Home » দৈনিক শিক্ষা (page 3)

দৈনিক শিক্ষা

স্কুল-কলেজগুলো নিয়ে নতুন সিদ্ধান্ত

ডেস্ক,১২ মার্চঃ
চীনের হুবেই প্রদেশের উহান শহরে প্রথমে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগী শনাক্ত হলেও বর্তমানে বিশ্বের ১১৯টি দেশে ছড়িয়ে গেছে। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডাব্লিউএইচও) করোনা ভাইরাসকে বৈশ্বিক মহামারি ঘোষণা করেছে।

করোনা ভাইরাস প্রায় সব মহাদেশের শতাধিক দেশে ছড়িয়ে ১ লাখের বেশি মানুষকে আক্রান্ত এবং ৪ হাজারের বেশি মানুষের মৃত্যুর কারণ হয়েছে। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের চেয়েও বেশি আতঙ্ক ছড়িয়েছে করোনাভাইরাস।

বাংলাদেশেও করোনার কিছুটা প্রভাব পড়েছে। বাংলাদেশ সরকার করোনা মোকাবেলায় বিভিন্ন পদক্ষেপ নিয়েছে। তার মধ্যে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোকে সচেতনামূলক নির্দেশনা দিয়েছে।

বুধবার মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদপ্তর থেকে এমন নির্দেশনা দেয়া হয়েছে- সরকার ইতোমধ্যে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ রোধে প্রয়োজনীয় নির্দেশনা দিয়েছে। এ ভাইরাসের সংক্রমণ রোধে সবার সতর্কতা ও সচেতনতা প্রয়োজন। মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তরের অধীন সব অফিস ও শিক্ষা প্রতিষ্ঠান সংশ্লিষ্ট সবাইকে এ পরিস্থিতি মোকাবিলায় জনসমাগম এড়িয়ে চলার পরামর্শ দেওয়া হলো।

এতে আরও বলা হয়েছে, শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের সাংস্কৃতিক, ক্রীড়া ও অন্যান্য যেসব অনুষ্ঠানে জনসমাগম হয় সেসব অনুষ্ঠান আয়োজনের সূচি পুনর্বিন্যাস করে পরবর্তী সময়ে আয়োজনের নির্দেশনা দেওয়া হলো। এ ছাড়া পুনরাদেশ না দেওয়া পর্যন্ত প্রাত্যহিক সমাবেশ শ্রেণি কক্ষগুলোতে আয়োজন করতে হবে। সেখানেই জাতীয় সঙ্গীত গাওয়াসহ অন্যান্য কার্যক্রম পরিচালিত হবে।

এদিকে করোনা সম্পর্কে সহায়তা পেতে এখন থেকে আর ১২টি নম্বারে ফোন করতে হবে না। মাত্র একটি নাম্বারের ফোন করলেই হবে। নাম্বারটি হচ্ছে ০১৯৪৪৩৩৩২২২। এই সেল নাম্বারে যোগাযোগ করলেই প্রয়োজনীয় নাম্বারে ফোন ঢুকে যাবে।

Facebooktwitterlinkedinrssyoutubemailby feather

করোনা নিয়ে মাউশির জরুরী বার্তা

নিজস্ব প্রতিবেদক,১১ মার্চ:
করোনাভাইরাস সংক্রান্ত লক্ষণ উল্লেখ করে সতর্কতা জারি করেছে মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা (মাউশি) অধিদফতর। দেশের সব স্কুল-কলেজের শিক্ষক, শিক্ষার্থী ও অভিভাবকদের মধ্যে সচেতনতা তৈরির লক্ষ্যে মাউশি এ বিজ্ঞপ্তি জারি করে।

মঙ্গলবার (১০ মার্চ) দুপুরে মাউশির মহাপরিচালক অধ্যাপক ড. সৈয়দ মো. গোলাম ফারুক এ বিজ্ঞপ্তি জারি করেন।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, মাউশির অধিনস্ত দেশের সব সরকারি-বেসরকারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান সংশ্লিষ্টদের করোনাভাইরাসের ব্যাপারে সচেতন হতে হবে। বর্তমান পরিস্থিতিতে সচেতন ও সচেষ্ট থাকা প্রয়োজন। করোনাভাইরাস আক্রান্তের লক্ষণ, যেভাবে ছড়ায় এবং এর প্রতিকার উল্লেখ করে সজাগ থাকার আহ্বান জানানো হয়েছে বিজ্ঞপ্তিতে।

পরিস্থিতি মোকাবিলায় আইইডিসিআর করোনাভাইরাসের তথ্য সম্বলিত নির্দেশনা মেনে চলার অনুরোধ এবং আতঙ্ক ও ভীত না হওয়ার আহ্বানও জানানো হয়েছে। কেউ আক্রান্ত হলে কিংবা সম্ভাব্য লক্ষণ দেখা গেলে আইইডিসিআ ‘র করোনা কন্ট্রোল রুমে যোগাযোগ করতে অনুরোধ করা হয়েছে বিজ্ঞপ্তিতে।

