্কুল খোলার পর ৬০ কর্মদিবস ক্লাস করিয়ে তাদের পরীক্ষা গ্রহণের কথা মন্ত্রণালয় থেকে আমাদের জানানো হয়েছে। আমরা এখনও সেই সিদ্ধান্তের ওপর ভিত্তি করে আছি। লকডাউনের পর এ ব্যাপারে মন্ত্রীর সঙ্গে বোর্ডপ্রধানদের বৈঠকের কথা রয়েছে।’

সিলেট শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. রমা বিজয় সরকার সাংবাদিকদের বলেন, পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে যথাসময়ে আলোচনা করে সিদ্ধান্ত জানিয়ে দেয়া হবে। সিলেট বোর্ডে এসএসসিতে আনুমানিক সোয়া লাখ এবং এইচএসসিতে ৮০ হাজারের মতো শিক্ষার্থী এ বছর পরীক্ষা দেবে।

Facebooktwitterlinkedinrssyoutubemailby feather

প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ চান ১৬ তম নিবন্ধনকারীরা

নিজস্ব প্রতিবেদক,২৫ এপ্রিল ২০২১ খ্রিঃ

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হস্তক্ষেপ চেয়েছেন ১৬তম নিবন্ধন পরীক্ষার ফল প্রত্যাশীবৃন্দ কেন্দ্রীয় কমিটি। রোববার ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটিতে এক সংবাদ সম্মেলনে ৫ দফা দাবি জানান তারা।

সংবাদ সম্মেলনে বক্তারা বলেন, গত ৩০ মার্চ ৫৪ হাজার শিক্ষক নিয়োগে গণবিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করে এনটিআরসিএ। এমন সময় আমাদের মৌখিক পরীক্ষা চলছিল। কিন্তু চলমান লকডাউনে ৭ দিনের জন্য মৌখিক পরীক্ষা স্থগিত হয়ে যায়। এমন পরিস্থিতিতে এনটিআরসিএ কর্তৃপক্ষের কাছে দ্রুত মৌখিক পরীক্ষা সম্পন্ন ও ফলাফল ঘোষণার দাবি জানাই। কিন্তু এনটিআরসিএ অপরাগতা প্রকাশ করে। এছাড়াও শিক্ষামন্ত্রণালয় থেকে অনুমতি গ্রহণের কথা জানায়। যা অসম্ভব।

লিখিত আবেদনে তারা কয়েকটি দাবি তুলে ধরেন। দাবিগুলোর মধ্যে রয়েছে-

১. দ্রুত সময়ের মধ্যে সরাসরি বা ভার্চুয়াল মাধ্যমে মৌখিক পরীক্ষা শেষ করা।

২. করোনা পরিস্থিতির কারণে আগের নিবন্ধনকারীদের বয়স ৩৫ করা হয়েছে। সেহেতু ৪৩তম বিসিএস এর আদলে আবেদনের সময় বৃদ্ধি করে ১৬তমদের চলমান গণবিজ্ঞপ্তিতে অন্তর্ভুক্ত করা।

৩. ১ থেকে ১২তম নিবন্ধনকারীরা মৌখিক পরীক্ষা ছাড়াই গণবিজ্ঞপ্তিতে আবেদনের সুযোগ পাচ্ছে। সেহেতু ১৪তমদের আদলে আমাদেরকে সুযোগ দেওয়া।

৪. ১৬তমদের ক্ষেত্রে ইতোমধ্যে দুবছর অতিবাহিত হয়েছে। সময় বিবেচনা করে দ্রুত সময়ের মধ্যে ফল ঘোষণা করে চলমান তৃতীয় গণবিজ্ঞপ্তিতে আমাদের সুযোগ দেয়া হোক

৫. ১৬ তম নিবন্ধনকারীদের সুযোগ দিলে কারো ক্ষতি নেই তাই এ বিষয়ে প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা।

