নিউজ

বেতন বৈষম্য নিরসনের দাবিতে প্রধানমন্ত্রী বরাবর স্মারকলিপি প্রদান

বরিশাল প্রতিনিধি,৮মে :
বরিশালে সরকারি কর্মচারীদের পদবী ও বেতন বৈষম্য নিরসনের দাবিতে প্রধানমন্ত্রী বরাবর স্মারকলিপি দিয়েছেন প্রশাসনিক কর্মকর্তা বাস্তবায়ন ঐক্য পরিষদ।
সংগঠনের বিভাগীয় কমিটির উদ্যোগে বুধবার বেলা ১১টায় নগরীর কাশীপুর বিভাগীয় কমিশনার কার্যালয়ে বিভাগীয় কমিশনার রাম চন্দ্র দাসের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী বরাবর স্মারকলিপি দেন নেতৃবৃন্দ।


এ সময় সংগঠনের বিভাগীয় কমিটির আহবায়ক মো. কায়ছার ফরাজী, সদস্য সচিব মো. সেলিম আহম্মেদ, বাংলাদেশ সরকারি কর্মচারী সমন্বয় পরিষদ বরিশাল জেলা শাখার সভাপতি মো. মানিক মৃধা, প্রধান সহকারী মো. আলমগীর সিকদার, অজয় কুমার নাথ, মো. জাহাঙ্গীর হোসেন, মো. নজর আলী খান, মো. হামিদুল ইসলাম, মো. হাবিবুর রহমান, মো. শাহজাহান মোল্লা, আলহাজ মো. বশির আহম্মেদসহ অন্যান্যরা উপস্থিত ছিলেন।

স্মারকলিপি প্রদানকালে নেতৃবৃন্দ বিভাগীয় কমিশনার রাম চন্দ্র দাসকে বলেন, বাংলাদেশ সচিবালয়ের ভেতরে ও বাইরে সরকারি বিভিন্ন দপ্তরে প্রধান সহকারী, উচ্চমান সহকারী, সমপদের পদবী ও বেতন স্কেল এক ও অভিন্ন হওয়া সত্ত্বেও তৎকালীন সরকার ১৯৯৫, ৯৭ ও ৯৯ সালে প্রজ্ঞাপন দিয়ে শুধু সচিবালয়ের পদগুলো আপগ্রেড করে। ফলে সরকারি দপ্তরগুলোর মধ্যে পদবী ও বেতন বৈষম্যের সৃষ্টি হয়। তাই প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপের মাধ্যমে অবিলম্বে তারা এই পদবী বৈষম্য নিরসনের দাবি জানান।



Facebooktwittergoogle_plusredditpinterestlinkedinmail

এবার ঈদে ছুটি ৯ দিন!

নিজস্ব প্রতিবেদক,৭ মে ২০১৯: আসছে ঈদুল ফিতরে ৯ দিন ছুটির সুযোগ থাকছে। ঈদের ছুটির আগে ও পরে সাপ্তাহিক ছুটি, লাইলাতুল কদরের ছুটির মধ্যে এক কর্মদিবস রয়েছে। এ কর্মদিবসটি ছুটি হিসেবে ধরলে টানা ৯ দিনের ছুটি হবে ঈদে। সে হিসেবে একদিন ছুটি নিলেই সরকারি চাকরিজীবীরা পেয়ে যাবেন টানা ৯ দিনের ছুটি। ফলে এবারের ঈদে দীর্ঘ ছুটি কাটার সুযোগ রয়েছে সরকারি কর্মজীবীদের।


যদি রমজান মাস ২৯ দিন হলে ঈদ হবে ৫ জুন বুধবার। রমজান ৩০ দিনে শেষ হলে ঈদ হবে ৬ জুন বৃহস্পতিবার। ঈদ যেদিনই হোক এবার ঈদের ছুটি শুরু হবে ৪ জুন। ৫ জুন ঈদ হলে ছুটি থাকবে ৪, ৫ ও ৬ জুন অর্থাৎ মঙ্গল, বুধ ও বৃহস্পতি। এরপর শুক্র ও শনিবার (৭ ও ৮ জুন) দু’দিন সাপ্তাহিক ছুটি। ঈদের ছুটি শুরু হওয়ার আগে ২ জুন রবিবার লাইলাতুল কদরের ছুটি। কদরের ছুটির আগে ৩১ মে ও ১ জুন (শুক্র ও শনিবার) দু’দিন সাপ্তাহিক ছুটি। ৩১ মে থেকে ৯ জুন পর্যন্ত ৯ দিনের মধ্যে শুধু ৩ জুন সোমবার অফিস খোলা।

