বিশেষ সংবাদ

আয়েবা স্কলারশিপ : ১ জুলাই থেকে ৩১ ডিসেম্বর আবেদন গ্রহন

1467353178221নাসিম : ইউরোপে বসবাসরত বাংলাদেশী ও বাংলাদেশী বংশোদ্ভূত মেধাবী ছাত্র-ছাত্রী যারা বিভিন্ন দেশের কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়ে ভালো ফলাফল করছেন, তাদেরকে এককালীন অর্থ সম্মাননা (বৃত্তি) প্রদান করবে অল ইউরোপিয়ান বাংলাদেশ এসোসিয়েশন (আয়েবা)।

নতুন প্রজন্মের মেধা ও প্রতিভাকে উৎসাহিত করতে এখন থেকে প্রতি বছর উক্ত স্কলারশিপ প্রদান করা হবে। সম্প্রতি সুইডেন-ফিনল্যান্ড অঞ্চলে বাল্টিক সাগরে অনুষ্ঠিত আয়েবা’র এক্সিকিউটিভ কমিটির সর্বশেষ বৈঠকে এইমর্মে গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।

২০১৬-১৭ মৌসুমের জন্য আবেদন করা যাবে আজ পহেলা জুলাই শুক্রবার থেকে। প্রয়োজনীয় কাগজপত্র ও ছবি সহ নির্ধারিত ইমেইল aebascholarship@gmail.comঅথবা  aebascholarship@yahoo.com এর যে কোনটিতে আবেদন পাঠাতে হবে।

আবেদনকারী ছাত্র-ছাত্রীকে অবশ্যই তার কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ইস্যুকৃত গত শিক্ষাবছরের ব্যক্তিগত ফলাফলের বিবরণী স্ক্যান করে এটাচড ফাইল হিসেবে ইমেইলে পাঠাতে হবে। আবেদনকারীর নিজের ও অভিভাবকের ফোন নাম্বার সহ সংশ্লিষ্ট কলেজ বা বিশ্ববিদ্যালয়ের ঠিকানা, ফোন নাম্বার এবং ওয়েবসাইটও উল্লেখ করতে হবে আবেদনের সাথে।

৩১ ডিসেম্বর ২০১৬ ইমেইলে আবেদন পাঠাবার শেষ তারিখ নির্ধারণ করা হয়েছে। প্রয়োজনীয় ভেরিফিকেশন সাপেক্ষে নির্দিষ্ট সংখ্যক মেধাবী ছাত্র-ছাত্রীদেরকে নতুন বছরের গোড়ার দিকে প্যারিসে অবস্থিত আয়েবা হেড অফিসে আমন্ত্রণ জানানো হবে, একইসাথে প্রদান করা হবে প্রেস্টিজিয়াস ‘আয়েবা স্কলারশিপ’।

Facebooktwittergoogle_plusredditpinterestlinkedinmail

বেসরকারি শিক্ষক পদে আবেদনের সময়সীমা বাড়ল

বেসরকারি স্কুল কলেজ ও মাদ্রাসার শিক্ষক নিয়োগের আবেদনের সময়সীমা পরিবর্তন করেছে বেসরকারি শিক্ষক নিবন্ধন ও প্রত্যয়ণ কর্তৃপক্ষ (এনটিআরসিএ)। শিক্ষক পদে নিয়োগ পেতে আগ্রহী প্রার্থীদেরকে পরিবর্তিত সময়সীমা অনুযায়ী আগামী ২০ জুলাই থেকে ১০ আগস্টের মধ্যে এনটিআরসিএ বরাবর অনলাইনে আবেদন করতে বলা হয়েছে।

অনলাইনের আবেদনের জন্য (www.ntrca.gov.bd এবং ngi.teletalk.com.bd) ঠিকানা নির্ধারণ করা হয়েছে।

এর আগে এনটিআরসিএ’র ৬ জুনের এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এসব শিক্ষক পদে নিয়োগ লাভের জন্য ২৮ জুলাই এর মধ্যে আবেদন করতে বলা হয়েছিল।

এনটিআরসিএ আরো জানায় যে, শিক্ষক পদে নিয়োগের জন্য বেসরকারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানসমূহ থেকে অনলাইনে প্রাপ্ত চাহিদাসমূহের (ই-রিকুইজিশন) জেলাভিত্তিক ও বিভাগীয় শহরের একীভূত তালিকা ইতোমধ্যে সর্বসাধারণের অবগতির জন্য www.ntrca.gov.bd এবং ngi.teletalk.com.bd ওয়েবসাইটে প্রকাশ করা হয়েছে।

কিন্ত শিক্ষক নিবন্ধন ও প্রত্যয়ণ কর্তৃপক্ষ (এনটিআরসিএ) উপজেলা পর্যায়ের কোন তালিকা তারা প্রকাশ করেনি।

Facebooktwittergoogle_plusredditpinterestlinkedinmail

১০৪ অধ্যাপক তৃতীয় গ্রেড পেলেন

সরকার শিক্ষা ক্যাডারের ১০৪ জন অধ্যাপক পর্যায়ের কর্মকর্তাকে নতুন বেতন স্কেলের তৃতীয় গ্রেডে সিলেকশন গ্রেড দিয়েছে। শিক্ষা মন্ত্রণালয় থেকে রবিবার এ বিষয়ে একটি আদেশ জারি করা হয়েছে। গত ২৬ জুন এসএসবি (সুপিরিয়র সিলেকশন বোর্ড) সভার সুপারিশের পর ২৮ জুন এ সংক্রান্ত প্রস্তাব অনুমোদন দেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

