Home » দৈনিক শিক্ষা

দৈনিক শিক্ষা

এসএসসি-এইচএসসি পরীক্ষা ৩ বিষয়ে

নিজস্ব প্রতিবেদক | ২৭ জুলাই, ২০২১
সময় ও নম্বর কমিয়ে গ্রুপভিত্তিক (বিজ্ঞান, মানবিক ও বাণিজ্যসহ অন্যান্য গ্রুপ) তিনটি নৈর্বাচনিক বিষয়ে এসএসসি ও এইচএসসি বা সমমানের পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। আবশ্যিক কোনো বিষয়ে পরীক্ষা নেয়া হবে না। তবে সাবজেক্ট ম্যাপিংয়ের মাধ্যমে আবশ্যিক বিষয় এবং চতুর্থ বিষয়ের নম্বর দিয়ে ফলাফলে যোগ করা হবে।

সোমবার (২৬ জুলাই) মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ডের পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক প্রফেসর এসএম আমিরুল ইসলাম স্বাক্ষরিত জরুরি বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

এতে বলা হয়, ২০২১ খ্রিষ্টাব্দের এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষা শুধু গ্রুপ ভিত্তিক ৩টি নৈর্বাচনিক বিষয়ে পরীক্ষার সময় ও পরীক্ষার নম্বর হ্রাস করে স্বাস্থ্যবিধি মেনে পরীক্ষার গ্রহণ করা হবে। আবশ্যিক বিষয় ও ৪র্থ বিষয়ের কোন পরীক্ষা গ্রহণ করা হবে না। বিশেষজ্ঞ কমিটির সুপারিশে জেএসসি ও সমমান এবং এসএসসি ও সমমান পরীক্ষার নম্বরের ভিত্তিতে সাবজেক্ট ম্যাপিং করে আবশ্যিক বিষয় ও চতুর্থ বিষয়ের নম্বর দেওয়া হবে।

শিক্ষার্থীর রেজিস্ট্রেশন কার্ড অনুযায়ী চতুর্থ বিষয়ের নম্বর সাবজেক্ট ম্যাপিংয়ের মাধ্যমে এসএসসি ও সমমান এবং এইচএসসি ও সমমান পরীক্ষা-২০২১-এর ফলাফলে যোগ করা হবে। এক্ষেত্রে উচ্চ শিক্ষায় ভর্তির কোন রকম নেতিবাচক প্রভাব পড়বে না।

বোর্ড আরও বলছে, এ মুহুর্তে শিক্ষার্থীর রেজিস্ট্রেশন কার্ডে ৪র্থ বিষয় পরিবর্তণ বা সংশোধনের কোন সুযোগ নেই।

এর আগে শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি ভার্চ্যুয়াল প্রেস ব্রিফিংয়ে জানিয়েছিলেন, আবশ্যিক বিষয়ের পরীক্ষা নেয়া হবে না। গ্রুপভিত্তিক তিনটি নৈর্বাচনিক বিষয়ে সময় ও নম্বর কমিয়ে পরীক্ষা নেয়া হবে।

করোনা পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে আগামী নভেম্বরে এসএসসি ও ডিসেম্বরে এইচএসসি এবং সমমানের পরীক্ষা নেয়ার চিন্তা রয়েছে সরকারের।

Facebooktwitterlinkedinrssyoutubemailby feather

সীমিত আকারে অফিস খোলার নির্দেশ শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের

নিজস্ব প্রতিবেদক | ১০ জুলাই, ২০২১
লকডাউনের কঠোর বিধিনিষেধ চলাকালে জরুরি প্রয়োজনে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগের অফিস খোলা রাখার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। গতকাল শুক্রবার মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগ এ-সংক্রান্ত অফিস আদেশ জারি করেছে।

এতে বলা হয়, বিভাগের অডিট আপত্তি নিষ্পত্তির জন্য ব্রডশিট জবাব তৈরি, বাজেট সংক্রান্ত কাজ এবং বার্ষিক কর্মসম্পাদন চুক্তির প্রমাণ সংগ্রহসহ জরুরি কাজ সম্পাদনের জন্য আগামী ১৪ জুলাই পর্যন্ত সচিবালয়ের ৬ নম্বর ভবনের ১৭ ও ১৮ নম্বর ফ্লোর এবং পরিবহনপুল ভবনের মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগের ৮০৮ ও ৮০৯ নম্বর কক্ষ খোলা রাখা প্রয়োজন।

এই পরিস্থিতিতে ১৪ জুলাই পর্যন্ত নির্দিষ্ট ভবনের কক্ষগুলো সকাল ৯টা থেকে বিকেল ৫টা পর্যন্ত খোলা রাখার নির্দেশ দেওয়া হয়। অফিস খোলা রাখার সময় সংশ্নিষ্ট ব্যক্তিদের (কর্মকর্তা-কর্মচারী) সচিবালয়ে প্রবেশের অনুমতি দেওয়াসহ বিদ্যুৎ, পানি সরবরাহ ও লিফট চালু রাখার প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