ঈদুল ফিতর ৬ জুন হলে ঈদের ছুটি একদিন বেড়ে ৭ জুন পর্যন্ত হবে। এ ক্ষেত্রে ঈদের ছুটি হবে ৪, ৫, ৬ ও ৭ জুন। অর্থাৎ ৭ জুনের ঈদের ছুটি পড়বে শুক্রবার সাপ্তাহিক ছুটির মধ্যে। এ ক্ষেত্রেও ৩ জুন অফিস না করলে ৯ দিন ছুটি কাটানো যাবে। সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীরা এরইমধ্যে দীর্ঘ ছুটিতে বেড়ানোর পরিকল্পনা করছেন। টানা ছুটি পেতে তারা ৩ জুন ছুটি নেবেন।

এর আগে ২০১৬ সালে ঈদুল ফিতরের সময় শবে কদর, সাপ্তাহিক ছুটির সঙ্গে ঈদুল ফিতরের ছুটি মিলিয়ে টানা ৯ দিনের ছুটির মধ্যে একদিন অফিস খোলা ছিল। ওই সময় প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে মাঝের একদিন ছুটি ঘোষণা করা হয়েছিল।

Facebooktwittergoogle_plusredditpinterestlinkedinmail

আইসিটি শিক্ষকরাও এমপিও পাচ্ছে

ডেস্ক,৭ মে ২০১৯:

অবশেষে এমপিওভুক্ত বিদ্যালয়ের নিম্ন মাধ্যমিকে কর্মরত তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিষয়ের সহকারী শিক্ষকরা এমপিও পেতে চলেছে। ২০১২ খ্রিষ্টাব্দের পূর্বে নিয়োগপ্রাপ্ত নিবন্ধনধারী ও নিবন্ধনবিহীন শিক্ষকদের এমপিওভুক্তির বিষয়ে বিদ্যমান নীতিমালা যাচাইপূর্বক মতামতসহ প্রতিবেদন শিক্ষা মন্ত্রণালয়ে দাখিলের নির্দেশ দেয়া হয়েছে।



গতকাল সোমবার মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদপ্তরের শিক্ষা কর্মকর্তা (মাধ্যমিক-২) মো. আফসার উদ্দিনের স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

Facebooktwittergoogle_plusredditpinterestlinkedinmail

ফেল করায় গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা

ডেস্ক : ফেল করায় এসএসসি পরীক্ষায় পার্বতী রাণী (১৫) নামে এক কিশোরী গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছে। গাইবান্ধার পলাশবাড়ী উপজেলায় এ ঘটনা ঘটে।

আজ সোমবার দুপুরে উপজেলার কিশোরগাড়ী ইউনিয়নের পশ্চিম রামচন্দ্রপুর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।


পার্বতী রানী স্থানীয় কাশিয়াবাড়ী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের থেকে এবারের এসএসসি পরীক্ষায় অংশ নেয়।

স্থানীয়রা জানান, এসএসসি পরীক্ষায় ফেল করেছে বলে জানতে পারে পার্বতী। এরপর দুপুর ১২টার দিকে নিজ ঘরের তীরের সঙ্গে রশি ঝুলিয়ে সে আত্মহত্যা করে।

Facebooktwittergoogle_plusredditpinterestlinkedinmail

অদম্য ইচ্ছাশক্তির কাছে হার মানলো শারীরিক প্রতিবন্ধকতা।

এক পায়ে লিখে জিপিএ-৫ পেল সেই তামান্না

অনলাইন ডেস্ক,৬মে ২০১৯:
তামান্না আক্তার নূরা। জন্মগতভাবেই তার দুই হাত ও এক পা নেই। শরীরে শুধু একটিমাত্র পা-ই তার সম্বল।
তার অদম্য ইচ্ছাশক্তির কাছে হার মানলো শারীরিক প্রতিবন্ধকতা। এক পায়ে লিখে এসএসসিতে বিজ্ঞান বিভাগ থেকে জিপিএ-৫ পেয়েছে সে।

প্রকাশিত ফলাফলে দেখা গেছে, বাংলা বাদে প্রত্যেকটি বিষয়ে এ প্লাস পেয়েছে সে। যশোরের ঝিকরগাছার বাঁকড়া জেকে মাধ্যমিক বিদ্যালয় থেকে এবার পরীক্ষায় অংশ নেয়। জেএসসিতেও জিপিএ-৫ পেয়েছিল তামান্না নূরা।

ঝিকরগাছা উপজেলার বাঁকড়া ইউনিয়নের আলীপুর গ্রামের রওশন আলী ও খাদিজা পারভীন শিল্পী দম্পতির মেয়ে তামান্না নূরা। অদম্য এই মেয়েটি প্রথম শ্রেণি থেকে প্রাথমিক সমাপনী পরীক্ষা পর্যন্ত মেধা তালিকায় শীর্ষে ছিল। পাশাপাশি এডাস বৃত্তি পরীক্ষাও বৃত্তি পেয়েছিল। ২০১৩ সালে প্রাথমিক সমাপনী (পিইসি) ও ২০১৬ সালে জেএসসি পরীক্ষায় জিপিএ-৫ পায়।

