Home » দৈনিক শিক্ষা (page 74)

দৈনিক শিক্ষা

জাবিতে বিভিন্ন কোটায় ভর্তিচ্ছুকদের আবেদন ১৮ মার্চ থেকে ২৩ মার্চ

জাবি প্রতিবেদক: জাহাঙ্গীরkhulna-university_41936_0নগর বিশ্ববিদ্যালয়ে ২০১৩-১৪ শিক্ষাবর্ষের স্নাতক (সম্মান) শ্রেণিতে বিভিন্ন কোটায় ভর্তিচ্ছুকদের আবেদন ফরম ১৮ মার্চ থেকে ২৩ মার্চ সংগ্রহ করতে পারবে।

কোটায় ভর্তির জন্য আবেদন ফরম অগ্রণী ব্যাংক জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় শাখায় ২০০ টাকা দিয়ে আগামী ১৮ মার্চ থেকে ২৩ মার্চের মধ্যে ক্রয় করে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষা শাখায় জমা দিতে হবে। যারা পাস করেছে শুধুমাত্র তারাই আবেদন করতে পারবে।

এ বছর শিক্ষক-কর্মকর্তা-কর্মচারী কোটা ছাড়া অন্য কোটায় ৮৭টি আসন নির্ধারণ করা হয়েছে। এর মধ্যে মুক্তিযোদ্ধা সন্তান কোটায় প্রতি বিভাগে চারটি আসন, খেলোয়াড় কোটায় ১২টি আসন, সাংস্কৃতিক কোটায় ১০টি আসন, ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠী ও তফসিলি সম্প্রদায় কোটায় ৩০টি আসন, প্রতিবন্ধী কোটায় ১৫টি আসন এবং ভিসি পদাবলে মুক্তিযোদ্ধা সন্তান ভর্তির কোটায় ২০টি আসন নির্ধারণ করা হয়েছে।

এছাড়া ভর্তি সংক্রান্ত সব তথ্য জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের ওয়েবসাইটে (www.juniv.edu/admission) পাওয়া যাবে।

 

Facebooktwitterlinkedinrssyoutubemailby feather

৩৪তম বিসিএস পরীক্ষার কাগজপত্র নেই ২৩৪ প্রার্থীর

ডেস্ক রিপোর্টbcs : ২৪ মার্চ থেকে অনুষ্ঠিতব্য ৩৪তম বিসিএস লিখিত পরীক্ষায় অংশগ্রহণের জন্য প্রিলিমিনারি পরীক্ষায় উত্তীর্ণ ২৩৪ জন পরীক্ষার্থীকে প্রয়োজনীয় বিভিন্ন কাগজপত্র জমা দেয়ার নির্দেশ দিয়েছে সরকারি কর্ম কমিশন (পিএসসি)।

মঙ্গলবার পিএসসির পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক আ ই ম নেছার উদ্দিন স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, আগামী ১৩ মার্চের মধ্যে প্রয়োজনীয় কাগজপত্র জমা না দেয়া ২৩৪ পরীক্ষার্থীকে কমিশনের প্রধান কার্যালয়ে কাগজপত্র জমা দিতে হবে।

এদিন সকাল ১০টা থেকে বিকাল ৪টার মধ্যে রাজধানীর আগারগাঁওয়ে পিএসসির পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক (ক্যাডার) দপ্তরে ওইসব পরীক্ষার্থী কাগজপত্র দাখিল করতে পারবেন।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, নির্ধারিত সময়ে কাগজপত্র জমা দিতে ব্যর্থ হলে তার প্রার্থিতা বাতিল হবে। তিনি পরীক্ষায় অংশ নিতে পারবেন না।

প্রিলিমিনারি পরীক্ষায় আদিবাসীদের বাদ দিয়ে ফল প্রকাশের পর একটি রিট আবেদন নিষ্পত্তি শেষে গত ১৬ ফেব্র“য়ারি উচ্চ আদালত ৩৪তম বিসিএসের লিখিত পরীক্ষার সূচি প্রকাশ করে।

প্রিলিমিনারি পরীক্ষায় বাদপড়া ২৮০ জন প্রার্থীকে যোগ্য ঘোষণা করে লিখিত পরীক্ষার তারিখ ঘোষণা করা হয়।

ঢাকা, রাজশাহী, চট্টগ্রাম, খুলনা, বরিশাল, সিলেট এবং রংপুর কেন্দ্রে একযোগে ৩৪তম বিসিএসে প্রতিদিন দুটি বিষয়ের লিখিত পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে।

এর আগে গত বছরের ৮ জুলাই কোটার ভিত্তিতে ৩৪তম বিসিএস প্রিলিমিনারির ফল প্রকাশ হয়। এতে ১২ হাজার ৩৩ জন উত্তীর্ণ হন।