আগের বেতন কাঠামোতে শিক্ষা ক্যাডারের পঞ্চম গ্রেডের সহযোগী অধ্যাপকরা পদোন্নতি পেয়ে অধ্যাপক হিসেবে চতুর্থ গ্রেডে আসতেন। চতুর্থ গ্রেডের অধ্যাপকদের অর্ধেক সিলেকশন গ্রেড পেয়ে তৃতীয় গ্রেড পেতেন।

সিলেকশন গ্রেড বাতিল করে গত বছরের ১৫ ডিসেম্বর নতুন বেতন কাঠামোর গেজেট জারি করা হয়। এতে অধ্যাপকদের চতুর্থ গ্রেড থেকেই অবসরে যেতে হবে এবং তাতে শিক্ষকরা মর্যাদা ছাড়াও আর্থিক ক্ষতির মুখে পড়বে বলে অভিযোগ এনে আন্দোলনে নামে বিসিএস শিক্ষকরা। লাগাতার কর্মবিরতিতে যান বিসিএস শিক্ষা ক্যাডারের সদস্যদের সংগঠন বিসিএস সাধারণ শিক্ষা সমিতি। এ প্রেক্ষাপটে সরকারে সর্বোচ্চ মহলের সঙ্গে আলোচনা করে সমস্যা সমাধানের আশ্বাস পান শিক্ষকরা। এরপরই তারা আন্দোলন থেকে সরে আসেন।

Facebooktwittergoogle_plusredditpinterestlinkedinmail

সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীদের জন্য ভবন নির্মাণের প্রস্তাব

prosason-22_23357_0তপন : সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীদের জন্য ঢাকার মিরপুরে ভবন নির্মাণ করবে সরকার। ৩০ মাস মেয়াদি এ প্রকল্পে ব্যয় হবে ৭৯ কোটি ৩০ লাখ ১৪ হাজার ১৩৯ টাকা। আজ অনুষ্ঠিতব্য সরকারি ক্রয়সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটিতে প্রকল্পটি অনুমোদনের জন্য একটি সার-সংক্ষেপ পাঠিয়েছে গৃহায়ন ও গণপূর্ত মন্ত্রণালয়।
সার-সংক্ষেপে বলা হয়েছে, ঢাকা মহানগরীতে সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীদের আবাসন সমস্যা সমাধানের লক্ষ্যে মিরপুরের ৬নং সেকশনে ১০৬৪টি ফ্ল্যাট নির্মাণ প্রকল্প হাতে নিয়েছে সরকার। এ প্রকল্পের আওতায় ২০তলা ভবনে ১৫০০ বর্গফুটের ১১৪টি ফ্ল্যাট নির্মাণের জন্য দরপ্রস্তাব আহবান করা হয়েছে। উন্মুক্ত দরপ্রস্তাব আহবানে ৪টি দরপ্রস্তাব জমা হয়। এতে ৩টি প্রতিষ্ঠানকে রেস্পন্সিভ করা হয়। আর সর্বনিম্ন রেস্পন্সিভ দরদাতা হয় কুশলী নির্মাতা লিমিটেড।
সার-সংক্ষেপে দরপত্র মূল্যায়ন বিষয়ে বলা হয়, সার্বিক বিষয় বিবেচনায় ৩০ মাসমেয়াদি এ প্রকল্পে প্রাইস এডজাস্টমেন্ট-এর বিধান না থাকায় সর্বনিম্ন দরদাতা কুশলী নির্মাতা লিমিটেড (কেএনএল) প্রাক্কলিত মূল্য অপেক্ষা ২ দশমিক ৪৭ ভাগ বেশি দরপ্রস্তাব দিলেও কাজের প্রকৃতি ও দীর্ঘ সময় বিবেচনায় কমিটি এ প্রস্তাবটি অনুমোদনের সুপারিশ করে

Facebooktwittergoogle_plusredditpinterestlinkedinmail

নার্স নিয়োগ: মৌখিক পরীক্ষা ১১ জুলাই থেকে

PSCনিজস্ব প্রতিবেদক : সিনিয়র স্টাফ নার্স নিয়োগের লিখিত পরীক্ষায় উত্তীর্ণদের মৌখিক পরীক্ষা শুরু হবে আগামী ১১ জুলাই।

মঙ্গলবার সরকারি কর্মকমিশনের (পিএসসি) ওয়েবসাইটে (www.bpsc.gov.bd) মৌখিক পরীক্ষার সময়সূচি জানিয়ে বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হয়েছে। মৌখিক পরীক্ষা শেষ হবে ১৯ জুলাই। ১৭ জুলাই ছাড়া প্রতিদিন সকাল ১০টায় পরীক্ষা শুরু হবে। ১৭ জুলাই পরীক্ষা হবে সাড়ে ১০টায়।

১১, ১২, ১৩ ও ১৪ জুলাই ৪০০ জন করে প্রার্থীর এবং ১৭, ১৮ ও ১৯ জুলাই ১২০ জন করে প্রার্থীর মৌখিক পরীক্ষা নেওয়া হবে।

স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের অধীন সেবা পরিদপ্তরের আওতায় বহুল আলোচিত ‘সিনিয়র স্টাফ নার্স’ পদে নিয়োগের লিখিত পরীক্ষার ফল গত ৭ জুন প্রকাশ করা হয়। এতে ১১ হাজার ৯৫ জন উত্তীর্ণ হন।

নার্স নিয়োগের লিখিত পরীক্ষা গত ৩ জুন অনুষ্ঠিত হয়। দ্বিতীয় শ্রেণির এ পদের জন্য প্রার্থী সংখ্যা ছিল ১৮ হাজার ৬৩ জন।

গত ২৮ মার্চ ৩ হাজার ৬১৬টি সিনিয়র স্টাফ নার্স পদে নিয়োগের জন্য বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হয়। কিন্তু পরীক্ষা ছাড়া ব্যাচ, মেধা ও জ্যেষ্ঠতা বিবেচনা করে নিয়োগ দেওয়ার দাবিতে আন্দোলনে নামে নার্সরা।