Facebooktwittergoogle_plusredditpinterestlinkedinmail

এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষায় ১০৭ প্রতিষ্ঠানের সব শিক্ষার্থী ফেল

অনলাইন ডেস্ক,৬মে ২০১৯:
চলতি বছর এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষায় ১০৭ প্রতিষ্ঠানের সব শিক্ষার্থী ফেল করেছে। আর শতভাগ পাস করেছে এমন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের সংখ্যা দুই হাজার ৫৮৩টি। চলতি বছরের এসএসসি পরীক্ষার ঘোষিত ফল থেকে এমন তথ্য জানা গেছে।

রোববার বেলা সোয়া ১১টার দিকে শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি ২০১৯ সালের এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষার ফল ঘোষণা করেন। এর আগে বোর্ড চেয়ারম্যানরা শিক্ষামন্ত্রীর কাছে ফলের সারসংক্ষেপ তুলে দেন।


এবার এসএসসি ও সমমানে পাশের হার ৮২.২০ শতাংশ। গত বছরের চেয়ে এবার পাশের হার বেড়েছে শতকরা ৪.৪৩ ভাগ। মোট জিপিএ ৫ পেয়েছে এক লাখ ৫ হাজার ৫৯৪ জন। মোট পাশের হার বৃদ্ধি পেলেও জিপিএ ৫ প্রাপ্তির হার কমেছে।

এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষায় গতবার ৭৭ দশমিক ৭৭ শতাংশ শিক্ষার্থী পাস করেছিল; জিপিএ-৫ পেয়েছিল ১ লাখ ১০ হাজার ৬২৯ জন। সেই হিসাবে এবার পাসের হার বেড়েছে ৪ দশমিক ৪৩ শতাংশ পয়েন্ট। আর পূর্ণাঙ্গ জিপিএ পাওয়া শিক্ষার্থীর সংখ্যা কমেছে ৫ হাজার ৩৫ জন।

এবারের এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষায় ২১ লাখ ৩৫ হাজার ৩৩৩ জন শিক্ষার্থী অংশ নেয়। এরমধ্যে ১০ লাখ ৭০ হাজার ৪৪১ জন ছাত্র এবং ১০ লাখ ৬৪ হাজার ৮৯২ জন ছাত্রী। আগের মতোই এবারও পরীক্ষা শেষের ৬০ দিনের মধ্যেই প্রকাশিত হচ্ছে ফলাফল।

Facebooktwittergoogle_plusredditpinterestlinkedinmail

যশোরে প্রাথমিকের ৬ ছাত্রীকে টানা ধর্ষণ

যশোর প্রতিনিধি,৫মে:

যশোরের খড়কি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ছয় শিক্ষার্থীকে দিনের পর দিন ধর্ষণের অভিযোগে আমিনুরকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। গতকাল শনিবার দুপুরে অবৈধপথে ভারতে পালানোর চেষ্টাকালে শার্শার গাতিপাড়া সীমান্ত এলাকা থেকে পুলিশ তাকে আটক করে। রাতেই তাকে যশোর কোতোয়ালি থানায় আনা হয়।

যশোরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আনসার উদ্দিন জানান, ঘটনার পর থেকেই পুলিশ তাকে আটকের ব্যাপারে তৎপর ছিল। শুক্রবারও রাতভর তাকে আটকের জন্য বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালানো হয়। পরে শনিবার দুপুরে তিনি সীমান্ত পাড়ি দেয়ার প্রস্তুতি নেন। এসময় সেখানে হানা দিয়ে তাকে ধরে ফেলে কোতোয়ালি পুলিশ।


যশোর কোতোয়ালি থানার অফিসার্স ইনচার্জ (ওসি) অপূর্ব হাসান জানান, আটকের পর পুলিশের জিজ্ঞাসাবাদে অভিযুক্ত আমিনুল ঘটনার দায় স্বীকার করেছে। তিনি স্বেচ্ছায় আদালতে জবানবন্দি দিতেও রাজি হয়েছেন।

উল্লেখ্য, তিন সন্তানের জনক আমিনুর গত প্রায় একমাস ধরে শহরের খড়কি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ছয় শিক্ষার্থীর উপর পর্যায়ক্রমে যৌন নিপীড়ন চালিয়ে আসছিলেন।

ঘটনাটি ফাঁস হওয়ার পর গত বুধবার এক শিক্ষার্থীর বোন বাদি হয়ে থানায় মামলা দায়ের করেন। এর আগেই পালিয়ে যান আমিনূর। তিনি ওই এলাকার একটি বাড়ির কেয়ারটেকার।

