Home » টপ খবর

টপ খবর

যমুনা গ্রুপ ইভ্যালিতে হাজার কোটি টাকা বিনিয়োগ করবে

নিজস্ব প্রতিবেদক | ২৭ জুলাই, ২০২১

ই-কমার্স প্রতিষ্ঠান ইভ্যালিতে এক হাজার কোটি টাকা বিনিয়োগ করতে যাচ্ছে দেশের অন্যতম শীর্ষস্থানীয় শিল্পগ্রুপ যমুনা গ্রুপ। প্রাথমিকভাবে ২০০ কোটি টাকা বিনিয়োগ করবে যমুনা। ধারাবাহিকভাবে বিভিন্ন পর্যায়ে মোট এক হাজার কোটি টাকা বিনিয়োগের কথা রয়েছে প্রতিষ্ঠানটির।

মঙ্গলবার ইভ্যালির পাবলিক রিলেশনস বিভাগ থেকে পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এই তথ্য জানানো হয়। তবে ই-কমার্স প্রতিষ্ঠানটির মূল বাজার দর (ভ্যালুয়েশন) প্রকাশ করেনি কোনও পক্ষ।

এমন বিনিয়োগকে স্বাগত জানিয়ে ইভ্যালির প্রতিষ্ঠাতা ও প্রধান নির্বাহী মোহাম্মদ রাসেল বলেন, একটি দেশীয় উদ্যোগ হিসেবে আমাদের পাশে আরেকটি দেশীয় প্রতিষ্ঠানকে পেয়ে আমরা সত্যিই আনন্দিত। যমুনার এই বিনিয়োগ ধারাবাহিক বিনিয়োগের অংশ এবং পরবর্তী ধাপেও তাদের বিনিয়োগের সুযোগ রয়েছে। এই বিনিয়োগ ইভ্যালির ভবিষ্যত উন্নয়ন এবং ব্যবসা পরিধি বৃদ্ধিতে ব্যয় করা হবে।

গ্রাহকদের পুরানো অর্ডার ডেলিভারি নিয়ে মোহাম্মদ রাসেল বলেন, পুরানো অর্ডার যেগুলো পেন্ডিং সেগুলোর ডেলিভারির ব্যাপারে আমরা সর্বোচ্চ প্রায়োরিটি দিচ্ছি, প্রয়োজনে আমরা আরো বিনিয়োগ এর ব্যবস্থা করবো।

বিনিয়োগ নিয়ে যমুনা গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক শামীম ইসলাম বলেন, বিশ্বের বিভিন্ন দেশের উন্নয়নে আমরা দেখছি যে, স্থানীয় ইকমার্স প্রতিষ্ঠানগুলো দেশের অর্থনৈতিক উন্নয়নে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখছে। যেমন যুক্তরাষ্ট্রের ক্ষেত্রে আমাজন, চীনের ক্ষেত্রে আলিবাবা। তেমনি বাংলাদেশে ইতোমধ্যে নিজের একটি অবস্থান তৈরি করেছে দেশীয় ইকমার্স ইভ্যালি। শুধু দেশের সাধারণ মানুষের স্বপ্নপূরণে কাজ করে যাচ্ছে। যমুনা গ্রুপ দীর্ঘ ৫০ বছর ধরে দেশ ও দেশের জনগণের কল্যাণে কাজ করছে। এখন থেকে ইভ্যালি এবং যমুনা গ্রুপ সেই স্বপ্নপূরণে একে অপরের অংশীদার হলো।

ইভ্যালি ও যমুনা গ্রুপের এই অংশীদারিত্বকে স্বাগত জানিয়ে যমুনা গ্রুপের গ্রুপ পরিচালক মনিকা ইসলাম বলেন, দেশের বাজারে মানসম্পন্ন পণ্য ও সেবা নিয়ে যমুনা গ্রুপ ব্যবসা করে আসছে। বাংলাদেশে সবথেকে বড় অফলাইন মার্কেটপ্লেস যমুনা ফিউচার পার্ক। আর এখন সবচেয়ে বড় অনলাইন মার্কেটপ্লেস গড়ে তোলার জন্য ইভ্যালির সাথে থাকবে যমুনা। ডিজিটাল বাংলাদেশ এবং দেশের ই-কমার্স খাতকে একটা মজবুত অবস্থানে এগিয়ে নিয়ে যেতে ইভ্যালির সৎ ব্যবসায়িক উদ্দেশ্যের প্রতি বিশ্বাস রেখে তাদের দুঃসময়ে আমরা পাশে এসে দাঁড়িয়েছি।

যমুনা গ্রুপের পরিচালক (অ্যাকাউন্টস) শেখ ওয়াদুদ বলেন, বৈশ্বিক মহামারি করোনা এর সময়ে আমরা দেশীয় অর্থনীতিতে অবদান রাখতে চাই। এই বিনিয়োগ নিয়ে আরো বিস্তারিত তথ্য আমরা ধাপে ধাপে প্রকাশ করবো।

Facebooktwitterlinkedinrssyoutubemailby feather

এসএসসি-এইচএসসি পরীক্ষা ৩ বিষয়ে

নিজস্ব প্রতিবেদক | ২৭ জুলাই, ২০২১
সময় ও নম্বর কমিয়ে গ্রুপভিত্তিক (বিজ্ঞান, মানবিক ও বাণিজ্যসহ অন্যান্য গ্রুপ) তিনটি নৈর্বাচনিক বিষয়ে এসএসসি ও এইচএসসি বা সমমানের পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। আবশ্যিক কোনো বিষয়ে পরীক্ষা নেয়া হবে না। তবে সাবজেক্ট ম্যাপিংয়ের মাধ্যমে আবশ্যিক বিষয় এবং চতুর্থ বিষয়ের নম্বর দিয়ে ফলাফলে যোগ করা হবে।