প্রকাশিত ফলে মেধাবীদের অনেকেই বাদ পড়েছেন অভিযোগ তুলে আন্দোলন শুরু হলে ১৪ জুলাই পুনর্মূল্যায়িত ফল প্রকাশ করা হয়, যাতে উত্তীর্ণ হয় ৪৬ হাজার ২৫০ জন।

বাদপড়া আবেদনকারীর পক্ষে ব্যারিস্টার জ্যোতির্ময় বড়ুয়া হাইকোর্টে একটি রিট আবেদন করেন। ৩১ জুলাই আদালত পুনর্মূল্যায়িত ফল কেন অবৈধ ঘোষণা করা হবে না মর্মে রুল জারি করে।

গত ১১ ফেব্র“য়ারি হাইকোর্টের বিচারপতি নাঈমা হায়দার ও বিচারপতি জাফর আহমেদের বেঞ্চ আদিবাসী কোটাভুক্ত বাদপড়াদের যোগ করে ফল প্রকাশের আদেশ দেয়। বাদপড়া ২৮০ আদিবাসী পরীক্ষার্থীকে যোগ্য ঘোষণা করায় লিখিত পরীক্ষায় মোট প্রার্থী ৪৬ হাজার ৫৩০ জনে দাঁড়ায়।

বিভিন্ন ক্যাডারে ২ হাজার ৫২টি পদে নিয়োগের জন্য ২০১৩ সালের ৭ ফেব্র“য়ারি ৩৪তম বিসিএসের বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করে কমিশন। গত মে মাসে অনুষ্ঠিত প্রিলিমিনারি পরীক্ষায় অংশ নেন ১ লাখ ৯৫ হাজার পরীক্ষার্থী।

Facebooktwitterlinkedinrssyoutubemailby feather

‘পরীক্ষা পদ্ধতি খুবই খারাপ’-নুরুল ইসলাম নাহিদ

ডেস্ক রিপোর্ট: দেশের শিNahid_1-todayক্ষা ক্ষেত্রে বিদ্যমান পরীক্ষা পদ্ধতি খুবই খারাপ বলে মন্তব্য করেছেন শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ। এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষা শেষ হতে দেড় মাস করে সময় লাগে, রাতারাতি এ পদ্ধতির পরিবর্তন করা সম্ভব নয় বলেও মন্তব্য করেন তিনি। রাজধানীর রূপসী বাংলা হোটেলে বিশ্বব্যাংক এডুকেশন সেক্টর রিভিউ (২০১৩) এর উপর গণস্বাক্ষরতা অভিযান আয়োজিত এক আলোচনা ও মতবিনিময় অনুষ্ঠানে সোমবার সন্ধ্যায় তিনি এ সব কথা বলেন।

শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ বলেন, ‘শিক্ষকরা অনেক ক্ষেত্রেই তাদের সামর্থ্যানুযায়ী ক্লাসে পড়ান না। কিন্তু একই শিক্ষক কোচিং সেন্টারে গিয়ে ক্লাসের চেয়ে ভালোভাবে পড়ান। আমি খুবই হতাশ। শিক্ষকরা আন্তরিক না হলে এ ব্যবস্থার পরিবর্তন করা যাবে না। তবে ভবিষ্যতে অবশ্যই পরিবর্তন হবে।’

শিক্ষকতা মহান পেশা উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‘যোগ্যতাসম্পূন্ন খুব কম লোকই শিক্ষকতা পেশায় আসতে চায়। ফলে এখানে যোগ্য ও মেধাবী শিক্ষক পাওয়া যায় না। যারা আছেন তাদের অনেকেই আন্তরিকতার সঙ্গে পড়ান না।’

দেশের উন্নতির জন্য বিশ্বমানের শিক্ষার কোনো বিকল্প নেই জানিয়ে শিক্ষামন্ত্রী বলেন, ‘দারিদ্র, দুর্নীতি ও নিরক্ষরতামূক্ত দেশ গড়াই শিক্ষার প্রধান লক্ষ্য। আমাদের ভবিষ্যৎ প্রজন্মকে বিশ্বমানের শিক্ষায় শিক্ষিত করে গড়ে তুলতে না পারলে দেশের উন্নতি সম্ভব নয়। আমাদের অনেক সমস্যা আছে, আমাদের শিক্ষার মান খুব ভালো নয়। তবে এ কথা সবার স্বীকার করতেই হবে যে, দিন দিন আমাদের শিক্ষার মান বাড়ছে। কোনো দিক থেকেই শিক্ষার মান কমছে না।’
বাংলাদেশের শিক্ষা ব্যবস্থা নিয়ে বিশ্বব্যাংকের প্রদিবেদনকে স্বাগত জানিয়ে নাহিদ বলেন, ‘প্রদিবেদনে অনেক ভালো ভালো পরামর্শ দেওয়া হয়েছে। আমরা অবশ্যই পরামর্শগুলো বিবেচনা করবো। শিক্ষা ব্যবস্থার উন্নতির জন্য যে কেউ আমাদের পরামর্শ দিয়ে সাহায্য করতে পারেন।’