Facebooktwitterlinkedinrssyoutubemailby feather

সেপ্টেম্বরে হতে পারে ২০ বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি পরীক্ষা

নিজস্ব প্রতিবেদক,০৯ জুলাই ২০২১:
আগামী সেপ্টেম্বরে অনুষ্ঠিত হতে পারে দেশের ২০টি সাধারণ এবং বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর গুচ্ছ পদ্ধতির ভর্তি পরীক্ষা। এর আগে আগস্ট মাসে এ ভর্তি পরীক্ষা নেয়ার কথা থাকলেও করোনা পরিস্থিতির অবনতি হওয়ায় তা সম্ভব হবে না বলে জানিয়েছে গুচ্ছ পদ্ধতিতে ভর্তি পরীক্ষা বিষয়ক কমিটি।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ডিজিটাল ইউনিভার্সিটির উপাচার্য ও সাধারণ বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর গুচ্ছ পদ্ধতিতে ভর্তি পরীক্ষাবিষয়ক টেকনিক্যাল সাব-কমিটির আহ্বায়ক অধ্যাপক ড. মুনাজ আহমেদ নূর বলেন, ‘আশা করছি, খুব শিগগির গুচ্ছ পদ্ধতির ভর্তি পরীক্ষার সার্বিক বিষয় নিয়ে অনলাইনে মিটিং অনুষ্ঠিত হবে। ভর্তি পরীক্ষা নেয়ার আগে কিছু আনুষঙ্গিক কাজ শেষ করতে হবে, এ কাজগুলো চলমান বিধিনিষেধের কারণে আটকে আছে।’

তিনি আরো বলেন, ‘লকডাউন শেষ হলে যত তাড়াতাড়ি সম্ভব প্রথম পর্যায়ের আবেদনের বাছাইয়ের ফল প্রকাশ করা হবে। এরপর দ্বিতীয় পর্যায়ের আবেদন নেয়া শুরু হবে। দ্বিতীয় পর্যায়ের আবেদন শেষ হওয়ার ৭ থেকে ১০ দিনের মধ্যে ঘোষণা করা হবে ভর্তি পরীক্ষার তারিখ। আশা করছি, আগামী সেপ্টেম্বর মাসে অনুষ্ঠিত হবে গুচ্ছ পদ্ধতির ভর্তি পরীক্ষা। তবে সবকিছুই নির্ভর করছে করোনা পরিস্থিতির ওপর।’

Facebooktwitterlinkedinrssyoutubemailby feather

প্রাথমিকে নিয়োগ বিধিমালা নিয়ে সিনিয়র সচিব যা বললেন

ডেস্ক,৯ জুলাই : প্রাথমিক বিদ্যালয় দেশের গুরুত্বপূর্ণ একটি সরকারি প্রতিষ্ঠান। অথচ দীর্ঘদিনেও প্রায় ৪ লাখ শিক্ষকের এ প্রতিষ্ঠানে ছিলোনা নিয়োগ বিধিমালা। এ নিয়েই স্টাটাস দিয়েছেন সাবেক প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব আকরাম আল হোসেন।

শুক্রবার বিকেলে দেওয়া স্ট্যাটাসে তিনি লিখেছেন- গতকাল (বৃহস্পতিবার) প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের একাধিক কর্মকর্তা ফোন করে কৃতজ্ঞতা জানালেন। কারণ প্রাথমিক শিক্ষার নিয়োগ বিধিমালা সচিব কমিটিতে অনুমোদিত হয়েছে। অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ এবং খুশির খবর। আমার কাছেও। কারণ এটি নিয়ে আমি প্রায় ৫ বছর কাজ করেছি। আমি যখন ষোল সালে অতিরিক্ত সচিব হিসেবে যোগদান করি তখন থেকে শুরু। আঠারো সালের এপ্রিলে সচিব হিসেবে পেট্রোলিয়াম কর্পোরেশনের চেয়ারম্যান পদে নিয়োগ পাওয়ার আগে সব কাজ শেষ করে তৎকালীন সচিবের অনুমোদন করিয়ে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ে পাঠানোর জন্য রেডি করে যাই। সেপ্টেম্বরে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সচিব হিসেবে যোগদানের পর দেখি নতুন করে অনেকগুলো জটিলতা তৈরি করে এটি হিম ঘরে পাঠানো হয়েছে। আমি বলেছিলাম শেষ করবো আমার সময়ে।

বাংলাদেশের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ এবং বৃহৎ প্রতিষ্ঠানের নিয়োগ বিধিমালা নেই এটি একদিকে যেমন লজ্জার অন্যদিকে দুর্ভাগ্যজনক। প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের বিভিন্ন গ্রুপের কর্মকর্তা কর্মচারীদের মধ্যে রশি টানাটানি আছে। সব গ্রুপকে আস্থায় নিয়ে দায়িত্ব প্রাপ্ত কর্মকর্তাদের গালাগালি করে অবশেষে নিয়োগ বিধিমালাটি জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ে পাঠাতে পেরেছিলাম চাকরি থেকে অবসরের আগে। জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের কাজও আমি শেষ করে এসেছিলাম, বাকি ছিল সচিব কমিটির অনুমোদন। গতকাল অনুমোদন পেয়েছে। ধন্যবাদ প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয় ও প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের। এখন একটি সম্নিলিত নিয়োগ বিধিমালা প্রণয়ন করতে হবে। যেখানে শিক্ষক ও কর্মকর্তা কর্মচারীদের একটা মাত্র নিয়োগ বিধিমালা থাকবে। আশা করি বর্তমান সচিবের নেতৃত্বে এই কাজটি অচিরেই শুরু হয়ে শেষ হবে।