সোমবার (২৬ জুলাই) মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ডের পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক প্রফেসর এসএম আমিরুল ইসলাম স্বাক্ষরিত জরুরি বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

এতে বলা হয়, ২০২১ খ্রিষ্টাব্দের এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষা শুধু গ্রুপ ভিত্তিক ৩টি নৈর্বাচনিক বিষয়ে পরীক্ষার সময় ও পরীক্ষার নম্বর হ্রাস করে স্বাস্থ্যবিধি মেনে পরীক্ষার গ্রহণ করা হবে। আবশ্যিক বিষয় ও ৪র্থ বিষয়ের কোন পরীক্ষা গ্রহণ করা হবে না। বিশেষজ্ঞ কমিটির সুপারিশে জেএসসি ও সমমান এবং এসএসসি ও সমমান পরীক্ষার নম্বরের ভিত্তিতে সাবজেক্ট ম্যাপিং করে আবশ্যিক বিষয় ও চতুর্থ বিষয়ের নম্বর দেওয়া হবে।

শিক্ষার্থীর রেজিস্ট্রেশন কার্ড অনুযায়ী চতুর্থ বিষয়ের নম্বর সাবজেক্ট ম্যাপিংয়ের মাধ্যমে এসএসসি ও সমমান এবং এইচএসসি ও সমমান পরীক্ষা-২০২১-এর ফলাফলে যোগ করা হবে। এক্ষেত্রে উচ্চ শিক্ষায় ভর্তির কোন রকম নেতিবাচক প্রভাব পড়বে না।

বোর্ড আরও বলছে, এ মুহুর্তে শিক্ষার্থীর রেজিস্ট্রেশন কার্ডে ৪র্থ বিষয় পরিবর্তণ বা সংশোধনের কোন সুযোগ নেই।

এর আগে শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি ভার্চ্যুয়াল প্রেস ব্রিফিংয়ে জানিয়েছিলেন, আবশ্যিক বিষয়ের পরীক্ষা নেয়া হবে না। গ্রুপভিত্তিক তিনটি নৈর্বাচনিক বিষয়ে সময় ও নম্বর কমিয়ে পরীক্ষা নেয়া হবে।

করোনা পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে আগামী নভেম্বরে এসএসসি ও ডিসেম্বরে এইচএসসি এবং সমমানের পরীক্ষা নেয়ার চিন্তা রয়েছে সরকারের।

Facebooktwitterlinkedinrssyoutubemailby feather

সীমিত আকারে অফিস খোলার নির্দেশ শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের

নিজস্ব প্রতিবেদক | ১০ জুলাই, ২০২১
লকডাউনের কঠোর বিধিনিষেধ চলাকালে জরুরি প্রয়োজনে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগের অফিস খোলা রাখার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। গতকাল শুক্রবার মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগ এ-সংক্রান্ত অফিস আদেশ জারি করেছে।

এতে বলা হয়, বিভাগের অডিট আপত্তি নিষ্পত্তির জন্য ব্রডশিট জবাব তৈরি, বাজেট সংক্রান্ত কাজ এবং বার্ষিক কর্মসম্পাদন চুক্তির প্রমাণ সংগ্রহসহ জরুরি কাজ সম্পাদনের জন্য আগামী ১৪ জুলাই পর্যন্ত সচিবালয়ের ৬ নম্বর ভবনের ১৭ ও ১৮ নম্বর ফ্লোর এবং পরিবহনপুল ভবনের মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগের ৮০৮ ও ৮০৯ নম্বর কক্ষ খোলা রাখা প্রয়োজন।

এই পরিস্থিতিতে ১৪ জুলাই পর্যন্ত নির্দিষ্ট ভবনের কক্ষগুলো সকাল ৯টা থেকে বিকেল ৫টা পর্যন্ত খোলা রাখার নির্দেশ দেওয়া হয়। অফিস খোলা রাখার সময় সংশ্নিষ্ট ব্যক্তিদের (কর্মকর্তা-কর্মচারী) সচিবালয়ে প্রবেশের অনুমতি দেওয়াসহ বিদ্যুৎ, পানি সরবরাহ ও লিফট চালু রাখার প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

Facebooktwitterlinkedinrssyoutubemailby feather

সেপ্টেম্বরে হতে পারে ২০ বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি পরীক্ষা