Facebooktwitterlinkedinrssyoutubemailby feather

এইচএসসির ফলে বৃত্তি, তালিকা প্রকাশ

ডেস্ক,২২ এপ্রিল:

করোনাভাইরাস মহামারীর কারণে ‘অটোপাস’ দেওয়া হয় ২০২০ সালের এইচএসসি পরীক্ষার্থীদের। পাবলিক এ পরীক্ষার ফলের ভিত্তিতে দেশের বিভিন্ন শিক্ষা বোর্ড থেকে মেধাবৃত্তি ও সাধারণ বৃত্তি পেয়েছেন ১০ হাজার ৫০১ শিক্ষার্থী। শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদফতর (মাউশি) সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

এদিকে, আজ বৃহস্পতিবার (২২ এপ্রিল) বিভিন্ন শিক্ষা বোর্ডর ওয়েবসাইটে বৃত্তিপ্রাপ্ত শিক্ষার্থীদের তালিকা প্রকাশ করছে সংশ্লিষ্ট বোর্ড কর্তৃপক্ষ। সর্বশেষ পাওয়া তথ্য অনুযায়ী, ঢাকা, সিলেট, বরিশাল ও কুমিল্লা শিক্ষা বোর্ডের ওয়েবসাইটে বৃত্তিপ্রাপ্ত শিক্ষার্থীদের তালিকা প্রকাশ করা হয়েছে। এছাড়া বাকি শিক্ষা বোর্ডগুলোও আজকের মধ্যে তাদের ওয়েবসাইটে বৃত্তিপ্রাপ্ত শিক্ষার্থীদের তালিকা প্রকাশ করবে বলে জানা গেছে।

মাউশি জানিয়েছে, এবার এইচএসসি পরীক্ষায় মেধাবৃত্তি পেয়েছেন মোট এক হাজার ১২৫ শিক্ষার্থী। অন্যদিকে সাধারণ বৃত্তি পেয়েছেন ৯ হাজার ৩৭৬ শিক্ষার্থী।

মেধাবৃত্তি পাওয়াদের মধ্যে- ঢাকা শিক্ষা বোর্ডে ৪২৭, ময়মনসিংহ শিক্ষা বোর্ডে ৭২, রাজশাহী শিক্ষা বোর্ডে ১৯৪, কুমিল্লা শিক্ষা বোর্ডে ৬৯, সিলেট শিক্ষা বোর্ডে ৩১, বরিশাল শিক্ষা বোর্ডে ৪১, যশোর শিক্ষা বোর্ডে ৯৪, চট্টগ্রাম শিক্ষা বোর্ডে ৮৬ ও দিনাজপুর শিক্ষা বোর্ডে ১১১ শিক্ষার্থী রয়েছেন।

আর সাধারণ বৃত্তিপ্রাপ্তদের মধ্যে- ঢাকা শিক্ষা বোর্ডে ২ হাজার ৭০০, ময়মনসিংহ শিক্ষা বোর্ডে ৬৫৯, রাজশাহী শিক্ষা বোর্ডে এক হাজার ২৬২, কুমিল্লা শিক্ষা বোর্ডে ৮৯৬, সিলেট শিক্ষা বোর্ডে ৫৯২, বরিশাল শিক্ষা বোর্ডে ৫৭০, যশোর শিক্ষা বোর্ডে এক হাজার দুই, চট্টগ্রাম শিক্ষা বোর্ডে ৭২৯, দিনাজপুর শিক্ষা বোর্ডে ৯৬৬ শিক্ষার্থী রয়েছেন।

যারা মেধা বৃত্তি পেয়েছেন তাদের মাসিক ৮২৫ টাকা ও বছরে এককালীন ১ হাজার ৮০০ টাকা দেওয়া হবে। আর সাধারণ বৃত্তিপ্রাপ্তদের মাসে ৩৭৫ টাকা এবং বছরে এককালীন ৭৫০ টাকা দেওয়া হবে।