Facebooktwitterlinkedinrssyoutubemailby feather

মুজিববর্ষের অনুষ্ঠান হবে ছোট আকারে: প্রধানমন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক,৯ মার্চ:

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, মুজিব শত বার্ষিকীতে লাখ মানুষ জমায়েত হওয়ার কথা রয়েছে। আমরা সে জমায়েত বন্ধ করে দিয়েছি। অনুষ্ঠান হবে, তবে ছোট আকারে।

তিনি বলেন, আমরা অন্যান্য কর্মসূচি অব্যাহত রাখব। অন্যান্য আয়োজন সবকিছু ঠিকঠাক থাকবে। এটি তো বছরব্যাপী অনুষ্ঠান। গণজমায়েত হবে এমন অনুষ্ঠান আমরা স্থগিত করে দিয়েছি।

সোমবার গণভবনে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সংসদের বৈঠকে বক্তব্য প্রদানকালে প্রধানমন্ত্রী এসব কথা বলেন।

প্রধামন্ত্রী বলেন, আমরা সবাই গতকাল মিটিং করেছি। যেখানে লোক সমাগম হবে সেখানে প্রোগ্রাম শিথিল করা হয়েছে। আমাদের কাছে জনগণের কল্যাণ বড়।

করোনাভাইরাস প্রতিরোধে সারা দেশের হাসপাতাল প্রস্তুত রয়েছে জানিয়ে তিনি বলেন, আমরা টেলিভিশনে সবসময় সচেতনতার বিষয় প্রচার করাচ্ছি। করোনা প্রতিরোধে সারা দেশ প্রস্তুত।

ইতালিফেরতদের আত্মীয়দের পরীক্ষা করা হয়েছে জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, সন্দেহভাজনদের আমরা পরীক্ষার ব্যবস্থা করেছি। যারা আক্রান্ত হয়েছে তাদের কোয়ারান্টাইনে নিয়েছি। তারা কোথায় কোথায় গেছে সে খোঁজ নিয়ে আমারা তাদের পরীক্ষার ব্যবস্থা করেছি। তাদের আত্মীয়-স্বজনদের পরীক্ষার ব্যবস্থা করেছি। হ্যান্ডশেক করা বন্ধ।

দেশের জনগণের নিরাপত্তার কথা জানিয়ে শেখ হাসিনা বলেন, অনুষ্ঠান করব যাতে লোকসমাগম কম হয়। আমরা মানুষের নিরাপত্তা আর তাদের স্বাস্থ্যের নিরাপত্তার বিষয়টি নজর দিয়েছি। ঢাকায় তিনটি হাসপাতাল আমরা রেডি করেছি। আমি অনুরোধ করব কারো মধ্যে এতটুকু লক্ষণ দেখা দিলে ডাক্তারের পরামর্শ নিতে। আমাদের দেশের মানুষের স্বাস্থ্য সচেতন থাকতে হবে। ঘর পরিষ্কার রাখতে হবে। বাড়ির পাশে রাস্তাও পরিস্কার রাখতে হবে। এ ভাইরাসটি বেশি দিন থাকবে না। এটি বাতাসে ওড়ে না।


Facebooktwitterlinkedinrssyoutubemailby feather

১৭ মার্চ প্রাথমিকে ৭ কাজ ‘বাধ্যতামূলক’

ডেস্ক,৯ মার্চ:

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উদযাপন নিয়ে জরুরি নির্দেশনা জারি করেছে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়। সম্প্রতি উপসচিব নাজমা শেখ সাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে এ নির্দেশনা দেওয়া হয়।

এতে বলা হয়েছে- উপর্যুক্ত বিষয়ে জানানো যাচ্ছে যে, মুজিববর্ষ উপলক্ষে আগামী ১৭ মার্চ ২০২০ জাতির পিতার জন্মদিন ও জাতীয় শিশু দিবস উদযাপনের জন্য দেশের সকল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে নিম্নবর্ণিত কর্মসূচি গ্রহণের সিদ্ধান্ত গৃহত হয়েছে।

সেগুলো হলো- (ক) সমাবেশ; (খ) জাতীয় সঙ্গীত; (গ) মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর চিঠি পাঠ; (ঘ) কেক কাটা; (ঙ) চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতা; (চ) আলোচনা সভা; বিষয়: ছোটদের বঙ্গবন্ধু এবং (ছ) সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান।

এমতাবস্থায়, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উদযাপন উপলক্ষে উপরোক্ত কর্মসূচিসমূহ দেশের সকল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে যথাযথভাবে পালনের জন্য মাঠ পর্যায়ে জরুরি ভিত্তিতে প্রয়োজনীয় নির্দেশনা প্রদান এবং এ বিষয়ে গৃহীত কার্যক্রমের জেলাওয়ারি প্রতিবেদন ৭ (সাত) কার্যদিবসের মধ্যে মন্ত্রণালয়ে প্রেরণের জন্য নির্দেশক্রমে অনুরোধ করা হলো।