অনুষ্ঠানে বিশ্বব্যাংকের মূল প্রতিবেদন তুলে ধরেন গণস্বক্ষরতা অভিযানের ভাইস চেয়ারম্যান মনজুর আহমেদ। প্রতিবেদনের উপর ভিত্তি করে উপস্থিত অনেকে উন্মূক্ত আলোচনায় অংশ নেন।
তত্ত্বাবধায়ক সরকারের সাবেক উপদেষ্টা হোসেন ঝিল্লুর রহমানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য দেন অর্থ প্রতিমন্ত্রী এম এ মান্নান, গণস্বক্ষরতা অভিযানের নির্বাহী পরিচালক ও তত্ত্বাবধায়ক সরকারের সাবেক উপদেষ্টা রাশেদা কে চৌধুরী, বিশ্বব্যাংকের দক্ষিণ এশিয়া অঞ্চলের মানবসম্পদ বিভাগের পরিচালক জেসকু হেনসেল, বিশ্বব্যাংকের দক্ষিণ এশিয়া অঞ্চলের শিক্ষা বিভাগের পরিচালক অমিত ধর ও আইনবিদ ড. শাহদীন মালিক প্রমূখ।

Facebooktwitterlinkedinrssyoutubemailby feather

রাবি অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ ঘোষণা

রাবি প্রতিনিধি : ছাত্র 4444_24518আন্দোলনের মুখে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় (রাবি) অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। শিক্ষার্থীদের সোমবার সকাল ৮টার মধ্যে আবাসিক হল ছাড়ারও নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

রোবাবর সন্ধ্যায় বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি মুহম্মদ মিজান উদ্দিনের সভাপতিত্বে জরুরি সিন্ডিকেট সভায় এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। সিন্ডিকেট সদস্য আমজাদ হোসেন শিক্ষাবার্তাকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।
তিনি বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের উদ্ভূত পরিস্থিতি নিয়ে ভিসির বাসভবনে রোববার সন্ধ্যা ৭টায় জরুরি সিন্ডিকেট সভা ডাকা হয়। এই সভায় বিশ্ববিদ্যালয় অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।
উল্লেখ্য, রোববরা বিশ্ববিদ্যালয়ের সকল প্রকার বর্ধিত ফি বাতিল ও সান্ধ্য কোর্স বন্ধের দাবিতে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের ওপর মুহুর্মুহু হামলা চালায় ছাত্রলীগ ও পুলিশ। এ সময় ৩০ জন গুলিবিদ্ধসহ শতাধিক শিক্ষার্থী আহতের খবর পাওয়া গেছে। এ ঘটনার পর থেকে ক্যাম্পাসে বিজিবি মোতায়েন করা হয়েছে।

 

Facebooktwitterlinkedinrssyoutubemailby feather

রাবির ভর্তি পরীক্ষা আবারো পেছাল

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

Facebooktwitterlinkedinrssyoutubemailby feather

এসএসসির প্রশ্নপত্রের নিরাপত্তা চেয়ে চিঠি

প্রতিবেদক : অস্থির রাজনৈতিক পরিস্থিতিতে আসন্ন এসএসসি ও সমমান পরীক্ষার প্রশ্নপত্রের নিরাপত্তা নিয়ে বিচলিত সরকার। প্রশ্নপত্র ফাঁস ঠেকানো এবং সার্বিক নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে সব জেলা প্রশাসককে চিঠি দিয়েছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়। রবিবার শিক্ষা মন্ত্রণালয় প্রশ্নপত্রের নিরাপত্তা চেয়ে এ চিঠি পাঠায়।

এর আগে আন্তঃশিক্ষাবোর্ড প্রশ্নপত্রের নিরাপত্তা চেয়ে শিক্ষা মন্ত্রণালয়কে চিঠি দিয়েছিল। চিঠির অনুলিপি সরকারি মুদ্রণালয় বিজি প্রেসের মহাপরিচালককেও দেয়া হয়েছে। জেএসসি ও পিএসসির প্রশ্ন ফাঁসের মতো ঘটনা যাতে এসএসসি ও সমমানের ক্ষেত্রে না ঘটে সেজন্যই কর্তৃপক্ষ বিভিন্ন সতর্কতামূলক ব্যবস্থা গ্রহণ করছে।

এদিকে জুনিয়র স্কুল সার্টিফিকেট (জেএসসি) ও প্রাথমিক শিক্ষা সমাপনী পরীক্ষার ফল ৩০ অথবা ৩১ ডিসেম্বর প্রকাশ করা হবে বলে জানা গেছে।