নিজস্ব প্রতিবেদক,০৯ জুলাই ২০২১:
আগামী সেপ্টেম্বরে অনুষ্ঠিত হতে পারে দেশের ২০টি সাধারণ এবং বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর গুচ্ছ পদ্ধতির ভর্তি পরীক্ষা। এর আগে আগস্ট মাসে এ ভর্তি পরীক্ষা নেয়ার কথা থাকলেও করোনা পরিস্থিতির অবনতি হওয়ায় তা সম্ভব হবে না বলে জানিয়েছে গুচ্ছ পদ্ধতিতে ভর্তি পরীক্ষা বিষয়ক কমিটি।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ডিজিটাল ইউনিভার্সিটির উপাচার্য ও সাধারণ বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর গুচ্ছ পদ্ধতিতে ভর্তি পরীক্ষাবিষয়ক টেকনিক্যাল সাব-কমিটির আহ্বায়ক অধ্যাপক ড. মুনাজ আহমেদ নূর বলেন, ‘আশা করছি, খুব শিগগির গুচ্ছ পদ্ধতির ভর্তি পরীক্ষার সার্বিক বিষয় নিয়ে অনলাইনে মিটিং অনুষ্ঠিত হবে। ভর্তি পরীক্ষা নেয়ার আগে কিছু আনুষঙ্গিক কাজ শেষ করতে হবে, এ কাজগুলো চলমান বিধিনিষেধের কারণে আটকে আছে।’

তিনি আরো বলেন, ‘লকডাউন শেষ হলে যত তাড়াতাড়ি সম্ভব প্রথম পর্যায়ের আবেদনের বাছাইয়ের ফল প্রকাশ করা হবে। এরপর দ্বিতীয় পর্যায়ের আবেদন নেয়া শুরু হবে। দ্বিতীয় পর্যায়ের আবেদন শেষ হওয়ার ৭ থেকে ১০ দিনের মধ্যে ঘোষণা করা হবে ভর্তি পরীক্ষার তারিখ। আশা করছি, আগামী সেপ্টেম্বর মাসে অনুষ্ঠিত হবে গুচ্ছ পদ্ধতির ভর্তি পরীক্ষা। তবে সবকিছুই নির্ভর করছে করোনা পরিস্থিতির ওপর।’

Facebooktwitterlinkedinrssyoutubemailby feather

প্রাথমিকে নিয়োগ বিধিমালা নিয়ে সিনিয়র সচিব যা বললেন

ডেস্ক,৯ জুলাই : প্রাথমিক বিদ্যালয় দেশের গুরুত্বপূর্ণ একটি সরকারি প্রতিষ্ঠান। অথচ দীর্ঘদিনেও প্রায় ৪ লাখ শিক্ষকের এ প্রতিষ্ঠানে ছিলোনা নিয়োগ বিধিমালা। এ নিয়েই স্টাটাস দিয়েছেন সাবেক প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব আকরাম আল হোসেন।

শুক্রবার বিকেলে দেওয়া স্ট্যাটাসে তিনি লিখেছেন- গতকাল (বৃহস্পতিবার) প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের একাধিক কর্মকর্তা ফোন করে কৃতজ্ঞতা জানালেন। কারণ প্রাথমিক শিক্ষার নিয়োগ বিধিমালা সচিব কমিটিতে অনুমোদিত হয়েছে। অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ এবং খুশির খবর। আমার কাছেও। কারণ এটি নিয়ে আমি প্রায় ৫ বছর কাজ করেছি। আমি যখন ষোল সালে অতিরিক্ত সচিব হিসেবে যোগদান করি তখন থেকে শুরু। আঠারো সালের এপ্রিলে সচিব হিসেবে পেট্রোলিয়াম কর্পোরেশনের চেয়ারম্যান পদে নিয়োগ পাওয়ার আগে সব কাজ শেষ করে তৎকালীন সচিবের অনুমোদন করিয়ে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ে পাঠানোর জন্য রেডি করে যাই। সেপ্টেম্বরে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সচিব হিসেবে যোগদানের পর দেখি নতুন করে অনেকগুলো জটিলতা তৈরি করে এটি হিম ঘরে পাঠানো হয়েছে। আমি বলেছিলাম শেষ করবো আমার সময়ে।

বাংলাদেশের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ এবং বৃহৎ প্রতিষ্ঠানের নিয়োগ বিধিমালা নেই এটি একদিকে যেমন লজ্জার অন্যদিকে দুর্ভাগ্যজনক। প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের বিভিন্ন গ্রুপের কর্মকর্তা কর্মচারীদের মধ্যে রশি টানাটানি আছে। সব গ্রুপকে আস্থায় নিয়ে দায়িত্ব প্রাপ্ত কর্মকর্তাদের গালাগালি করে অবশেষে নিয়োগ বিধিমালাটি জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ে পাঠাতে পেরেছিলাম চাকরি থেকে অবসরের আগে। জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের কাজও আমি শেষ করে এসেছিলাম, বাকি ছিল সচিব কমিটির অনুমোদন। গতকাল অনুমোদন পেয়েছে। ধন্যবাদ প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয় ও প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের। এখন একটি সম্নিলিত নিয়োগ বিধিমালা প্রণয়ন করতে হবে। যেখানে শিক্ষক ও কর্মকর্তা কর্মচারীদের একটা মাত্র নিয়োগ বিধিমালা থাকবে। আশা করি বর্তমান সচিবের নেতৃত্বে এই কাজটি অচিরেই শুরু হয়ে শেষ হবে।

নিয়োগ আইধিমালা চুড়ান্ত করাই ধন্যবাদ জানিয়েছেন প্রধান শিক্ষক সমিতির সভাপতি রিয়াজ পারভেজ ও সিনিয়ার যুগ্ন সাধারন সম্পাদক স্বরুপ দাস।
২০৩০ সালের উন্নত সমৃদ্ধ বাংলাদেশ গড়তে হলে অবশ্যই প্রাথমিক শিক্ষাকে সর্বোচ্চ গুরুত্ব দিতে হবে। কারণ এখন যারা প্রাথমিকে পড়ছে তারাই আগামীর বাংলাদেশ, তারাই ২০৩০ সালের উন্নত সমৃদ্ধ বাংলাদেশ গড়বে। সবার জন্য শুভ কামনা রইলো।