Facebooktwitterlinkedinrssyoutubemailby feather

করোনাভাইরাসের সংক্রমণ প্রতিরোধে সর্বোচ্চ প্রচেষ্টা চালাও।অনুষ্ঠান পরে- শেখ হাসিনা

নিজস্ব প্রতিবেদক,৯ মার্চঃ

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার নির্দেশনায় যা আছে সেভাবেই ঘোষণা করো। বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকীর অনুষ্ঠান পরেও করা যাবে। দেশের মানুষের কাছে তথ্য গোপন করতে পারব না। করোনাভাইরাসের সংক্রমণ প্রতিরোধে সর্বোচ্চ প্রচেষ্টা চালাও। আমি তোমাদের সাথে আছি।’

 

রোববার (৮ মার্চ) দেশে প্রথমবারের মতো তিনজন করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত রোগী শনাক্ত হওয়ার খবর এ তথ্য জানার পর এমনিভাবে প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত ও নির্দেশনা প্রদান করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

 

 

স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রী জাহিদ মালেকের নেতৃত্বে রোববার সকালে স্বাস্থ্য বিভাগের শীর্ষ কর্মকর্তারা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে করোনা ভাইরাস আক্রান্ত রোগী সম্পর্কে অবহিত করতে গেলে তিনি এ কথা বলেন।  সে সময় কেউ কেউ কয়েকটা দিন করোনা ভাইরাস আক্রান্ত তথ্য গোপন করে আগামী ১৭ মার্চ বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকীর অনুষ্ঠানের পর ঘোষণা দেয়ার প্রস্তাব করলে, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তা সরাসরি নাকচ করে দেন। বঙ্গবন্ধু কন্যা পরিষ্কারভাবে জানিয়ে দেন, অনুষ্ঠানের চাইতে দেশের মানুষের ভালোমন্দ বেশি গুরুত্বপূর্ণ।

 

স্বাস্থ্য অধিদফতরের রোগতত্ত্ব, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা প্রতিষ্ঠানের (আইইডিসিআর) কর্মকর্তারা শনিবার (৭ মার্চ) রাতেই ল্যাবরেটরি পরীক্ষার ফলাফলে ইতালি ফেরত প্রবাসী দুজনসহ মোট তিনজনের করোনাভাইরাস আক্রান্ত হওয়ার ব্যাপারে নিশ্চিত হন।

 

এ খবর স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক, স্বাস্থ্য সচিব (সেবা বিভাগ) আসাদুল ইসলাম ও স্বাস্থ্য অধিদফতরের মহাপরিচালক অধ্যাপক ডাক্তার আবুল কালাম আজাদকে জানান আইইডিসিআর পরিচালক ডা. মীর জাদি সাবরিনা ফ্লোরা।

 

স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক রোববার সকালে সাক্ষাতের সময় নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে যান। এ সময় স্বাস্থ্য সচিব, স্বাস্থ্য মহাপরিচালক ও প্রধানমন্ত্রীর ব্যক্তিগত চিকিৎসক জাতীয় অধ্যাপক এবিএম আব্দুল্লাহ উপস্থিত ছিলেন। প্রধানমন্ত্রী তাদেরকে জানান, করোনাভাইরাস নিয়ে বিশ্ব পরিস্থিতি সম্পর্কে তিনি ওয়াকিবহাল রয়েছেন। আইইডিসিআরে নিয়মিত প্রেস ব্রিফিং হয় সে সম্পর্কেও তিনি জানেন।

 

দেশে তিনজন করোনা ভাইরাসের রোগী পাওয়া গেছে, এ তথ্য প্রধানমন্ত্রীকে অবহিত করার পর বিকেলে নিয়মিত প্রেস ব্রিফিংয়ে দুজন ইতালি প্রবাসীসহ তিনজনের করোনভাইরাস আক্রান্ত হওয়ার তথ্য গণমাধ্যমকে অবহিত করেন আইইডিসিআর পরিচালক।

 

এর আগে, রোববার নারী দিবসের অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী বলেন, করোনা ভাইরাস মোকাবিলায় বাংলাদেশের পর্যাপ্ত সক্ষমতা রয়েছে। এটি নিয়ে উদ্বিগ্ন হওয়ার কিছু নেই।

 

প্রধানমন্ত্রী আরও বলেন, সরকার ২৪ ঘণ্টা পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করছে। যেকোনো জায়গায় সমস্যা দেখা দিলে তাৎক্ষণিকভাবে যথাযথ পদক্ষেপ গ্রহণ করা হবে। তবে সবাইকে পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন থাকতে হবে এবং স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের নির্দেশনা মেনে চলতে হবে।

 

শেখ হাসিনা বলেন, ‘স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় প্রতিদিন করোনাভাইরাসসংক্রান্ত নির্দেশনা দিচ্ছে। আমি অনুরোধ করব সকলকে সেই নির্দেশনাবলি মেনে চলার।’