নিয়োগ আইধিমালা চুড়ান্ত করাই ধন্যবাদ জানিয়েছেন প্রধান শিক্ষক সমিতির সভাপতি রিয়াজ পারভেজ ও সিনিয়ার যুগ্ন সাধারন সম্পাদক স্বরুপ দাস।
২০৩০ সালের উন্নত সমৃদ্ধ বাংলাদেশ গড়তে হলে অবশ্যই প্রাথমিক শিক্ষাকে সর্বোচ্চ গুরুত্ব দিতে হবে। কারণ এখন যারা প্রাথমিকে পড়ছে তারাই আগামীর বাংলাদেশ, তারাই ২০৩০ সালের উন্নত সমৃদ্ধ বাংলাদেশ গড়বে। সবার জন্য শুভ কামনা রইলো।

Facebooktwitterlinkedinrssyoutubemailby feather

স্কুল-কলেজ শিক্ষকদের জুনের এমপিও-উৎসব ভাতার চেক ছাড়

নিজস্ব প্রতিবেদক | ০৭ জুলাই, ২০২১

বেসরকারি স্কুল ও কলেজের শিক্ষক-কর্মচারীদের জুন (২০২১) মাসের এমপিওর চেক ছাড় হয়েছে। একইসঙ্গে ঈদুল আজহার উৎসব ভাতার চেকও ব্যাংকে পাঠানো হয়েছে। বুধবার (৭ জুলাই) শিক্ষা প্রশাসনের একাধিক সূত্র দৈনিক শিক্ষাডটকমকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছে। বেতন-ভাতা তোলার শেষ দিন ১৪ জুলাই। প্রতিষ্ঠান প্রধানদের ওয়েবসাইট (emis.gov.bd) থেকে নিজ নিজ প্রতিষ্ঠানের এমপিওর শিট ডাউনলোড করতে বলা হয়েছে।

Facebooktwitterlinkedinrssyoutubemailby feather

স্কুল-কলেজ খোলার দাবি অবান্তর : শিক্ষামন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক | ৩০ জুন, ২০২১
করোনার উচ্চ সংক্রমণের সময়ে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলার দাবি অবান্তর বলে মন্তব্য করেছেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি। শিগগিরই এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষার বিষয়ে সিদ্ধান্ত জানানো বলে বলেও মন্ত্রী উল্লেখ করেছেন।

বুধবার (৩০ জুন) সংসদে বাজেট পাসের প্রক্রিয়ার সময় বিরোধী দলের সংসদ সদস্যদের বিভিন্ন ছাঁটাই প্রস্তাবের জবাব দিতে গিয়ে শিক্ষামন্ত্রী এসব কথা বলেন। এর আগে জাতীয় পার্টি, বিএনপি ও গণফোরামের সদস্যরা ছাঁটাই প্রস্তাবেরও পর তাদের বক্তব্য দেন। এসময় কোনও কোনও সংসদ সদস্য স্কুল খুলে দেওয়ার দাবি করেন। অবশ্য কেউ কেউ এর বিরোধিতাও করেন।

Read More »

Facebooktwitterlinkedinrssyoutubemailby feather

শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে ছুটি আবারও বাড়ল

নিজস্ব প্রতিবেদক,২৯ জুন ২০২১:
দেশের মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক পর্যায়ের সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান এবং ইবতেদায়ি ও কওমি মাদ্রাসায় চলমান ছুটি আগামী ৩১ জুলাই পর্যন্ত বাড়ানো হয়েছে ।

আজ মঙ্গলবার শিক্ষা মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, সারা দেশে করোনা পরিস্থিতির আরও অবনতি হয়েছে। লকডাউনও কার্যকর হয়েছে। শিক্ষার্থী, শিক্ষক, কর্মচারী ও অভিভাবকদের স্বাস্থ্য সুরক্ষা ও সার্বিক নিরাপত্তার বিবেচনায় এবং কোভিড ১৯ সংক্রান্ত জাতীয় পরামর্শক কমিটির সঙ্গে পরামর্শক্রমে এই ছুটি বৃদ্ধি করা হয়েছে। সর্বশেষ ঘোষণা অনুযায়ী ছুটি ছিল ৩০ জুন পর্যন্ত ।