Facebooktwittergoogle_plusredditpinterestlinkedinmail

চলতি দায়িত্বে থাকা প্রধান শিক্ষকরা দ্রুত পদোন্নতি পাচ্ছেন

প্রাথমিকে-সময়-কমছেনিজস্ব প্রতিবেদক,৩ মে ২০১৯ঃ
প্রাথমিক বিদ্যালয়ের চলতি দায়িত্ব পাওয়া প্রধান শিক্ষকরা শিগগিরই প্রধান শিক্ষক পদে চূড়ান্তভাবে পদোন্নতি পেতে যাচ্ছেন। এসব শিক্ষকরা অস্থায়ী প্রধান শিক্ষকের দায়িত্বে ছিলেন।
শুক্রবার সকাল ১১ টাই চুয়াডাঙ্গা জেলার কালেক্টেরল স্কুল মাঠে প্রাথমিক শিক্ষকদের সাথে এক মতবিনিময় সভায় তিনি একথা বলেন।


সচিব আরো বলেন, নতুন রুটিন শিক্ষার্থীদের জন্য মানা সম্ভব নয় । দীর্ঘ সময় ধরে ছোট ছোট বাচ্চারা স্কুলে থাকতে চায় না। তেমনি শিক্ষকদের মানসিকতাও ঠিক রাখা কঠিন। ক্লাস রুটিন অনুযায়ী একটা বাচ্চাকে সকাল ৯টায় স্কুলে আসতে হবে । আর যাবে বিকাল সোয়া ৪ টায়। তিনি বলেন সকল বিদ্যালয়কে এক শিফট করার পরিকল্পনা চলছে। যেগুলো এক শিফট করা হবে সেগুলো সময়সুচি পরিবর্তন করা হবে। প্রথম পর্যায়ে ৫০০০ বিদ্যালয়ে সম্ভব হলে ৫০০০ বিদ্যালয়ে বাস্তবায়ন করা হবে। Read More »

Facebooktwittergoogle_plusredditpinterestlinkedinmail

এবার শিক্ষা অফিসার দ্বারা শিক্ষিকা ধর্ষন!

মাদারীপুর প্রতিনিধি,১ মে: মাদারীপুর সদর উপজেলা সহকারী শিক্ষা অফিসার মো. তোফায়েল হোসেনের বিরুদ্ধে এক শিক্ষিকাকে ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগ উঠেছে। এই ঘটনায় মাদারীপুর সদর থানায় একটি মামলা  হলেও গ্রেফতার হয়নি সেই শিক্ষা অফিসার।


এদিকে মামলা করার কারণে শিক্ষিকার চাকুরি খেয়ে ফেলার হুমকি দিচ্ছে অভিযুক্ত সহকারী শিক্ষা অফিসার তোফায়েল।

মামলার নথি ও সংশ্লিষ্ট একাধিক সূত্রে জানা গেছে, মঙ্গলবার বিকেলে মাদারীপুর সদর উপজেলা শিক্ষা অফিসে অফিসিয়াল কাজে যান ওই শিক্ষিকা। এসময় ওই শিক্ষিকার কয়েকটি ছবি তুলেন তোফায়েল। ছবি তোলার কারণ জিজ্ঞেস করলে তোফায়েল ওই শিক্ষিকাকে পাশের আরেকটি নির্জন কক্ষে নিয়ে যায়। এ সময় ওই ছবির সাথে অশালীন ছবি যুক্ত করে ইন্টারেনেটে ছড়িয়ে দেয়ার হুমকি দিয়ে কুপ্রস্তাব দেন। পরে জোরপূর্বক ওই শিক্ষিকার শালীলতাহানীর চেষ্টা করেন। ধস্তাধস্তিতে শিক্ষিকার পরিধেয় বোখরা ছিড়ে যায়। এই ঘটনার পরে শিক্ষিকা চিৎকার শুরু করলে তাকে ছেড়ে দেয়। Read More »

Facebooktwittergoogle_plusredditpinterestlinkedinmail

দিনে শিক্ষক রাতে চোর, ইংরেজিতে পারদর্শী

নিজস্ব প্রতিবেদক, ৩০ এপ্রিল ২০১৯:

দিনে ইংরেজির শিক্ষক। রাতে মোবাইল চোর। এমবিএ ডিগ্রিধারী শিক্ষক কাম চোরকে হাতেনাতে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। গ্রেফতারের পর প্রথমে তার তুখোড় ইংরেজি শুনে কিছুটা ভড়কে যায় পুলিশও। কিন্তু তার এই বিশেষ দক্ষতার আড়ালে যে লুকিয়ে আছে অন্য চরিত্র তা বেরিয়ে আসে জিজ্ঞাসাবাদে। তার বাড়ি থেকে ৭২টি মোবাইল উদ্ধার করা হয়েছে।

এমবিএ ডিগ্রি থাকা সত্ত্বেও ভালো ব্তেনের চাকরি পায়নি ভারতের নয়াদিল্লির বাসিন্দা মোহাম্মদ সাজিদ নামের এই যুবক। বাধ্য হয়ে বিলাসবহুল জীবন-যাপনের স্বপ্নে বিভোর হয়ে অপরাধ জগতে নাম লেখান তিনি। দিনে পাড়ার ছেলে-মেয়েদের ইংরেজি প্রাইভেট পড়াতেন তিনি। আর রাতের আঁধার নামলেই শুরু হতো চুরি। Read More »

