Home » খেলার খবর

খেলার খবর

০ রানে ফিরলেন শান্ত-মুশফিক

স্পোর্টস ডেস্ক,১০ আগস্ট ২০২২:

রীতিমতো বিপাকেই পড়ে গেছে বাংলাদেশ। সন্তোষজনক শুরুর পর তামিম ইকবাল ফিরে গিয়েছিলেন সাজঘরে। এরপর উইকেটে আসা নাজমুল হোসেন শান্ত আর মুশফিকুর রহিম রানের খাতাটাই যে খুলতে পারলেন না!

হোয়াইটওয়াশ এড়ানোর লক্ষ্যে নামা ম্যাচে বাংলাদেশ টসে জেতেনি। জিম্বাবুয়ে ব্যাটিংয়ে পাঠিয়েছে সফরকারীদের। এরপর তামিম আর এনামুল হক বিজয়ের জুটিটা ভালো শুরু এনে দিয়েছিল বাংলাদেশকে। তামিম ম্যাচের দ্বিতীয় বলেই চার মেরে ইতিবাচক শুরুর ইঙ্গিত দিয়েছিলেন। তবে সেই চারের পর কিছুটা রয়েসয়েই খেলছিলেন তিনি, অপরপাশে এনামুলও ছিলেন কিছুটা খোলসেই। ৮ ওভারে ৪০ তোলে বাংলাদেশ।

এরপরই ঘটল বিপত্তি। ৯ম ওভার করতে আসা মাধেভেরের বলটা অফসাইডে ঠেলে দিয়ে রানের ইঙ্গিত দিয়েছিলেন বিজয়, তাতে সাড়া দিয়েছিলেন তামিম। তবে একটু পরই তার মনে হলো, ভুল হয়েছে ‘কলটা’। এরপর তিনি সিদ্ধান্ত বদলান যখন, ততক্ষণে তামিম পৌঁছে গেছেন প্রায় মাঝ উইকেটে। এরপর ক্রিজে ফেরার আগে এনগারাভার বাড়ানো বলটা ধরে উইকেট ভাঙেন মাধেভেরে। ৩০ বলে ১৯ রান করে তামিম ফেরেন সাজঘরে। ৪১ রানে ১ উইকেট খোয়ায় বাংলাদেশ।

তামিমের বিদায়ের তিন বল পর বিদায় নেন শান্ত। তিনে নামা এই ব্যাটসম্যান দশম ওভার করতে আসা ব্র্যাড ইভান্সের অনেক বাইরের এক শর্ট বলে তাড়া করেন, এরপর ব্যাকওয়ার্ড পয়েন্ট ক্যাচ দিয়ে ফেরেন।

এর দুই বল পর সেই ইভান্স একই রকম এক শর্ট বল দেন। এবার চারে নামা ব্যাটসম্যান মুশফিকুর রহিম আপার কাট করে বসেন, যা থার্ড ম্যান অঞ্চলে এনগারাভার ধরতে কোনো সমস্যাই হয়নি।

জিম্বাবুয়ের কাছে সিরিজ হারের লজ্জা বাংলাদেশের

ক্রীড়া ডেস্ক,২ আগষ্ট ২০২২: টি-টোয়েন্টিতে হারের বৃত্তে আটকে যাওয়া বাংলাদেশ দল দীর্ঘদিন পর জিম্বাবুয়ে বিপক্ষে তিন ম্যাচ সিরিজের দ্বিতীয় ম্যাচে জয় পায়। তবে সেই জয়ের ধারা ধরে রাখতে পারেনি টাইগাররা। প্রথম ম্যাচ হারের পর আজ মঙ্গলবার তৃতীয় ও শেষ ম্যাচেও হেরেছে ১০ রানের ব্যবধানে। এতে ১-২ ব্যবধানে সিরিজ হারল সফরকারীরা। এই হারের ফলে প্রথমবারের মতো জিম্বাবুয়ের কাছে টি-টোয়েন্টি সিরিজ হারল বাংলাদেশ।

আগের দুই ম্যাচে সমান ১টি করে জয় পায় দুই দল। সে হিসেবে আজ শেষ ম্যাচটি হয়ে ওঠে অঘোষিত ফাইনাল। এ ম্যাচে আগে ব্যাট করতে নেমে রায়ান বার্লের ঝোড়ো হাফসেঞ্চুরিতে ৮ উইকেট হারিয়ে স্কোর বোর্ডে ১৫৬ রানের পুঁজি পায় স্বাগতিকরা। ১৫৭ রানের লক্ষ্য টপকাতে নেমে জিম্বাবুয়ের বোলারদের কাছে ধরাশায়ী টাইগার ব্যাটসম্যানরা। শেষদিকে কিছুটা আশা জাগলেও তাদের ইনিংস থামে ১৪৬ রানে।

১৫৭ রানের লক্ষ্য, টি-টোয়েন্টিতে এমন লক্ষ্যকে বড়জোর মাঝারি মাপের বলা চলে। এই লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে যেমন শুরুর দরকার ছিল বাংলাদেশের, তেমনটা এনে দিতে পারেননি ওপেনাররা। ইনিংসের দ্বিতীয় ওভারেই সাজঘরে লিটন দাস। ভিক্টর নিয়াউচিকে ফিরতি ক্যাচ দিয়ে সাজঘরে ফেরেন এই ডানহাতি। ৬ বলে ১৩ রান করেন। দীর্ঘ প্রতীক্ষার পর অভিষেক ক্যাপ পাওয়া পারভেজ হোসেন ইমন ২ রানের বেশি করতে পারেননি। টাইমিংয়ে গড়বড় করে নিয়াউচির বলে মিড অনে ক্যাচ দিয়ে সাজঘরে ফেরেন।

আরও পড়ুন>> নাসুমের এক ওভারে ৩৪ রান বার্লের

দলে সুযোগ পেয়েও আস্থার প্রতিদান দিতে পারেননি এনামুল হক বিজয়ও। আরো একবার ব্যর্থ হয়েছেন তিনি। ১৩ বলে ১৪ রান করে বোল্ড হন। এতে ৩৪ রানে ৩ উইকেট হারিয়ে বিপদে বাংলাদেশ। সেই বিপদ আর কাটিয়ে উঠতে পারেনি সফরকারী শিবির। নাজমুল হোসেন শান্ত ও মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ কিছুটা আশা দেখালেও সেট হয়েও নিজেদের ইনিংস বড় করতে পারেননি তারা।