Facebooktwitterlinkedinrssyoutubemailby feather

দেশে একদিনে রেকর্ড ২১২ জনের মৃত্যু

ডেস্ক,০৯ জুলাই ২০২১:

করোনাভাইরাসে দেশে একদিনে আরও ২১২ জনের মৃত্যু হয়েছে। যা একদিনে সর্বোচ্চ মৃত্যু। এর আগে ০৭ জুলাই রেকর্ড ২০১ জনের মৃত্যু হয়। এছাড়া গত ২৪ ঘণ্টায় রোগী শনাক্ত হয়েছে ১১ হাজার ৩২৪ জন।

শুক্রবার স্বাস্থ্য অধিদপ্তর থেকে পাঠানো করোনা বিষয়ক নিয়মিত সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

Facebooktwitterlinkedinrssyoutubemailby feather

স্কুল-কলেজ শিক্ষকদের জুনের এমপিও-উৎসব ভাতার চেক ছাড়

নিজস্ব প্রতিবেদক | ০৭ জুলাই, ২০২১

বেসরকারি স্কুল ও কলেজের শিক্ষক-কর্মচারীদের জুন (২০২১) মাসের এমপিওর চেক ছাড় হয়েছে। একইসঙ্গে ঈদুল আজহার উৎসব ভাতার চেকও ব্যাংকে পাঠানো হয়েছে। বুধবার (৭ জুলাই) শিক্ষা প্রশাসনের একাধিক সূত্র দৈনিক শিক্ষাডটকমকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছে। বেতন-ভাতা তোলার শেষ দিন ১৪ জুলাই। প্রতিষ্ঠান প্রধানদের ওয়েবসাইট (emis.gov.bd) থেকে নিজ নিজ প্রতিষ্ঠানের এমপিওর শিট ডাউনলোড করতে বলা হয়েছে।

Facebooktwitterlinkedinrssyoutubemailby feather

করোনায় রেকর্ড ২০১ জনের মৃত্যু

নিজস্ব প্রতিবেদক | ০৭ জুলাই, ২০২১

দেশে কোভিড-১৯ সংক্রমণ বেড়েই চলেছে। প্রতিদিন হাজার হাজার মানুষ আক্রান্ত হচ্ছেন। করোনা সংক্রমণ শুরু হওয়ার পর থেকে দৈনিক সংক্রমণের সব রেকর্ড ভেঙে গেছে গত কয়েকদিনে।

করোনাভাইরাসের আক্রান্ত হয়ে দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় রেকর্ড ২০১ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে করোনায় মৃত্যু সংখ্যা দাঁড়ালো ১৫ হাজার ৫৯৩ জন। করোনায় মৃত্যু ও আক্রান্তের সবশেষ পরিসংখ্যান জানাতে বুধবার স্বাস্থ্য অধিদফতরের সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন শনাক্ত হয়েছে ১১ হাজার ১৬২ জন। এ পর্যন্ত মোট শনাক্ত হয়েছে ৯ লাখ ৭৭ হাজার ৫৬৮ জন। এ নিয়ে দেশে টানা ১১ দিন শতাধিক ব্যক্তির মৃত্যু হয়েছে। এর আগে মঙ্গলবার করোনায় প্রাণ হারান ১৬৩ জন। এদিন রেকর্ড ১১ হাজার ৫২৫ জনের করোনা শনাক্ত হয়।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, ২৪ ঘণ্টায় নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে ৩৫ হাজার ৬৩৯টি। নমুনা পরীক্ষার তুলনায় শনাক্তের হার ৩১ দশমিক ৩২ শতাংশ। করোনায় আক্রান্ত হওয়ার পর এখন পর্যন্ত সুস্থ হয়েছেন ৮ লাখ ৫০ হাজার ৫০২ জন। সর্বশেষ ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন ৫ হাজার ৯৮৭ জন।

Facebooktwitterlinkedinrssyoutubemailby feather

‘লকডাউন’ আরও সাত দিন বাড়তে পারে

নিজস্ব প্রতিবেদক | ০৪ জুলাই, ২০২১

করোনা সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে চলমান কঠোর বিধিনিষেধ আরও এক সপ্তাহ বাড়ানোর পরামর্শ দিয়েছে করোনাসংক্রান্ত কারিগরি পরামর্শক কমিটি। এ বিষয়ে সরকারের নীতিনির্ধারক মহলেও আলোচনা চলছে বলে জানা গেছে।

দেশে করোনা সংক্রমণ ও এতে মৃত্যু উদ্বেগজনকভাবে বাড়তে থাকায় গত ১ জুলাই থেকে শুরু হয়েছে সাত দিনের কঠোর বিধিনিষেধ। ৭ জুলাই বুধবার মধ্যরাতে তা শেষ হওয়ার কথা। করোনাসংক্রান্ত কারিগরি পরামর্শক কমিটির সভাপতি অধ্যাপক মোহাম্মদ সহিদুল্লা আজ রোববার বলেছেন, তাঁরা চান এই বিধিনিষেধ আরও এক সপ্তাহ বাড়ানো হোক। বিজ্ঞানসম্মতভাবে সেটাই করা উচিত। মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের সূত্রগুলোও বলছে, চলমান এই বিধিনিষেধ আরও এক সপ্তাহ বাড়ানোর পরিকল্পনা করা হচ্ছে।