Facebooktwitterlinkedinrssyoutubemailby feather

শিক্ষক নিয়োগ সুপারিশ আগামী মঙ্গলবার

নিজস্ব প্রতিবেদক, ২৮ জুন, ২০২১
শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে ৫৪ হাজার শিক্ষক নিয়োগে গণবিজ্ঞপ্তির ফল প্রকাশ নিয়ে সৃষ্ট আইনি জটিলতা দূর হয়েছে। এখন গণবিজ্ঞপ্তি অনুসারে আবেদেন করা প্রার্থীদের নিয়োগ সুপারিশ করার প্রস্তুতি নিচ্ছে এনটিআরসিএ। চলতি সপ্তাহেই গণবিজ্ঞপ্তির ফল প্রকাশ হবে বলে আশা প্রকাশ করেছেন কর্মকর্তারা।

সোমবার (২৮ জুন) দুপুরে এনটিআরসিএর কর্মকর্তারা দৈনিক শিক্ষা ডটকমকে এ পরিকল্পনার কথা জানিয়েছেন।

জানতে চাইলে নাম প্রকাশ না করার শর্তে সংস্থাটির একজন ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা বলেন, ১ থেকে ১২ তম নিবন্ধিতদের করা আদালত অবমাননার আবেদনের প্রেক্ষিতে হাইকোর্টের দেয়া আদেশ নিষ্পত্তি করে দেয়া হয়েছে। গণবিজ্ঞপ্তি ফল প্রকাশে আর কোনো বাধা নেই এনটিআরসিএ নিয়োগ সুপারিশে প্রস্তুতি নিচ্ছে।

কবে নাগাদ প্রার্থীদের নিয়োগ সুপারিশ করা হতে পারে জানতে চাইলে তিনি আরও বলেন, আদেশের সার্টিফাইড কপি আমাদের হাতে আসতে হবে। সেটি নিয়ে আমরা টেলিটকের সাথে বসবো। খুব তাড়াতাড়ি গণবিজ্ঞপ্তির ফল প্রকাশ করা হবে বলে আশা প্রকাশ করছি। আগামীকাল মঙ্গলবার ফল প্রকাশ হতে পারে, তবে বিষয়টি নির্ভর করছে কনটেম্পট নিষ্পত্তি করে দেয়া আদেশের সার্টিফাইড কপি হাতে পাওয়ার ওপর। চলতি সপ্তাহেই গণবিজ্ঞপ্তিতে আবেদন করা প্রার্থীদের নিয়োগ সুপারিশ করা হবে।

সোমবার (২৮ জুন) এমপিওভুক্ত বেসরকারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে নিয়োগ পেতে ১ম থেকে ১২তম নিবন্ধনধারী ২ হাজার ৫০০ শিক্ষকের রিট আবেদনটি খারিজ করে দিয়েছেন আপিল বিভাগ।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে এনটিআরসিএর আইনজীবী কামরুজ্জামান বলেন, আদালত কন্টেম আবেদন নিষ্পত্তি করে দিয়েছেন। গণবিজ্ঞপ্তির আবেদনের প্রেক্ষিতে নিয়োগ সুপারিশে আর বাধা নেই।

আদেশের কপি কবে পাবলিশ হতে পারে জানতে চাইলে তিনি আরও বলেন, আদেশের সার্টিফাইড কপি পেতে একটু সময় লাগে। তবে, আদালত ভার্চুয়ালি শুনানি করে আদেশ দিয়েছেন। পাবলিকলি আদেশ প্রকাশ হয়েছে। সে প্রেক্ষিতে এনটিআরসিএ নিয়োগ সুপারিশ করতে পারে।

তৃতীয় দফায় ৫৪ হাজার শিক্ষক নিয়োগে ৮৯ লাখের বেশি আবেদন গ্রহণ করেছে এনটিআরসিএ। এ ৫৪ হাজার ৩০৪টি পদের মধ্যে ৪৮ হাজার ১৯৯ টি এমপিওভুক্ত শূন্যপদ। ননএমপিও পদ আছ ৬ হাজার ১০৫ টি। এগুলোর মধ্যে ২ হাজার ২০৭ টি এমপিও পদে রিট মামলায় অংশগ্রহণ করা প্রার্থীদের জন্য সংরক্ষিত রাখা হচ্ছে।

Facebooktwitterlinkedinrssyoutubemailby feather

অচিরেই চালু হচ্ছে বিটিভির শিক্ষা চ্যানেল: তথ্যমন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক,২৮ জুন ২০২১:
দেশব্যাপী শিক্ষার্থীদের দূরশিক্ষণ পদ্ধতিতে পাঠদান কার্যক্রমকে আরও বিস্তৃত করতে অচিরেই বিটিভির শিক্ষা চ্যানেল চালু করার সিদ্ধান্ত হয়েছে বলে জানিয়েছেন তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী এবং আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ।

রবিবার (২৭ জুন) রাজধানীর সার্কিট হাউস রোডে বাংলাদেশ প্রেস ইনস্টিটিউট মিলনায়তনে ‘পিআইবি-এটুআই গণমাধ্যম পুরস্কার-২০২১’ প্রদান অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে মন্ত্রী একথা জানান।

পিআইবি’র মহাপরিচালক জাফর ওয়াজেদের সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি হিসেবে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক, তথ্য ও সম্প্রচার প্রতিমন্ত্রী ডা. মুরাদ হাসান, তথ্য সম্প্রচার সচিব মো. মকবুল হোসেন এবং এটুআই-এর প্রকল্প পরিচালক ড. মো. আব্দুল মান্নান অনুষ্ঠানে বক্তব্য দেন।