বাংলাদেশের বিপক্ষে টি-টোয়েন্টিতে জিম্বাবুয়ের দল ঘোষণা

ক্রীড়া ডেস্ক,৩০ জুলাই ২০২২:
বাংলাদেশের বিপক্ষে তিন ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজের জন্য দল ঘোষণা করেছে জিম্বাবুয়ে।

বৃহস্পতিবার ১৫ সদস্যের দল ঘোষণা করে জিম্বাবুয়ে ক্রিকেট বোর্ড। টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের বাছাইপর্বে খেলা স্কোয়াডের সবাই জায়গা ধরে রেখেছেন এই সিরিজে।

চোট থেকে সেরে না ওঠায় দুই পেসার টেন্ডাই চাটারা ও ব্লেসিং মুজারাবানিকে পাচ্ছে না জিম্বাবুয়ে। তাদের বদলি হিসেবে দলে সুযোগ পাওয়া অলরাউন্ডার টনি মুনিয়োঙ্গা ও পেসার তানাকা চিভাঙ্গা জায়গা ধরে রেখেছেন। তাছাড়া পেস আক্রমণে শক্তি বাড়াতে দলে নেয়া হয়েছে ভিক্টর নিয়াউচিকে।

আগামী শনিবার হারারে স্পোর্টস ক্লাব মাঠে প্রথম টি-টোয়েন্টিতে মুখোমুখি হবে জিম্বাবুয়ে ও বাংলাদেশ। পরদিন দ্বিতীয় ও মঙ্গলবার হবে তৃতীয় ম্যাচ।

জিম্বাবুয়ে টি-টোয়েন্টি দল: ক্রেইগ আরভিন (অধিনায়ক), রায়ান বার্ল, রেজিস চাকাভা, তানাকা চিভাঙ্গা, লুক জঙ্গুয়ে, ইনোসেন্ট কাইয়া, ওয়েসলি মাধেভেরে, টাডিওয়ানাশে মারুমানি, ওয়েলিংটন মাসাকাদজা, টনি মুনিয়োঙ্গা, রিচার্ড এনগারাভা, ভিক্টর নিয়াউচি, সিকান্দার রাজা, মিলন্টন শুম্বা, শন উইলিয়ামস।

ফর্ম ফেরাতে কোহলিকে জিম্বাবুয়েতে খেলাবে ভারত

স্পোর্টস ডেস্ক,২১ জুলাই ২০২২: বিরাট কোহলি নিজের হারানো ফর্ম খুঁজে ফিরছেন শেষ কিছু দিনে। এবার তার ফর্ম ফেরাতে নতুন ভাবনায় ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড। আসন্ন জিম্বাবুয়ে সফরের দলে কোহলিকে রাখার কথা ভাবছে দলটি।

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের আর বেশি সময় বাকি নেই। এর আগে আছে এশিয়া কাপ। এর আগে কোহলিকে রানে ফেরাতে মরিয়া ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড। সে কারণেই জিম্বাবুয়ের মাটিতে আগামী ১৮ আগস্ট থেকে শুরু হতে যাওয়া ওয়ানডে সিরিজে কোহলিকে খেলাতে চান নির্বাচকরা।
সম্প্রতি এক বোর্ড কর্তা স্থানীয় গণমাধ্যমকে বলেছেন, ‘নির্বাচকদের সভার আগে বেশ সময় আছে। তবে আমাদের পরিকল্পনাটা হচ্ছে, জিম্বাবুয়ের মাটিতে সিরিজে সে যে ফরম্যাটে সবচেয়ে ভালো, সেই ওয়ানডে ফরম্যাটকে কাজে লাগিয়ে কোহলিকে তার ফর্ম ফেরানোর সুযোগ করে দেওয়া।’

ভারতের নিয়মিত একাদশ থেকে কোহলি ছাড়া এই সফরে আর খুব বেশি মুখ দেখার সম্ভাবনা নেই। ধারণা করা হচ্ছে, ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফরে ভারতের অধিনায়কত্ব করা শিখর ধাওয়ানকেই জিম্বাবুয়ে সফরে অধিনায়ক হিসেবে রাখা হবে।

ওয়েস্ট ইন্ডিজে ৫ ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজ খেলতে যাওয়া ভারতীয় দলে রাখা হয়নি কোহলিকে। ভারতীয় গণমাধ্যম জানাচ্ছে, কোহলির অনুরোধেই তাকে দেওয়া হয়েছে বিশ্রাম।
শেষ কিছু দিনে ফর্মটা তার পক্ষে কথা বলছে না। টেস্ট, ওয়ানডে আর টি-টোয়েন্টির ছয় ইনিংস মিলিয়ে ১০০ রানও করতে পারেননি তিনি। তবে এমন কঠিন মুহূর্তেও অধিনায়ক রোহিত শর্মাকে পাশে পাচ্ছেন তিনি। বলেছেন, কোহলির যেমন সক্ষমতা, তাতে শিগগিরই তিনি ফর্মে ফিরবেন। নির্বাচকরাও তাকে সুযোগ দিয়েই যাচ্ছেন।

টিভিতে আজ যেসব খেলা দেখবেন

স্পোর্টস ডেস্ক,১১ জুন ২০২২:

ক্রিকেট
ইংল্যান্ড-নিউজিল্যান্ড
নটিংহাম টেস্ট, ২য় দিন
সরাসরি, বিকেল ৪টা
সনি টেন ২

শ্রীলঙ্কা-অস্ট্রেলিয়া
৩য় টি-টোয়েন্টি
সরাসরি, সন্ধ্যা ৭টা ৩০মিনিট
সনি সিক্স

ফুটবল
এশিয়ান কাপ বাছাই
বাংলাদেশ-তুর্কমেনিস্তান
সরাসরি, বিকেল ৩টা ১৫মিনিট
টি স্পোর্টস
ভারত-আফগানিস্তান
সরাসরি, রাত ৯টা
স্টার স্পোর্টস ৩

উয়েফা নেশনস লিগ
ইংল্যান্ড-ইতালি
সরাসরি, রাত ১২টা ৪৫মিনিট
সনি টেন ২
নেদারল্যান্ডস-পোল্যান্ড
সরাসরি, রাত ১২টা ৪৫মিনিট
সনি সিক্স
ওয়েলস-বেলজিয়াম
সরাসরি, রাত ১২টা ৪৫মিনিট
সনি টেন ১
হাঙ্গেরি-জার্মানি
সরাসরি, রাত ১২টা ৪৫মিনিট
সনি টেন ৩