Facebooktwitterlinkedinrssyoutubemailby feather

পরিচয়পত্র পাবেন প্রাথমিকের শিক্ষকরা

নিজস্ব প্রতিবেদক | ২২ এপ্রিল, ২০২১
সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক ও কর্মচারীরা আইডি কার্ড পাচ্ছেন। তাদের আইডি কার্ড দেয়ার নির্দেশ দিয়েছে প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তর। উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিস প্রধান শিক্ষক ও সহকারী শিক্ষকদের পরিচয়পত্র ইস্যু করবে।

বুধবার (২১ এপ্রিল) প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তর থেকে জারি করা এক আদেশে এ তথ্য জানা গেছে।

Facebooktwitterlinkedinrssyoutubemailby feather

তৃতীয় গণবিজ্ঞপ্তিতে দিনে দুই লাখ আবেদন

নিজস্ব প্রতিবেদক,২১ এপ্রিল:

গত ৪ এপ্রিল থেকে এ পর্যন্ত সারাদেশ থেকে ৩৪ লাখ ৭০ হাজার নিবন্ধিত চাকরিপ্রত্যাশীর আবেদন জমা হয়েছে। অনেকে নিয়োগ নিশ্চিত করতে ৫০০টি পর্যন্ত আবেদন করেছেন। প্রতিটি আবেদন বাবদ ১০০ টাকা করে মোট ৩৪ কোটি ৭০ লাখ টাকা আয় করেছে প্রতিষ্ঠানটি। এনটিআরসিএ সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।
আরো খবর

দৈনিক সংক্রমণে বিশ্ব রেকর্ড, মৃত্যু ছাড়াল দু’হাজার

এনটিআরসিএ’র চেয়ারম্যান আশরাফ উদ্দিন বলেন, অনেকে চাকরি নিশ্চিত করতে অনেকগুলো করে আবেদন করেছেন। যারা নম্বরে কিছু পিছিয়ে রয়েছেন তারা কিছুটা দুশ্চিন্তায় রয়েছেন, তারা চাকরি নিশ্চিত করতে বেশি আবেদন করেছেন। যারা নম্বরে এগিয়ে রয়েছেন তারা বেশি আবেদন করছেন না।

তিনি আরো বলেন, ১৬তম নিবন্ধন পরীক্ষা শেষ না হওয়ায় তাদের তৃতীয় ধাপে নিয়োগ কার্যক্রমে যোগদানের সুযোগ দেয়া সম্ভব হয়নি। তবে তারা লিখিতভাবে এ পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করতে একাধিক আবেদন জানিয়ে চলমান নিয়োগ পরীক্ষা স্থগিত রাখতে অনুরোধ জানাচ্ছেন।

নিয়োগ কার্যক্রম শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের নির্দেশে পরিচালিত হচ্ছে উল্লেখ করে আশফাক উদ্দিন বলেন, আমরা চাইলেও এ কার্যক্রম স্থগিত রাখতে পারি না। বিষয়টি তাদের বোঝানোর চেষ্টা করেছি। আগামী তিন/চার মাস পর চতুর্থ ধাপে নিয়োগ কার্যক্রম শুরু করা হবে বলে তাদের প্রতিশ্রুতি দেওয়া হয়েছে বলে জানান তিনি।

উল্লেখ্য, বেসরকারি স্কুল-কলেজ, কারিগরি ও মাদ্রাসা শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে ৫৪ হাজার ৩০৪টি শূন্য পদে নিয়োগ কার্যক্রম শুরু করেছে এনটিআরসিএ। শিক্ষক নিয়োগের জন্য গত ৩০ মার্চ গণবিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হয়েছে। ৪ এপ্রিল থেকে আবেদন শুরু হয়ে চলবে আগামী ৩০ এপ্রিল পর্যন্ত।

Facebooktwitterlinkedinrssyoutubemailby feather

বৃত্তি পেলো সাড়ে ১০ হাজার শিক্ষার্থী

নিজস্ব প্রতিবেদক,১৬ এপ্রিল:

২০২০ সালের উচ্চ মাধ্যমিক সার্টিফিকেট (এইচএসসি) পরীক্ষার ফলের ভিত্তিতে মেধাবৃত্তি ও সাধারণ বৃত্তি পেয়েছেন ১০ হাজার ৫০১ জন।
আরো খবর

লকডাউনের মধ্যেই ৯ শিক্ষা কর্মকর্তাকে স্ট্যান্ড রিলিজ

শুক্রবার মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তর সূত্রে জানা গেছে, এবার এইচএসসি পরীক্ষায় মেধাবৃত্তি পেয়েছেন ১ হাজার ১২৫ জন এবং সাধারণ বৃত্তি পেয়েছেন ৯ হাজার ৩৭৬ জন।

মেধাবৃত্তি পাওয়া শিক্ষার্থীদের মধ্যে ঢাকা শিক্ষা বোর্ডে ৪২৭ জন, ময়মনসিংহ শিক্ষা বোর্ডে ৭২ জন, রাজশাহী শিক্ষা বোর্ডে ১৯৪ জন, কুমিল্লা শিক্ষা বোর্ডে ৬৯ জন, সিলেট শিক্ষা বোর্ডে ৩১ জন, বরিশাল শিক্ষা বোর্ডে ৪১ জন, যশোর শিক্ষা বোর্ডে ৯৪ জন, চট্টগ্রাম শিক্ষা বোর্ডে ৮৬ জন এবং দিনাজপুর শিক্ষা বোর্ডে ১১১ জন।

সাধারণ বৃত্তি পেয়েছেন ঢাকা শিক্ষা বোর্ডে ২ হাজার ৭০০ জন, ময়মনসিংহ শিক্ষা বোর্ডে ৬৫৯ জন, রাজশাহী শিক্ষা বোর্ডে ১ হাজার ২৬২ জন, কুমিল্লা শিক্ষা বোর্ডে ৮৯৬ জন, সিলেট শিক্ষা বোর্ডে ৫৯২ জন, বরিশাল শিক্ষা বোর্ডে ৫৭০ জন, যশোর শিক্ষা বোর্ডে ১ হাজার ২ জন, চট্টগ্রাম শিক্ষা বোর্ডে ৭২৯ জন, দিনাজপুর শিক্ষা বোর্ডে ৯৬৬ জন।

মেধাবৃত্তি হিসেবে মাসিক ৮২৫ টাকা ও বছরে এককালীন ১৮০০ টাকা দেওয়া হবে। সাধারণ বৃত্তিপ্রাপ্তদের মাসিক ৩৭৫ টাকা এবং বছরে এককালীন ৭৫০ টাকা দেওয়া হবে। বৃত্তির টাকা ২০২০-২১ অর্থবছরে রাজস্ব বাজেটের বৃত্তি-মেধা বৃত্তি খাত থেকে নির্বাহ করা হবে।


Facebooktwitterlinkedinrssyoutubemailby feather

লকডাউনের মধ্যেই ৯ শিক্ষা কর্মকর্তাকে স্ট্যান্ড রিলিজ

নিজস্ব প্রতিবেদক

সরকারি নির্দেশনা অনুযায়ী সারাদেশে বন্ধ সরকারি-বেসরকারি অফিস। চলছে না কোন ধরণের দূরপাল্লার গণপরিবহন। এমন পরিস্থিতিতে ৯ শিক্ষা কর্মকর্তাকে স্ট্যান্ড রিলিজ করেছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়।
|আরো খবর

একদিনে রেকর্ড ১০১ মৃত্যু, শনাক্ত ৪৪১৭

বুধবার এ সংক্রান্ত আলাদা প্রজ্ঞাপন জারি করে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের কারিগরি ও মাদ্রাসা শিক্ষা বিভাগ। তবে বৃহস্পতিবার (১৫ এপ্রিল) আরও একটি প্রজ্ঞাপনে একজন কর্মকর্তার স্ট্যান্ড রিলিজ প্রত্যাহার করা হয়।

