• Home
  • টপ খবর
  • অনলাইনে বদলি ।। ভোগান্তিতে প্রাথমিকের শিক্ষকরা
বদলি

অনলাইনে বদলি ।। ভোগান্তিতে প্রাথমিকের শিক্ষকরা

নিজস্ব প্রতিবেদক,১৮ সেপ্টেম্বর ২০২২: তিন বছরেরও অধিক সময় ধরে বন্ধ থাকা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষকদের বদলির অনলাইন আবেদন গ্রহণ শুরু হয়েছে। আবেদন গ্রহণের শুরুতেই নানা জটিলতার মুখে পড়ছেন বলে জানিয়েছেন শিক্ষকরা। মন্ত্রণালয় থেকে নীতিমালা ঘোষণার পর বদলি আবেদনের তদারকি এবং এটি কার্যকর করা হবে প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের মাধ্যমে। অধিদপ্তর সূত্রে জানা গেছে, বদলি আবেদনের নানা জটিলতা নিয়ে আজ রোববার প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের বৈঠক ডাকা হয়েছে। বৈঠকে বদলির সার্ভারের কারিগরি টিমকেও ডাকা হয়েছে।

এ ব্যাপারে জানতে চাইলে প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক (অতিরিক্ত দায়িত্ব) মো. মুহিবুর রহমান শিক্ষাবার্তাকে বলেন, ‘বদলির আবেদনের পরও কিছু জটিলতার কথা আমাদের জানাচ্ছেন শিক্ষকরা। আমরা সেসব জটিলতার তথ্য সংগ্রহ করছি। শিক্ষকদের সব জটিলতা সমাধানের চেষ্টা করা হবে।’

শিক্ষকদের অনেকের অভিযোগ, তারা বদলি সার্ভারে প্রবেশ করতে পারছেন না। নতুন নীতিমালায় চারজন বা তার কম শিক্ষক থাকা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষকদের বদলির সুযোগ রাখা হয়নি। এ ছাড়াও যে প্রতিষ্ঠানে শিক্ষক-শিক্ষার্থীর অনুপাত ১ : ৪০ এর বেশি, সেসব প্রতিষ্ঠানের শিক্ষকরা বদলির সুযোগ পাবেন না। সার্ভারে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের হালনাগাদ তথ্য না থাকায় শিক্ষকরা বদলির আবেদন করতে পারছেন না। বদলির নির্দেশিকায় চাকরির মেয়াদ ২ বছর পূর্ণ হলে বদলির সুযোগ রাখা হলেও ২০২০ সালে যোগদান করা শিক্ষকরা বদলির আবেদন করতে পারছেন না। প্রতিস্থাপিত বদলির সুযোগ অনলাইন বদলিতে রাখা হয়নি।

নীতিমালায় আন্তঃউপজেলা বদলির আবেদন করার কথা বলা হয়েছে। কিন্তু যেসব শিক্ষক আন্তঃজেলা বদলির আবেদন প্রত্যাশী তারা আবেদন করতে পারছেন না। নীতিমালায় আংশিক শিক্ষকদের বদলির সুযোগ দেওয়া হয়েছে। সব শিক্ষকরা কেন বদলির সুযোগ পাবেন না- এ নিয়ে ক্ষোভ ও প্রশ্ন শিক্ষকদের। শিক্ষকরা বলছেন, বদলি শুরু হলেও নির্দেশিকার কিছু বিধানের মারপ্যাচে অনেক শিক্ষক বদলি হতে পারবেন না। নীতিমালা প্রণীত হয়ে থাকে সর্বজনীন বা সবার জন্য।

সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় প্রধান শিক্ষক সমিতির নির্বাহী সম্পাদক স্বরুপ দাস জানান , বদলি বিষয়ে যত সমস্যা নিয়ে সব সংগ্রহ করে আগামী সোমবার সচিব এবং ডিজি মহোদয়ের আবেদন জমা দিব। তারপর দেখা যাক কি হয়। তাছাড়া সফটওয়ার নতুন হওয়ার কারনে কিছু ত্রুটি দেখা দিয়েছে যা সমাধানের চেষ্টা করছে বলে তিনি জানান।

আজ ডিপিইতে বৈঠক :এদিকে, বদলি আবেদনের নানা জটিলতা নিয়ে আজ রোববার প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের বৈঠক ডাকা হয়েছে বলে অধিদপ্তর সূত্রে জানা গেছে। বৈঠকে, বদলির সার্ভারের কারিগরি টিমকেও ডাকা হয়েছে। বদলি সার্ভারে ঢুকতে না পারা, সার্ভার লোড নিতে না পারাসহ নানা বিষয়ে এ বৈঠকে সিদ্ধান্ত হতে পারে। এ ব্যাপারে জানতে চাইলে প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক (অতিরিক্ত দায়িত্ব) মো. মুহিবুর রহমান শিক্ষাবার্তাকে বলেন, ‘বদলির আবেদনের পরও কিছু জটিলতার কথা আমাদের জানাচ্ছেন শিক্ষকরা। আমরা সেসব জটিলতার তথ্য সংগ্রহ করছি। শিক্ষকদের সব জটিলতা সমাধানের চেষ্টা করা হবে।’

Facebooktwitterredditpinterestlinkedinby feather
Image

Leave a Reply

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

Facebooktwitterredditpinterestlinkedinby feather