হকি
এফআইএইচ প্রো লিগ
বেলজিয়াম-ভারত
সরাসরি, রাত ৮টা ৩০মিনিট
স্টার স্পোর্টস সিলেক্ট ১

পাপনের বিস্ফোরক মন্তব্যের জবাব দিলেন তামিম

ক্রিকেট ডেস্ক,৭ জুন ২০২২:
টি-টোয়েন্টি নিয়ে নিজের পরিকল্পনা জানানোর সুযোগ পাচ্ছেন না বলে অভিযোগ করেছিলেন তামিম ইকবাল। তার এই অভিযোগের জবাব দিতে গিয়ে বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন বলেছেন যে, তামিম সরাসরি মিথ্যাচার করেছেন। আসলে তামিমকে বারবার অনুরোধ করা হলেও তিনি খেলতে রাজি হননি। তামিম বিসিবি সভাপতির বক্তব্যের প্রতিবাদ জানিয়ে মঙ্গলবার (৭ জুন) ফেসবুকে নিজের অফিসিয়াল পেজে এক পোস্ট করেছেন।

সেই ফেসবুক স্ট্যাটাস ঢাকা পোস্টের পাঠকদের জন্য হুবহু তুলে ধরা হলো।
আমার আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টির ভবিষ্যৎ নিয়ে একটি কথার সূত্র ধরে অনেকে বিভ্রান্ত হচ্ছেন বা মিডিয়ায় কিছু বিভ্রান্তি ছড়াচ্ছে বলে দেখতে পাচ্ছি। দুই দিন আগে একটি অনুষ্ঠানে আমি স্পষ্ট করে বলেছি, আমার ঘোষণা আমি দেওয়ার সুযোগ পাচ্ছি না, অন্যরাই নানা কিছু বলে দিচ্ছে। এখানে বোর্ড কমিউনিকেট করেনি বা তাদের সঙ্গে যোগাযোগ হয়নি, এরকম কোনো কথা আমি একবারও বলিনি।

বোর্ড থেকে কয়েকবারই আমার সঙ্গে আলোচনা করেছে টি-টোয়েন্টি নিয়ে। আমি ৬ মাসের বিরতি নিয়েছি বোর্ডের সঙ্গে আলোচনা করে। এরপরও বোর্ডের সঙ্গে কথা হয়েছে কয়েক দফায়। এটা নিয়ে কোনো প্রশ্ন আমি কখনোই তুলিনি।

আমি সেদিন অনুষ্ঠানে যা বলেছি, আজকে আবার বলছি, “টি-টোয়েন্টি নিয়ে আমার যে প্ল্যান, সেটা তো আমাকে বলার সুযোগই দেওয়া হয় না। হয় আপনারা (মিডিয়া) বলে দেন, নয়তো অন্য কেউ বলে দেয়। তো এভাবেই চলতে থাকুক। আমাকে তো বলার সুযোগ দেওয়া হয় না। এতদিন ধরে আমি ক্রিকেট খেলি, এটা ডিজার্ভ করি যে আমি কী চিন্তা করি না করি, এটা আমার মুখ থেকে শোনা। কিন্তু হয় আপনারা কোনো ধারণা দিয়ে দেন, নয়তো অন্য কেউ এসে বলে দেয়। যখন বলেই দেয়, তখন আমার তো কিছু বলার নেই।”

এটুকুই বলেছিলাম। এখানে কি উল্লেখ আছে যে কেউ যোগাযোগ করেনি? এরকম কোনো শব্দ বা ইঙ্গিত আছে? খুবই সাধারণ ভাষায় বলেছি, আমার কথা আমাকে বলতে দেওয়া হচ্ছে না। ৬ মাসের বিরতি নিয়েছি, এর মধ্যেও মিডিয়া নানা কথা লিখে বা বলে যাচ্ছে, অন্যরাও কথা বলেই যাচ্ছেন।

গতির রেকর্ড নয়, টিম ইন্ডিয়াকে জেতানোই প্রধান লক্ষ্য উমরানের

নয়াদিল্লি,৬ জুন ২০২২: দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে আসন্ন পাঁচ ম্যাচের টি-২০ সিরিজে ক্রিকেট মহলের আগ্রহের কেন্দ্রে উমরান মালিক। সদ্যসমাপ্ত আইপিএলে সানরাইজার্স হায়দরাবাদের এই পেসার ঘণ্টায় দেড়শো কিমি গতিতে বল করেছেন নিয়মিত। দ্রুততম ডেলিভারিটি ছিল ঘন্টায় ১৫৭ কিমি বেগে।

তাঁকে আগামী দিনের তারকা হিসেবে দেখছেন ক্রিকেটপ্রেমীরা। চর্চা চলছে শোয়েব আখতারের ঘণ্টায় ১৬১ কিমির ডেলিভারির রেকর্ড তিনি ভাঙতে পারেন কিনা, তা নিয়ে। উমরান অবশ্য তা নিয়ে ভাবছেন না। তাঁর লক্ষ্য প্রোটিয়াদের বিরুদ্ধে টিম ইন্ডিয়াকে জেতানো।

উমরানের কথায়, ‘ওই রেকর্ড মাথায় রাখছি না। ভালো বল করাই লক্ষ্য। লাইন-লেংথ ঠিক রাখতে চাইছি। দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে পাঁচটি ম্যাচে দলের জয়ে অবদান রাখাই লক্ষ্য। সে জন্য গড়ে দেড়শো কিমি গতিতে বল করার ইচ্ছে রয়েছে।’

আইপিএলে ১৪ ম্যাচে ২২ উইকেট নিয়ে সেরা উদীয়মান ক্রিকেটারের পুরস্কার পেয়েছেন উমরান। তবে আত্মতুষ্ট না হয়ে তাঁকে বোলিং লাইনের উন্নতির পরামর্শ দিয়েছেন জাতীয় দলের প্রাক্তন কোচ রবি শাস্ত্রী। তাঁর কথায়, ‘স্টাম্প আক্রমণ করতে হবে উমরানকে। সেই লাইনে ফোকাস রাখা জরুরি।

