চাকুরি

প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরে ১০ হাজার সহকারী শিক্ষক নেওয়া হবে

শিশির দাস: সারা দেশের সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে (পার্বত্য তিন জেলা- রাঙামাটি, খাগড়াছড়ি, বান্দরবান ব্যতীত) সহকারী শিক্ষক পদে নিয়োগ প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে। সম্প্রতি প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তর বিভিন্ন পত্রিকায় ও তাদের ওয়েবসাইটে বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে এ নিয়োগের বিষয়টি জানিয়েছে। কতজন নেওয়া হবে জানতে চাইলে প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক আবু হেনা মোস্তফা কামাল  বলেন পদটিতে প্রায় ১০ হাজার সহকারী শিক্ষক নিয়োগ করা হবে। তবে পদের সংখ্যা বাড়তে বা কমতে পারে।

সহকারী শিক্ষক পদে এরই মধ্যে অনলাইনে আবেদন প্রক্রিয়া শুরু হয়ে গেছে। আবেদন করা যাবে আগামী ৩০ আগস্ট রাত ১১ টা ৫৯ মিনিট পর্যন্ত। তাই লক্ষ্য যাদের শিক্ষক হওয়ার আবেদনের শেষ দিনের জন্য অপেক্ষা না করে পদটিতে আবেদন করতে পারেন এখনই। এই নিয়োগের বিজ্ঞপ্তিটি পাওয়া যাবে www.dpe.gov.bd  এই ঠিকানায়।

আবেদনের যোগ্যতা: এ পদে আবেদনের জন্য পুরুষ প্রার্থীদের কোনো স্বীকৃত বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ন্যূনতম দ্বিতীয় বিভাগ/শ্রেণি/সমমানের জিপিএসহ স্নাতক বা সমমানের ডিগ্রি পাস হতে হবে। অন্যদিকে, মহিলা প্রার্থীদের ক্ষেত্রে উচ্চ মাধ্যমিক সার্টিফিকেট বা সমমানের পরীক্ষায় ন্যূনতম দ্বিতীয় বিভাগ/সমমানের জিপিএসহ উত্তীর্ণ অথবা স্নাতক বা সমমানের পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হতে হবে। উভয় প্রার্থীদের বয়স ৩০ আগস্ট ২০১৮ তারিখে ১৮ থেকে ৩০ বছরের মধ্যে হতে হবে। মুক্তিযোদ্ধার সন্তান ও প্রতিবন্ধীদের ক্ষেত্রে বয়সসীমা ৩২ বছর।

যেভাবে আবেদন করবেন: এ পদে প্রার্থীদের অনলাইনের মাধ্যমে আবেদন করতে হবে। http://dpe.telelalk.com.bd  এবং www.dpe.gov.bd  এই ওয়েবসাইটে লগ ইন করলে একটি লিংক পাওয়া যাবে। এই লিংকে প্রবেশ করে সংশ্লিষ্ট নির্দেশনা মোতাবেক অনলাইন আবেদনপত্র পূরণ করতে হবে। অনলাইনে আবেদনপত্র পূরণ করে জমা করার পর অ্যাপ্লিকেশন কপি প্রিন্ট করতে হবে। সঠিকভাবে পূরণকৃত অ্যাপ্লিকেশন কপির ইউজার আইডি দিয়ে আবেদন ফি জমা দিতে হবে। একবার আবেদন ফি জমা দেওয়া পর অ্যাপ্লিকেশন ফরম কোনো অবস্থাতেই সংশোধন বা প্রত্যাহার করা যাবে না। শুধু ইউজার আইডিপ্রাপ্ত প্রার্থীরা উক্ত সময় পরবর্তী ৭২ ঘণ্টা পর্যন্ত এসএমএসের মাধ্যমে ফি প্রদান করতে পারবে। আবেদনকারীকে একটি ইউজার আইডি এবং পাসওয়ার্ড দেওয়া হবে। এই ইউজার আইডি এবং পাসওয়ার্ড সব সময়ের জন্য প্রার্থীকে সংরক্ষণ করতে হবে। প্রার্থীকে পরীক্ষার ফি বাবদ অফেরতযোগ্য সার্ভিস চার্জসহ ১৬৬.৫০ টাকা যেকোনো টেলিটক মোবাইল নম্বর থেকে এসএমএসের মাধ্যমে যথাসময়ে প্রেরণ করতে হবে।