আগামী ৯ ফেব্রুয়ারি থেকে ২০১৪ সালের MOEএসএসসি ও সমমানের পরীক্ষা শুরু হচ্ছে। ইতিমধ্যে পরীক্ষার বেশিরভাগ প্রস্তুতি শেষ হওয়ার পথে। শেষ মুহূর্তে প্রশ্নপত্রের নিরাপত্তা চাইল শিক্ষাবোর্ড কর্তৃপক্ষ।

প্রশ্নপত্রের নিরাপত্তা চেয়ে চিঠি দেয়ার ঘটনা এই প্রথম বলে শিক্ষাবোর্ডের চেয়ারম্যানরা দাবি করেছেন। তবে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তারা একে রুটিন ওয়ার্ক বলে মন্তব্য করেছেন।

চিঠিতে বলা হয়েছে, প্রচলিত নিয়ম অনুযায়ী এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষার প্রশ্নপত্র জেলা প্রশাসনের মাধ্যমে বিজি প্রেস থেকে সংশ্লিষ্ট ট্রেজারি অথবা পরীক্ষা কেন্দ্র এলাকার থানার ভল্ট বা ব্যাংকের ভল্টে রাখা হয়। কিন্তু বিদ্যমান রাজনৈতিক পরিস্থিতিতে উপজেলা পর্যায়ের ভল্টগুলোতে প্রশ্নপত্র যথাযথ নিরাপদে ও গোপনীয়তার সঙ্গে সংরক্ষণ এবং পরীক্ষার সূচি অনুযায়ী কেন্দ্রগুলোতে সুষ্ঠুভাবে প্রশ্ন সরবরাহের জন্য সংশ্লিষ্টদের সর্বোচ্চ সতর্ক থাকতে হবে।

 

Facebooktwitterlinkedinrssyoutubemailby feather

রাজশাহী প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয় প্রথম বর্ষে ভর্তির কার্যক্রম স্থগিত

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি: ruet_5928_12487হরতাল-অবরোধের কারণে রাজশাহী প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের ২০১৩-২০১৪ শিক্ষাবর্ষে প্রথম বর্ষ বিএসসি ইঞ্জিনিয়ারিং কোর্সের ভর্তির কার্যক্রম স্থগিত করা হয়েছে। আজ মঙ্গলবার বিশ্ববিদ্যালয়ের জনসংযোগ দপ্তরের বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

ভর্তি পরীক্ষা কমিটির সভাপতি অধ্যাপক শহীদ উজ জামান জানিয়েছেন, ১৪ ডিসেম্বর মেধাক্রম অনুযায়ী প্রথম বর্ষে ছাত্রছাত্রীদের ভর্তি করার কথা ছিল। অনিবার্য কারণে ভর্তির এই কার্যক্রম স্থগিত করা হয়েছে। ভর্তির পরবর্তী তারিখ বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসনিক ভবনের নোটিশ বোর্ডে এবং (www.ruet.ac.bd) ওয়েবসাইট থেকে জানা যাবে।

গত ১৬ নভেম্বর বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রথম বর্ষের ভর্তি পরীক্ষা হয়। এ বছর বিশ্ববিদ্যালয়ের ৬৯০টি আসনে ভর্তির জন্য প্রাথমিকভাবে নির্বাচিত তিন হাজার ১৪ জন শিক্ষার্থীর তালিকা প্রকাশ করা হয়। এ ছাড়া আর্কিটেকচার বিভাগে ৩০ সিটে ভর্তির জন্য ১২৪ জনকে প্রাথমিকভাবে নির্বাচিত করা হয়। ১৪ ডিসেম্বর মেধাক্রম অনুযায়ী ভর্তির তারিখ নির্ধারিত ছিল।

Facebooktwitterlinkedinrssyoutubemailby feather

বার্ষিক পরীক্ষায় ‘অটো প্রমোশন’ দেওয়া হবে না: শিক্ষামন্ত্রী

ঢাকা: jsc & jdc_শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ বলেছেন, বার্ষিক পরীক্ষায় ‘অটো প্রমোশন’ দেওয়া হবে না। পরীক্ষা শেষে পাস করলে ওপরের শ্রেণীতে উত্তীর্ণ করা হবে। আজ মঙ্গলবার শিক্ষা মন্ত্রণালয়ে এক সংবাদ ব্রিফিংয়ে তিনি এ কথা বলেন।
অবরোধ-হরতালসহ রাজনৈতিক সহিংসতায় বর্তমানে বার্ষিক পরীক্ষার সময়সূচির বিঘ্নিত হচ্ছে। বেশির ভাগ বিদ্যালয়ই নির্ধারিত সময়ে পরীক্ষা নিতে পারছে না। এ পরিস্থিতিতে কোনো কোনো বিদ্যালয় যে কয়টি পরীক্ষা হয়েছে, তার ভিত্তিতে ওপরের শ্রেণীতে উত্তীর্ণ করার চিন্তা-ভাবনা করছে। অভিভাবকদের অনেকে অটো প্রমোশন দেওয়ার দাবি তুলছেন।
এমন অবস্থায় সরকারের অবস্থান পরিষ্কার করলেন শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ। তিনি বলেন, ‘এটা করতে গেলে খারাপ নজির হবে।’
শিক্ষামন্ত্রী জানান, সম্প্রতি অনুষ্ঠিত জুনিয়র স্কুল সার্টিফিকেট (জেএসসি) পরীক্ষায় প্রশ্নপত্র ফাঁসের যে অভিযোগ উঠেছিল, তদন্ত কমিটি এর প্রমাণ পায়নি।