স্ট্যান্ড রিলিজ করা কর্মকর্তাদের মধ্যে রয়েছেন- বাংলাদেশ মাদ্রাসা শিক্ষক প্রশিক্ষণ ইনস্টিটিউটে (বিএমটিটিআই) কর্মরত অধ্যাপক (প্রাণিবিদ্যা) ইসমাৎ আরা জেবিন, সহযোগী অধ্যাপক (আরবি) মাহমুদুল হক, সহযোগী অধ্যাপক (অর্থনীতি) দিলরুবা ফৌজিয়া খান, সহযোগী অধ্যাপক (ইংরেজি) মুর্শিদা করিম, সহযোগী অধ্যাপক (রাষ্ট্রবিজ্ঞান) মিয়া নাদির হোসেন, সহযোগী অধ্যাপক (রাষ্ট্রবিজ্ঞান) এ কে এম সেলিম চৌধুরী, প্রভাষক (শিক্ষা) মজিবুর রহমান এবং প্রভাষক (ইংরেজি) এ এফ এম সাদ্দাতুল আনোয়ার। স্ট্যান্ড রিলিজ করা কর্মকর্তাদের কঠোর লকডাউনচলাকালে ১৫ এপ্রিলের মধ্যে অবমুক্ত বলে গণ্য করা হয়েছে।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে তাৎক্ষণিক বদলী হওয়া এক শিক্ষক বলেন, মহামারী পরিস্থিতিতে এমন ধরণের সিদ্ধান্ত সত্যিই ভোগান্তিকর। যখন দেশ এক অর্থে অচল তখন মাদ্রাসা অধিদপ্তরের এমন সিদ্ধান্তকে শিক্ষা ক্যাডারের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের মধ্যে ক্ষোভ সৃষ্টি হয়েছে।


Facebooktwitterlinkedinrssyoutubemailby feather

এসএসসি ফরম পূরণে অতিরিক্ত ফি নিলে কঠোর ব্যবস্থা

নিজস্ব প্রতিবেদক,১৬ এপ্রিল ২০২১:

এসএসসির ফরম পূরণে শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে অতিরিক্ত টাকা আদায়ের অভিযোগের প্রমাণ পেলে হাইকোর্টের রুল অনুসারে স্কুলের পরিচালনা কমিটি বাতিল করা হবে বলে প্রতিষ্ঠানপ্রধানদের হুঁশিয়ার করেছে শিক্ষা বোর্ড।

ঢাকা মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ড থেকে সব স্কুলের প্রধান শিক্ষকদের পাঠানো এক চিঠিতে এসব কথা বলা হয়েছে।

গত ১২ এপ্রিল ঢাকা শিক্ষা বোর্ড থেকে নির্দেশনা দিয়ে সব প্রতিষ্ঠানপ্রধানের কাছে এ চিঠি পাঠানো হয়েছে।

কিছু শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে অতিরিক্ত ফি নেয়ার অভিযোগ উঠেছে। এ পরিস্থিতিতে কোনো স্কুল ফরম পূরণে অতিরিক্ত ফি নিয়ে থাকলে সে টাকা শিক্ষার্থীদের ফেরত দেয়ার নির্দেশ দিয়েছে ঢাকা মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ড।

বোর্ডের চিঠিতে বলা হয়েছে, এসএসসি পরীক্ষার ফরম পূরণের বোর্ড নির্ধারিত ফির অতিরিক্ত টাকা আদায়ের অভিযোগ পাওয়া যাচ্ছে। কোনো প্রতিষ্ঠান ফরম পূরণে অতিরিক্ত টাকা আদায় করলে তা শিক্ষার্থীদের ফেরত প্রদানের নির্দেশ দেয়া হলো। ফরম পূরণে অতিরিক্ত টাকা নেয়ার অভিযোগ তদন্তে প্রমাণিত হলে মহামান্য হাইকোর্টের সুয়োমোটো রুল ২৫/২০১৪ মোতাবেক বিদ্যালয়ের পরিচালনা কমিটি বাতিলসহ প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