Facebooktwittergoogle_plusredditpinterestlinkedinmail

ঈদ বোনাসের চেক পেলেন এমপিওভুক্ত শিক্ষকরা

নিজস্ব প্রতিবেদক: নতুন বেতন স্কেলে মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদফতরাধীন এমপিওভুক্ত বেসরকারি স্কুল, কলেজ ও মাদ্রাসার শিক্ষক-কর্মচারীদের রোজার ঈদের উৎসব ভাতার চেক ছাড় করা হয়েছে।

সোমবার মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদফতরের উপ-পরিচালক মো. শফিকুল ইসলাম এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, এমপিওভুক্ত বেসরকারি শিক্ষক-কর্মচারীদের ঈদ বোনাসের ১২টি চেক (স্মারক নং-৩বি/০২হিঃ/২০১৫/৮৩৮২/৪-হিসাব, তারিখ: ২৭/০৬/২০১৬) চারটি ব্যাংকে পাঠানো হয়েছে। ৩০ জুন পর্যন্ত শিক্ষক-কর্মচারীরা বোনাসের টাকা তুলতে পারবেন।

বেসরকারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের এমপিওভুক্ত শিক্ষক-কর্মচারীরাও নতুন বেতন স্কেলে রোজার ঈদের উৎসব ভাতা পাবেন, রোববার এ সংক্রান্ত আদেশ জারি করে শিক্ষা মন্ত্রণালয়। এদিন সকালে প্রস্তাব অনুমোদন করেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত।

বর্তমানে দেশে ২৬ হাজার ৭৬টি এমপিওভুক্ত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে ৪ লাখ ৮০ হাজারের মত শিক্ষক-কর্মচারী এমপিও পাচ্ছেন। বেসরকারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের এমপিওভুক্ত শিক্ষক-কর্মচারীরা তাদের মূল বেতনের পুরোটাই সরকারি কোষাগার থেকে পান। সেই সঙ্গে বিভিন্ন ভাতাও পান তারা।

Facebooktwittergoogle_plusredditpinterestlinkedinmail

৪ জুলাই সরকারি ছুটির প্রজ্ঞাপন

সচিবালয় প্রতিবেদক : সরকার নির্বাহী আদেশে ৪ জুলাই ছুটি ঘোষণা করেছে এবং এর পরিবর্তে ১৬ জুলাই শনিবার কর্মদিবস হিসেবে অফিস খোলা রাখার নির্দেশ দিয়েছে।

সোমবার জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের এক প্রজ্ঞাপনের মাধ্যমে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

এতে বলা হয়েছে, যে সকল অফিসের সময়সূচি ও ছুটি তাদের নিজস্ব আইনকানুন দ্বারা নিয়ন্ত্রিত হয়ে থাকে অথবা যে সকল অফিস, সংস্থা ও প্রতিষ্ঠানের চাকরি সরকার কর্তৃক অত্যাবশ্যক চাকরি (এসেন্সিয়াল সার্ভিস) হিসেবে ঘোষণা করা হয়েছে, সে ক্ষেত্রে সংশ্লিষ্ট অফিস, সংস্থা ও প্রতিষ্ঠান নিজস্ব আইনকানুন অনুযায়ী জনস্বার্থ বিবেচনা করে ছুটি ঘোষণা করবে।

এর আগে ২২ জুন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নির্বাহী ক্ষমতাবলে আগামী ৪ জুলাই সরকারি ছুটি ঘোষণা করেন। আজ এ বিষয়ে প্রজ্ঞাপন জারি করল জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়।

এর মাধ্যমে এবারের ঈদে টানা নয় দিনের ছুটির সুযোগ পাচ্ছেন সরকারি চাকরিজীবীরা।

Facebooktwittergoogle_plusredditpinterestlinkedinmail

ভারতীয় ভিসা সহজ করার প্রতিশ্রুতি মরীচিকায় পরিণত

hindu picডেস্ক: বাংলাদেশীদের জন্য ভারতীয় ভিসা সহজ করার যে প্রতিশ্রুতি দিয়েছিল ভারত তা মরীচিকায় পরিণত হয়েছে।

ভারতের দেয়া এ সংক্রান্ত প্রস্তাবে ঘোরতর আপত্তি তুলেছিল গোয়েন্দা সংস্থাগুলো, পশ্চিমবঙ্গ ও আসাম সরকার।

এর ফলে প্রস্তাবটি ‘কোয়াইটলি ড্রপড’ বা চুপিসারে ফেলে রাখা হয়েছে। বিজেপি সরকারের পররাষ্ট্রমন্ত্রী হওয়ার পর ২০১৪ সালে ঢাকা সফরে আসেন সুষমা স্বরাজ। তখন তিনি বাংলাদেশীদের জন্য ৫ বছর মেয়াদী মাল্টিপল ভিসা দেয়ার কথা ঘোষণা করেছিলেন। প্রতিশ্রুতি দেয়া হয়েছিল বাংলাদেশী ৬৫ বছরের ওপরে ও ১৮ বছরের নিচে যাদের বয়স তাদের ভিসার নিয়মকানুন শিথিল করা হবে। কিন্তু এখনও তা বাস্তবায়ন হয়নি। এ খবর দিয়েছে অনলাইন দ্য হিন্দু।