Facebooktwittergoogle_plusredditpinterestlinkedinmail

৫ ধাপে প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগের তারিখ ঘোষনা

ডেস্ক,২৯ এপ্রিল: ৫ ধাপে প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগের তারিখ ঘোষনা করেছে প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তর।

জানা গেছে, সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে রাজস্ব খাতভুক্ত ‘সহকারী শিক্ষক নিয়োগ ২০১৮’ জেলাওয়ারী প্রার্থী সংখ্যা ও পরীক্ষা আয়োজনের তালিকা চূড়ান্ত করা হয়েছে।

৫ ধাপে সব জেলায় নিয়োগ পরীক্ষা আয়োজন করা হবে। প্রথম ধাপের পরীক্ষা আগামী ১০ মে। এ ধাপে মোট ১৬টি জেলায় ৩ লাখ ৯৬ হাজার ৪৪০ পরীক্ষার্থী রয়েছে। দ্বিতীয় ধাপের পরীক্ষা হবে ১৭ মে (শুক্রবার)। এ ধাপে মোট ২৩ জেলায় ৪ লাখ ৩৬ হাজার ২ প্রার্থী। তৃতীয় ধাপের পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে ২৪ মে (শুক্রবার)। এ ধাপে মোট ২৩ জেলায় ৪ লাখ ৮৪ হাজার ১৪০ প্রার্থী। চতুর্থ ধাপের নিয়োগ পরীক্ষা ৩১ মে (শুক্রবার)। এ ধাপে মোট ১৯টি জেলায় ৫ লাখ ৩১ হাজার ৯৫১ প্রার্থী। এছাড়াও পঞ্চম বা শেষ ধাপে ১৪ জুন (শুক্রবার) শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। এ ধাপে ২০ জেলায় ৫ লাখ ৫৩ হাজার ৬৪ নিয়োগ প্রার্থী রয়েছেন বলে জানা গেছে। Read More »

Facebooktwittergoogle_plusredditpinterestlinkedinmail

সরকারী ছুটি বিধিমালা পরিবর্তন হচ্ছে

নিজস্ব প্রতিবেদক,২৮ এপ্রিল: সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীদের বিদেশি সংস্থায় চাকরির জন্য লিয়েন ছুটির শর্ত কঠোর করা হচ্ছে। একনাগাড়ে বা বিচ্ছিন্নভাবে তারা সর্বোচ্চ পাঁচ বছর লিয়েনে ছুটি নিতে পারবেন। এর বেশি লিয়েনে থাকলে পাঁচ বছর পূর্তির দিন থেকে স্বয়ংক্রিয়ভাবে সংশ্নিষ্ট কর্মকর্তা চাকরিচ্যুত হবেন। লিয়েন ছুটি শেষে কোনো কর্মকর্তা এক বছর সরকারি চাকরি না করে দ্বিতীয়বার এ ছুটিতে যেতে পারবেন না।

এসব বিধান যুক্ত করে বিদ্যমান `বৈদেশিক চাকরিতে বাংলাদেশি নাগরিকদের নিয়োগ সম্পর্কিত নীতি ও পদ্ধতি` সংশোধনী চূড়ান্ত করছে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়। শিগগিরই নতুন নীতিমালা প্রণয়ন করা হবে।

এ ব্যাপারে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের একজন অতিরিক্ত সচিব শিক্ষাবার্তাকে বলেন, বিদ্যমান নীতিমালায় কিছু অস্পষ্টতা রয়েছে। এ সুযোগে সরকারি কর্মকর্তাদের লিয়েন ছুটি নেওয়ার প্রবণতাও বেড়ে গেছে। এতে সরকারি কাজকর্ম নানাভাবে ব্যাহত হচ্ছে। তাই বিদ্যমান নীতিমালার অস্পষ্টতা দূর করে নতুন নীতিমালা করা হচ্ছে।

প্রসঙ্গত, লিয়েন সংরক্ষণ বা লিয়েনে ছুটি নিয়ে কোনো কর্মকর্তা বিদেশি সংস্থায় চাকরি করে পরে আবার আগের সরকারি চাকরিতে যোগ দিতে পারেন।

Facebooktwittergoogle_plusredditpinterestlinkedinmail

উপজেলা পর্যায়ে স্থাপন হচ্ছে ৩২৯ টেকনিক্যাল স্কুল ও কলেজ

নিজস্ব প্রতিবেদক,২৬ এপ্রিল: দক্ষ মানবসম্পদ তৈরিতে কারিগরি শিক্ষায় বিশেষ গুরুত্ব দেয়ার অংশ হিসেবে উপজেলা পর্যায়ে ৩২৯টি টেকনিক্যাল স্কুল ও কলেজ (টিএসসি) স্থাপন করার উদ্যোগ নেয়া হয়েছে।