Facebooktwitterlinkedinrssyoutubemailby feather

ফের পেছালো রাবির ভর্তি পরীক্ষা

রাবি : রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) ২০১৩-১৪ শিক্ষাবর্ষের স্নাতক (সম্মান) প্রথম বষের্র ভর্তি পরীক্ষা আবারও পিছিয়ে আগামী ২৫ ডিruসেম্বর করা হয়েছে। চলবে আগামী ২৮ ডিসেম্বর পর্যন্ত।

সোমবার বিশ্ববিদ্যালয়ের জনসংযোগ দপ্তর প্রশাসক অধ্যাপক ইলিয়াছ হোসেন এ তথ্য জানিয়েছেন।

এ নিয়ে রাবির ভর্তি পরীক্ষা দু’বার পেছানো হলো।

অধ্যাপক ইলিয়াছ হোসেন শিক্ষাবার্তাকে বলেন, আগামী ৫ থেকে ৯ ডিসেম্বর ভর্তি পরীক্ষা হওয়ার কথা থাকলেও তা অনিবার্য কারণবশত স্থগিত করা হয়েছে। যা আগামী ২৫ থেকে ২৮ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিত হবে।

ভর্তি পরীক্ষার বিস্তারিত সময়সূচি পরবর্তীতে জানানো হবে। ভর্তি পরীক্ষার নতুন সময়সূচি ও আসন বিন্যাসসহ প্রয়োজনীয় তথ্যাদি বিশ্ববিদ্যালয়ের ওয়েবসাইট www.admission.ru.ac.bd থেকে জানা যাবে বলেও জানান তিনি।

উল্লেখ্য, গত ১০ থেকে ১৪ নভেম্বর রাবির ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা ছিল। ওই সময় ১৮ দলীয় জোট হরতাল দেওয়ায় তা পরিবর্তন করে ৫ থেকে ৯ ডিসেম্বর নির্ধারণ করা হয়। তবে পুনঃনির্ধারিত সময়ে আবারও ১৮ দলীয় জোটের অবরোধ কর্মসূচি দেওয়ায় ভর্তি পরীক্ষা ফের পেছানো হলো।

Facebooktwitterlinkedinrssyoutubemailby feather

কোচিং ব্যবসার আড়ালে…

নিজস্ব প্রতিবেদক :কোচিং ব্যবসার আড়ালে ডিজিটাল জালিয়াতি ও প্রশ্ন ফাঁস করে যাচ্ছেন ভার্সিটি ভর্তি কোচিং সেন্টার ইউসিসি। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় (ঢাবি)-এর ভিসি ও সিনেটের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিক ইউসিসির জড়ির থাকার কথা জানিয়েছেন।

বিশ্ববিদ্যালয়ের নবাব নওয়াব আলী চৌধুরী সিনেট ভবনে বিশ্ববিদ্যালয়ের বার্ষিক সিনেট অধিবেশনে বিভিন্ন প্রমাণসহ তিনি এ কথা বলেন।

তিনি জানিয়েছেন,“ভর্তি পরীক্ষার জালিয়াতিতে ইউসিসি কোচিং সেন্টার জড়িত, আটককৃত শিক্ষার্থীরা পুলিশকে এ তথ্য জানিয়েছে।”

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি পরীক্ষায় জালিয়াতির ঘটনা তুলে ধরে বলেন,“বিশ্ববিদ্যালয়ের ‘ক’ ইউনিটের ভর্তি চলাকালে নয়টি কেন্দ্র থেকে ১৪ জনকে আটক করা হয়। তারা বিশেষ ক্যালকুলেটরের মাধ্যমে পরীক্ষার হলে জালিয়াতির চেষ্টা করে। এ সময় তাদের আটক করে পুলিশে দেয়া হয়।”

আরেফিন সিদ্দিক শিক্ষাবার্তাকে বলেন,“আটককৃত শিক্ষার্থীরা প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে ইউসিসি কোচিং সেন্টার নাম বলেন।” সিনেট অধিবেশনে তাদের জবানবন্দির ভিডিও চিত্র দেখানো হয়েছে।