স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের এক কর্মকর্তা বলেছেন, গোয়েন্দা সংস্থাগুলো ওই সময় সতর্ক করে বলেছিল যে, ভারতের এমন উদ্যোগে অনুপ্রবেশ বৃদ্ধি পাবে। এ বিষয়ে চেক অ্যান্ড ব্যালেন্স নীতি অনুসরণ করতে হবে।  কোন বাংলাদেশী ভিসার কোন বিধি লঙ্ঘন করছেন কিনা তা সনাক্ত করার জন্য আমাদেরকে সিস্টেম শক্তিশালী করতে হবে। মাল্টিপল ভিসার জন্য প্রতি বছর আমরা ফরেন রিজিওনাল রেজিস্ট্রেশন অফিসে ব্যক্তিগত সাক্ষাতের বিষয়টি নিয়ে আমরা পরিকল্পনা করছি। এ বিষয়টি এরই মধ্যে ঘোষণা করেছেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী। তাই এটা বাস্তবায়ন করতে হবে। এ উদ্যোগ বাস্তবায়নের জন্য এরই মধ্যে চিঠি লিখেছেন বাংলাদেশে নিযুক্ত ভারতীয় হাই কমিশন। স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী কিরেন রিজিজু দ্য হিন্দুকে বলেছেন, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এ বিষয়ে দ্রুতই একটি সিদ্ধান্ত নেবে।

উল্লেখ্য, ভারতের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় বাংলাদেশের ৬৫ বছরের বেশি বয়সী ও ১৮ বছরের কম বয়সী নাগরিকদের ভিসামুক্ত প্রবেশের সুবিধা দেয়ার কথা ঘোষণা করেছে। পৌঁছামাত্র ইলেকট্রনিক টুরিস্ট ভিসা দেয়ার কথা বলা হয়েছে ১৫০টি দেশকে। এর মধ্যে রয়েছে বাংলাদেশ। ৫ বছর মেয়াদী মাল্টিপল ভিসা, ৬৫ বছরের ওপরে ও ১৮ বছরের নিচের নাগরিকদের ভিসামুক্ত প্রবেশÑএ দুটি প্রস্তাবেই গোয়েন্দা সংস্থাগুলো ঘোরতর বিরোধিতায় তা চুপিসারে ফেলে রাখা হয়েছে।