এগুলো স্থাপনে ব্যয় হবে ২০ হাজার ৮৮৫ কোটি ৪৬ লাখ টাকা। অনুমোদন প্রক্রিয়ার অংশ হিসেবে এ সংক্রান্ত প্রকল্পটি নিয়ে আগামী সোমবার প্রকল্প মূল্যায়ন কমিটির (পিইসি) বৈঠকে বসছে পরিকল্পনা কমিশন।

রাজধানীর শেরেবাংলা নগরে পিইসি সভায় সভাপতিত্ব করবেন কমিশনের আর্থ-সামাজিক অবকাঠামো বিভাগের ভারপ্রাপ্ত সদস্য আবুল কালাম আজাদ।
এরপর জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটির (এননেক) বৈঠকে অনুমোদন পেলে চলতি বছর থেকে ২০২৩ সালের ডিসেম্বরের মধ্যে প্রকল্পটি বাস্তবায়ন করবে কারিগরি শিক্ষা অধিদফতর।

পরিকল্পনা কমিশনের একাধিক কর্মকর্তা যুগান্তরকে জানান, ‘উপজেলা পর্যায়ে ৩৮৯টি টেকনিক্যাল স্কুল ও কলেজ (টিএসসি) স্থাপন (দ্বিতীয় পর্যায়)’ শীর্ষক প্রস্তাবিত এ প্রকল্পটি চলতি অর্থবছরের বার্ষিক উন্নয়ন কর্মসূচিতে (এডিপি) বরাদ্দহীনভাবে অন্তর্ভুক্ত রয়েছে।

তবে এর আগে হাতে নেয়া ‘১০০টি উপজেলায় একটি করে টেকনিক্যাল স্কুল ও কলেজ স্থাপন’ নামের প্রথম পর্যায়ের প্রকল্পটি বাস্তবায়নের অগ্রগতি ভালো নয়। এ পরিপ্রেক্ষিতে দ্বিতীয় পর্যায়ের প্রস্তাবিত প্রকল্পটি সময়মতো বাস্তবায়নে ভূমি অধিগ্রহণ সংক্রান্ত বিষয়গুলোতে আগে থেকেই সতর্ক থাকার জন্য পিইসি সভায় তাগিদ দেয়া হতে পারে।

কারিগরি শিক্ষা অধিদফতরের পরিচালক (পরিকল্পনা ও উন্নয়ন) মো. জাহাঙ্গীর আলম বৃহস্পতিবার জানান, প্রথম পর্যায়ে জমির জটিলতাই হচ্ছে মুখ্য। তবে আমরা এরইমধ্যে ৯৫টি টেকনিক্যাল স্কুল ও কলেজ স্থাপনে জমি অধিগ্রহণ করেছি। ৫টির অধিগ্রহণ প্রক্রিয়া চলছে।

প্রস্তাবিত প্রকল্পটি যাতে এ সংক্রান্ত জটিলতায় না পড়ে সেজন্য আগে থেকেই ভূমি অধিগ্রহণ কার্যক্রম এগিয়ে রাখা হচ্ছে। যাতে প্রকল্পটি অনুমোদন পেলেই বেশ কিছু স্থানে ভবন নির্মাণ শুরু করতে পারা যায়।

প্রকল্প সংশ্লিষ্টরা বলছেন, প্রস্তাবিত প্রকল্পভুক্ত প্রতিষ্ঠানগুলোতে ষষ্ঠ থেকে অষ্টম শ্রেণী পর্যন্ত সাধারণ শিক্ষার পাশাপাশি একটি করে কারিগরি বিষয় অন্তর্ভুক্ত করা হবে। সেই সঙ্গে এসএসসি (ভোকেশনাল) ও এইচএসসি (ভোকেশনাল) কোর্স চালু করার মাধ্যমে দেশব্যাপী কারিগরি ও বৃত্তিমূলক শিক্ষার সম্প্রসারণ করা হবে।

Facebooktwittergoogle_plusredditpinterestlinkedinmail

যেসব মোবাইলসিম বন্ধ হচ্ছে শুক্রবার

নিজস্ব প্রতিবেদক,২৫ এপ্রিল: বৃহস্পতিবার মধ্যরাত (জিরো আওয়ার) থেকে বন্ধ হচ্ছে ২০ লাখ ৪৯ হাজার ৯৪৭টি মোবাইল সিম।যেসব সিম তিনমাসের অধিক সময় ধরে বন্ধ আছে সেগুলো বন্ধ হয়ে যাচ্ছে। আবার একজনের নামে একাধিক সিম থাকলে এবং তা চালু থাকলেও তা বন্ধ হতে পারে বলে জানিয়েছে টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রক সংস্থা।