আরেফিন সিদ্দিক বলেন,“বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন ভর্তি পরীক্ষা জালিয়াতি হচ্ছে। এতে বিশ্ববিদ্যালয়ের সুনাম ক্ষুণ হচ্ছে। এই জালিয়াতি রোধে আমরা সকল ধরনের ব্যবস্থা গ্রহণ করবো।”

এদিকে প্রশ্নপত্র ফাঁসের সাথে জড়িত থাকার বিষয়টি সরাসরি স্বীকার না করলেও ঘুরিয়ে স্বীকার করেছে ইউসিসি কর্তৃপক্ষ। প্রতিষ্ঠানটির পরিচালক কামাল উদ্দিন পাটোয়ারীর কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন,”কোচিং সেন্টারে ৪শ শিক্ষক পড়ান। তাদের যে কেউ এটা করতে পারেন। সেজন্য কোচিং সেন্টার দায়ী নয়।”

কোচিং সেন্টারের শিক্ষক জড়িত থাকলে কোচিং সেন্টার কি দায় এড়াতে পারে- এই প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন,“অবশ্যই দায় এড়াতে পারে না। তবে আমরাও জড়িত শিক্ষকদের খুঁজে বের করবো।”

কামাল পাটোয়ারী বলেন,“সরকার তদন্ত করতে পারে, আমরা তাদের সাহায্য করব। ইউসিসি’ও জানতে চায় কোন ব্যাক্তি এই ঘৃর্নিত কাজটি করেছে। আমরা শুনতে পেরেছি মাসুম নামের একজন শিক্ষক প্রশ্নপত্র ফাঁসের সাথে জড়িত। আমরা তাকে খুঁজছি। তবে জানতে পেরেছি, এই নামে কোন শিক্ষক বর্তমানে আমাদের কোচিং সেন্টারে নেই।”

ইতোমধ্যে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ‘ক’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষায় জালিয়াতির অভিযোগে রাজধানীর শাহবাগ, নিউমার্কেটসহ ছয়টি থানায় ১৩টি মামলা করেছে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন। প্রশ্নপত্র ফাঁস ছাড়াও ছাত্র নির্যাতেনের অভিযোগ রয়েছে ইউসিসি’ucc_coching_introর বিরুদ্ধে।

কেবল প্রশ্নপত্র ফাঁস নয়, গত বছরের এপ্রিলে প্রতিষ্ঠানের ‘বদনাম’ করায় এক ছাত্রকে পাঁচ ঘণ্টা আটকে রেখে নির্যাতনের অভিযোগ ওঠে প্রতিষ্ঠানটির বিরুদ্ধে। নির্যাতিত ছাত্র রকিবুল তখন অভিযোগ করেছিল, ‘ইউসিসির মান ভালো নয়’ বলায় ওই ছাত্রকে নির্যাতন করা হয়েছে। সে কোচিং সেন্টারটির ফার্মগেটের ইন্দিরা রোডের প্রধান ক্যাম্পাসে কোচিং করতেন।

ছাত্রটি আরো জানিয়েছিল, ইউসিসির পরিচালক কামাল উদ্দীন পাটোয়ারীসহ ওই কোচিং সেন্টারের কয়েকজন শিক্ষক তাকে নির্যাতন করে। এ ঘটনায় শেরেবাংলা নগর থানায় একটি অভিযোগও দায়ের হয়েছিল।

এবার প্রশ্নপত্র ফাঁসের জালিয়াতির সাথে জড়িত আটক শিক্ষার্থীরা অধিকাংশ ইউসিসিতে কোচিং করত। তারা ইউসিসির শিক্ষকদের সঙ্গে চুক্তি করে জালিয়াতির আশ্রয় নিয়েছে বলে জানা গেছে। শেখ বোরহান উদ্দিন কলেজ থেকে আটক সাদিয়া সুলতানা শিক্ষাবার্তাকে জানান,ইউসিসির মাসুম নামের এক শিক্ষকের সঙ্গে চার লাখ টাকায় তার সাথে চুক্তি হয়। বিনিময়ে তিনি আমাকে ঢাবিতে চান্স পাইয়ে দেয়ার নিশ্চয়তা দেন।

Facebooktwitterlinkedinrssyoutubemailby feather

রাবির ভর্তি পরীক্ষা ৫ থেকে ৯ ডিসেম্বর

শিক্ষাবার্তা.কম,রাবি,১৪ নভেম্বর:RU: রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় (রাবি) স্থগিতকৃত ২০১৩-১৪ শিক্ষা বর্ষের প্রথম বর্ষ ভর্তি পরীক্ষা আগামী  ৫ থেকে ৯ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিত হবে।

বুধবার সকালে ভর্তি পরীক্ষার উপ-কমিটি বৈঠকে এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদের ডিন অধ্যাপক আনসার উদ্দিন শিক্ষাবার্তাকে এ তথ্য নিশ্চিত করেন।