Facebooktwittergoogle_plusredditpinterestlinkedinmail

প্রাথমিকের বই ছাপার কাজ অর্ধেক মুদ্রণ হবে ভারতে

সুব্রত রায়: এবার প্রাথমিকের সাড়ে ১১ কোটি পাঠ্যবইয়ের দুই-তৃতীয়াংশ ছাপার কাজ চলে যাচ্ছে বিদেশে। এর মধ্যে আবার অর্ধেক বই ছাপার কাজ পাচ্ছে ভারত। ২০১৭ শিক্ষাবর্ষে প্রাথমিকের ১১ কোটি ৫৭ লাখ বই ছাপার জন্য ৯৮টি লটে ভাগ করে দরপত্র আহবান করা হয়। ৯৮টি লটের মধ্যে ভারত ৪৮টি লটে সর্বনিম্ন দরদাতা হয়েছে। এ ছাড়া চীন আট এবং দণি কোরিয়ার সাতটি প্রতিষ্ঠান সর্বনিম্ন দরদাতা হয়েছে। সব মিলিয়ে ৯৮টি লটের মধ্যে ৬৩টি লটে বিদেশী প্রতিষ্ঠান সর্বনিম্ন দরদাতা হয়েছে। ৩৫টি লটে বাংলাদেশের প্রতিষ্ঠান সর্বনিম্ন দরদাতা হয়েছে।
ভারত যে ৪৮টি লটে সর্বনিম্ন দরদাতা হয়েছে তার মধ্যে শুধু পিতামব্রা বুকস প্রা লি একাই ৪২টি লটে সর্বনিম্ন দরদাতা হয়েছে। এ ছাড়া ভারতের অপর তিনটি প্রতিষ্ঠান ছয়টি লটে সর্বনিম্ন দরদাতা হয়েছে।
তবে ভারতের পিতামব্রা বুকস ৪২টি লটে সর্বনিম্ন দরদাতা হলেও তাদের কাজ পাওয়া নিয়ে সংশয় দেখা দিয়েছে। জাতীয় শিক্ষাক্রম ও পাঠ্যপুস্তক বোর্ড (এনসিটিবি) সূত্র জানিয়েছে, পিতামব্রা যে কাগজপত্র জমা দিয়েছে তার মধ্যে একটি জাল সনদ রয়েছে। পিতামব্রা ভারতে একটি নামকরা প্রতিষ্ঠান হলেও বাংলাদেশে এনসিটিবির বই ছাপার অভিজ্ঞতার যে সনদ জমা দিয়েছে তা জাল বলে জানিয়েছে সূত্র। আগের চেয়ারম্যানের বরাতে তারা এ জাল সনদ জমা দিয়েছে বলে জানানো হয়েছে। এ বিষয়ে এনসিটিবি চেয়ারম্যান প্রফেসর নারায়ণ চন্দ্র সাহা জানান, আমি বিষয়টি শুনেছি। টেকনিক্যাল কমিটি আছে তারা সবদিক বিবেচনা করে সিদ্ধান্ত নেবে। পিতামব্রার কাজ পাওয়া নিয়ে সংশয় বিষয়ে প্রফেসর নারায়ণ চন্দ্র সাহা বলেন, সর্বনিম্ন দরদাতা হওয়াই কাজ পাওয়ার ক্ষেত্রে একমাত্র যোগ্যতা নয়। আনুষঙ্গিক সব দিক বিবেচনা করে কমিটি সিদ্ধান্ত নেবে।
তবে কেউ কেউ সংশয় প্রকাশ করে বলেছেন, বিষয়টি নিয়ে এবারো গত বছরের মতো জটিলতা সৃষ্টি হতে পারে। তা ছাড়া ভারতের পিতামব্রা যেসব লটে সর্বনিম্ন দরদাতা হয়েছে তাতে দ্বিতীয় এবং তৃতীয় দরদাতার ক্ষেত্রে দামে প্রায় দ্বিগুণ ব্যবধান।
গত বছর প্রাথমিকের সাড়ে ১১ কোটি বই ছাপার পুরো কাজ পেয়েছিল বাংলাদেশের বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান। এবার বাংলাদেশী প্রতিষ্ঠান সর্বনিম্ন  দরদাতা না হওয়ার কারণ হিসেবে জানা গেছে তারা গত বছরের তুলনায় এবার অনেক বেশি দাম উল্লেখ করেছে। যেমন গত বছর প্রতি ফর্মা বই ছাপার খরচ তারা উল্লেখ করেছিল ১ টাকা ৫৫ পয়সা। এবার সে খরচ ধরা হয়েছে ২ টাকা ২৭ পয়সা।
এ ছাড়া বই ছাপার ক্ষেত্রে ভারতের প্রতিষ্ঠান ভারত এবং বাংলাদেশ উভয় সরকার কর্তৃক যেসব সুযোগসুবিধা ভোগ করে তা বাংলাদেশের প্রতিষ্ঠান পায় না মর্মে অভিযোগ রয়েছে বাংলাদেশের প্রেসমালিকদের। ফলে বাংলাদেশের প্রতিষ্ঠান তাদের সাথে দামের প্রতিযোগিতায় টিকতে পারে না। যেমন বাংলাদেশের কাগজ রফতানি থেকে শুরু করে আনুষঙ্গিক অন্যান্য জিনিসপত্র রফতানিতে ৬১ ভাগ পর্যন্ত ট্যাক্স দিতে হয় যা ভারতের প্রতিষ্ঠানের ক্ষেত্রে প্রয়োজন হয় না। তাদের কাগজ রফতানি করতে হয় না। ভারত থেকে যে পাঠ্যপুস্তক ছাপিয়ে আনা হয় তা আমদানিকৃত পুস্তক হিসেবে গণ্য করা হয় এবং আমদানিকারক প্রতিষ্ঠান হলো এনসিটিবি। ভারত থেকে আনা বইয়ের ক্ষেত্রে এনসিটিবি ১২ ভাগ শুল্ক দেয়। ভারতীয় প্রতিষ্ঠানকে এ শুল্ক দিতে হলে তাদের বই ছাপার খরচ আরো অনেক বেশি পড়ত বলে জানান প্রেসমালিকরা। তা ছাড়া দেশীয় কোনো লোক এনসিটিবি থেকে কাজ পেলে যত টাকার কাজ পাবে তার ওপর শতকরা পাঁচ ভাগ ট্যাক্স কেটে রাখা হয়। এসব কারণে বিদেশী প্রতিষ্ঠানের সাথে বাংলাদেশের প্রতিষ্ঠানগুলোকে অসম প্রতিযোগিতায় পড়তে হয় প্রাইমারি বই ছাপার কাজ পেতে।
প্রেসমালিকরা অভিযোগ করেছেন, দেশীয় মুদ্রণ শিল্প সুরক্ষার জন্য এবার বাজেটে বই আমদানির ক্ষেত্রে বিদ্যমান ট্যাক্স বাড়িয়ে ২৫ ভাগ পর্যন্ত করার প্রস্তাব করা হয়েছে। এটা কার্যকর হলে ভ্যাটসহ ৫০ ভাগ পর্যন্ত কর দিতে হবে ভারতীয় প্রতিষ্ঠানকে। কিন্তু এনসিটিবি তা আমলে নিচ্ছে না। এটা বাস্তবায়িত হলে দেশীয় প্রতিষ্ঠান লাভবান হতো।
দামের ব্যবধান : ৫৫ নম্বর লটে ভারতের পিতামব্রা সর্বনিম্ন দরদাতা হিসেবে দর উল্লেখ করেছে ২ কোটি ৭৮ লাখ টাকা। ভারতেরই আরেকটি প্রতিষ্ঠান কৃষ্না ট্রেডার্স ৫৫ নম্বর লটে দ্বিতীয় দরদাতা হয়েছে এবং তারা এ লটে দর উল্লেখ করেছে ৪ কোটি ৪০ লাখ টাকা।
৫৪ নম্বর লটে ভারতের পিতামব্রা সর্বনিম্ন দরদাতা হয়েছে। তারা দর উল্লেখ করেছে ২ কোটি ৮৫ লাখ টাকা। চীনের হুনান তিয়ানওয়েন জিনহুয়া দ্বিতীয় দরদাতা হিসেবে দর উল্লেখ করেছে ৩ কোটি ৯১ লাখ টাকা। তৃতীয় দরদাতা ভারতের কৃষ্ণা দর উল্লেখ করেছে ৪ কোটি ৫০ লাখ টাকা।
৫৭ নম্বর লটে পিতামব্রা ২ কোটি ৭৪ লাখ টাকা দর উল্লেখ করেছে সর্বনিম্ন দরদাতা হিসেবে। দ্বিতীয় চীনের হুনান হিয়ানওয়েন জিনহুয়া ৩ কোটি ৭০ লাখ এবং তৃতীয় বাংলাদেশের কচুয়া প্রেস ৩ কোটি ৭৫ লাখ টাকা দর উল্লেখ করেছে।
এভাবে ভারতের পিতামব্রা অন্যান্য প্রতিদ্বন্দ্বী প্রতিষ্ঠানের বিপরীতে প্রায় ক্ষেত্রেই অর্ধেক দরে বই ছাপার প্রস্তাব করেছে।
গত বছর প্রাথমিক ও প্রাক-প্রাথমিকের সাড়ে ১১ কোটি বইয়ের জন্য এনসিটিবি বাজারদর যাচাই করে সম্ভাব্য দর ঠিক করে ৩৩০ কেটি টাকা। কিন্তু দেশীয় মুদ্রাকররা যে দরপত্র জমা দেয় তাতে বই ছাপার মোট খরচ উদ্ধৃত করা হয়েছে ২২১ কোটি টাকা। এনসিটিবির নির্ধারিত দরের চেয়ে এটি ১০৯ কোটি টাকা কম যা অনেকের কাছে অবিশ্বাস্য হিসেবে বিবেচিত হয়। প্রশ্ন ওঠে এত কম দামে কিভাবে তারা বই ছাপার কাজ করবে। তারা মানসম্মত বই দেবে না বলে অভিযোগ উত্থাপন করা হয়।
তবে গত বছর বইয়ের মান রক্ষা সম্ভব হয়নি এ অভিযোগ স্বীকার করেছেন মুদ্রণ শিল্প নেতৃবৃন্দ। বই ছাপার কাজ যাতে দেশেই থাকে সে জন্য গত বছর দেশীয় প্রেসমালিকেরা একজোট হয়ে অবিশ্বাস্য কম দামে বইয়ের দর উল্লেখ করেন দরপত্রে। এবার অভিযোগ পাওয়া গেছে দেশীয় প্রেসমালিকেরা বই ছাপার কাজে বেশি মূল্য নির্ধারণ করেছেন।
বাংলাদেশ মুদ্রণ শিল্প সমিতির সভাপতি শহীদ সেরনিয়াবাত বলেন, গত বছরের বইয়ের মান নিয়ে আমরা সত্যিই লজ্জিত। বইয়ের কাজ যেই পাক আমাদের দাবি সেটা যেন নিয়ম অনুযায়ী হয় এবং বইয়ের মান যেন ঠিক থাকে।

