Home » টপ খবর » প্রাথমিকের জন্য চালু করা হচ্ছে বিশেষ হেল্প লাইন নম্বর-৩৩৩৬
dpe-gov-shikkha

প্রাথমিকের জন্য চালু করা হচ্ছে বিশেষ হেল্প লাইন নম্বর-৩৩৩৬

নিজস্ব প্রতিবেদক | ০৪ জুন, ২০২০

প্রাথমিক শিক্ষার্থীদের জন্য টেলিভিশন ও বেতারে পাঠদানের পর এবার চালু করা হচ্ছে বিশেষ হেল্প লাইন নম্বর-৩৩৩৬। যে কোনো মুঠোফোন অপারেটর থেকে এ নম্বরে ডায়াল করলে শিক্ষার্থীরা শিক্ষকদের কাছ থেকে তার নিজ শ্রেণির পাঠদান পরামর্শ পাবে। পাঁচ মিনিট পর্যন্ত কলটি হবে টোল ফ্রি। সারাদেশের প্রাথমিক শিক্ষক ও শিক্ষার্থীরা এই হেল্প লাইন নম্বরে যুক্ত থাকবেন। চলতি জুনেই এ কার্যক্রম পরীক্ষামূলকভাবে শুরু হবে। উদ্যোগটি সফল হলে তা কোচিং সেন্টারের বিকল্প হবে বলে মনে করছেন প্রাথমিক শিক্ষা সংশ্নিষ্টরা। সরকারের প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়, তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগ ও প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের একসেস টু ইনফরমেশন (এটুআই) প্রকল্পের সম্মিলিত উদ্যোগে এ কার্যক্রম শুরু হতে যাচ্ছে।

প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তারা বলেন, সংসদ টেলিভিশনের পর বাংলাদেশ বেতারের মাধ্যমে প্রাথমিকের পাঠদান প্রচারের উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। টেলিভিশনে পাঠদান সম্প্রচারে দেশের ৫০ ভাগ শিক্ষার্থী উপকৃত হচ্ছে। বাকি ৫০ ভাগ এর বাইরে থাকছে। রেডিওর পাঠদানে আরও স্বল্প কিছু শিক্ষার্থীকে যুক্ত করা যাচ্ছে। তবে মোবাইলের মাধ্যমে অন্তত ৯৭ ভাগ শিক্ষার্থী বা তাদের অভিভাবকের কাছে পাঠদান পৌঁছানো সম্ভব হবে। এ কারণেই সরকারের এই হেল্প লাইন চালুর উদ্যোগ। এ কারণেই অভিভাবকদের মোবাইল নম্বরসহ জেলাভিত্তিক শিক্ষার্থীর তালিকা তৈরি হচ্ছে।

প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক মো. ফসিউল্লাহ বুধবার বলেন, হেল্প লাইনটি এ মাসেই পরীক্ষামূলক চালু করা হবে। এটি শিক্ষক, শিক্ষার্থী ও অভিভাবক- সবারই কমন প্ল্যাটফর্ম। সরকারের এ উদ্যোগ সফল হলে তা কোচিং সেন্টারের বিকল্প হিসেবে প্রতিষ্ঠিত হবে।

এর আগে স্বাস্থ্যসেবায় ১৬২৬৩ হেল্প লাইন চালু হয়েছে। একই রকমভাবে শিক্ষায় ৩৩৩৬ চালু হচ্ছে। দেশের প্রায় পৌনে চার লাখ প্রাথমিক শিক্ষক এতে নিবন্ধিত হয়ে যুক্ত থাকবেন। এক কোটি ৪০ লাখ প্রাথমিক শিক্ষার্থীও যুক্ত হবেন। হেল্প লাইন নম্বরে কল করে শিক্ষার্থীরা পছন্দের শিক্ষক বাছাই করতে পারবে। এর পর তাদের জিজ্ঞাসা ও প্রশ্নের জবাব তারা ওই শিক্ষকের কাছে থেকে পাবে।

জানা যায়, মোবাইলে পাঠদান ও পরামর্শ সেবার পদ্ধতি নিয়ে এরই মধ্যে একটি মডিউলও তৈরি করা হয়েছে। মহাপরিাচলক বলেন, আমাদের কাছে থাকা সব শিক্ষক ও শিক্ষার্থীর মোবাইল নম্বর ওই হেল্প লাইনে যুক্ত করা হচ্ছে। শিক্ষক ও শিক্ষার্থীদের পরিচিতিও সেখানে থাকছে।