তিনি বলেন, ১০ থেকে ১৪ নভেম্বর রাবির ভর্তি পরীক্ষার তারিখ নির্ধারণ করা থাকলেও হরতালের কারণে ওই সময়ে পরীক্ষা নেয়া সম্ভব হয়নি। তবে পরীক্ষার সময়সূচি পরবর্তীতে জানিয়ে দেওয়া হবে। এছাড়াও বিশ্ববিদ্যালয়ের ওয়েবসাইটে ভর্তি পরীক্ষার সকল তথ্য পাওয়া যাবে।

উল্লেখ্য, এবার রাবির ৪৭টি বিভাগে ৮টি অনুষদের অধীনে মোট এক লাখ ৬৮ হাজার ২২৪ জন শিক্ষার্থী ভর্তি পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করবেন।

Facebooktwitterlinkedinrssyoutubemailby feather

সরকারি বই বিক্রির দায়ে শিক্ষা কর্মকর্তাসহ ২ জনকে পুলিশে সোপর্দ

পাবনা : পাবনার ফরিদপুর উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তাসহ এক কর্মচারীকে সরকারি বই বিক্রির দায়ে স্থানীয়দের সহায়তায় উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) পুলিশে সোর্পদ করেছেন।

তারা হলেন জেলার ফরিদপুর উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার মোহাম্মদ আব্দুর রউফ ও কর্মচারী মোহাম্মদ শাহ আলম।

মঙ্গলবার বিকালে এ ঘটনা ঘটে।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানান, মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা এক কর্মচারীকে সঙ্গে নিয়ে ৩টি ভ্যানে করে বিপুল পরিমাণ বই বিক্রি করছিলেন। স্থানীয়দের মধ্যে বিষয়টি সন্দেহের সৃষ্টি হয়। এরই এক পর্যায়ে স্থানীয় কয়েকজন এগিয়ে গিয়ে তাদের এ ঘটনা সম্পর্কে জানতে চায়। কিন্তু তাদের আচরণ ও কথাবার্তা সন্দেহজনক হওয়ায় তাদেরকে আটক করে উপজেলা নির্বাহী অফিসারের কাছে নিয়ে যায়।

ঘটনাটি অবগত হওয়ার পর উপজেলা নির্বাহী অফিসার উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসারসহ কর্মচারীকে পুলিশের হাতে সোপর্দ করেন।

সংশ্লিষ্ট বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসার ডিএম আতিকুর রহমান ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, তাদের পুলিশের সোপর্দ করা হয়েছে। আইনগত ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন।

তবে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তার সঙ্গে মুঠোফোনে একাধিক বার যোগাযোগের চেষ্টা করেও তাকে পাওয়া যায়নি।

Facebooktwitterlinkedinrssyoutubemailby feather

সাত ডিসেম্বরের মধ্যে সকল পরীক্ষা শেষ করার তাগিদ

শিক্ষা, প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ে ইসির চিঠি

দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচন উপলক্ষে আগামী সাত ডিসেম্বরের মধ্যে সকল পাবলিক ও টেস্ট পরীক্ষা শেষ করার তাগিদ দিয়েছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। পরীক্ষা শেষ করার সময়সীমা বেঁধে দিয়ে এ সংক্রান্ত চিঠি শিক্ষা, প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হয়েছে। কমিশন সচিবালয়ের সিনিয়র সহকারী সচিব ফরহাদ হোসেন স্বাক্ষরিত চিঠিতে নির্ধারিত সময়ের মধ্যে সব পরীক্ষা শেষ করার অনুরোধ জানানো হয়েছে। এছাড়াও নির্বাচন কমিশনের সব অফিসের (আঞ্চলিক, জেলা ও উপজেলা অফিস) নিরাপত্তা জোরদার করার জন্য স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে আরেকটি চিঠি দেয়া হয়েছে।

জানতে চাইলে ইসি সচিবালয়ের সচিব ড. মোহাম্মদ সাদিক  শিক্ষাবার্তাকে বলেন, সময়মতো পরীক্ষা শেষ করার জন্য মন্ত্রণালয়ে চিঠি পাঠানো হয়েছে। আশা করছি জাতীয় নির্বাচনের স্বার্থে কমিশনের ধার্যকৃত সময়ের মধ্যে সকল পরীক্ষা সম্পন্ন হবে।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, আগামী ১৯ জানুয়ারির মধ্যে জাতীয় নির্বাচন সম্পন্ন করতে যাবতীয় প্রস্তুতি প্রায় শেষ করেছে কমিশন। এর আগে নভেম্বরের শেষভাগে অথবা ডিসেম্বরের প্রথমভাগে নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করতে যাচ্ছে কমিশন। নির্বাচনী কাজে যাতে ব্যাঘাত না ঘটে এ জন্য আগামী ডিসেম্বরের প্রথম সপ্তাহের মধ্যে সব পাবলিক পরীক্ষা এবং টেস্ট পরীক্ষা শেষ করার জন্য শিক্ষা, প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়কে বলা হয়েছে। ইতিমধ্যে সংশ্লিষ্ট দুই মন্ত্রণালয় থেকে দেশের সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ইসির পরীক্ষা শেষ করার আহবান সংক্রান্ত বিজ্ঞপ্তি পাঠানো হচ্ছে।