প্রসঙ্গত, এসএসসির ফরম পূরণ ১ এপ্রিল থেকে শুরু হলেও লকডাউনের কারণে তা আপাতত স্থগিত আছে। লকডাউনের পর সভা করে ফের জরিমানা ছাড়াই এসএসসি পরীক্ষার্থীদের ফরম পূরণের সুযোগ দেয়া হবে।

Facebooktwitterlinkedinrssyoutubemailby feather

শিক্ষক নিবন্ধন মৌখিক পরীক্ষা স্থগিত

নিজস্ব প্রতিবেদক এপ্রিল ৩, ২০২১,
লকডাউনের কারণে চলমান ১৬তম শিক্ষক নিবন্ধন মৌখিক পরীক্ষা রোববার (৪ এপ্রিল) থেকে স্থগিত করা হয়েছে। লকডাউন যতদিন থাকবে ততদিন এ পরীক্ষা বন্ধ থাকবে।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে এনটিআরসিএ সচিব (উপসচিব) ড. এ.টি.এম. মাহবুব-উল করিম বলেন, আজ (শনিবার) মৌখিক পরীক্ষা চলছে। রোববার যাদের মৌখিক পরীক্ষা ছিল তাদেরটা স্থগিত করা হয়েছে। যতদিন লডডাউন থাকবে ততদিন এ পরীক্ষা স্থগিত থাকবে।

তিনি বলেন, লকডাউনের কারণে শিক্ষক নিবন্ধনের অন্যান্য বিষয়ে সিদ্ধান্ত নিতে দুপুরে একটি বৈঠক ডাকা হয়েছে।

জানা গেছে, গত বছর নভেম্বরে ১৬তম শিক্ষক নিবন্ধনের লিখিত পরীক্ষার ফলাফল প্রকাশ করা হয়। এতে মোট ২২ হাজার ৩৯৮ জন প্রার্থী উত্তীর্ণ হয়। লিখিত পরীক্ষায় উত্তীর্ণ প্রার্থীদের মৌখিক পরীক্ষা শুরু হয় ২ ডিসেম্বর থেকে। চলতি মাসের মধ্যে এ মৌখিক পরীক্ষা শেষ করে মে মাসের মধ্যে ১৬তম শিক্ষক নিবন্ধন পরীক্ষার ফল প্রকাশ করা কথা রয়েছে। তবে লকডাউনে দীর্ঘায়িত হলে এ পরীক্ষার চূড়ান্ত ফল পিছিয়ে যেতে পারে বলে জানা গেছে।

Facebooktwitterlinkedinrssyoutubemailby feather

এ বছর আর কোনো শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান এমপিওভুক্ত হবে না

নিজস্ব প্রতিবেদক,২এপ্রিল:
বরাদ্দ না থাকায় চলতি অর্থবছরে (২০২০-২০২১) নতুন করে কোনো শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান এমপিওভুক্তির আওতায় আনা হবে না।
শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগের সচিব মো. মাহবুব হোসেন বুধবার (৩১ মার্চ) সাংবাদিকদের বলেন, নীতিমালা জারি হলেও চলতি অর্থবছরে নতুন করে কোনো শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান এমপিওভুক্ত করা সম্ভব হবে না। কারণ নতুন প্রতিষ্ঠান এমপিওভুক্ত করতে হলে অর্থের প্রয়োজন, বর্তমানে সেই অর্থ নেই। তবে এমপিওভুক্তির জন্য আগামী অর্থবছরের বাজেটে বরাদ্দ চেয়ে দেন দরবার করছি। যদি অর্থ মন্ত্রণালয় বরাদ্দ দেয় তবে নতুন করে এমপিওভুক্তি হবে।