হেল্প লাইন ৩৩৩৬-এ কল করে শিক্ষার্থীরা প্রথম থেকে পঞ্চম শ্রেণির কোনো বিষয়ে সরাসরি পছন্দের শিক্ষকের পরামর্শ নিতে পারবে। এটি দিনরাত ২৪ ঘণ্টা শিক্ষার্থীদের জন্য খোলা থাকবে। এখান থেকে প্রাথমিকের সিলেবাস, কারিকুলাম, পরীক্ষা-সংক্রান্ত তথ্য কিংবা প্রাথমিক শিক্ষাবিষয়ক অন্যান্য যে কোনো আদেশ, নির্দেশ, তথ্য এবং ফোন নাম্বার পাওয়া যাবে। প্রাথমিক শিক্ষাবিষয়ক যে কোনো অভিযোগ কিংবা পরামর্শ থাকলেও এই নম্বরে শিক্ষার্থী ও অভিভাবকরা জানাতে পারবে। এ অভিযোগ যথাযথ কর্তৃপক্ষকে জানিয়ে দেওয়া হবে এবং অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে গৃহীত ব্যবস্থাও পরে অভিযোগকারীর মোবাইল ফোনে জানিয়ে দেওয়া হবে।

এ হেল্প লাইন কোনো বাণিজ্যিক উদ্যোগ নয়। সর্বোচ্চ পাঁচ মিনিট পর্যন্ত এটি হবে সম্পূর্ণ বিনা পয়সায় মোবাইল শিক্ষাসেবা। সচেতন অভিভাবকরাও সন্তানের পক্ষে ফোন করে শিক্ষা পরামর্শ নিতে পারবেন।

মহাপরিচালক মো. ফসিউল্লাহ বলেন, এ হেল্প লাইন শুধু করোনাকালীন নয়, এটি স্থায়ী একটি সেবা, যা বছরজুড়েই চালু থাকবে।

Facebooktwitterredditpinterestlinkedinby feather
Facebooktwitterlinkedinrssyoutubemailby feather
Advertisements

Leave a Reply

x

Check Also

shikkhabarta

৫৪ হাজার শিক্ষক নিয়োগের সুপারিশ শিগগিরই

নিজস্ব প্রতিবেদক,১৪ জুন: বেসরকারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে ৫৪ হাজার শিক্ষক নিয়োগে দ্রুত ফল প্রকাশ করা হবে। এরই মধ্যে শিক্ষা মন্ত্রণালয় থেকে এ বিষয়ে বেসরকারি শিক্ষক নিবন্ধন ও প্রত্যয়ন কর্তৃপক্ষকে (এনটিআরসিএ) নির্দেশনাও দেয়া ...

shikshabarta

টিকা না পাওয়ার শঙ্কায় ৯৩.৮৩ শতাংশ মানুষ

নিজস্ব প্রতিবেদক,১২ জুন ২০২১ করোনা মহামারিতে বিপর্যস্ত সারা বিশ্ব। ইউরোপ আমেরিকাসহ প্রায় সব উন্নত দেশই রীতিমতো নাস্তানাবুদ। এই মহামারির ঢেউ আছড়ে পড়েছে বাংলাদেশেও। প্রতিবেশী ভারতে ভয়ানক সংক্রমণের পর নতুন করে ...

প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষার তারিখ নিয়ে যা বলল ডিপিই

নিজস্ব প্রতিবেদক,১১ জুন ২০২১: প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষার আবেদন জমা দেয়া শেষ হয়েছে প্রায় ৬ মাস হয়েছে। এর মধ্যে পরীক্ষা নেয়ার কথা থাকলেও করোনা পরিস্থিতির কারণে সেটি আর ...

ভালোলাগা প্রথম দেখায়, ২০ দিন পর বিয়ে

নিজস্ব প্রতিবেদক,১১ জুন ২০২১ আইন বিষয়ে পড়াশোনা শেষ করে হাইকোর্টে এক সিনিয়রের সঙ্গে প্র্যাকটিস করছেন শাম্মী আকতার মনি। পাশাপাশি অ্যাডমিনিস্ট্রেটিভ অফিসার হিসেবে চাকরি করছেন ক্যামব্রিয়ান স্কুল অ্যান্ড কলেজে। আইনি পরমার্শ ...

hit counter