নির্ধারিত সংখ্যকের বেশি যেসব মোবাইল সিম ব্যক্তির নামে নিবন্ধন হয়েছে সেগুলো বন্ধ করে দিতে টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রক সংস্থা বিটিআরসি দেশের সব মোবাইল অপারেটরকে নির্দেশনা দিয়েছে।

বিটিআরসি`র নির্দেশনা ছিল, একই জাতীয় পরিচয়পত্রে (এনআইডি) ১৫টির বেশি নিবন্ধিত সিম রাখা যাবে না। কিন্তু বিটিআরসি দেখেছে একটি জাতীয় পরিচয়পত্রের বিপরীতে এভাবে নিবন্ধন হওয়ার সিমের সংখ্যা ২০ লাখ ছাড়িয়ে গেছে। এজন্য অতিরিক্ত সিম কমিয়ে ফেলতে বিটিআরসি তৈরি করেছে ‘সেন্ট্রাল বায়োমেট্রিক ভেরিফিকেশন মনিটরিং প্ল্যাটফর্ম’।

এ ব্যাপারে বিটিআরসি চেয়ারম্যান মো. জহুরুল হক বলেন, ‘নিরাপদে মোবাইল সিম ব্যবহারে এ প্রচেষ্টা আরও গ্রাহকবান্ধব হবে এবং এই খাত অধিকতর সুশৃঙ্খল হবে। আশা করছি, এর ফলে জনসাধারণ নির্বিঘ্নে উন্নত টেলিযোগাযোগ সেবা গ্রহণ করতে পারবেন।’

বিটিআরসি সূত্রে জানা যায়, আজ রাতের (রাত ১২টা) জিরো আওয়ার থেকে সিমগুলো বন্ধের প্রক্রিয়া শুরু হবে। সব সিম বন্ধ হতে ৭-৮ ঘণ্টা সময় লেগে যেতে পারে।

প্রসঙ্গত, ২০১৬ সালের ১২ জুন সরকার একজন গ্রাহকের বিপরীতে ২০টি সিম নির্ধারণ করে দেয়। পরে এই সংখ্যা কমিয়ে ৫টি করা হলেও সেই সিদ্ধান্তও পরিবর্তন হয়। সর্বশেষ ২০১৭ সালে একটি জাতীয় পরিচয়পত্র দিয়ে ১৫টি সিম নিবন্ধনের জন্য নির্ধারণ করা হয়।

জানা গেছে, ২০ লাখ ৪৯ হাজার ৯৪৭টি সিমের মধ্যে গ্রামীণফোনের সিম সংখ্যা চার লাখ ৬১ হাজার ২৬১, বাংলালিংকের চার লাখ ৫৫ হাজার ৮৩১, রবি‘র চার লাখ ১৯ হাজার ২০২, টেলিটকের চার লাখ ৮৭ হাজার ৮৯২ ও এয়ারটেলের রয়েছে দুই লাখ ২৫ হাজার ৭৬১টি সিম।

বিটিআরসি‘র তথ্যমতে, অন্তত এক লাখ জাতীয় পরিচয়পত্রের ক্ষেত্রে সরকার নির্ধারিত নির্দেশনা মানা হয়নি। এই সংখ্যক জাতীয় পরিচয়পত্রের বিপরীতে ১৫টির বেশি সিম নিবন্ধন করা হয়েছে।

এদিকে মোবাইল ফোন অপারেটরগুলোর সংগঠন অ্যামটব সিম বন্ধ করতে সরকারের কাছে আরও দুই মাস সময় (২৬ জুন পর্যন্ত) চেয়ে আবেদন করেছে। অ্যামটব মহাসচিব ব্রি. জে. (অব.) এস এম ফরহাদ স্বাক্ষরিত ওই আবেদনে সিম বন্ধ হলে গ্রাহকদের চারটি সমস্যা হবে উল্লেখ করা হয়েছে। এগুলো হলো, সিম বন্ধ হলে সংশ্লিষ্ট নম্বরের বিপরীতে খোলা মোবাইল ব্যাংকিং হিসাব (মোবাইল ফিন্যান্সিয়াল সার্ভিস) বন্ধ হয়ে যাবে, অনলাইন লেনদেনের ক্ষেত্রে ব্যাংক হিসাব বা ক্রেডিট কার্ড ক্ষতিগ্রস্ত হবে, সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমের (বিশেষত ফেসবুক) আইডি নিষ্ক্রিয় হবে এবং ওটিপি-ওভার দ্য টপ (বিভিন্ন অ্যাপসভিত্তিক যোগাযোগ ব্যবস্থা) বাধাগ্রস্ত হবে।

