Home » দৈনিক শিক্ষা » দর্শনায় সরকারি নীতি মালা উপেক্ষা করে চলছে কোচিং বানিজ্য

দর্শনায় সরকারি নীতি মালা উপেক্ষা করে চলছে কোচিং বানিজ্য

আল হেলাল, দামুড়হুদা প্রতিনিধি:  শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে শিক্ষকদের কোচিং বাণিজ্য বন্ধে সরকার নীতিমালা প্রণয়ন করলেও বাস্তবে তা কার্যকরী হচ্ছে না বলে অভিযোগ উঠেছে।
অভিযোগে জানা যায়, এ  ক্ষেত্রে   চুয়াডাঙ্গা জেলার দামুড়হুদার  দর্শনা সরকারী কলেজের বেশিরভাগ  শিক্ষকরা সরকারি নিয়মনীতি উপেক্ষা করে কোচিং বাণিজ্য আরও জোরদার ভাবে চালিয়ে যাচ্ছে। এটি বর্তমানে এমন এক পর্যায়ে পৌছেছে যেখানে অভিভাবক ও শিক্ষার্থীরা কোচিং বানিজ্য এর সাথে যুক্ত শিক্ষকদের কাছে জিম্মি হয়ে পড়েছেন যা পরিবারের উপর বাড়তি আর্থিক চাপ সৃষ্টি করছে এবং ব্যয় নির্বাহে অভিভাবকগণ হিমশিম খাচ্ছেন। এ ছাড়াও অনেক শিক্ষক শ্রেণীকক্ষে পাঠদানে মনোযোগী না হয়ে কোচিং এ বেশী সময় ব্যয় করছেন। এ ক্ষেত্রে দরিদ্র ও পিছিয়ে পড়া শিক্ষার্থীরা এবং অভিভাবকগণ চরম ভাবে ক্ষতিগ্রস্থ হচ্ছেন। এ স¤পর্কিত মাননীয় হাইকোর্ট বিভাগে দায়েরকৃত রিট পিটিশন নং ৭৩৬৬/২০১১ এর আদেশের প্রেক্ষিতে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের ওপর  কোচিং বাণিজ্য বন্ধে একটি গেজেট নোটিফিকেশন বা অন্য কোন রূপ আদেশ প্রদানের নির্দেশনা রয়েছে।
অভিযুক্ত শিক্ষক তরিকুল ইসলাম  কলেজ শুরুর পূর্বে ক্লাসের ছেলেমেয়েদের অতিরিক্ত ক্লাসের নামে কোচিং করাচ্ছেন। এমনকি ক্লাসে বিভিন্নভাবে প্রলুব্ধকরে কোচিং এ বাধ্য করছেন। অতিরিক্ত ক্লাস বাবদ ১৫০ টাকা নেওয়ার নিয়ম থাকলেও তিনি নিচ্ছেন ৪০০-১০০০ টাকার মধ্যে।
এ ব্যপারে অভিযুক্ত শিক্ষকের কাছে জানতে চাওয়া হলে তিনি বলেন তিনি সরকারী নিয়ম নীতি মালার মধ্যেই শিক্ষার্থীদের কোচিং করাচ্ছেন। অতিরিক্ত টাকার বিষয়টি স্বীকার করলেও তিনি বলেন এটি ছাত্রছাত্রীদের সর্ম্পকের ব্যাপার তারা আমাকে কত টাকা দিবে। তিনি আরও বলেন শুধু তিনি একা পড়ান না কলেজের সব শিক্ষক কোচিং করান। এ ব্যাপারে তাদের কলেজ কর্তৃপক্ষের অনুমতি নেওয়া আছে।
দর্শনা সরকারী কলেজের অধ্যক্ষ এর কাছে জানতে চাওয়া হলে তিনি বলেন অতিরিক্ত ক্লাস নেওয়ার অনুমতি দেয়া আছে। তবে অতিরিক্ত অর্থ নেওয়ার  কথা আমার জানা নেই। তবে ব্যাক্তিগতভাবে কেউ নিলে সেটা তার ব্যাপার।
নাম প্রকাশে অনিচ্ছুুক একাধিক ছাত্রছাত্রীরা অতিরিক্ত অর্থ নেয়ার কথা স্বীকার করলেও বিভিন্ন কারনে তারা ভীত। ফলে মুখ খুলে কিছু বলতে চান না।
এ ভাবেই দর্শনা শহরের অনেক শিক্ষক সরকারি নিয়মনীতি  উপেক্ষা করে পর্দার আড়ালে থেকে তাদের এ বানিজ্য চালিয়ে যাচ্ছে বলে অভিযোগ রয়েছে। সচেতন দর্শনা বাসী অবিলম্বে কোচিং বানিজ্য বন্ধে কোচিং বাণিজ্যে জড়িত শিক্ষকদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য সরকারের সংশ্লিষ্ট উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের আশু হস্তক্ষেপ কামনা করছেন।

Facebooktwitterredditpinterestlinkedinby feather
Facebooktwitterlinkedinrssyoutubemailby feather
Advertisements

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

বিলুপ্ত হচ্ছে এনটিআরসিএ

ডেস্ক,২৬ ফেব্রুয়ারী: শিক্ষক নিয়োগের জন্য জাতীয় শিক্ষা কমিশন গঠনের কাজ শুরু করেছে সরকার। মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক, কারিগরি ও মাদরাসা স্তরের বেসরকারি শিক্ষক নিয়োগে আরও স্বচ্ছতা আনতে সরকারি কর্ম কমিশনের ...

সাত কলেজের পরীক্ষা স্থগিত

নিজস্ব প্রতিবেদক,২৩ ফেব্রুয়ারী: ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধিভুক্ত সরকারি সাত কলেজের শিক্ষার্থীদের চূড়ান্ত পরীক্ষাগুলোও ১৭ মে পর্যন্ত স্থগিত করা হয়েছে। এই সময়ের পর নতুন পরীক্ষার সূচী প্রকাশ করা হবে। মঙ্গলবার (২৩ ফেব্রুয়ারি) ...

protarona

সরকারিকরণের নামে কোটি টাকা আত্মসাৎ, প্রধান শিক্ষক আটক

নিজস্ব প্রতিবেদন: প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের নামে নকল ওয়েবসাইট তৈরি করে বেসরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় সরকারিকরণের নামে কোটি কোটি টাকা হাতিয়ে নেয়া প্রতারক রুহুল আমিনের বাড়িতে ভিড় করছে ভুক্তভোগীরা। এই চক্রের প্রধান ...

dipu_shikkha

সব বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্লাস শুরু ২৪ মে, হল খুলবে ১৭ মে

ডেস্ক,২২ ফেব্রুয়ারী: ঈদুল ফিতরের পরে আগামী ২৪ মে পাবলিক, প্রাইভেটসহ সব বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর ক্লাস শুরু হবে। আর এর এক সপ্তাহ আগে ১৭ মে থেকে বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর আবাসিক হল খুলে দেয়া হবে। এর ...

hit counter