করোনা সংক্রমণের দ্বিতীয় ঢেউ নিয়ন্ত্রণে সরকার এ বছর প্রথমে ৫ এপ্রিল থেকে ধাপে ধাপে বিধিনিষেধ দিয়ে আসছে। দেশব্যাপী বিধিনিষেধের পাশাপাশি এবার স্থানীয় প্রশাসনও বিভিন্ন এলাকায় বিশেষ বিধিনিষেধ জারি করে। কিন্তু তারপরও করোনা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে না আসায় সারা দেশে কঠোর বিধিনিষেধ দেওয়া হয়।

গত ২৮ জুন মন্ত্রিসভার বৈঠক শেষে মন্ত্রিপরিষদ সচিব খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম জানিয়েছিলেন, ১ জুলাই সকাল ছয়টা থেকে ৭ জুলাই রাত ১২টা পর্যন্ত কঠোর বিধিনিষেধ থাকবে। তবে প্রয়োজন মনে হলে তা আরও এক সপ্তাহ বাড়তে পারে।

চলমান বিধিনিষেধ আরও এক সপ্তাহ বাড়ছে কি না, জানতে চাইলে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের একজন ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা আজ বলেন, এখনো হাতে সময় আছে। এখনো চূড়ান্ত কোনো সিদ্ধান্ত হয়নি। ৬ জুলাই এ বিষয়ে জানা যাবে।

চলমান বিধিনিষেধে সব সরকারি-বেসরকারি অফিস, শপিং মল, দোকানপাট এবং গণপরিবহন ছাড়াও যন্ত্রচালিত যানবাহন (জরুরি কাজে নিয়োজিত ছাড়া) চলাচল বন্ধ রয়েছে। সব পর্যটনকেন্দ্র, রিসোর্ট, কমিউনিটি সেন্টার ও বিনোদনকেন্দ্র, জনসমাবেশ হয়—এ ধরনের সামাজিক (বিবাহোত্তর অনুষ্ঠান, জন্মদিন, পিকনিক, পার্টি ইত্যাদি), রাজনৈতিক ও ধর্মীয় আচার-অনুষ্ঠানও বন্ধ। অতি জরুরি প্রয়োজন (ওষুধ-নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্য কেনা, চিকিৎসাসেবা, মৃতদেহ দাফন বা সৎকার ইত্যাদি) ছাড়া ঘরের বাইরে বের হতে মানা করেছে সরকার। নির্দেশ অমান্যকারীর বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে। প্রতিদিনই অনেক মানুষকে গ্রেপ্তার ও জরিমানা করা হচ্ছে। এবার বেসামরিক প্রশাসনকে সহায়তার জন্য টহলে নেমেছে সেনাবাহিনী।

তবে শিল্পকারখানাগুলো স্বাস্থ্যবিধি অনুসরণ করে নিজস্ব ব্যবস্থাপনায় চালু রয়েছে। আইনশৃঙ্খলা ও জরুরি পরিষেবা, স্বাস্থ্যসেবা, করোনার টিকাদান, রাজস্ব আদায় কার্যাবলি, বিদ্যুৎ, পানি, গ্যাস ও জ্বালানি, ফায়ার সার্ভিস, টেলিফোন, ইন্টারনেট, গণমাধ্যম (প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক মিডিয়া), বেসরকারি নিরাপত্তাব্যবস্থা, ডাকসেবা, ব্যাংক, ফার্মেসি ও ফার্মাসিউটিক্যালসহ অন্যান্য জরুরি বা অত্যাবশ্যকীয় পণ্য ও সেবার সঙ্গে সংশ্লিষ্ট অফিসের কর্মচারী ও যানবাহন প্রাতিষ্ঠানিক পরিচয়পত্র দেখিয়ে যাতায়াত করতে পারছেন। পণ্য পরিবহনে নিয়োজিত ট্রাক, লরি, কাভার্ড ভ্যান, কার্গো ভেসেল এই নিষেধাজ্ঞার আওতামুক্ত রয়েছে। বন্দরসমূহ (বিমান, সমুদ্র, নৌ, স্থল) ও সংশ্লিষ্ট অফিসগুলো এই নিষেধাজ্ঞার আওতার বাইরে রয়েছে।

সকাল ৯টা থেকে বিকেল ৫টা পর্যন্ত স্বাস্থ্যবিধি মেনে কাঁচাবাজার এবং নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্য কেনাবেচা করতে দেওয়া হচ্ছে। টিকা কার্ড দেখিয়ে টিকা গ্রহণের জন্য যাতায়াত করা যাচ্ছে। খাবারের দোকান, হোটেল-রেস্তোরাঁ সকাল ৮টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত খাবার বিক্রি (অনলাইনে কেনা বা খাবার নিয়ে যাওয়া) করতে পারছে। তবে হোটেলে বসে খাওয়ায় রয়েছে নিষেধাজ্ঞা। বিধিনিষেধের সময় সীমিত পরিসরে ব্যাংকিং সেবা চালু চলবে।