পিচে পেসারদের জন্য সাহায্য মজুত থাকলে তবেই ও ভয়ঙ্কর হয়ে উঠবে। বিশেষ করে ক্রিজে আসা নতুন ব্যাটসম্যান ওর মারাত্মক গতিতে বিপদে পড়বে। উমরানকে শুধু ধারাবাহিক হতে হবে। নেটে জোর দিতে হবে লাইনের উপর। তবে লেংথ ঠিকই রয়েছে।’ সেই সঙ্গে শাস্ত্রী বলেন, ‘এই ভারতীয় দলে আরও কয়েকজন তরুণ পেসারের সামনে সুযোগ রয়েছে পায়ের তলার মাটি শক্ত করার।’

সিরিজ শুরুর আগেই ভারতের দুই বোলার রাতের ঘুম কেড়ে নিয়েছে দক্ষিণ আফ্রিকার

দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে টি২০ সিরিজে নেই বিরাট কোহলী, রোহিত শর্মা। তার পরেও চিন্তায় প্রোটিয়া অধিনায়ক। ভারতের দুই স্পিনারকে ভয় পাচ্ছেন তিনি।

নিজস্ব প্রতিবেদন,কলকাতা ০৫ জুন ২০২২:
ভারতের দুই সেরা ক্রিকেটার বিরাট কোহলী ও রোহিত শর্মা দলে নেই। তার পরেও টি২০ সিরিজের আগে ভয় কাটছে না দক্ষিণ আফ্রিকার অধিনায়ক তেম্বা বাভুমার। ভারতের দুই স্পিনার যুজবেন্দ্র চহাল ও কুলদীপ যাদব তাঁর রাতের ঘুম কেড়ে নিয়েছেন। এ বারের আইপিএলে ভাল বল করেছেন চহাল ও কুলদীপ। টি২০ সিরিজে তাঁরা দক্ষিণ আফ্রিকার ব্যাটারদের সমস্যায় ফেলতে পারেন বলে মনে করছেন বাভুমা।
টি২০ সিরিজ খেলতে ভারতে চলে এসেছে দক্ষিণ আফ্রিকা দল। দিল্লিতে সাংবাদিক সম্মেলনে বাভুমা বলেন, ‘‘আমাদের সামনে কঠিন চ্যালেঞ্জ। চহাল ও কুলদীপের বিরুদ্ধে আমরা আগে কয়েক বার খেলেছি। ওরা খুব ভাল মানের স্পিনার। আমাদের যে ক্রিকেটাররা আইপিএলে খেলেছে তারা ওদের কাছ থেকে দেখেছে। তারা ওদের নিয়ে নিজেদের মতামত দিয়েছে। আশা করছি, এ বার ওদের বিরুদ্ধে ভাল ভাবে খেলতে পারব।’’

এ বারের আইপিএলে বেগুনি টুপি জিতেছেন চহাল। ১৭ ম্যাচে ২৭ উইকেট নিয়েছেন তিনি। অন্য দিকে কুলদীপ ১৪ ম্যাচে ২১ উইকেট নিয়েছেন। আইপিএলের ফর্ম দু’জন দরে রাখতে পারলে সমস্যায় পড়বেন প্রোটিয়ারা। সেটা জানেন বাভুমা।

রোহিত না থাকায় টি২০ সিরিজে ভারতকে নেতৃত্ব দেবেন লোকেশ রাহুল। উমরান মালিক, অর্শদীপ সিংহের মতো তরুণ সুযোগ পেয়েছেন। কোহলীরা না থাকলেও ভারতীয় দলকে হালকা ভাবে নিতে নারাজ বাভুমা। তিনি বলেন, ‘‘হতে পারে ভারতীয় দলে অনেক নতুন মুখ রয়েছে। কিন্তু আইপিএলে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটারদের সঙ্গে সাজঘর ভাগ করে নিয়েছে ওরা। ওদের অভিজ্ঞতা বেড়েছে। তাই রাহুলদের হারাতে আমাদের ভাল মানের ক্রিকেট খেলতে হবে। সেই চ্যালেঞ্জ নিতে তৈরি।’’

অবসরের ইঙ্গিত দিলেন ‘ভারতের মেসি’ সুনীল ছেত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক,০৪ জুন ২০২২:

আন্তর্জাতিক গোলসংখ্যায় গত বছর আর্জেন্টাইন কিংবদন্তি লিওনেল মেসিকে ছাড়িয়ে গিয়েছিলেন ভারতীয় অধিনায়ক সুনীল ছেত্রী। বিশ্বের সর্বকালের সর্বোচ্চ আন্তর্জাতিক গোলদাতাদের তালিকায় এখন অবশ্য মেসির চেয়ে একধাপ পেছনে ষষ্ঠ অবস্থানে আছেন তিনি। বেশ কয়েক বছর ধরেই তার ফুটবল থেকে অবসরের গুঞ্জন শোনা যাচ্ছে, এবার ভারতের এশিয়া কাপ ফুটবলের বাছাই পর্বের ম্যাচের আগে তিনি নিজেই সেই গুঞ্জন আরও উসকে দিলেন।

সম্প্রতি সভাপতি প্রফুল্ল প্যাটেলকে সরিয়ে ভারতের সুপ্রিম কোর্ট তিন সদস্যের কমিটি (সিওএ) গড়ে দিয়েছে সর্বভারতীয় ফুটবল ফেডারেশন পরিচালনার জন্য। অনেকেরই আশঙ্কা, এর ফলে ফিফার নিষেধাজ্ঞার মুখে পড়তে পারে ভারত।  আগামী বুধবার (৮ জুন) কম্বোডিয়ার বিপক্ষে এশিয়া কাপ বাছাই পর্বের ম্যাচের আগে সংবাদ সম্মেলনে এই বিষয়টি নিয়ে কথা বোলার সময় নিজের অবসরের সম্ভাবনার কথাও জানিয়ে দেন ভারতীয় অধিনায়ক, ‘এই খবরটা (নিষেধাজ্ঞার কথা) শোনার পরে আমিও আতঙ্কিত হয়ে পড়েছিলাম। কারণ, এ রকম কিছু হলে দেশ জুড়ে চরম অস্থিরতা সৃষ্টি হত। তা ছাড়া আমার বয়স এখন ৩৭। জানি না, আর কত দিন খেলতে পারব। এটাই আমার শেষ ম্যাচ হবে কি না, তা-ও জানি না।’