Facebooktwittergoogle_plusredditpinterestlinkedinmail

চুয়াডাঙ্গায় শিক্ষক লাঞ্ছনার প্রতিবাদে মানববন্ধন

নিজস্ব প্রতিবেদক : নারায়ণগchuadanga pic,20-5-16ঞ্জ জেলায় শিক্ষক লাঞ্ছনার প্রতিবাদে বাংলাদেশ বাংলাদেশ হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিষ্টান ঐক্য পরিষেদের ডাকে শুক্রবার চুয়াডাঙ্গায় মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়েছে। শুক্রবার বিকাল সাড়ে ৪টা থেকে সাড়ে ৫টা পর্যন্ত এ মানববন্ধন চলে। মানববন্ধনে বক্তারা বলেন নারায়ণগঞ্জের বন্দর উপজেলার পিয়ার সাত্তার লতিফ উচ্চবিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক শ্যামল কান্তি ভক্তকে মিথ্যা অভিযোগে অভিযুক্ত করে তাকে ফাসানো হয়েছে।
চুয়াডাঙ্গার হাসান চত্তরে মানববন্ধনে বক্তারা বলেন প্রধান শিক্ষক শ্যামল কান্তি ভক্তকে কান ধরে ওঠবস করানোর ঘটনায় আমরা লজ্জিত। শিক্ষককে লাঞ্ছিত করার জন্য সেলিম ওসমানকে গ্রেপ্তারের দাবী জানান। বক্তারা আরও বলেন , সংসদ সদস্য হিসেবে থাকার নৈতিক অধিকার তিনি হারিয়ে ফেলেছেন। তাঁর রাজনীতি করার অধিকার নেই। সংসদ থেকে সেলিম ওসমানকে অভিশংসন করার প্রক্রিয়া শুরু করার জন্য ¯িপকার এবং জাতীয় পার্টি থেকে বহিষ্কারের আহ্বান জানান।
হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিষ্টান ঐক্য পরিষেদের সাধারন সম্পাদক জয়ন্ত সিংহ রায় বলেন, একটি চক্র দেশেকে এবং শিক্ষা পরিবারকে অশান্ত করার চেষ্টা চালাচ্ছে। সরকারকে অস্থিতিশীল করার জন্য ধর্মীয় অনুভূতির কথা বলে কারা এ দেশে নৈরাজ্য সৃষ্টির প্রচেষ্টা চালাচ্ছে সরকারকে লক্ষ রাখতে হবে। এ ঘটনা হচ্ছে একটা চক্রান্ত।
ডাঃ এস কে দাস বলেন, এ ঘটনায় স্কুল ধ্বংসের চক্রান্তের সঙ্গে জড়িত ম্যানেজিং কমিটি বাতিল করতে হবে এবং জাতীয় সংসদে সেলিম ওসমানের বিরুদ্ধে নিন্দা প্রস্তাব আনতে হবে।
যুগ্ন সম্পাদক কিশোর কুমার বলেন এ ঘটনায় আমরা বাকরুদ্ধ, স্তম্ভিত। একজন শিক্ষককে কান ধরে ওঠবস করার দৃশ্য দেখার জন্য বাংলাদেশ স্বাধীন হয়নি। এ স্বাধীন বাংলাদেশ আমরা চায়নি। এ অপমান বাংলাদেশের পুরো শিক্ষক সমাজের অপমান। অনান্যেও মধ্যে উপস্থিত ছিলেন উত্তম রঞ্জন দেবনাথ, সুধির সান্তার, জগবন্ধু ধর, রতন কুমার সহ শতাধিক নেতাকর্মী।