 

করোনাভাইরাস সম্পর্কে সবার মধ্যে সচেতনতা সৃষ্টির আহ্বান জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, করোনাভাইরাসের কারণে বিশ্বব্যাপী বিভিন্ন দেশ অর্থনৈতিক সমস্যার মধ্যে দিয়ে যাচ্ছে।

 

এরপরই করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে পাঁচ ধরনের পরামর্শ দিয়েছে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর।

করোনাভাইরাস প্রতিরোধে যা করণীয়

 

ভালোভাবে সাবান পানি দিয়ে হাত ধুতে হবে

হাত না ধুয়ে চোখ, মুখ ও নাক স্পর্শ না করা

হাঁচি–কাশি দেয়ার সময় মুখ ঢেকে রাখা

অসুস্থ পশু বা পাখির সংস্পর্শে না আসা

মাছ, মাংস ভালোভাবে রান্না করে খাওয়া

করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর জরুরি প্রয়োজনে ছাড়া চীন ভ্রমণ করা থেকে বিরত থাকতে বলেছে। এমনকি প্রয়োজন ছাড়া এই সময়ে বাংলাদেশ ভ্রমণে নিরুৎসাহিত করতে বলা হয়েছে। তবে সব স্তরের শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ করে দেয়া হবে কী না এ বিষয়ে শিক্ষা উপমন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী জানিয়েছেন স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের নির্দেশনা মতো এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেয়া হবে।

 

এদিকে, প্রাথমিক ও গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রী জাকির হোসেন জানিয়েছেন, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধে এখনই তারা কিছু ভাবছেন না। তিনি বলেছেন, ‘আমরা সব ধরনের সতকর্তামূলক ব্যবস্থা গ্রহণ করব, তবে এখনই প্রাথমিক স্কুল বন্ধের কথা ভাবছি না’

Facebooktwitterlinkedinrssyoutubemailby feather

মুজিববর্ষে বড় পরিসরের অনুষ্ঠান স্থগিত

ডেস্ক,৯ মার্চ:

বিশ্বে করোনাভাইরাসের পরিস্থিতি বিবেচনায় জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে আগামী ১৭ মার্চ জাতীয় প্যারেড গ্রাউন্ডে আয়োজিত অনুষ্ঠানে বড় পরিসরে যে অনুষ্ঠান হওয়ার কথা ছিল সেটি স্থগিত করা হয়েছে।

রোববার রাতে রাজধানীর সেগুনবাগিচায় আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা ইনস্টিটিউটে এক জরুরি সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ তথ্য জানান।
আরো পড়ুন

করোনা ভাইরাসের প্রতিষেধক হোমিওপ্যাথিতে

কামাল আবদুল নাসের বলেন, করোনাভাইরাস প‌রি‌স্থি‌তির কার‌ণে সারা দেশেই মুজিববর্ষের অনুষ্ঠান সংক্ষিপ্ত করা হ‌য়ে‌ছে। পরে ক্ষুদ্র প‌রিস‌রে বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকীর উদ্বোধনী অনুষ্ঠান আয়োজন করা হবে। তবে জনসমাগম এড়িয়ে বছরব্যাপী উদযাপন করা হবে মুজিববর্ষ।

এসময় তিনি জানান, প্যা‌রেড গ্রাউ‌ন্ডের অনুষ্ঠা‌নে বি‌দেশি অ‌তি‌থিরা আসবেন না। কারণ জনস্বা‌র্থে জনসমাগম নি‌ষিদ্ধ করা হ‌য়ে‌ছে। প‌রে বি‌দেশি অ‌তি‌থি‌দের ডাকা হ‌বে।

Facebooktwitterlinkedinrssyoutubemailby feather

‘স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের নির্দেশনা মতো স্কুলের বিষয়ে সিদ্ধান্ত’

ডেস্ক,৮ মার্চঃ
দেশে প্রথম করোনাভাইরাস আক্রান্ত শনাক্তের পর শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ করে দেওয়া হবে কিনা- জানতে চাওয়া হলে শিক্ষা উপমন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী জানিয়েছেন স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের নির্দেশনা মতো এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।
প্রাথমিক ও গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রী জাকির হোসেন জানিয়েছেন, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধে এখনই তারা কিছু ভাবছেন না।
তিনি বলেন, আমরা সব ধরনের সতকর্তামূলক ব্যবস্থা গ্রহণ করব, তবে এখনই প্রাথমিক স্কুল বন্ধের কথা ভাবছি না।
আজ রোববার রোগতত্ত্ব, রোগনিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা ইনস্টিটিউট (আইইডিসিআর) বাংলাদেশে তিন জনের কোভিড-১৯ আক্রান্তের কথা জানিয়েছে।
সারাবিশ্বে করোনাভাইরাস ছড়িয়ে পড়ায় অনেক দেশেই স্কুল বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। ভাইরাস ছড়িয়ে পড়া ঠেকাতে অনেক শিক্ষা প্রতিষ্ঠানই সাময়িক বন্ধ রাখার বিষয়ে বিবেচনা করছে।
ইউনেস্কোর তথ্য অনুসারে, ৪ মার্চ পর্যন্ত তিন মহাদেশের ২২টি দেশ স্কুল বন্ধের ঘোষণা দিয়েছে কিংবা এরইমধ্যে বন্ধ করেছে।
সংস্থাটি জানিয়েছে, ১৩টি দেশের সব স্কুল বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। ৯টি দেশ করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ঠেকাতে স্থানীয়ভাবে স্কুল বন্ধ করেছে।