তবে ৩৭ বছর বয়সী ছেত্রী আশা করছেন, ফিফার নিষেধাজ্ঞার মুখে পড়বে না ভারত, ‘আমার সামান্য জ্ঞান দিয়ে যা বুঝেছি, চিন্তিত হওয়ার কারণ নেই। আশা করছি, ফিফা নির্বাসিত করবে না। সব কিছু নিয়ন্ত্রণেই রয়েছে।’

অবসরের পর কোচিং করাবেন নাকি ফুটবলের প্রশাসনিক পর্যায়ে দেখা যাবে তাকে, সে প্রশ্নের উত্তর দিতে গিয়ে যেন অন্য দুনিয়ায় হারিয়ে যান সুনীল, ‘আমার ইচ্ছে জঙ্গলের মধ্যে একটা বাড়ি বানাব। কোলাহল, মোবাইল ফোন থেকে অনেক দূরে থাকতে চাই। প্রচুর বই পড়ব। জীবনকে উপভোগ করব। আর আত্মজীবনী লিখব।’

ভারতের সর্বকালের অন্যতম সেরা এই ফুটবলারের জীবন নিয়ে চলচ্চিত্র নির্মাণ হতে, এমন কানাঘুষা চলছে। বায়োপিক প্রসঙ্গে সুনীল বললেন, ‘অনেকেই আমার বায়োপিক করতে আগ্রহ দেখিয়েছেন। কিন্তু আমি খুব একটা উৎসাহী নই। আমার ইচ্ছে আত্মজীবনী লেখার। তবে সেটা ফুটবল ছাড়ার পরেই।’

অস্ট্রেলিয়া সিরিজে শ্রীলঙ্কার বোলিং কোচ মালিঙ্গা

ডেস্ক,০৩ জুন ২০২২

সাবেক অধিনায়ক লাসিথ মালিঙ্গাকে আসন্ন অস্ট্রেলিয়া সিরিজের জন্য বোলিং কৌশল কোচ হিসেবে নিয়োগ দিয়েছে শ্রীলঙ্কা। অজিদের বিপক্ষে টি-টোয়েন্টি ও ওয়ানডে সিরিজে দলের ডাগআউটে থাকবেন সাবেক এই পেসার। 

সম্প্রতি এক বিবৃতিতে শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট বোর্ড জানিয়েছে, ‘এই সিরিজ চলাকালে মালিঙ্গা শ্রীলঙ্কান বোলারদের কৌশলগত ও টেকনিক্যাল জ্ঞান দিয়ে ও মাঠে সেটার প্রতিফলন ঘটাতে সাহায্য করবে।’

আরো পড়ুনঃ অধিনায়কত্ব ফিরে পেলেন সাকিব, সহ-অধিনায়ক লিটন

এই ভূমিকায় মালিঙ্গা অবশ্য প্রথমবারের মতো কাজ করছেন না, চলতি বছর দলটির অস্ট্রেলিয়া সফরের ৫ ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজে একই ভূমিকা পালন করেছেন। সেই শ্রীলঙ্কা সেই সিরিজটা ৪-১ ব্যবধানে হেরেছিল বটে, তবে বোলিং ছিল দুর্দান্ত। পুরো সিরিজে একবারই কেবল অজিরা ১৬০ রানের বেশি স্কোর করতে পেরেছিল।

সেই বিবৃতিতে আরও বলা হয়েছে, ‘শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট বিশ্বাস করে মালিঙ্গার বিশাল অভিজ্ঞতা ও ডেথ বোলিংয়ে দক্ষতা, বিশেষ করে টি-টোয়েন্টি ফরম্যাটে দলকে এই গুরুত্বপূর্ণ সিরিজে দারুণভাবে সাহায্য করতে যাচ্ছে।’

শ্রীলঙ্কা তো বটেই, সীমিত ওভারের ক্রিকেটেরই অন্যতম এক কিংবদন্তি ফাস্ট বোলার ছিলেন মালিঙ্গা। ২০২১ সালে তিনি সব ধরনের ক্রিকেট থেকে অবসর নেন। অবসরের সময়ও তিনি টি-টোয়েন্টির সবচেয়ে বেশি উইকেট শিকারী ছিলেন। ৮৪ ম্যাচে তার ১০৭ উইকেটের রেকর্ড পরে ভেঙেছিলেন সাকিব আল হাসান।

কোচ হিসেবে শ্রীলঙ্কায় কাজ করা তো আছেই, মালিঙ্গার অভিজ্ঞতা আছে আইপিএলে কোচিংয়েরও। ২০১৮ আইপিএলে মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সের মেন্টর ছিলেন তিনি। এরপর সদ্যসমাপ্ত আইপিএলে তিনি রাজস্থান রয়্যালসের কোচের ভূমিকা পালন করেছেন।

অধিনায়কত্ব ফিরে পেলেন সাকিব, সহ-অধিনায়ক লিটন

নিজস্ব প্রতিবেদক,০২ জুন ২০২২:

জল্পনা ছিল আগেই, সেটি সত্যি হলো। বাংলাদেশ দলের নতুন টেস্ট অধিনায়ক হিসেবে সাকিব আল হাসানের নাম ঘোষণা করেছে ক্রিকেট বোর্ড। সহ-অধিনায়ক করা হয়েছে লিটন কুমার দাসকে। আজ বৃহস্পতিবার (২ জুন) বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) দ্বিতীয় আনুষ্ঠানিক বৈঠকে এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক বিসিবির এক পরিচালক ঢাকা পোস্টকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। আসন্ন ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফর থেকে এ সিদ্ধান্ত কার্যকর হবে।

মুমিনুল হক টেস্ট অধিনায়কত্ব করতে চান না বলে জানানোর পর থেকে আলোচনায় নতুন টেস্ট অধিনায়ক। যেখানে সবচেয়ে বেশি শোনা যাচ্ছিল সাকিবের নাম। তাকেই দায়িত্ব দিয়েছে বিসিবি। আসন্ন ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফর থেকে তৃতীয় মেয়াদে টেস্ট অধিনায়কত্ব করতে যাচ্ছেন টাইগার অলরাউন্ডার।
২০১৯ সালে সাকিব নিষেধাজ্ঞায় পড়াতে হুট করেই টেস্ট অধিনায়কত্ব পান মুমিনুল হক। তার নেতৃত্বে মাউন্ট মঙ্গানুইতে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে টেস্ট জয় ছাড়া উল্লেখযোগ্য কোনো সাফল্য নেই। এই সময়ে মুমিনুল ব্যাট হাতেও ছিলেন নিজের ছায়া হয়ে।