নির্বাচন পদ্ধতি: প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তর সূত্রে জানা গেছে, সহকারী শিক্ষক পদে এর আগে ৮০ নম্বরের এমসিকিউ পদ্ধতিতে লিখিত পরীক্ষা ও ২০ নম্বরের মৌখিক পরীক্ষা নেওয়া হতো। বাংলা, গণিত, ইংরেজি ও সাধারণ জ্ঞান বিষয়ে প্রশ্ন থাকত। তবে এবারের নিয়োগে কত নম্বরের পরীক্ষা হবে এই বিষয়টি এখনো চূড়ান্ত হয়নি। এসব পরীক্ষার তারিখ পরে অধিদপ্তরের ওয়েবসাইট ও বিভিন্ন পত্রিকায় বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে জানানো হবে বলে অধিদপ্তর সূত্রে জানা গেছে।

প্রয়োজনীয় কাগজপত্র: প্রার্থী লিখিত পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হওয়ার পর আবেদনপত্রের সঙ্গে অনলাইনে দাখিলকৃত আবেদনের ফটোকপি, পাসপোর্ট সাইজের ২ কপি ছবি, প্রথম শ্রেণির গেজেটেড সরকারি কর্মকর্তা কর্তৃক সত্যায়িত শিক্ষাগত যোগ্যতা সম্পর্কিত সব মূল বা সাময়িক সনদপত্র এবং সংশ্লিষ্ট ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান/পৌরসভার মেয়র/সিটি করপোরেশনের কাউন্সিলর কর্তৃক প্রদত্ত নাগরিকত্ব সনদপত্রসহ প্রয়োজনীয় কাগজপত্র সংশ্লিষ্ট জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসে জমা দিতে হবে।

বেতন: চূড়ান্তভাবে নিয়োগপ্রাপ্ত একজন প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত সহকারী শিক্ষক জাতীয় বেতন স্কেল ২০১৫ অনুযায়ী ১০ হাজার ২০০ (গ্রেড ১৪) টাকা স্কেলে বেতন পাবেন। আর প্রশিক্ষণবিহীন একজন সহকারী শিক্ষক ৯ হাজার ৭০০ (গ্রেড-১৫) টাকা স্কেলে বেতন পাবেন।

প্রথম আলো

Facebooktwittergoogle_plusredditpinterestlinkedinmail

ঢাকা উইমেন কলেজে নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি

ঢাকা উইমেন কলেজে উপাধ্যক্ষ ও শিক্ষক নিয়েগের বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ হয়েছে।

Facebooktwittergoogle_plusredditpinterestlinkedinmail

প্রাথমিকে ১২ হাজার শিক্ষক নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ

ডেস্ক,৩১ জুলাই:সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে শিক্ষক সংকট নিরসনে রাজস্বখাতভুক্ত নতুন করে আরও ১২ হাজার ‘সহকারী শিক্ষক’ নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হয়েছে। পার্বত্য তিন জেলা রাঙ্গামাটি, খাগড়াছড়ি ও বান্দরবান ব্যতীত এ দরখাস্ত আহ্বান করা হয়েছে। সোমবার এ নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করে প্রাথমিক শিক্ষা অধিদফতর (ডিপিই)। আগামী ১ আগস্ট সকাল সাড়ে ১০টা থেকে অনলাইনে আবেদন কার্যক্রম শুরু হয়ে ৩০ আগস্ট পর্যন্ত চলবে।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, চাকরিবিধি অনুযায়ী আবেদনের ক্ষেত্রে ১৮ থেকে ৩০ বছরের মধ্যে বাংলাদেশি নাগরিকরা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে সহকারী শিক্ষক পদের জন্য আবেদন করতে পারবেন। শিক্ষাগত যোগ্যতা হিসেবে এতে পুরুষদের জন্য স্নাতক বা সমমানের দ্বিতীয়/বিভাগ বা শ্রেণিতে পাশ থাকতে হবে। আর নারীদের জন্য উচ্চ মাধ্যমিক সার্টিফিকেট বা সমমান পরীক্ষায় ন্যূনতম দ্বিতীয়/বিভাগ/সমমানে পাশ হতে হবে।

