Home » টপ খবর » নবজাতকের স্নান নিয়ে ভুল ধারণা

নবজাতকের স্নান নিয়ে ভুল ধারণা

ডা. অমৃত লাল হালদার:
‘ওর বয়স কত? স্নান করিয়েছেন?’- শরীর অপরিচ্ছন্ন দেখে প্রশ্ন করলাম। ‘কী বলেন স্যার!’ বলে তারা আকাশ থেকে পড়লেন। ‘মাত্র সাতদিন বয়স। নাভিও পরে নাই এখনো!’

হ্যাঁ। শিশুর স্নান নিয়ে আমাদের দেশে প্রচলিত আছে নানা ধরনের ভুল ধারণা ও কুসংস্কার। কয়েকটি জেনে নেওয়া যাক।

নাভি পরার আগে স্নান নিয়ে কুসংস্কার রয়েছে। এর কোনো বৈজ্ঞানিক ভিত্তি নেই। স্বাভাবিক ওজনের একটি সুস্থ ও সঠিক ওজনের শিশুকে (ওজন ২.৫ থেকে ৪ কেজি) জন্মের তিনদিন (৭২ ঘণ্টা) পর থেকে প্রায় প্রতিদিনই স্নান করানো উচিত। নাভি না পড়লেও করানো যায়। তবে খেয়াল রাখুন, নাভি যেন ভেজা না থাকে। সুতি কাপড় বা টিস্যু দিয়ে ভালোভাবে শুকিয়ে নিন। তবে কম ওজনের অসুস্থ দুর্বল শিশুর দেহের তাপমাত্রা অনেক সময় বেশি কমে যেতে পারে বলে দেরি কিছুটা করা যেতে পারে। তা না হলে স্বাভাবিকভাবে একটি নবজাতক শিশুকে পরিচ্ছন্ন ও জীবাণুমুক্ত করতে তিনদিনের বেশি দেরি করবেন না। বরং গোসলটাই জরুরি।

ঠান্ডা লেগে যাওয়া বিষয়েও কুসংস্কার রয়েছে।

নিয়মিত ফোটানো হালকা গরম পানিতে স্নান করালে শিশুর ঠা-া লাগার তেমন কোনো সুযোগ নেই। গরম ও আর্দ্র আবহাওয়ায় স্নান না করালেই বরং শিশু অস্বস্তি বোধ করে, বারবার ঘেমে যায়। এই ঘাম বসে গিয়ে ঠা-া লাগার আশঙ্কা থাকে। এ ছাড়া অপরিচ্ছন্ন ও নোংরা থাকলে চর্মরোগ বা ছত্রাক সংক্রমণ হতে পারে। তাই যে কোনো আবহাওয়ায় ছোট-বড় সব শিশুকে প্রতিদিন হালকা গরম পানিতে স্নান করানো দরকার। বৃষ্টির দিন, মেঘলা দিন বা আবহাওয়া ঠা-া থাকলে একান্ত না করাতে চাইলে হালকা গরম পানিতে আরামদায়ক সুতি কাপড় ভিজিয়ে শরীর মুছে দিন। স্নানের সময় ফ্যান বন্ধ রাখুন। দ্রুত শুকনো কাপড় বা তোয়ালে দিয়ে শরীর মুছে জামাকাপড় পরিয়ে দিন। এতে ঠা-া লাগবে না। মাথা ও চুলে যেন পানি জমে না থাকে, সেদিকেও লক্ষ্য রাখুন।

ছোট-বড় কারোর স্নানের পানিতে ডেটল, স্যাভলন, সেনিটাইজার বা অ্যান্টিসেপটিক দ্রবণ ব্যবহার করা উচিত নয়। অ্যান্টিসেপটিক দ্রবণ বা সাবান ত্বকের উপকারী জীবাণু বা ব্যাকটেরিয়াও ধ্বংস করে। ফলে ত্বকের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা ব্যাহত হয় ও ক্ষতিকর জীবাণুর সংক্রমণের আশঙ্কা বাড়ে। তা ছাড়া এগুলো বেশ কড়া রাসায়নিক, যা ত্বকের জন্য ক্ষতিকর। এমনিতে নবজাতক শিশুরা বাইরের ধুলা-ময়লার সংস্পর্শে আসে না, তাই রোজ সাবান দেওয়ারও দরকার নেই। সপ্তাহে এক বা দুদিন সাবান ও শ্যাম্পু ব্যবহার করতে পারেন।

লেখক : শিশুরোগ বিশেষজ্ঞ

আবাসিক চিকিৎসক, শিশু ও নবজাতক বিভাগ,

বারডেম জেনারেল হাসপাতাল-২

(মহিলা ও শিশু হাসপাতাল), সেগুনবাগিচা, ঢাকা। ০১৭১৬৭৯৫৫২৫

Facebooktwitterredditpinterestlinkedinby feather
Facebooktwitterlinkedinrssyoutubemailby feather
Advertisements

Leave a Reply

x

Check Also

২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু ৬০, শনাক্ত প্রায় ৪ হাজার

ডেস্ক,১৬ জুন ২০২১: দেশে করোনায় গত ২৪ ঘণ্টায় মারা গেছেন ৬০ জন এবং শনাক্ত হয়েছেন ৩ হাজার ৯৫৬ জন। বুধবার (১৬ জুন) স্বাস্থ্য অধিদফতর থেকে পাঠানো সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এসব তথ্য ...

shikkhabarta

৫৪ হাজার শিক্ষক নিয়োগের সুপারিশ শিগগিরই

নিজস্ব প্রতিবেদক,১৪ জুন: বেসরকারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে ৫৪ হাজার শিক্ষক নিয়োগে দ্রুত ফল প্রকাশ করা হবে। এরই মধ্যে শিক্ষা মন্ত্রণালয় থেকে এ বিষয়ে বেসরকারি শিক্ষক নিবন্ধন ও প্রত্যয়ন কর্তৃপক্ষকে (এনটিআরসিএ) নির্দেশনাও দেয়া ...

shikshabarta

টিকা না পাওয়ার শঙ্কায় ৯৩.৮৩ শতাংশ মানুষ

নিজস্ব প্রতিবেদক,১২ জুন ২০২১ করোনা মহামারিতে বিপর্যস্ত সারা বিশ্ব। ইউরোপ আমেরিকাসহ প্রায় সব উন্নত দেশই রীতিমতো নাস্তানাবুদ। এই মহামারির ঢেউ আছড়ে পড়েছে বাংলাদেশেও। প্রতিবেশী ভারতে ভয়ানক সংক্রমণের পর নতুন করে ...

প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষার তারিখ নিয়ে যা বলল ডিপিই

নিজস্ব প্রতিবেদক,১১ জুন ২০২১: প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষার আবেদন জমা দেয়া শেষ হয়েছে প্রায় ৬ মাস হয়েছে। এর মধ্যে পরীক্ষা নেয়ার কথা থাকলেও করোনা পরিস্থিতির কারণে সেটি আর ...

hit counter