তথ্যমন্ত্রী বলেন, করোনা মহামারির দীর্ঘ সময়ে অনলাইনে এবং টিভি স্লটের মাধ্যমে পাঠদান চলমান থাকলেও স্বাভাবিকভাবে ক্লাস করতে না পারার কারণে শিক্ষার্থীদের কিছুটা ক্ষতি হচ্ছে। এই ক্ষতি পুষিয়ে নিতে আমরা মন্ত্রণালয় এবং বাংলাদেশ টেলিভিশনের পক্ষ থেকে যতদ্রুত সম্ভব বিটিভি’র একটি শিক্ষা চ্যানেল চালু করার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেছি।


Facebooktwitterlinkedinrssyoutubemailby feather

দুই বিকল্পে হতে পারে এসএসসি-এইচএসসির ফলাফল

নিজস্ব প্রতিবেদক,২৮ জুন ২০২১:

করোনার কারণে ফের কঠোর লকডাউন দেওয়ায় এসএসসি-এইচএসসি পরীক্ষা হওয়ার সম্ভাবনাও কমছে। এ জন্য পাবলিক পরীক্ষার বিষয়ে বিকল্প পদ্ধতি নিয়ে চিন্তাভাবনা শুরু করেছেন নীতি-নির্ধারকরা। এ ক্ষেত্রে ফলাফল দেওয়ার জন্য দুটি বিকল্প পদ্ধতি গ্রহণযোগ্য হতে পারে বলে মনে করছেন সংশ্লিষ্টরা।

সূত্র জানিয়েছে, দুই বিকল্পের মধ্যে একটি পূর্ববর্তী পরীক্ষার ফলাফলের ভিত্তিতে। দ্বিতীয়টি সংক্ষিপ্ত সিলেবাসের ওপর অ্যাসাইনমেন্ট জমা নিয়ে মূল্যায়ন। এরইমধ্যে করোনার কারণে এইচএসসি ও সমমানের ফরম পূরণ স্থগিত করা হয়েছে। রোববার (২৭ জুন) এই স্থগিতাদেশ দেওয়া হয়।

এর আগে এসএসসি ও এইচএসসির সংক্ষিপ্ত সিলেবাস প্রকাশ করা হয়েছে। এ সিলেবাসের আলোকেই যথাক্রমে ৬০ ও ৮৪ দিন তাদের ক্লাস নেওয়ার কথা ছিল। এরপর ১৫ দিন সময় দিয়ে পরীক্ষা নেওয়ার পরিকল্পনা ছিল। কিন্তু করোনার প্রকোপ ঊর্ধ্বমুখী থাকায় সশরীরে পরীক্ষা নেওয়ার বিষয়ে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের উদ্যোগ বাস্তবায়ন নিয়ে গভীর সংশয় তৈরি হয়েছে।

ঢাকা শিক্ষা বোর্ডের সচিব অধ্যাপক তপন কুমার সরকার এ বিষয়ে বলেন, ‘সশরীরে পরীক্ষার জন্য প্রস্তুতি নিয়ে আমরা এগিয়ে যাচ্ছি। বিকল্প কোনো কিছু থাকলে কর্তৃপক্ষই সিদ্ধান্ত নেবে।’

সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, পরীক্ষা সশরীরে নেওয়া না গেলে দুটি বিকল্পই কার্যকর হতে পারে। এরমধ্যে জেএসসি ও এসএসসির ফলের ওপর মূল্যায়ন করা হতে পারে। গত বছর এসএসসির ৭৫ শতাংশ ও জেএসসির ২৫ শতাংশ নম্বর নিয়ে মূল্যায়ন করা হয়েছিল। তবে এসএসসি পরীক্ষার্থীদের ক্ষেত্রে জটিলতা রয়েছে। তারা শুধু জেএসসি দেওয়ায় এ পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে। তাদের জেএসসির ফল ও অ্যাসাইনমেন্টের আলো গ্রেড যোগ করে ফলাফল দেওয়া হতে পারে।

অন্য বিকল্পটি অ্যাসাইনমেন্টভিত্তিক হতে পারে। সংক্ষিপ্ত সিলেবাসের আলো এক মাস সময় দিয়ে অ্যাসাইনমেন্ট বাসায় বসে লিখে শিক্ষার্থীরা শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে জমা দেবে। এর আলোকে গ্রেডিং ও চূড়ান্ত ফল দেওয়া হবে। এ ছাড়া অ্যাসাইনমেন্ট ও পূর্ববর্তী পরীক্ষার ফল মিলিয়েও এসএসসি ও এইচএসসির ফল তৈরি করা হবে বলে জানা গেছে।