Facebooktwitterlinkedinrssyoutubemailby feather

নিজেদের শিক্ষক পরিচয় দিতে লজ্জা পান যেসব শিক্ষকরা

ডেস্ক,৮ মার্চঃ
শ্রেণিকক্ষে মনোযোগী না হয়ে নন ক্যাডার শিক্ষকরা ব্যস্ত থাকেন কোথায় কোন নিয়োগ পরীক্ষা, কোথায় বদলি হবেন, মন্ত্রণালয় ও শিক্ষা অধিদপ্তরে ঘোরাঘুরি ও প্রধান শিক্ষকদের অসহযোগীতা করাসহ ইত্যাদি কাজে। এতে পড়াশোনা মারাত্মক ব্যাহত হচ্ছে। শিক্ষা মন্ত্রণালয়, মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদপ্তরে আসা লিখিত অভিযোগে এসব তথ্য উঠে এসেছে।
এ বিষয়ে বাংলাদেশ সরকারি মাধ্যমিক শিক্ষক সমিতির নেতারাও ননক্যাডার শিক্ষকদের বিরুদ্ধে নানা অভিযোগ তুলেছেন। সিনিয়র শিক্ষকদের তুচ্ছ-তাচ্ছিল্য করে কথা বলার অভিযোগ রয়েছে এসব নন ক্যাডারদের বিরুদ্ধে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক মুন্সিগঞ্জের কে কে গভ. ইনস্টিটিউশনের কয়েকজন শিক্ষক বলেন, নন ক্যাডারদের তো স্কুলেই পাওয়া যায় না। পরীক্ষা আর তদবিরে ব্যস্ত থাকেন তারা।

এ ভি জে এম সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের কয়েকজন শিক্ষক বলেন, নন ক্যাডাররা মনে-প্রাণে শিক্ষক না। নিজেদের কর্মকর্তা হিসেবে পরিচয় দিতে ব্যস্ত। শিক্ষক পরিচয় দিতে লজ্জাবোধ করেন। চাকরিতে যোগদান করেই সিনিয়র শিক্ষকদের বিরুদ্ধে বিষোদগারে লিপ্ত হয়েছেন কেউ কেউ।

এ অভিযোগের বিষয়ে জানতে চাইলে সিরাজুল ইসলাম নামের একজন ননক্যাডার শিক্ষক বলেন, এটা খুবই যৌক্তিক যে আমরা ক্যাডার কর্মকর্তা হওয়ার জন্য ফের বিসিএস পরীক্ষা দেবো। এতে শ্রেণিকক্ষে পাঠদান তো কিছুটা ব্যাহত হবেই। পরীক্ষা দেয়া তো আমার অধিকার। তাছাড়া সরকারি হাইস্কুলে কিছু সিনিয়র শিক্ষক রয়েছেন যারা কোনোভাবে চাকরিতে ঢুকেছিলেন। পড়াশোনা খুব একটা জানে না। তারা জুনিয়রদের সহজে মেনে নিতে চান না।

তবে এ বিষয়ে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের একাধিক কর্মকর্তা জানান, অভিযোগের বিষয়টি গুরুত্বসহকারে বিবেচনা করছে মন্ত্রণালয়। শীঘ্রই এ বিষয় নিয়ে সুষ্ঠ সমাধান হবে।

Facebooktwitterlinkedinrssyoutubemailby feather

মাউশির জরুরি ৪ নির্দেশনা

ডেস্ক,৭ মার্চ:

মাধ্যমিক পর্যায়ের সব স্কুলে শিখন-শেখানো কার্যক্রম বাস্তবায়নের উদ্যোগ হিসেবে চারটি প্রজেক্টভিত্তিক শিখন কার্যক্রম হাতে নিয়েছে সরকার। যা ধারাবাহিক মূল্যায়নের অংশ হিসেবে সম্পন্ন করার নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

জাতীয় শিক্ষাক্রমের নির্দেশনা অনুযায়ী জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবর্ষ উপলক্ষে এই চারটি সচেতনতামূলক প্রজেক্টভিত্তিক শিখন কার্যক্রম হাতে নিয়েছে সরকার।

গত শুক্রবার (৬ মার্চ) মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তরের (মাউশি) মহাপরিচালক প্রফেসর ড. মো. গোলাম ফারুখ স্বাক্ষরিত এই নির্দেশনা জারি করে মাউশি।