Facebooktwitterlinkedinrssyoutubemailby feather

করোনায় আরও ১৫৩ জনের মৃত্যু, শনাক্ত ৮ হাজার ৬৬১

নিজস্ব প্রতিবেদক | ০৪ জুলাই, ২০২১

মহামারি করোনাভাইরাসের (কোভিড-১৯) প্রকোপে দেশে লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে সংক্রমণ ও মৃত্যুর হার। গত ২৪ ঘণ্টায় এ ভাইরাস কেড়ে নিয়েছে আরও ১৫৩ জনের প্রাণ, যা একদিনে সর্বোচ্চ। এ নিয়ে করোনায় মোট মৃত্যুর সংখ্যা দাঁড়াল ১৫ হাজার ৬৫ জনে।

এর আগ, ১ জুলাই সর্বোচ্চ ১৪৩ জনের মৃত্যু হয়। এরপর ২ জুলাই ১৩২ জন মারা যান। ৩ জুলাই ১৩৪ জনের মৃত্যু হয়েছিল। এ সময়ে নতুন রোগী শনাক্ত হয়েছে ৮ হাজার ৬৬১ জন। এনিয়ে মোট আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৯ লাখ ৪৪ হাজার ৯১৭ জনে।

রোববার (৪ জুলাই) স্বাস্থ্য অধিদফতরের অতিরিক্ত পরিচালক (প্রশাসন) অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানা স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়। বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, একই সময়ে সরকারি ও বেসরকারি ৬০৩টি ল্যাবরেটরিতে ২৯ হাজার ৩১৫টি নমুনা সংগ্রহ ও ২৯ হাজার ৮৭৯টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়। এ নিয়ে মোট নমুনা পরীক্ষার সংখ্যা দাঁড়ালো ৬৭ লাখ ২৩ হাজার ৫৬০টি।

নমুনা পরীক্ষার তুলনায় শনাক্তের হার ২৮ দশমিক ৯৯ শতাংশ। মোট পরীক্ষার তুলনায় শনাক্তের হার ১৪ দশমিক ০৫ শতাংশ। গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়ে হয়েছেন ৪ হাজার ৬৯৮ জন। এ নিয়ে সুস্থ হয়ে ওঠা রোগীর সংখ্যা ৮ লাখ ৩৩ হাজার ৮৯৭ জন। ২৪ ঘন্টায় সুস্থতার হার ৮৮দশমিক ২৫ শতাংশ।

মারা যাওয়াদের মধ্যে পুরুষ ৯৬ এবং নারী ৫৭ জন। এদের মধ্যে ৯ জন বাসায় মারা গেছেন। ৩ জনকে হাসপাতালে মৃত অবস্থায় আনা হয়েছে। বাকিরা হাসপাতালে মারা গেছেন।

মৃত ১৫৩ জনের মধ্যে বয়সের হিসাবে বিশোর্ধ্ব ৩ জন, ত্রিশোর্ধ্ব ১১ জন, চল্লিশোর্ধ্ব ২৪ জন, পঞ্চাশোর্ধ্ব ৪৫ জন এবং ষাটোর্ধ্ব ৭০ জন মারা যান। বিভাগওয়ারি হিসাবে দেখা গেছে, ঢাকায় ৪৬, চট্টগ্রামে ১৫, রাজশাহীতে ১২, খুলনায় ৫১, বরিশালে ৩,সিলেটে ২, রংপুরে ১৫ এবং ময়মনসিংহ বিভাগে ৯ জনের মৃত্যু হয়।

গত বছরের ৮ মার্চ দেশে প্রথম ৩ জনের দেহে করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়। এর ১০ দিন পর ১৮ মার্চ দেশে এ ভাইরাসে আক্রান্ত প্রথম একজনের মৃত্যু হয়।

Facebooktwitterlinkedinrssyoutubemailby feather

সর্দি-কাশি সারানোর সহজ ঘরোয়া ওষুধ

স্বাস্থ্য ডেস্ক,৩ জুন:
সর্দি-কাশি, জ্বর মানেই করোনা সংক্রমণ নয়। ঋতু পরিবর্তনের সময় এই উপসর্গগুলো অনেকেরই দেখা দেয়। কাজেই ভয় না পেয়ে, আগেভাগেই কড়া কড়া অ্যান্টিবায়োটিক না খেয়ে সহজ ঘরোয়া উপায়ে মোকাবেলা করুন।

পেঁয়াজ
সর্দি-কাশি সারানোর সবচেয়ে সহজ ওষুধ পেঁয়াজ। একটা মাঝারি মাপের পেঁয়াজ কুচি কুচি করে কেটে নিন। একটা ছোট বাটিতে পানি নিয়ে পেঁয়াজ কুচি ফেলে ছয়-আট ঘণ্টা ভিজতে দিন। এর সঙ্গে দুই-তিন চামচ মধু মিশিয়ে দিনে দুইবার করে খান। শিশুদের জন্যও খুব উপকারী এটি। সর্দি-কাশি তাড়ানোর পাশাপাশি শরীরকে ভেতর থেকে সতেজ করে তোলে, রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়িয়ে ভাইরাসের আক্রমণ রুখে দেয়।

রসুন
প্রতিদিন সকালে খালি পেটে দুই কোয়া কাঁচা রসুন আর কাঁচা আদা চিবিয়ে খেলে উপকার পাবেন। রসুনের অ্যান্টিব্যাকটেরিয়াল ও অ্যান্টিফাঙ্গাল উপাদান শরীরে তাপমাত্রার ভারসাম্য রক্ষা করে, রক্ত সঞ্চালনক্ষমতা বাড়ায়, শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতাও বৃদ্ধি পায়।

মধুর মিশ্রণ
গরম পানিতে সামান্য মধু, লেবুর রস আর আদার রস মিশিয়ে দিনে দুইবার খান। কফ ও গলা ব্যথা থেকে মুক্তি পাবেন।

আদা
একটি আদার টুকরাকে ছোট ছোট করে কেটে লবণ মিশিয়ে নিন। এই লবণ মেশানো আদা মুখে নিয়ে কিছুক্ষণ চিবান। সর্দি-কাশিতে আরাম পাবেন!