Facebooktwitterlinkedinrssyoutubemailby feather

এইচএসসি পরীক্ষার ফরম পূরণ স্থগিত

নিজস্ব প্রতিবেদক | ২৭ জুন, ২০২১
এইচএসসি পরীক্ষার অনলাইন ফরম পূরণ স্থগিত ঘোষণা করেছে ঢাকা বোর্ড। আগামী ২৯ জুন থেকে ফরম পূরণ শুরু হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু করোনা সংক্রমণের হার বেড়ে যাওয়ায় ফরম পূরণ স্থগিত করা হয়েছে। বিষয়টি জানিয়ে রোববার (২৭ জুন) সব প্রতিষ্ঠান প্রধানদের চিঠি পাঠিয়েছে ঢাকা বোর্ড।

আরও পড়ুন :

ঈদ পর্যন্ত বাড়ছে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের ছুটি

চিঠিতে বোর্ড বলছে, কোভিড-১৯ পরিস্থিতি উদ্বোগজনক পর্যায়ে চলে যাওয়া ২০২১ খ্রিষ্টাব্দের এইচএসসি পরীক্ষার ফরম পূরণে কার্যক্রম স্থগিত করা হলো। সার্বিক পরিস্থিতি বিবেচনায় পরবর্তীতে এইচএসসি পরীক্ষার ফরম পূরণ কার্যক্রমের তারিখ ঘোষণা করা হবে।

এরআগে গত শুক্রবার এইচএসসি পরীক্ষার ফরমপূরণের তারিখ ঘোষণা করে ঢাকা বোর্ড। ২৯ জুন থেকে শুরু হয়ে ১১ জুলাই পর্যন্ত অনলাইনে শিক্ষার্থীদের ফরম পূরণ করা হবে জানানো হয়েছিল।

Facebooktwitterlinkedinrssyoutubemailby feather

জুলাই থেকে অনলাইনে ঢাবির পরীক্ষা

অনলাইন রিপোর্টার ॥ করোনা অতিমারির কারণে প্রায় ১৫ মাস ধরে বন্ধ রয়েছে দেশের সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠান। লকডাউন, কঠোর লকডাউন শেষে সীমিত পরিসরে সব অফিস-আদালত খোলা হলেও শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ছুটি বারবার বাড়ানো হয়েছে। ফলে তৈরি হয়েছে সেশন জট।

অন্যদিকে চূড়ান্ত পরীক্ষা না হওয়ার কারণে অনেকে চাকরিতে আবেদনও করতে পারছেন না। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) একাডেমিক কাউন্সিলও সব বিষয় বিবেচনায় অনলাইন বা অফলাইনে পরীক্ষা নেওয়ার জন্য সিদ্ধান্ত নেয়। সর্বশেষ সরাসরি পরীক্ষা গ্রহণ শুরু হয়। কিন্তু হঠাৎ করে করোনা পরিস্থিতি বেড়ে যাওয়ায় জুলাই থেকে আগের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী অনলাইনে পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক বাহালুল হক চৌধুরী বলেন, একাডেমিক কাউন্সিলের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী জুলাই থেকে অনলাইনে পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। এর আগে পূর্বনির্ধারিত সরাসরি পরীক্ষাগুলো সম্পন্ন করা হচ্ছে।
আরো পড়ুন

ঈদ পর্যন্ত বাড়ছে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের ছুটি

শিক্ষার্থীদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, ঈদের ছুটির পর বিশ্ববিদ্যালয়ের অনেক বিভাগ সরাসরি পরীক্ষার জন্য রুটিন প্রকাশ করে। এর মধ্যে কিছু পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। আবার অনেক বিভাগ আগে থেকেই অনলাইনে পরীক্ষা গ্রহণ করছে। রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগে দুই সেমিস্টারে অনলাইনে পরীক্ষা চলছে। আবার ৪ জুলাই থেকে সরাসরি যে পরীক্ষা হওয়ার কথা ছিল সেটিও অনলাইনে নেওয়া হবে। ভাষা বিজ্ঞান বিভাগে ২৫ জুলাই থেকে অনলাইনে পরীক্ষা হবে। উদ্ভিদ বিজ্ঞান বিভাগে ৪ জুলাই থেকে সরাসরি পরীক্ষা নেওয়ার কথা থাকলেও ১০ জুলাই থেকে অনলাইনে পরীক্ষা নেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন শিক্ষার্থীরা। ইঞ্জিনিয়ারিং অনুষদ ইতোমধ্যে অনলাইনে পরীক্ষা গ্রহণের জন্য নীতিমালা দিয়েছে।

বাংলা বিভাগে ২০২০ সালের মাস্টার্সের সরাসরি পরীক্ষা শুরু হওয়ার কথা ছিল ৪ জুলাই। করোনা পরিস্থিতির কারণে এখন কোন পদ্ধতিতে পরীক্ষা গ্রহণ করা হবে জানতে চাইলে বিভাগের ছাত্র উপদেষ্টা অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ গিয়াসউদ্দীন বলেন, আমরা যখন সিদ্ধান্ত নিয়েছিলাম তখন করোনা পরিস্থিতি স্বাভাবিক ছিল।