নির্দেশনায় বলা হয়, সব স্কুলকে এ চারটি প্রজেক্টভিত্তিক শিখন কার্যক্রম বাস্তবায়নের উদ্যোগ নিতে হবে। এসব কর্যক্রম গুরুত্বের সঙ্গে তদারকি ও সহযোগিতা করতে মাঠ পর্যায়ের সব কর্মকর্তাকেও নির্দেশ দিয়েছে মাউশি।

মাউশির জরুরি ৪ নির্দেশনা গুলো হল-

আইসিটির সঠিক ব্যবহার- মুজিববর্ষের অঙ্গীকার।

সুস্থতা ও সুষম খাদ্য- মুজিব বর্ষের প্রতিপাদ্য।

মুজিববর্ষে অনড় পণ- পরিবেশ সংরক্ষণ।

সকল কাজকে সম্মান দেই- মুজিববর্ষে শপথ নেই।

Facebooktwitterlinkedinrssyoutubemailby feather

সরকারি স্কুলের ২৯ শিক্ষককে বদলি

নিজস্ব প্রতিবেদক | ০৬ মার্চ, ২০২০
সরকারি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ২৯ জন সহকারী শিক্ষককে বদলি করেছে শিক্ষা অধিদপ্তর। গত ৪ মার্চ মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তর থেকে এসব শিক্ষককে বদলির পৃথক আদেশ জারি করা হয়।

বদলীর আদেশ দেখতে ক্লিক করুন



Facebooktwitterlinkedinrssyoutubemailby feather

নতুন কারিকুলামে দশম শ্রেণি পর্যন্ত বিভাগ থাকবে না : শিক্ষামন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক | ০৬ মার্চ, ২০২০

শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি বলেছেন, নতুন যে কারিকুলাম হচ্ছে তাতে দশম শ্রেণি পর্যন্ত ভিন্ন কোনো বিভাগ থাকবে না। ইতোমধ্যে প্রধানমন্ত্রী নির্দেশনা দিয়ে দিয়েছেন। সে অনুযায়ী কারিকুলাম পরিমার্জন কাজ চলছে। নতুন কারিকুলাম যখন থেকে বাস্তবায়িত হবে তখন থেকে একাদশ শ্রেণির আগে আর কোনো বিভাগ থাকবে না।

বৃহস্পতিবার (৫ মার্চ) দুপুরে চাঁদপুর সরকারি কলেজের বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতার উদ্বোধনী অনুষ্ঠান ও ক্রীড়া প্রতিযোগিতার পুরস্কার বিতরণ শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এ সব কথা বলেন।

শিক্ষামন্ত্রী বলেন, নোট বই, গাইড বই যেগুলো চলার কথা নয়, সেগুলো আর থাকবে না। এগুলো কেনার জন্য কোনো শিক্ষার্থীকে চাপ প্রয়োগ করা যাবে না। তবে ৩৩ হাজার শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের একার পক্ষে নজরদারি করা সম্ভব নয়। এ জন্য মিডিয়াসহ সকলের সহযোগিতা প্রয়োজন।

তিনি বলেন, শিক্ষার্থীদের জন্য সহায়ক বই থাকতে পারে। কারণ সারা বিশ্বে সহায়ক বইয়ের প্রচলন আছে। তবে তা অনুমোদিত হতে হবে। শিক্ষা আইন প্রণীত হলেই এ নিয়ে আর কোনো প্রশ্ন থাকবে না।

এর আগে মন্ত্রী শহরের পুরানবাজার ডিগ্রি কলেজ এবং চাঁদপুর সরকারি মহিলা কলেজে বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতার পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন।

এ সময় মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক ড. সৈয়দ মো. গোলাম ফারুক, চাঁদপুর সরকারি কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর অসিত বরণ দাশসহ বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষকরা উপস্থিত ছিলেন।


Facebooktwitterlinkedinrssyoutubemailby feather

অনলাইনে এমপিওর আবেদন শুরু

নিজস্ব প্রতিবেদক | ০৬ মার্চ, ২০২০
ইএমআইএস সেলের নতুন সফটওয়্যারে মাইগ্রেশনের প্রক্রিয়া শেষ হওয়ায় এমপিওসহ সব প্রকার অনলাইন আবেদন ও তথ্য সংশোধন শুরু করেছে মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তরের ইএমআইএস সেল। নতুন সফটওয়্যারে আগামী ৭ মার্চ পর্যন্ত এমপিও আবেদন করতে পারবেন প্রতিষ্ঠান প্রধানরা। ইএমআইএস সফটওয়্যারে লগইন করে এমপিও আবেদন করা যাবে। মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তর সূত্র দৈনিক শিক্ষাবার্তা ডটকমকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছে। নতুন সফটওয়্যারে মাইগ্রেশনের প্রক্রিয়া চলমান থাকায় গত ৬ ফেব্রুয়ারি অনলাইনে এমপিওসহ অন্যান্য আবেদন গ্রহণ সাময়িক স্থগিত করা হয়েছিল।