মন্ত্রণালয়ের সংশ্লিষ্ট শাখা সূত্রে জানা গেছে, নীতিমালায় বেশ কিছু পরিবর্তন আনায় নতুন সফটওয়্যার তৈরি করতে হবে। তবে এবারের নীতিমালায় এমপিওভুক্তিতে পাসের হার,পরীক্ষার্থীর সংখ্যা কমানো হয়েছে। আর শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের এমপিওভুক্তির ক্ষেত্রে বেশ কিছু কঠোর শর্ত জুড়ে দেওয়া হয়েছে।

নতুন নীতিমালায় বলা হয়, এমপিও পেতে হলে প্রতিষ্ঠানের নামে জমির হালনাগাদ খাজনাসহ নাম জারি থাকতে হবে। যুদ্ধাপরাধীদের নামে ও ফৌজদারি অপরাধে দুই বছরের বেশি সাজাপ্রাপ্ত ব্যক্তির নামের প্রতিষ্ঠান এমপিওভুক্ত করা হবে না। শিক্ষকদের এমপিও নিষ্পত্তি নিয়ে অযথা হয়রানি করলে সংশ্লিষ্টদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার কথাও নীতিমালায় উল্লেখ করা হয়।

নীতিমালায় এমপিওভুক্তির আবেদনের বিষয়ে বলা হয়, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান এমপিওভুক্তির জন্য মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগের একজন অতিরিক্ত সচিবকে আহ্বায়ক করে কমিটির মাধ্যমে যাচাই-বাছাই করা হবে। নিজস্ব জমি ছাড়া কোনো শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান এমপিওভুক্তি করা হবে না। শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের নামে খতিয়ানভুক্ত ও নামজারিকৃত নিজস্ব জমিতে অবকাঠামো এবং হালনাগাদ একাডেমিক স্বীকৃতি বা অধিভুক্তি থাকলে এমপিওভুক্তির জন্য অনলাইনে আবেদন করতে পারবে। তবে যুদ্ধাপরাধীদের নামে প্রতিষ্ঠিত প্রতিষ্ঠান এমপিওভুক্ত করা হবে না। ফৌজদারি অপরাধে দুই বছরের বেশি সাজাপ্রাপ্ত ব্যক্তির নামে কোনো প্রতিষ্ঠানও এমপিও করা হবে না। নেতিবাচক নামের কারণে সমাজে প্রভাব পড়তে পারে এমন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানও এমপিওভুক্ত করা হবে না।

Facebooktwitterlinkedinrssyoutubemailby feather

করোনা বাড়ায় কওমিসহ সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ

নিজস্ব প্রতিবেদক,২৯ মার্চ ২০২১:

শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি বলেছেন, কওমি মাদ্রাসাসহ দেশের সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ রাখার নির্দেশনা দেয়া হয়েছে। করোনা সংক্রমণ বেড়ে যাওয়ার পরিপ্রেক্ষিতে এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার। সোমবার একটি গণমাধ্যমকে এ কথা বলেন মন্ত্রী।

এদিন করোনাভাইরাস মোকাবিলায় প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের পক্ষ থেকে ১৮ দফা নির্দেশনা দেয়া হয়। এর মধ্যে একটি নির্দেশনা হচ্ছে, সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান অর্থাৎ প্রাক-প্রাথমিক থেকে শুরু করে প্রাথমিক, মাদ্রাসা, মাধ্যমিক, উচ্চমাধ্যমিক শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান, বিশ্ববিদ্যালয় ও কোচিং সেন্টার বন্ধ রাখা।

শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ রাখা-সংক্রান্ত সরকারি নির্দেশনার ব্যাখ্যা জানতে চাওয়া হলে শিক্ষামন্ত্রী দীপু মনি বলেন, ‘করোনাভাইরাসের সংক্রমণ রোধে গত বছরের ১৭ মার্চ থেকে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ রয়েছে। তবে একটি বিশেষ অনুরোধে কওমি মাদ্রাসাগুলো চালুর অনুমতি দেয়া হয়েছিল। কিন্তু এখন করোনাভাইরাসের সংক্রমণ অনেক গুণ বেড়ে গেছে। অনেকে মারা যাচ্ছেন। আজও অনেকে মারা গেছেন। এ জন্য সব ধরনের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত হয়েছে। কওমি মাদ্রাসাগুলো এর অন্তর্ভুক্ত থাকবে।’