শ্রীলঙ্কা সিরিজের পরই তার ব্যাপারে জোর সমালোচনা শুরু হয়। যার অবসান ঘটালেন মুমিনুল নিজেই। গত ৩১ মে বিসিবি সভাপতিকে তিনি জানিয়ে দেন অধিনায়কত্ব আর করতে চান না। তার সিদ্ধান্তকে সাধুবাদ জানিয়ে নতুন অধিনায়কের পথে হাঁটল দেশের ক্রিকেটের নিয়ন্ত্রক সংস্থা।

এর আগে ২০০৯ সালে মাশরাফি বিন মর্তুজা চোটে পড়ায় প্রথমবার টেস্ট অধিনায়কত্ব পান সাকিব আল হাসান। ওই মেয়াদে ২০১১ সাল পর্যন্ত ৯ টেস্টে নেতৃত্ব দিয়ে জেতেন একটিতে। এরপর ২০১৮ সালে মুশফিকুর রহিমের স্থলাভিষিক্ত হন টাইগার অলরাউন্ডার। ২০১৯ সালে নিষেধাজ্ঞায় পড়ার আগ পর্যন্ত নেতৃত্ব দেন ৫ টেস্টে। যেখানে দল জয় পায় দুই ম্যাচে। সব মিলিয়ে আগের দুই মেয়াদে ১৪ টেস্টে ১১ হারের বিপিরীতে ৩ জয় সাকিবের।

তৃতীয় মেয়াদে সাকিব টেস্টে কতটা সাফল্য এনে দিতে পারেন, সেটিই এখন দেখার বিষয়।

বাংলাদেশকে ১০ উইকেটে হারিয়ে সিরিজ জয় শ্রীলঙ্কার

নিজস্ব প্রতিবেদক,২৭ মে ২০২২:
হারের শঙ্কা মাথাচাড়া দিয়েছিল ঢাকা টেস্টের চতুর্থ দিনেই, বাকি ছিল শুধু আনুষ্ঠানিকতা। তবে দলের অভিজ্ঞ ক্রিকেটার সাকিব আল হাসান বলেছেন, হারের আগে হার মানার মানসিকতা নেই তাদের দলের। ইনিংস হারের শঙ্কা নিয়ে আজ (শুক্রবার) পঞ্চম ও শেষ দিনে ব্যাটিংয়ে নেমে প্রথম সেশনে ইনিংস হার এড়িয়ে উল্টো লিড নিয়ে ঘুরে দাঁড়ানোর বার্তা দেয় স্বাগতিকরা। তবে সেসব চোখ রাঙানি কাজে আসেনি। পরাজয়ের নিয়তি মানতে হয়েছে।

প্রথম ইনিংসে ব্যাট করতে নেমে ৩৬৫ রানে গুঁটিয়ে যায় বাংলাদেশ দল। পরে লঙ্কানদের প্রথম ইনিংস থামায় ৫০৬ রানে। এতে ১৪১ রানের লিড পায় সফরকারীরা। তবে আবারো দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাটিংয়ে নেমে ফের প্রথম ইনিংসের মতো হতশ্রী শুরু করে বাংলাদেশ দল। খাদের কিনারা থেকে ষষ্ঠ উইকেট জুটিতে ঘুরে দাঁড়ানোর চেষ্টা করে, তবে সেই চেষ্টা আলোর মুখে দেখেনি। বাংলাদেশের ইনিংস থামে ১৬৯ রানে। এতে ২৯ রানের লক্ষ্য টপকাতে নেমে ১০ উইকেটের বিশাল জয় পেয়েছে শ্রীলঙ্কা।

দেড় সেশনের বেশি সময় হাতে রেখে পাওয়া এই জয়ের ফলে দুই ম্যাচের টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের সিরিজটি ১-০ ব্যবধানে জিতে নিল লঙ্কানরা। চট্টগ্রামে সিরিজের প্রথম ম্যাচ ড্রয়ে শেষ হয়। ‘হোম অব অব ক্রিকেট’ খ্যাত মিরপুরে ২৩ ম্যাচে এটি বাংলাদেশ দলের ১৪তম হার। সব মিলিয়ে ঘরের মাঠে এটি ৬৯ টেস্টে ৪৫তম পরাজয়। দেশের মাটিতে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে পরিসংখ্যান একেবারেই সুখকর নয়। ১০ ম্যাচে কোনো জয় নেই, এই নিয়ে হার ৭ ম্যাচে।

বাংলাদেশের দেওয়া ২৯ রানের লক্ষ্য টপকাতে একেবারেই বেগ পেতে হয়নি লঙ্কানদের। ওশাদা ফার্নান্দোর ৯ বলে ঝড়ো ২১ রানের সঙ্গে করুনারত্নের ৯ বলে ৭ রানের কল্যাণে মাত্র ৩ ওভারেই ম্যাচের ফলাফল বের করে নেয় শ্রীলঙ্কা। তাদের দেশের চলমান অস্থিরতার মাঝে পাওয়া এমন জয়ের সঙ্গে বাংলাদেশের মাটিতে টেস্টে চতুর্থ সিরিজ জয় সফরকারী শিবিরে স্বস্তির সুবাতাস বয়ে আনবে।

বাংলাদেশের বিপক্ষে এই জয়ের ফলে আইসিসি টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের শ্রীলঙ্কার অর্জন দাঁড়িয়েছে ৪০ পয়েন্ট। ১৬ পয়েন্ট নিয়ে ৯ দলের টুর্নামেন্টে ৮ নম্বরে অবস্থান বাংলাদেশ দলের।

প্রথম সেশন শেষে অবিচ্ছেদ্য ৯৬ রানের জুটিতে সাকিব ৫২ এবং লিটন ৪৮ রান নিয়ে ব্যাটিংয়ে নামেন। বিরতি কাটিয়ে ফিরে প্রথম ওভারেই ক্যারিয়ারের ১৩তম ফিফটি পেয়ে যান লিটন। একই ওভারে লিটন-সাকিবের জুটিও শতরান পূর্ণ করে। কিন্তু ফিফটির পরই ফিরতে হয়েছে লিটনকে, দারুণ এক ফিরতি ক্যাচ নেন আসিথা ফার্নান্দো। ১৩৫ বলে ৪ চারে সাজান ৫২ রানের ইনিংসটি। জুটি থামে ১০৩ রানেই।