এখন যেহেতু কঠোর লকডাউন ঘোষণা করা হয়েছে। তাই আমদের সব বিষয় বিবেচনায় নিতে হবে। মফস্বলের শিক্ষার্থীর ইন্টারনেট সেবাও আমাদের বিবেচনায় নিতে হবে। সব মিলিয়ে সন্ধ্যায় আমাদের বিভাগের সভা অনুষ্ঠিত হবে। সেখানে সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হবে।

বিজ্ঞান অনুষদের অবস্থা সম্পর্কে জানতে চাইলে অনুষদের ডিন তোফায়েল আহমেদ চৌধুরী বলেন, আমাদের সরাসরি পরীক্ষার প্রস্তুতি ছিল। শুধুমাত্র ২০১৯ সালের মাস্টার্স পরীক্ষা যাদের আটকে আছে তাদের জন্য সব বিভাগ পরীক্ষার সিডিউল তৈরি করেছিল। এর মধ্যে কিছু পরীক্ষা শেষ হয়েছে।

এখন সরকারের সিদ্ধান্ত (প্রজ্ঞাপন) দেখে আমাদের পরীক্ষা স্থগিত করতে হবে। আবার অনলাইনে বা শিক্ষার্থীরা চাইলে সরাসরি পরীক্ষা নেওয়ার জন্য প্রস্তুতি নিতে হবে। তবে সবকিছু বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় সিদ্ধান্তের আলোকে গ্রহণ করা হবে।

তবে এরই মধ্যে সরাসরি পরীক্ষা নিয়ে সপ্তম সেমিস্টারের চারটা কোর্স শেষ করেছে বিশ্ববিদ্যালয়ের ফারসি ভাষা ও সাহিত্য বিভাগ।

বিভাগের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. বাহাউদ্দীন জানান, ৮১ শিক্ষার্থীর সবাই পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করেছেন। সবাই সুস্থভাবে পরীক্ষা শেষ করেছে।

তবে শিক্ষার্থীরা যেকোনো মাধ্যমে পরীক্ষা দিতে আগ্রহী। ইসলামিক স্টাডিজ বিভাগের শিক্ষার্থী নূর হোসেন ইমন বলেন, শিক্ষার্থীদের কর্মজীবনে পিছিয়ে পড়ার শঙ্কা থেকে ৪ জুলাই থেকে পরীক্ষা গ্রহণ করার সিদ্ধান্ত হয়। তবে করোনা পরিস্থিতির অবনতি হওয়ায় অনেক শিক্ষার্থী তাদের সমস্যার কথা শিক্ষকদের জানিয়েছেন এ বিষয়ে বিভাগ যৌক্তিক সিদ্ধান্ত নেবে বলে আমাদের বিশ্বাস।

শিক্ষা ও গবেষণা বিভাগের শিক্ষার্থী সানজিদা বলেন, আমরা ইনকোর্স পরীক্ষা অনলাইনে দিয়েছি। বাকি পরীক্ষাও অনলাইনে হলেও সমস্যা নেই।

Facebooktwitterlinkedinrssyoutubemailby feather

প্রাথমিক প্রধান শিক্ষকরা চান টাইমস্কেল

নিজস্ব প্রতিবেদক,২৬ জুন:
সরকারি কর্মচারীদের জন্য অষ্টম বেতন কাঠামো বাস্তবায়নের পর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকদের বেতনে সৃষ্ট বৈষম্য দূর করার দাবি জানিয়েছে বাংলাদেশ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় প্রধান শিক্ষক সমিতি। তারা বলেন, কেবল দশম গ্রেড ও ৯-৩-১৪ হতে ১৪-১২-২০১৫ খ্রী: পর্যন্ত টাইম স্কেল দিলেই এ সমস্যার সমাধান হয়ে যাবে।

আজ (২৬-৬-২০২১ ইং) প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয় ও প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের আয়োজনে বিভিন্ন সংগঠনের নেতৃবৃন্দের সাথে ভার্চুয়াল সভা অনুষ্ঠিত হয়।

আরো পড়ুন

ঈদ পর্যন্ত বাড়ছে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের ছুটি

উক্ত সভায় প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাননীয় প্রতিমন্ত্রী জনাব মো.জাকির হোসেন মহোদয়, বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাননীয় সচিব গোলাম মোহাম্মদ হাছিবুল আলম মহোদয়, সভাপতিত্ব করের প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের মাননীয় মহাপরিচালক জনাব আলমগীর মোহাম্মদ মনসুরুল আলম মহোদয়।

আরো উপস্থিত ছিলেন সকল বিভাগীয় উপ-পরিচালক মহোদয়গণ, জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার মহোদয়গণ ও বাংলাদেশ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় প্রধান শিক্ষক সমিতি কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি জনাব রিয়াজ পারবেজ,সাধারন সম্পাদক নজরুল ইসলবম, সিনিয়র যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক জনাব স্বরুপ দাস, সহ সভাপতি জনাব মোহাম্মদ শাখাওয়াত হোসেন,প্রাথমিক শিক্ষক সমিতির সভাপতি আবুল কাশেম সহ ১৩টি শিক্ষক সমিতির নেতৃবৃন্দ। আজ মাননীয় মন্ত্রী মহোদয় শিক্ষদের দাবি দাওয়া সমূহ মনোযোগ সহকারে শোনেন এবং আন্তঃমন্ত্রণালয়ের মিটিং করে সমস্যা সমাধান করা হবে বলে শিক্ষক নেতৃবৃন্দকে আশ্বস্ত করেন।