ইসির একজন কর্মকর্তা ইত্তেফাককে বলেন, নির্বাচনী প্রস্তুতি প্রায় চূড়ান্ত হয়েছে। এখন বাকি রয়েছে কিছু আনুষঙ্গিক কাজ। ভোটার তালিকা মুদ্রন, সংসদীয় আসনের সীমানা পুনর্নির্ধারণ, নির্বাচনী সরঞ্জাম সংগ্রহ থেকে অন্যান্য কাজ শেষ হয়েছে। সেই সঙ্গে ভোটার স্থানান্তর সাময়িক স্থগিত হচ্ছে ৫ নভেম্বর থেকে। এরপর থেকে নির্বাচনের আগ পর্যন্ত কোন ভোটার স্থানান্তর হতে পারবেন না।

এদিকে, ইসির কর্মকর্তা ও কার্যালয়ে নিরাপত্তা জোরদারের ব্যবস্থা নিতে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জ্যেষ্ঠ সচিবের কাছে অনুরোধ জানানো হয়েছে। নির্বাচনের ক্ষণ গণনার শুরুতে বিদ্যমান সহিংস রাজনৈতিক পরিস্থিতিতে নির্বাচন কমিশনের মাঠপর্যায়ের কার্যালয়গুলোর নিরাপত্তা চাওয়া হয়েছে। সম্প্রতি স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জ্যেষ্ঠ সচিব বরাবর এ বিষয়ে চিঠি দিয়েছে ইসি সচিবালয়। ইসির উপ-সচিব আবুল কাশেম স্বাক্ষরিত ওই চিঠিতে বলা হয়, দশম সংসদ নির্বাচনের প্রস্তুতি শুরু হয়ে হয়েছে। এ লক্ষ্যে নির্বাচনী মালামাল সরবরাহ, সংরক্ষণ, সংগ্রহ, বিতরণ ও পরিবহন করা হচ্ছে। ২৭ অক্টোবর থেকে নির্বাচনকালীন ৯০ দিন শুরু হয়েছে। ২৪ জানুয়ারির মধ্যে দশম সংসদ নির্বাচনের বাধ্যবাধকতাও রয়েছে। এ অবস্থায় নির্বাচন কমিশন ও ইসি সচিবালয়ে নিরাপত্তা জোরদার করা হয়েছে। কেন্দ্রীয় পর্যায়ে নিরাপত্তা জোরদারের তথ্য তুলে ধরে মাঠপর্যায়ের আঞ্চলিক নির্বাচন কর্মকর্তার কার্যালয়, জ্যেষ্ঠ ও জেলা নির্বাচন কর্মকর্তার কার্যালয় ও থানা/ উপজেলা কর্মকর্তার কার্যালয়ে নিরাপত্তা জোরদারের অনুরোধ জানান ইসি সেবা শাখার উপ সচিব। ইসি স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়কে বলেছে, বর্তমান প্রেক্ষাপটে ইসি সচিবালয়ের ন্যায় মাঠপর্যায়ের সব কার্যালয়ে নিরাপত্তা জোরদার করা আবশ্যক। মাঠপর্যায়ের কর্মকর্তা-কর্মচারির নিরাপত্তা, অফিসের সরঞ্জাম ও নির্বাচনী মালামাল সংরক্ষণ, ১০ আঞ্চলিক কার্যালয়, ৬৪ জেলা নির্বাচন কার্যালয় ও ৫১২টি উপজেলা/থানা নির্বাচন অফিসের নিরাপত্তা বিধানের জন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে অনুরোধ করা হয়। এ বিষয়টি অবগতির জন্যে পুলিশ সদর দপ্তর, র্যাব, মহানগর পলিশসহ স্থানীয় প্রশাসনকে চিঠি পাঠানো হয়েছে।

উল্লেখ্য, সংবিধানের ১২৩ (৩) (ক) অনুযায়ী সংসদের মেয়াদ শেষ হওয়ার পূর্ববর্তী ৯০ দিনের মধ্যে অনুষ্ঠিত হবে আগামী দশম সংসদ নির্বাচন। অর্থাত্ ২৭ অক্টোবর থেকে আগামী বছরের ২৪ জানুয়ারি মধ্যে হওয়ার কথা আগামী সংসদ নির্বাচন।

Facebooktwitterlinkedinrssyoutubemailby feather

Responsive WordPress Theme Freetheme wordpress magazine responsive freetheme wordpress news responsive freeWORDPRESS PLUGIN PREMIUM FREEDownload theme free

hit counter