Facebooktwittergoogle_plusredditpinterestlinkedinmail

জিপিএ ৫ পাবার পরও দারিদ্রতা তন্নির বাধা

দামুড়হুদা(চুয়াডাঙ্গা)প্রতিনিধি ঃ
চুয়াডাঙ্গার দামুড়হুদা উপজেলার দর্শনা মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয়ের বিজ্ঞান বিভাগের ছাত্রী মোছাঃ তাহদিয়া খানম তন্নি এবছর অনুষ্ঠিত এস,এস,সি পরীক্ষায় জিপিএ ৫ পেয়েছে। সে দর্শনা পৌরসভার চতুর্থ শ্রেণীর কর্মচারী মোঃ তছের আলী ও মাতা গৃহিনী মোছাঃ শাহিনা খাতুন এর বড় মেয়ে। বড় ভাই শাহরিয়ার আহমেদ বিএসসি শেষ বর্ষের ছাত্র ও ছোট বোন তাহমিদা খাতুন ছন্দা এবার পিএসসি তে জিপিএ ৫ পেয়েছে। বাবার উপার্জনের টাকা দিয়ে সংসার চালাতেই হিমশিম খায়। তার উপরে পৌরসভার ৮ মাসের বেতন বাকি থাকার কারনে এনজিও থেকে ঋণ নিয়ে সংসার চালাতে হয় । মা হাস-মুরগি পালন করে লেখা পড়ার খরচ কোনো রকমে জুগিয়েছে। মোছাঃ তাহদিয়া খানম তন্নি ডাক্তারি পড়ার ইচ্ছা থাকলেও পারিবারিক দারিদ্রতা বাধা হয়ে দাড়িয়েছে। ভালো রেজাল্ট করার আনন্দর পাশাপাশি ভালো কলেজে ভর্তি না হতে পারার দুঃখটা তার রয়েই গেছে। সে সকলের সহযোগিতা কামানা করেছে।

Facebooktwittergoogle_plusredditpinterestlinkedinmail

দর্শনায় বঙ্গবন্ধু-বঙ্গমাতা গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্ণামেন্টের উদ্বোধন

darsana goldcup pic,8-5-16দর্শনা অফিস: দর্শনায় প্রাথমিক বিদ্যালয় পৌরসভা পর্যায়ে বঙ্গবন্ধু ও বঙ্গমাতা ফজিলাতুন্নেসা মুজিব গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্নামেন্টের শুভ উদ্বোধন করা হয়েছে। রবিবার বিকাল ৫টায় দর্শনা পৌরসভার আয়োজনে দর্শনা কলেজ মাঠে পৌরসভার ১০টি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের মধ্যে টুর্নামেন্টের শুভ উদ্বোধন করেন প্রধান অতিথি জেলা পরিষদ প্রশাসক মাহফুজুর রহমান মনজু। প্রধান অতিথি তার বক্তবে বলেন খেলাধুলা শরীর ও মনকে প্রফুল্ল করে। শিশুদেরকে নেতৃত্ব দিতে শেখায়। এ সময় উপস্থিত ছিলেন সহকারী উপজেলা শিক্ষা অফিসার আশরাফুল আলম , প্যানেল মেয়র রবিউল হক , প্রধান শিক্ষক সমিতির সাধারন সম্পাদক স্বরুপ দাস, সিনিয়ার সহসভাপতি হাসানুল আলম ও হেলেনা পারভীন, প্রধান শিক্ষক আরতি হালসানা, নাসিমা খাতুন,সহকারী শিক্ষক সমিতির সাধারন সম্পাদক হারুন অর রশিদ(জুয়েল), ওয়ার্ড কমিশনার রেজাউল হক, আম্বিয়া খাতুন, জাহানারা, সুরাতুননেছা, প্রধান শিক্ষক হারুন অর রশিদ, আছিয়া খাতুন সানোয়ারুল ইসলাম, সিরাজুল ইসলাম, ও সফিকুল সহ দর্শনা পৌরসভার সকল শিক্ষক।
উদ্বোধনী ফুটবল টুর্নামেন্টে(বঙ্গমাতা)পূর্বরামনগর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ট্রাইবেকারে কাস্টমস সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়কে এবং(বঙ্গবন্ধু কাপ)ঈশ্বরচন্দ্রপুর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় ১-০ গোলে আজমপুর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়কে পরাজিত করেন। ফুটবল খেলা দেখতে মাঠের চারপাশে শত শত মানুষ ভিড় জমায়।খেলায় ধারাভাষ্য দেন প্রধান শিক্ষক ইয়াস নবী।

Facebooktwittergoogle_plusredditpinterestlinkedinmail

চুয়াডাঙ্গায় ছাত্রী ধর্ষনের অভিযোগে অভিযুক্ত শিক্ষককে সাময়িক বরখাস্ত।

মোঃ আজাদ হোসেন,চুয়াডাঙ্গা প্রতিনিধি: চুয়াডাঙ্গার ঝিনুক মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ১০ম শ্রেনীর এক ছাত্রীকে ধর্ষনের অভিযোগে ওই বিদ্যালয়ের অভিযুক্ত ইংরাজি শিক্ষক আহাদ আলীকে বিদ্যালয় থেকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার সকালে বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সভায় তাকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়। এদিকে, বৃহস্পতিবার বেলা আড়াইটার সময় ধর্ষনের শিকার ছাত্রীর ২২ ধারা মতে জবানবন্দী গ্রহণ করেন চুয়াডাঙ্গার চীফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের বিচারক ড. এবিএম মাহমুদুল হক। পরে ওই ছাত্রীকে নাগরিক কমিটির জিম্মায় দেওয়া হলে ছাত্রীর অভিভাবক মামলার বাদি ছাত্রীকে নিয়ে যান।