Facebooktwitterlinkedinrssyoutubemailby feather

কওমি মাদ্রাসা নিবন্ধনে নীতিমালা

নিজস্ব প্রতিবেদক,২৬ জুন ২০২১:
কওমি মাদ্রাসাসহ ধর্মীয় শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলোর জন্য যুগোপযোগী শিক্ষা ব্যবস্থা কার্যকর করা ও সরকারের নিবন্ধনের আওতায় আনার জন্য একটি সমন্বিত নীতিমালা তৈরির উদ্যোগ নিয়েছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়। এ জন্য একটি কমিটিও গঠন করা হয়েছে।

শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের কারিগরি ও মাদ্রাসা বিভাগের অতিরিক্ত সচিবকে (মাদ্রাসা) আহ্বায়ক করে ২১ জুন ১৫ সদস্য বিশিষ্ট এই কমিটি গঠন করা হয়।

Facebooktwitterlinkedinrssyoutubemailby feather

শিক্ষক নিয়োগ: ফের শুনানি ২৭ জুন

নিজস্ব প্রতিবেদক | ২২ জুন, ২০২১
আদালত অবমাননার অভিযোগ এনে বেসরকারি শিক্ষক নিবন্ধন ও প্রত্যয়ন কর্তৃপক্ষের (এনটিআরসিএ) বিরুদ্ধে রিট করেছেন প্রায় আড়াই হাজার চাকরিপ্রার্থী। রিটের প্রেক্ষিতে আদালত এই আড়াই হাজার প্রার্থীকে নিয়োগের আদেশ দিলেও তার ওপর স্থগিতাদেশ চেয়ে আপিল করেছিল এনটিআরসিএ। ১ থেকে ১২তম নিবন্ধন পরীক্ষায় উত্তীর্ণ প্রায় আড়াই হাজার চাকরিপ্রার্থীকে আগামী চার সপ্তাহের মধ্যে নিয়োগ দিতে হাইকোর্টের আদেশ স্থগিত করেনি আপিল বিভাগের চেম্বার বিচারপতি। এনটিআরসিএর করা আবেদনে ওপর শুনানি করে এ আদেশ দেন চেম্বার বিচারপতি ওবায়দুল হাসান।

আদেশের বিষয়টি জানান চাকরি প্রত্যাশীদের আইনজীবী ছিদ্দিক উল্যাহ মিয়া। তারা বলেন, আগামী ২৭ জুন এ বিষয়ে পরবর্তী শুনানি অনুষ্ঠিত হবে আপিল বিভাগের পূর্ণাঙ্গ বেঞ্চে। আদালতে এনটআরসিএর পক্ষে শুনানি করেন ফিদা এম কামাল। চাকরি প্রত্যাশদের পক্ষে শুনানি করেন খুরশীদ আলম খান।

বেসরকারি শিক্ষক নিবন্ধন ও প্রত্যয়ন কর্তৃপক্ষ (এনটিআরসিএ) কর্তৃক ১ থেকে ১২তম নিবন্ধন পরীক্ষায় উত্তীর্ণ প্রায় আড়াই হাজার চাকরিপ্রার্থী যারা আদালত অবমাননার মামলা করেছেন, তাদের বিষয়ে গত ৩১ মে আদেশ দিয়েছিল আদালত। রিটকারীদের আইনজীবীরা বলছেন, এ প্রার্থীদের এমপিওভুক্ত বেসরকারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে নিয়োগের সুপারিশ করতে এনটিআরসিএর প্রতি নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট। আগামী ৪ সপ্তাহের মধ্যে সুপারিশ করার নির্দেশ দেয়া হয়েছিল।

যদিও এনটিআরসিএর কর্মকর্তারা কাছে দাবি করেছেন, এসব ২০১৭ খ্রিষ্টাব্দের ১৪ ডিসেম্বর হাইকোর্ট একটি রায় দিয়েছিলেন। সেই রায়ের একটি অংশে বলা ছিল, এনটিআরসিএকে রিটকারী ও অন্যান্য আবেদনকারীদের অর্জিত সনদ ও নিয়োগের জাতীয় মেধাতালিকা অনুসরণ করে শূন্যপদে নিয়োগ সুপারিশ করতে হবে। সে রায় ৪ সপ্তাহের মধ্যে বাস্তবায়নের নির্দেশ দেয়া হয়েছে। সে রায় অনুসারেই এনটিআরসিএ চলমান ৩য় চক্রে ও ২য় চক্রে শিক্ষক নিয়োগ সুপারিশ করেছে। তাই, আদালত অবমাননা হয়নি।

Facebooktwitterlinkedinrssyoutubemailby feather

Responsive WordPress Theme Freetheme wordpress magazine responsive freetheme wordpress news responsive freeWORDPRESS PLUGIN PREMIUM FREEDownload theme free

hit counter