জানা গেছে, প্রতিষ্ঠান প্রধানরা ইএমআইএস সফটওয়্যারে লগ-ইন করে এমপিও মডিউলে প্রবেশ করে আবেদন করতে পারবেন। প্রতিষ্ঠান প্রধানে কাছ থেকে ৭ মার্চ পর্যন্ত পাওয়া আবেদন নিষ্পত্তির জান্য বিবেচনা করা হবে। উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা প্রতিষ্ঠান প্রধানের কাছ থেকে পাওয়া আবেদনগুলো আগামী ১০ মার্চের মধ্যে নিষ্পত্তি করবেন। উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তার কাছ থেকে পাওয়া আবেদন ১৪ মার্চের মধ্যে নিষ্পত্তি করতে বলা হয়েছে জেলা শিক্ষা কর্মকর্তাদের। আর জেলা পর্যায় থেকে পাওয়া এমপিওর আবেদন ২১ মার্চের মধ্যে নিষ্পত্তি করতে বলা হয়েছে আঞ্চলিক উপপরিচালকদের। সূত্র জানায়, এ সময়সীমা শুধুমাত্র মার্চ মাসের জন্য নির্ধারণ করা হয়েছে।

সূত্র আরও জানায়, নতুন এমপিওভুক্তির আবেদনের আগে শিক্ষক কর্মচারীদের রেজিস্ট্রেশন করতে হবে। এছাড়া নতুন সফটওয়্যারে মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তরের মাঠ পর্যায়ের কর্মকর্তা ও প্রতিষ্ঠানগুলোকে লগইন করতে হবে। প্রথমবার লগইন করার পর প্রতিষ্ঠানগুলোকে অবশ্যই পাসওয়ার্ড পরিবর্তন করতে বলা হয়েছে।

এছাড়া নতুন সফটওয়্যারে লগইন করার জন্য মাঠপর্যায়ের কর্মকর্তা ও প্রতিষ্ঠান প্রধানদের জন্য কিছু নির্দেশনা দিয়েছে ইএমআইএস সেল। একই সাথে এমপিও আবেদনের আগে নতুন শিক্ষকদের রেজিস্ট্রেশনের বিস্তারিত প্রক্রিয়াও নির্দেশনায় বর্ণনা করা হয়েছে।


Facebooktwitterlinkedinrssyoutubemailby feather

প্রাথমিক শিক্ষকদের টিফিন ভাতা প্রত্যাহার!

নিজস্ব প্রতিবেদক,৫ মার্চ: প্রাথমিক শিক্ষকদের টিফিন ভাতা প্রত্যাহার করার আবেদন জানিয়েছে কুড়িগ্রাম জেলার সহকারী শিক্ষক মুনিবল হক বসুনিয়া। মাসে ২০০ টাকা টিফিন ভাতা হলে প্রতিদিন পড়ে ৬.৬৬ পয়সা যা খুবিই নগন্য। এটি শিক্ষকদের জন্য অপমানজনকও বটে। শিক্ষাবার্তা পাঠকদের জন্য হুবহ আবেদনটি তুলে দেয়া হল ।

বরাবর,
উপজেলা শিক্ষা অফিসার,
রাজারহাট, কুড়িগ্রাম।

মাধ্যমঃ যথাযথ কর্তৃপক্ষ।

বিষয়ঃ টিফিন ভাতা প্রত্যাহার প্রসঙ্গে।

তাং ০৫.০৩.২০২০ খ্রিস্টাব্দ

জনাব,
যথাবিহিত সম্মান প্রদর্শনপূর্বক নিবেদন এই যে, আমি নিম্নস্বাক্ষরকারী আমাকে প্রদেয় মাসিক টিফিনভাতা ২০০/-(দুইশত) টাকা যা গড়ে প্রতিদিন ৬.৬৬(ছয় টাকা ছেষট্টি পয়সা) হারে দেয়া হয়, তা আমি ব্যক্তিগত কারণে প্রত্যাহারের আবেদন জানাচ্ছি।

অতএব, আমার মাসিক ভাতা থেকে প্রদেয় টিফিনভাতা প্রত্যাহারের প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণে আপনার নেক মর্জি হয়।

নিবেদক
মনিবুল হক বসুনীয়া
সহঃ শিক্ষক।
আবুল কাশেম বালিকা সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়।
রাজারহাট, কুড়িগ্রাম।


Facebooktwitterlinkedinrssyoutubemailby feather

প্রাথমিকসহ সকল স্কুলের জন্য জরুরি ৮ নির্দেশনা

ডেস্ক,৫মার্চ:

সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়সহ দেশের সকল স্কুলের জন্য সাতটি নির্দেশনা দিয়েছেন প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সচিব আকরাম আল হোসেন। সম্প্রতি গাজীপুরে পিটিআই আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে এই সাতটি নির্দেশনার কথা জানান তিনি।
১. প্রাথমিকসহ সকল বিদ্যালয়ে শতভাগ ছাত্র/ ছাত্রীরা যাতে বাংলা ও ইংরেজি বিষয়ে শুদ্ধভাবে পড়তে ও লিখতে পারে এজন্য শতভাগ শিক্ষার্থীদের প্রতিদিন একপৃষ্ঠা লেখা ও পড়ার কাজ দিতে হবে এবং তা যথাযথভাবে মূল্যায়ন করতে হবে।

২. প্রতিটি বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা সাবলীল, মিডিয়াম এবং যারা একদমই পড়তে পারে না এমন শিক্ষার্থীদের একটি তালিকা প্রস্তুত করতে হবে।

৩. ‘মাদার ইজ দ্যা ফার্স্ট টিচার এন্ড টিচার ইজ দ্যা সেকেন্ড মাদার’ এ বক্তব্যকে বুকে ধারণ করতে হবে। একইসঙ্গে বিদ্যালয়ের প্রতিটি শিশুকে নিজের সন্তানের মত মনে করতে হবে, তাদের প্রত্যেককে শেখানোর জন্য প্রতিটি স্কুলের প্রধান শিক্ষককে উদ্যোগ নিতে হবে।
৪. সপ্তাহের প্রতি বৃহস্পতিবার বিদ্যালয়ে পরিস্কার/ পরিচ্ছন্ন কার্যক্রম পরিচালনা করতে হবে।

৫. ‘ওয়ান ডে ওয়ান ওয়ার্ল্ড’ কর্মসূচি সঠিকভাবে বাস্তবায়ন করতে হবে এবং এর সঠিক রেকর্ড রাখতে হবে।

৬. শতভাগ ছাত্র-ছাত্রীদের মায়ের হাতের রান্না করা খাবার অবশ্যই বিদ্যালয়ে এনে আহার করাতে হবে।

৭. শিক্ষক বদলীর নীতিমালা হবে এপ্রিলে। এবং এপ্রিল থেকেই অনলাইনে সারা বছরব্যাপী এই বদলীর কাজ চলবে।

৮. ইতোমধ্যেই প্রতিটি বিদ্যালয়ের অবকাঠামো সংক্রান্ত তথ্যাদি সংগ্রহ করা হয়েছে। সে অনুযায়ী বিদ্যালয়ে নতুন শ্রেণিকক্ষ নির্মাণ করা হবে, প্রয়োজনীয় আসবাবপত্র সরবরাহ করা হবে এবং শিক্ষক নিয়োগ দেয়া হবে যাতে বিদ্যালয়গুলোকে একশিফটে রুপান্তরিত করা যায়।


Facebooktwitterlinkedinrssyoutubemailby feather

এপ্রিল থেকে অনলাইনে বদলী শুরু

গাজিপুর প্রতিনিধি,৫ মার্চঃ
সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে বদলী নিয়ে সুখবর দিলেন প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সচিব আকরাম আল হোসেন। সম্প্রতি গাজীপুর পিটিআইতে তিনি বলেন ইতোমধ্যেই বিদ্যালয়ের অবকাঠামো সংক্রান্ত তথ্যাদি সংগ্রহ করা হয়েছে সে অনুযায়ী বিদ্যালয়ে নতুন শ্রেণীকক্ষ নির্মাণ করা হবে, প্রয়োজনীয় আসবাবপত্র সরবরাহ করা হবে।
গণশিক্ষা সচিব নির্দেশনা দিয়ে আরও বলেন, সকল বিদ্যালয়ে শতভাগ ছাত্র/ ছাত্রীরা যাতে বাংলা ও ইংরেজি বিষয়ে শুদ্ধভাবে পড়তে ও লেখতে পারে এজন্য শতভাগ শির্ক্ষাথীদেরকে প্রতিদিন একপৃষ্ঠা লেখা ও পড়ার কাজ দিতে হবে এবং তা যথাযথভাবে মূল্যায়ন করতে হবে।
এছাড়া প্রতি বৃহস্পতিবারে বিদ্যালয়ে পরিস্কার/ পরিচ্ছন্ন কার্যক্রম পরিচালনা করতে হবে। ‘one day one word’ কর্মসূচি সঠিকভাবে বাস্তবায়ন করতে হবে এবং এর সঠিক রেকর্ড রাখতে হবে। শতভাগ ছাত্র/ ছাত্রীদের মায়ের হাতের রান্না করা খাবার অবশ্যই বিদ্যালয়ে এনে আহার করাতে হবে।
শিক্ষক বদলীর নীতিমালা প্রসঙ্গে সচিব বলেন যে, বদলী হবে আগামী এপ্রিল থেকে অনলাইনে এবং সারা বছরব্যাপী।

Facebooktwitterlinkedinrssyoutubemailby feather

Responsive WordPress Theme Freetheme wordpress magazine responsive freetheme wordpress news responsive freeWORDPRESS PLUGIN PREMIUM FREEDownload theme free

hit counter