আদা, তুলসী পাতা থেঁতো করে মধু মিশিয়েও খেতে পারেন। এ ছাড়া হলুদ মেশানো গরম দুধ সর্দি-কাশি, জমা কফের সমস্যা দূর করে।

হলুদ চা
এটি হলুদ, মধু ও লেবু দিয়ে প্রস্তুত করা হয়। হলুদে কারকিউমিন নামের একটি যৌগ রয়েছে, যা শরীরে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে সাহায্য করে এবং এর শক্তিশালী অ্যান্টি-ইনফ্লামেটরি যৌগ শরীরের ব্যথা উপশমেও সহায়তা করতে পারে। এই পানীয় তৈরি করতে ১৫-২০ মিনিট জ্বাল দিয়ে হলুদ সিদ্ধ করতে হবে। এরপর স্বাদমতো লেবু ও মধু দিয়ে গরম পরিবেশন করতে হবে।

মসলা চা
এই ইমিউনিটি বুস্টারটির উপাদানগুলো রান্নাঘরে সহজেই পাওয়া যায়। যেমন—আদা, দারচিনি, গোলমরিচ, লবঙ্গ, এলাচি, তুলসী পাতা মধু সহযোগে পরিমাণমতো পানিতে ৩০ মিনিট ধরে ফোটাতে হবে। এই পানীয়ে অ্যান্টিব্যাকটেরিয়াল ও অ্যান্টিভাইরাল বৈশিষ্ট্য রয়েছে, যা রোগ প্রতিরোধের ক্ষমতাকে দ্বিগুণ করে তোলে।

গ্রিন স্মুদি
এই স্বাস্থ্যকর ও সুস্বাদু সবুজ স্যুপটি বিশেষ করে গরমের সময় উপযুক্ত খাদ্য। এটি ভিটামিন ‘এ’, ভিটামিন ‘সি’, ফলিক এসিড ও অন্যান্য অ্যান্টি-অক্সিডেন্টসমৃদ্ধ। এই মিশ্রণ বানাতে প্রয়োজন পড়বে কিছু পালংশাক, আম, আনারস, লেবুর রস, তাজা কাটা আদা। আমন্ড মিল্ক ও দই দিয়ে মিশ্রণটি তৈরির পর ঠাণ্ডা করে পরিবেশন করতে হবে।

হানি লেমনেড
এই মিশ্রণ তৈরি করতে হবে চার কাপ পানিতে আদা, এক ইঞ্চি সমান দারচিনি, তিনটি রসুনের কোয়া, এক চা চামচ পুদিনার রস এবং লেবুর রস দিয়ে ভালো করে ফুটিয়ে। এরপর মধু দিয়ে গরম অবস্থায় পান করতে হবে। এই পানীয় গলা ব্যথা ও কাশির কষ্টে উপশম দেবে। গলায় অতিরিক্ত শ্লেষ্মা জমতে দেবে না।

কাড়া
একটি পাত্রে তুলসী, লবঙ্গ, দারচিনি, আদা, জোয়ান, হলুদ ও কালো মরিচ দিয়ে পানির মধ্যে সিদ্ধ করতে হয়। পরিমাণমতো মধু বা গুড় দেওয়া যেতে পারে। সর্দি-কাশির সঙ্গে লড়াই করতে অত্যন্ত উপকারী এই পানীয়।

Facebooktwitterlinkedinrssyoutubemailby feather

একটি পোস্টে ৩ কোটির বেশি

প্রিয়াংকা-শিক্ষান্তজার্তিক ডেস্ক,৩ জুলাই ২০২১:
অনেকের মনে প্রশ্ন, প্রিয়াঙ্কা এত ছবি পোস্ট করেন কেন! তাঁর ছবিগুলো ভরে ওঠে লাইকে, মন্তব্যের ঘর নানা প্রতিক্রিয়ায়। কখনো কখনো ভাইরাল হয়ে যায় সাবেক এই বিশ্বসুন্দরীর কিছু ছবি। ছবি কি এমনিতেই পোস্ট করেন তিনি? না, বরং নানা রকম পণ্যের প্রচার করেন তিনি। সেসবও বিনা মূল্যে নয়।
সম্প্রতি ছবি শেয়ারিংয়ের সাইট ইনস্টাগ্রাম প্রকাশ করেছে ২০২১ সালের শীর্ষ ৩০ ধনীর তালিকা। এ তালিকায় জায়গা করে নিয়েছেন দুজন ভারতীয়। ভারতীয় ক্রিকেট দলের অধিনায়ক বিরাট কোহলি আর অভিনেত্রী প্রিয়াঙ্কা চোপড়া। এ তালিকা জানিয়ে দিয়েছে, ইনস্টাগ্রামে প্রতিটি পোস্ট থেকে তাঁরা কত টাকা আয় করেন।

 

 

 

 

 

 