Facebooktwittergoogle_plusredditpinterestlinkedinmail

প্রাথমিকে দুই শিক্ষিকার মারামারি! কি শিখবে শিশুরা

সিলেট  প্রতিনিধিঃ  সিলেটের জকিগঞ্জ উপজেলায় স্কুল চলাকালীন প্রাথমিক বিদ্যালয়ের দুই শিক্ষিকার মধ্যে মারামারির ঘটনা ঘটেছে। এতে দুজনই আহত হয়েছেন।

ডেস্কঃ

বুধবার দুপুরে উপজেলার খলাছড়া ইউনিয়নের ডিগ্রি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে এ ঘটনা ঘটে। মারামারির ঘটনায় উভয় পক্ষের লোকজনের মধ্যে উত্তেজনা দেখা দেয়। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনেন।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, ওই বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক খাদেজা বেগম চৌধুরী ও সহকারী শিক্ষিকা হাসনা বেগমের মধ্যে বেশ কয়েক দিন থেকে দ্বন্দ্ব চলে আসছিল। এ নিয়ে উভয়ই ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে পাল্টাপাল্টি অভিযোগ করেছেন।

বুধবার দুপুরে বিদ্যালয়ের অফিস কক্ষে প্রধান শিক্ষিকা খাদেজা চৌধুরীর সঙ্গে সহকারী শিক্ষিকা হাসনা বেগমের কথাকাটাকাটি হয়। একপর্যায়ে দুজন মারামারিতে জড়িয়ে পড়েন। এতে আহত হন দুজনই।

এসময় এলাকাবাসী দ্রুত জকিগঞ্জ থানা পুলিশকে খবর দিলে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি শান্ত করে। পরে স্থানীয়দের সহায়তায় তাদের জকিগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে চিকিৎসকরা প্রধান শিক্ষিকা খাদেজা বেগমকে হাসপাতালে ভর্তি করেন। পাশাপাশি হাসনা বেগমকে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে ছেড়ে দেন।

সহকারী শিক্ষিকা হাসনা বেগম বলেন, ‘আমি প্রধান শিক্ষিকার বিরুদ্ধে আগে শিক্ষা কর্মকর্তার কাছে লিখিত অভিযোগ করেছিলাম। তদন্তে আমার অভিযোগ প্রমাণিত হয়েছে। বুধবার আমি বিদ্যালয়ের অফিস কক্ষে হাজিরা দিতে গেলে প্রধান শিক্ষিকা আমাকে হাজিরা দিতে দেননি। এর প্রতিবাদ করলে আমাকে মারপিট করেন তিনি।’

প্রধান শিক্ষিকা খাদিজা বেগম বলেন, সহকারী শিক্ষিকা হাসনা বেগম গত ১৭ এপ্রিল ছুটি ছাড়াই স্কুলে অনুপস্থিত থাকেন। ২৩ এপ্রিল একইভাবে অনুমতি না নিয়ে তিনি বিদ্যালয় ছুটির পূর্বেই বিদ্যালয় ত্যাগ করেন। আমি শিক্ষক হাজিরা খাতায় তার অনুপস্থিত দেই। বুধবার হাজিরা খাতায় হাসনা বেগম অনুপস্থিতি দেখে অফিস কক্ষের টেবিল থেকে আমার মোবাইলটি কেড়ে নেন। কারণ জানতে চাইলে তিনি আমাকে বেধড়ক মারপিট করেন।

এ বিষয়ে মামলার প্রস্তুতি নিচ্ছেন জানিয়ে তিনি আরও বলেন, সহকারী শিক্ষিকা ক্লাস ফাঁকি দিয়ে নিজের ব্যবসা-বাণিজ্য নিয়ে ব্যস্ত থাকেন। বিদ্যালয়ে অনুপস্থিত থেকে নিজের ব্যবসা-প্রতিষ্ঠান বিউটি পার্লারে সময় দেন সহকারী শিক্ষিকা।

জকিগঞ্জ থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) হাবিবুর রহমান হাওলাদার বলেন, মারামারির খবর পেয়ে আমি ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানোর আগেই মারামারি থেমে যায়। আহত দুই শিক্ষিকা হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।

এ ব্যাপারে জকিগঞ্জ উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা বিরেন্দ্র চন্দ্র দাস বলেন, বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আমাকে টেলিফোনে মারামারির ঘটনাটি জানিয়েছেন। বিষয়টি তদন্ত করে খতিয়ে দেখা হবে।

জকিগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বিজন কুমার সিংহ বলেন, শিক্ষকদের এ ধরনের দ্বন্দ্ব অপ্রত্যাশিত। কোমলমতি শিক্ষার্থীদের মাঝে এর প্রভাব পড়বে। বিষয়টি তদন্ত করে জরুরি ভিত্তিতে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

 

বাংলাদেশ জার্নাল/টিপিবি

Facebooktwittergoogle_plusredditpinterestlinkedinmail

Responsive WordPress Theme Freetheme wordpress magazine responsive freetheme wordpress news responsive freeWORDPRESS PLUGIN PREMIUM FREEDownload theme free

hit counter