লিটনের বিদায়ের পর আসিথা ফার্নান্দো ঝড়ে ১৩ রান যোগ করেই গুটিয়ে যায় বাংলাদেশ। ৭২ বলে ৭ চারে সাকিবের ব্যাটে সর্বোচ্চ ৫৮ রান। আসিথা একে একে তুলে নেন মোসদ্দেক (৯), তাইজুল (১) ও খালেদকে (০)। বাংলাদেশকে ১৬৯ রানে আটকে দেওয়ার পথে ৫১ রান খরচায় ৬ উইকেট তুলে নিয়ে লঙ্কান এই পেসার করেছেন ক্যারিয়ার সেরা বোলিং। ১৩ রানে শেষ ৫ উইকেট হারায় স্বাগতিকরা।

বাংলাদেশ দলের শেষ ব্যাটসম্যান হিসেবে খালেদ আহমেদ শূন্য রানে আউট হওয়ায় বিব্রতকর আরেকটি রেকর্ডে নাম তোলে বাংলাদেশ। দুই ইনিংস মিলিয়ে এই ম্যাচে ৯ ব্যাটসম্যান আউট হলেন শূন্য রানে, বাংলাদেশের যা সর্বোচ্চ। আগের রেকর্ড ছিল ২০১৮ সালে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে জ্যামাইকায় ৮ শূন্য।

ঢাকা টেস্টে লঙ্কান পেসার অসিথা ফার্নান্দো রেকর্ড বইতে নাম তুলেছেন। এই টেস্টের আগে ৪ টেস্ট খেলে একবারও ৫ উইকেটের স্বাদ পাননি তিনি। এবার শুধু ৫ উইকেটই নয়, ম্যাচে ১০ উইকেটের স্বাদ পেয়ে গেলেন! এতে চামিন্দা ভাসের পর দেশটির দ্বিতীয় পেসার হিসেবে ম্যাচে ১০ উইকেট নিলেন অসিথা। একই সঙ্গে মাত্র দ্বিতীয় পেসার হিসেবে মিরপুরে টেস্ট খেলতে নেমে ১০ উইকেট শিকার করলেন আসিথা। আগের জন ভারতের জহির খান।

২৯ রানের লক্ষ্যে খেলতে নামা লঙ্কানদের বিপক্ষে এক ওভারের বেশি করার সুযোগ পাননি তাইজুল, সাকিব ও এবাদত। ততক্ষণে ৯ বলে ৩ চার ১ ছক্কায় ২১ রানে অপরাজিত থাকেন ওশাদা, ৯ বলে ১ চারে করুনারত্নের ব্যাটে অপরাজিত ৭।

এ বারও আইপিএলে শিকে ছিঁড়ল না, সচিন-পুত্রকে সমবেদনা সচিন-কন্যার

এ বারের আইপিএলের দলের ২৫ জন সদস্যের মধ্যে ২২ জনই কোনও না কোনও ম্যাচে খেলেছেন। সুযোগ পাননি তিন জন। তার মধ্যে রয়েছেন অর্জুন।
নিজস্ব প্রতিবেদন,কলকাতা ২৩ মে ২০২২:
আবারও একটা আইপিএল মরসুম শেষ হয়ে গেল মুম্বই ইন্ডিয়ান্সের। আবারও হতাশ হলেন অর্জুন তেন্ডুলকর। দিল্লি ক্যাপিটালসকে হারিয়ে শনিবার মুম্বই ইন্ডিয়ান্স এ বারের অভিযান শেষ করেছে। পাঁচ বারের বিজয়ীরা এ বার সবার নীচে। তবে অনেক দিন আগেই তাদের যোগ্যতা অর্জনের সম্ভাবনা শেষ হয়ে গেলেও, অর্জুনকে একটি ম্যাচেও খেলানো হল না। দিল্লি ম্যাচের পর তাঁর দিদি সারা তেন্ডুলকর মাঠের ধারে ঘুরে বেড়ানো অর্জুনের একটি ছবি পোস্ট করেছেন। সঙ্গে জুড়ে দিয়েছেন বলিউডি ছবির একটি গানও।

এ বারের আইপিএলের দলের ২৫ জন সদস্যের মধ্যে ২২ জনই কোনও না কোনও ম্যাচে খেলেছেন। সুযোগ পাননি তিন জন। তার মধ্যে রয়েছেন অর্জুন। ২০২১ সালে তাঁকে নিলামে ২০ লাখ টাকা দিয়ে কিনেছিল মুম্বই। সে বারও একটি ম্যাচেও খেলার সুযোগ পাননি অর্জুন। এ বার তাঁকে আরও ১০ লাখ অতিরিক্ত দিয়ে কেনে মুম্বই। কিন্তু অর্জুন এ বারও সুযোগ পেলেন না।

সারার পোস্টে দেখা গিয়েছে, বাউন্ডারির ধারে ডাগআউটের পাশে হাঁটছেন অর্জুন। তাঁর ছবি পোস্ট করে হিন্দি সিনেমা ‘গালি বয়’-এর গান ‘আপনা টাইম আয়েগা’ ব্যবহার করেছেন সারা। অর্থাৎ তিনি বোঝাতে চেয়েছেন, অপেক্ষা করলে অর্জুনের সুযোগ ঠিকই আসবে।

বিশ্রামে রোহিত-বিরাট, প্রোটিয়াদের বিরুদ্ধে নেতা রাহুল, দলে উমরান, কার্তিক

আইপিএলে ভাল খেলার পুরস্কার পেলেন উমরান মালিক। কাশ্মীরের পেসার সুযোগ পেলেন ভারতীয় দলে। দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে সুযোগ পেলেন তিনি।
নিজস্ব প্রতিবেদন,কলকাতা ২২ মে ২০২২ঃ
বিশ্রাম দেওয়া হল রোহিত শর্মা, বিরাট কোহলীদের। দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে টি-টোয়েন্টি সিরিজে নেতৃত্ব দেবেন লোকেশ রাহুল। আইপিএলে ভাল খেলার ফলে দলে এল একাধিক নতুন মুখ। ফিরলেন দীনেশ কার্তিকও।

আরো পড়ুনঃ আইপিএলের ছন্দের বিচারে সুযোগ পেলেন কার্তিক, তা হলে কেন ব্রাত্য ঋদ্ধি?