সরকারের নতুন সিদ্ধান্ত অনুযায়ী, দেশের স্কুল-কলেজ আগামী ২৩ মে খোলার কথা। বিশ্ববিদ্যালয় খোলার কথা রয়েছে আগামী ২৪ মে।

Facebooktwitterlinkedinrssyoutubemailby feather

শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান না খোলার কারণ জানালেন প্রধানমন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক,২৯ মার্চ:

আগামী ৩০ মার্চ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দিতে না পারার জন্য দুঃখপ্রকাশ করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি বলেছেন, আমরা স্কুল-কলেজ খুলে দিতে চেয়েছিলাম কিন্তু দেশে হঠাৎ করেই করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাব বেড়ে যাওয়াতে এখন আর খোলা হচ্ছে না।

রোববার (২৮ মার্চ) বঙ্গবন্ধু অ্যাভিনিউয়ে আওয়ামী লীগের স্বাধীনতা দিবসের আলোচনা সভায় সভাপতির বক্তব্যে এ কথা বলেন প্রধানমন্ত্রী। গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সে যুক্ত হন সরকারপ্রধান।

মহামারি করোনাভাইরাসের কারণে এক বছর শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকার পর আগামী ৩০ মার্চ দেশের মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক পর্যায়ের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দেয়ার কথা ছিলো। কিন্তু চলতি মাসের মাঝামাঝি সময়ে হঠাৎ করে দেশে করোনার প্রাদুর্ভাব বেড়ে যাওয়ায় শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের ছুটি আরো এক দফায় বাড়িয়ে ২৩ মে পর্যন্ত করা হয়েছে।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, মহামারি করোনার প্রাদুর্ভাব বেড়ে যাওয়ায় স্কুল-কলেজ ঠিক এখন না খুলে আসন্ন রোজার ঈদের পরেই সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দেয়া হবে। ইতিমধ্যে স্কুল-কলেজ এবং বিশেষ করে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়সহ অন্যান্য বিশ্ববিদ্যালয়ের পুরানো হলগুলো মেরামত করার ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে। শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধের সুযোগে এসব কাজ করা হচ্ছে। পর্যায়ক্রমে এসব কাজ আগামীতেও চলতে থাকবে।

সরকারপ্রধান বলেন, করোনার টিকা দেয়া অব্যাহত থাকবে। তবে কেউ যাতে মাস্ক ছাড়া বাইরে না যায়। নিরাপদ দূরত্ব মেনে বসতে হবে। সভা-সেমিনার-কর্মশালা স্বাস্থ্যসুরক্ষা মেনে করতে হবে। যতদূর সম্ভব খোলা জায়গায় কর্মসূচি করতে হবে। ঘরের মধ্যে করলে করোনার প্রাদুর্ভাব আরো বেশি দেখা দেয়।

সভায় সূচনা বক্তব্য দেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের। এতে আরো বক্তব্য রাখেন প্রেসিডয়াম সদস্য আবদুর রাজ্জাক, আবদুর রহমান, সাংগঠনিক সম্পাদক এসএম কামাল হোসেন, সাংস্কৃতিক সম্পাদক অসীম কুমার উকিল, আন্তর্জাতিক সম্পাদক ড. শাম্মী আহমেদ প্রমুখ।

Facebooktwitterlinkedinrssyoutubemailby feather

Responsive WordPress Theme Freetheme wordpress magazine responsive freetheme wordpress news responsive freeWORDPRESS PLUGIN PREMIUM FREEDownload theme free

hit counter