ইনস্টাগ্রামের প্রকাশিত তালিকায় প্রিয়াঙ্কা ৩০ জনের মধ্যে আছেন ২৭তম স্থানে। আর কোহলির নাম আছে ১৯ নম্বরে। একটি ওয়েবসাইট ফাঁস করেছে, প্রিয়াঙ্কা প্রতি পোস্ট থেকে পান ৩ কোটি ৪১ লাখ টাকা, বিরাট পান ৫ কোটি ৭৬ লাখ টাকা। পরপর তিন বছর এ দুজনের নাম ইনস্টাগ্রামের ধনীর তালিকায় উঠে এসেছে।

 

ইনস্টাগ্রামের প্রতি পোস্ট থেকে সবচেয়ে বেশি আয় করেছেন ফুটবলার ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো। জনপ্রিয় এই ফুটবল তারকা প্রতি পোস্ট থেকে আয় করেন ১৩ কোটি ৬০ লাখ টাকা। ইনস্টাগ্রামে প্রিয়াঙ্কার অনুসারী সাড়ে ৬ কোটি, আর বিরাটের সাড়ে ১২ কোটি।

 

Facebooktwitterlinkedinrssyoutubemailby feather

লকডাউনে স্কুলে কোচিং ক্লাস, ৩০ হাজার টাকা জরিমানা

দিনাজপুর প্রতিনিধি | ০১ জুলাই, ২০২১
করোনা সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে দেয়া কঠোর লকডাউনের মধ্যে দিনাজপুরের বিরামপুর উপজেলার হোসেন আলী সরকার মেমোরিয়াল স্কুলে কোচিং ক্লাস চলছিল। বৃহস্পতিবার (১ জুলাই) ২৫ জন শিক্ষার্থীকে কোচিং ক্লাস করানো হচ্ছিল ওই স্কুলে। লকডাউনে কোচিং ক্লাস নেয়ার দায়ে ওই স্কুলের পরিচালককে ৩০ হাজার টাকা জরিমানা করেছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত।

বৃহস্পতিবার বেলা ১১টায় উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট পরিমল কুমার সরকার পৌর শহরের কৃষ্টচাঁদপুর এলাকার হোসেন আলী সরকার মেমোরিয়াল স্কুলে অভিযান পরিচালনা করেন। এ সময় তিনি স্কুলের পরিচালক মো. শাহেদ আলীকে জরিমানা করেন।

বিরামপুরের ইউএনও পরিমল কুমার সরকার বলেন, ‘দেশে করোনাভাইরাসের প্রকোপ বেড়ে যাওয়ায় সারা দেশে কঠোর লকডাউন চলছে। গোপন সংবাদের ভিত্তিতে জানতে পারি, এখানে লকডাউনের মধ্যে শিক্ষার্থীদের কোচিং ক্লাস করানো হচ্ছে। পরে অভিযান পরিচালনা করা হয়। অভিযান পরিচালনার সময়ে এখানে ২৫ শিক্ষার্থী উপস্থিত ছিল। এ কারণে কোচিংয়ের পরিচালককে জরিমানার পাশাপাশি ভবিষ্যতের জন্য সতর্ক করা হয়েছে।’

Facebooktwitterlinkedinrssyoutubemailby feather

৭ জুলাই পর্যন্ত মাঠে থাকবে সেনাবাহিনী

নিজস্ব প্রতিবেদক | ০১ জুলাই, ২০২১
করোনাভাইরাসের বিস্তার ঠেকাতে আগামীকাল থেকে ৭ জুলাই পর্যন্ত লকডাউনে সারা দেশে সশস্ত্র বাহিনী মোতায়েন থাকবে। লকডাউনের বিধিনিষেধ বাস্তবায়নে বেসামরিক প্রশাসনকে সহায়তার জন্য সশস্ত্র বাহিনী কাজ করবে।

বুধবার (৩০ জুন) আন্তঃবাহিনী জনসংযোগ পরিদপ্তর (আইএসপিআর) থেকে পাঠানো এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এই কথা জানানো হয়েছে।

Read More »

Facebooktwitterlinkedinrssyoutubemailby feather

স্কুল-কলেজ খোলার দাবি অবান্তর : শিক্ষামন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক | ৩০ জুন, ২০২১
করোনার উচ্চ সংক্রমণের সময়ে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলার দাবি অবান্তর বলে মন্তব্য করেছেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি। শিগগিরই এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষার বিষয়ে সিদ্ধান্ত জানানো বলে বলেও মন্ত্রী উল্লেখ করেছেন।

বুধবার (৩০ জুন) সংসদে বাজেট পাসের প্রক্রিয়ার সময় বিরোধী দলের সংসদ সদস্যদের বিভিন্ন ছাঁটাই প্রস্তাবের জবাব দিতে গিয়ে শিক্ষামন্ত্রী এসব কথা বলেন। এর আগে জাতীয় পার্টি, বিএনপি ও গণফোরামের সদস্যরা ছাঁটাই প্রস্তাবেরও পর তাদের বক্তব্য দেন। এসময় কোনও কোনও সংসদ সদস্য স্কুল খুলে দেওয়ার দাবি করেন। অবশ্য কেউ কেউ এর বিরোধিতাও করেন।

Read More »

Facebooktwitterlinkedinrssyoutubemailby feather

Responsive WordPress Theme Freetheme wordpress magazine responsive freetheme wordpress news responsive freeWORDPRESS PLUGIN PREMIUM FREEDownload theme free

hit counter