এই সিরিজে কোচের ভূমিকায় দেখা যেতে পারে ভিভিএস লক্ষ্মণকে।আইপিএলে ভাল করেন উমরান মালিক। কাশ্মীরের এই পেসারকে দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে দলে নেওয়া হয়েছে। সেই সঙ্গে দলে জায়গা পেয়েছেন আবেশ খান এবং আর্শদিপ সিংহ। এ বারের আইপিএলে ফিনিশার হিসাবে দুর্দান্ত ছন্দে রয়েছেন দীনেশ কার্তিক। দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে দলে নেওয়া হয়েছে তাঁকেও। তবে উইকেটরক্ষক হিসাবে ঋষভ পন্থও রয়েছেন। দলে ফিরেছেন হার্দিক পাণ্ড্য।

ভারতের মাটিতে ৯ জুন থেকে শুরু হতে চলা এই সিরিজে রোহিত, বিরাট বিশ্রামে যাওয়ায় ভারতীয় দলের ব্যাটিং বিভাগের দায়িত্ব থাকবে রাহুল, রুতুরাজ গায়কোয়াড়, ঈশান কিশন, দীপক হুডা, শ্রেয়স আয়ারদের উপর। চোটের কারণে নেই সূর্যকুমার যাদব। পাঁচটি ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজ খেলবে দুই দল।

আইপিএলের ছন্দের বিচারে সুযোগ পেলেন কার্তিক, তা হলে কেন ব্রাত্য ঋদ্ধি?

ভারতীয় দলে সুযোগ পেতে আইপিএল যদি মাপকাঠি হয়, তা হলে ঋদ্ধিকে মাপা হল কী দিয়ে? দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে টি-টোয়েন্টি দল বাছলেন নির্বাচকরা।
নিজস্ব প্রতিবেদন,কলকাতা ২২ মে ২০২২ ঃ
দক্ষিণ আফ্রিকা সিরিজের জন্য বেছে নেওয়া হয়েছে ১৮ জনের ভারতীয় দল। আইপিএলের পারফরম্যান্সের বিচারে সুযোগ পেয়েছেন দীনেশ কার্তিক, উমরান মালিকরা। কিন্তু সেই মাপকাঠিতে জায়গা হল না বাংলার ঋদ্ধিমান সাহার। আইপিএলে সেই ভাবে ছন্দে না থাকলেও দলে রইলেন বেঙ্কটেশ আয়ার, ঈশান কিশনরা।

আরো পড়ুনঃ বিশ্রামে রোহিত-বিরাট, প্রোটিয়াদের বিরুদ্ধে নেতা রাহুল, দলে উমরান, কার্তিক

প্রশ্ন উঠতে পারে, টি-টোয়েন্টি দলে তো ঋদ্ধিকে কখনও ভাবাই হয় না। তা হলে হঠাৎ ৩৭ বছরের ঋদ্ধিকে কেন নেওয়া হবে? ৩৬ বছরের কার্তিক (পরের মাসেই ৩৭ বছরে পা রাখবেন) ভারতের হয়ে শেষ বার টি-টোয়েন্টি ম্যাচ খেলেছেন ২০১৯ সালে। জাতীয় দলের মানচিত্রে না থাকা কার্তিক আইপিএলে দুর্দান্ত ফিনিশার হিসাবে নিজেকে প্রমাণ করে নিজের জায়গা করে নিলেন। ঘরোয়া ক্রিকেটেও নিয়মিত খেলেছেন তিনি। বিজয় হজারে ট্রফিতে রানও করেছিলেন। নিজের যোগ্যতা প্রমাণ করেই জায়গা করেছেন তিনি। এ বারের আইপিএলে এখনও পর্যন্ত ১৪টি ম্যাচে কার্তিকের সংগ্রহ ২৮৭ রান। গড় ৫৭.৪০। অপরাজিত ছিলেন ন’টি ইনিংসে। স্ট্রাইক রেট ১৯১.৩৩।

কার্তিক যেমন আইপিএলে নিজের যোগ্যতা প্রমাণ করেছেন, ঋদ্ধিও তেমনই নিয়মিত রান করেছেন। ওপেনার হিসাবে খেলে গুজরাত টাইটান্সের হয়ে ন’টি ম্যাচে ঋদ্ধি করেছেন ৩১২ রান। গড় ৩৯। স্ট্রাইক রেট ১২৪.৮০। তিনটি অর্ধশতরান রয়েছে। প্রথম কয়েকটি ম্যাচে না খেললেও আইপিএল যত এগিয়েছে, তত গুজরাত দলের ওপেনার হিসাবে নিয়মিত হয়ে উঠেছেন ঋদ্ধি। যদিও ঋদ্ধি সাম্প্রতিক কালে ঘরোয়া ক্রিকেটে খেলেননি। বাংলার হয়ে রঞ্জিতে গ্রুপ পর্বেও খেলতে চাননি ব্যক্তিগত কারণে। ঘরোয়া ক্রিকেটে না খেলা নির্বাচকদের কাছে অন্য রকম বার্তা যেতেই পারে বলে মনে করছেন অনেকে।
৯ জুন থেকে শুরু হতে চলা দক্ষিণ আফ্রিকা সিরিজে যে টি-টোয়েন্টি দল বেছে নেওয়া হয়েছে তাতে ওপেনার হিসেবে রয়েছেন লোকেশ রাহুল, ঈশান কিশন এবং রুতুরাজ গায়কোয়াড়। এই দলের অধিনায়ক রাহুল। কিশন উইকেটরক্ষক হলেও এই দলে ঋষভ পন্থ রয়েছেন। তাই উইকেটরক্ষার দায়িত্ব নয়, ওপেনার কিশনকেই চাইছে দল। আইপিএলে কিশন খেলেছেন ১৪টি ইনিংস। করেছেন ৪১৮ রান। গড় ৩২.২৫। তাঁরও তিনটি অর্ধশতরান রয়েছে। স্ট্রাইক রেট ১২০.১১। ঝাড়খণ্ডের ২৩ বছরের কিশন কি তবে বয়সের কারণে ঋদ্ধির চেয়ে এগিয়ে? কার্তিকের ক্ষেত্রে তা হলে বয়স বাধা হল না কেন?

Responsive WordPress Theme Freetheme wordpress magazine responsive freetheme wordpress news responsive freeWORDPRESS PLUGIN PREMIUM FREEDownload theme free

hit counter