শিক্ষক কর্তৃক ছাত্রী ধর্ষণের বিচার দাবিতে নাগরিক কমিটির আহ্বায়ক অ্যাডভোকেট আলমগীর হোসেন জানান, চুয়াডাঙ্গার ঝিনুক মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ১০ম শ্রেণীর এক ছাত্রীকে ধর্ষনের অভিযোগে বুধবার সন্ধ্যায় চুয়াডাঙ্গা সদর থানায় মামলা দায়ের করা হয়। রাতেই গ্রেফতার করা হয় ধর্ষক শিক্ষক আহাদ আলীকে। বৃহস্পতিবার বিকেলে ওই শিক্ষককে আদালতের মাধ্যমে চুয়াডাঙ্গা জেলা কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

Facebooktwittergoogle_plusredditpinterestlinkedinmail

চুয়াডাঙ্গায় স্কুলছাত্রী ধর্ষণ মামলায় স্কুল শিক্ষক গ্রেফতার

শরিফ উদ্দিন,চুয়াডাঙ্গা: চু13য়াডাঙ্গায় ঝিনুক বিদ্যাপীঠের দশম শ্রেণীর ছাত্রী ধর্ষণ মামলায় অভিযুক্ত শিক্ষক আহাদ আলী (৪০) কে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

বুধবার রাত ৮টার দিকে চুয়াডাঙ্গাস্থ বাসা থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়। রাতেই ধর্ষিতার দুলাভাই মনিরুজ্জামান বাদী হয়ে চুয়াডাঙ্গা সদর থানায় শিক্ষক আহাদ আলীর নামে মামলা দায়ের করে।

জানা যায়, বৃহস্পতিবার ক্লাসরুমে নোট দেওয়ার কথা বলে ওই শিক্ষার্থীকে শুক্রবার বিকেলে বাড়িতে যেতে বলে শিক্ষক আহাদ আলী। তার কথামত ওই শিক্ষার্থী বাড়িতে গেলে তাকে জোরপূর্বক ধর্ষণ করা হয়। এ সময় ওই শিক্ষকের বাড়িতে কেউ ছিলো না বলে জানায় ধর্ষণের শিকার ওই শিক্ষার্থী। বিষয়টি ওই শিক্ষার্থী তার অভিভাবকদের জানালে আজ সকালে ক্ষুব্ধ অভিভাবকও তার স্বজনরা হামলা চালায় ওই শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে। এ সময় মারপিট করা হয় অভিযুক্ত শিক্ষক আহাদ আলীকে।

এদিকে শিক্ষক কর্তৃক শিক্ষার্থী ধর্ষণের খবর ছড়িয়ে পড়লে ক্ষুব্ধ হয়ে ওঠে শিক্ষার্থীরা। তারা অভিযুক্ত শিক্ষকের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে ক্লাস বর্জন করে বিক্ষোভ করতে থাকে। তাতে স্থানীয় বাসিন্দা ও অভিভাবকরা যোগ দিলে পরিস্থিতি চরম উত্তপ্ত হয়ে ওঠে। অবস্থা বেগতিক হওয়ায় বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ তড়িঘড়ি করে বিদ্যালয় ছুটি ঘোষণা করেন। এর পর রাতে ধর্ষিতার দুলাভাই বাদী হয়ে একটি মামলা দায়ের করলে পুলিশ তাকে গ্রেফতার করে।

চুয়াডাঙ্গা সদর থানার ওসি তোজাম্মেল হক ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

Facebooktwittergoogle_plusredditpinterestlinkedinmail

দামুড়হুদায় কালবৈশাখী ঝড়ে কৃষকের মৃত্যু

দামুড়হুদা,চুয়াডাঙ্গা,২ মে ॥ চুয়াডাঙ্গার দামুড়হুদায় কালবৈশাখী ঝড়ে দাউদ হোসেন(৪৫) নামে এক কৃষকের মৃত্যু হয়েছে। আহত হয়েছেন বদর উদ্দিন (৫০) এক কৃষক । শিলাবৃষ্টিতে আমসহ ফসলের ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে। নিহত বদরউদ্দিন ছয়ঘরিয়া গ্রামের মৃত আইজউদ্দিন শেখের ছেলে । দীর্ঘ ২৫ দিনের তীব্র দাবদাহের পর রোববার বিকেলে জেলার ওপর দিয়ে শিলাসহ বৃষ্টি এবং দুই দফা ঝড় বয়ে যায়।

জানা যায়, দামুড়হুদা উপজেলার ছয়ঘরিয়া গ্রামের মৃত আইজউদ্দিন শেখের দুই ছেলে বদর উদ্দিন (৫০) ও দাউদ হোসেন (৪৮) বাড়ির উঠানে ধান গোছানোর সময় ঝড়ে একটি আমগাছ ভেঙে পড়ে। এতে দুই ভাই আহত হন। তাঁদেরকে উদ্ধার করে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে নেওয়ার পথে দাউদ হোসেন মারা যান। বদর উদ্দিন প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়ে বাড়িতে ফেরেন।

সদর হাসপাতালের জরুরী বিভাগের চিকিৎসক মশিউর রহমান ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

চুয়াডাঙ্গার আবহাওয়া পর্যবেক্ষণ কেন্দ্রের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা জাহেদুল ইসলাম জানান, রোববার চুয়াডাঙ্গায় তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে ৩৯ দশমিক ৩ ডিগ্রি সেলসিয়াস। রোববার বিকেলে দুই দফা ঝড়ো হাওয়া এবং সন্ধ্যায় বৃষ্টিপাত শুরু হয়। এ সময় ৯ দশমিক ৬ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত রেকর্ড করা হয়। এর আগে গত ৫ এপ্রিল চুয়াডাঙ্গায় ৩০ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত রেকর্ড করা হয়েছিল।

Facebooktwittergoogle_plusredditpinterestlinkedinmail

Responsive WordPress Theme Freetheme wordpress magazine responsive freetheme wordpress news responsive freeWORDPRESS PLUGIN PREMIUM FREEDownload theme free

hit counter