আগ্রহী প্রার্থীরা অনলাইনে dpe.teletalk.com.bd ওয়েবসাইটের মাধ্যমে আবেদন করতে পারবেন। আবেদন কার্যক্রম আগামী ১ আগস্ট সকাল সাড়ে ১০টা থেকে অনলাইনে আবেদন কার্যক্রম শুরু হয়ে ৩০ আগস্ট পর্যন্ত চলবে। আবেদন করার পর প্রার্থীকে পরীক্ষার ফি বাবদ অফেরতযোগ্য সার্ভিস চার্জসহ ১৬৬ টাকা ৫০ পয়সা যে কোনো টেলিটক মোবাইল নম্বর হতে এসএমএসের মাধ্যমে নির্ধারিত সময়ে পরিশোধ করতে হবে।

jagonews24

ডিপিই সূত্র জানায়, বর্তমানে সারা দেশে প্রায় ৬৪ হাজার ৮২০টি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় রয়েছে। তার মধ্যে প্রায় ১২ হাজার সহকারী শিক্ষক শূন্য রয়েছে। এ কারণে নতুন করে রাজস্বখাতভুক্ত আরও ১২ হাজার সহকারী শিক্ষক নিয়োগের সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। পুরনো নিয়োগ বিধিমালা অনুসরণ করে নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হবে। ফলে নারী আবেদনকারীদের ৬০ শতাংশ কোটায় এইচএসসি বা সমমান পাশ এবং পুরুষের জন্য ৪০ শতাংশ কোটায় স্নাতক বা সমমান পাশ রাখা হয়েছে।

ডিপিই’র মহাপরিচালক আবু হেনা মোস্তফা কামাল জাগো নিউজকে বলেন, নতুন করে রাজস্ব খাতে প্রায় ১২ হাজার সহকারী শিক্ষক নিয়োগ দিতে বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হয়েছে। ইতোমধ্যে শিক্ষক নিয়োগের প্রাথমিক কার্যক্রম শুরু হয়েছে।

তিনি বলেন, নতুন নিয়োগ বিধিমালার কাজ সম্পন্ন না হওয়ায় পুরনো নিয়োগ বিধির আলোকে এই নিয়োগ কার্যক্রম পরিচালনা করা হবে। সে অনুযায়ী আগের সব বিষয় বহাল থাকবে।

প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি দেখতে ক্লিক করুন

Facebooktwittergoogle_plusredditpinterestlinkedinmail

আধঘণ্টা আগে রেলের নিয়োগ পরীক্ষা স্থগিত

ডেস্ক,২০ জুলাই: বাংলাদেশ রেলওয়ের টিকিট কালেক্টর গ্রেড-২ পদের লিখিত পরীক্ষা স্থগিত করা হয়েছে। শুক্রবার (২০ জুলাই) বিকাল সাড়ে ৩টায় রাজশাহীতে এই পরীক্ষা হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু হঠাৎ করেই তা স্থগিত করে বাংলাদেশ রেলওয়ে পশ্চিমাঞ্চল। এতে দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে আসা পরীক্ষার্থীরা রেলওয়ে পশ্চিমাঞ্চল রেল ভবনের (রাজশাহী) সামনে বিক্ষোভ করেছে।

রাজশাহী রেলওয়ের কর্মকর্তা (সিএসটি) অসিম কুমার তালুকদার বলেন, ‘পরীক্ষা আগামী এক মাস পর পুনরায় নেওয়া হবে।’

তবে কী কারণে হঠাৎ পরীক্ষা স্থগিত করা হয়েছে জানতে চাইলে অসিম কুমার তালুকদার বলেন, ‘নিয়োগ কমিটি বিষয়টি বলতে পারবে।’ কারা এই কমিটিতে আছেন জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘আমি বলতে পারবো না। আর রেলওয়ের সব খবর তো আমি রাখতে পারি না।’

রেলওয়ে পশ্চিমাঞ্চলের জিএম আবদুল আওয়াল ভূইয়াঁকে ফোন করা হলে তিনি কল রিসিভ করেননি।

পরীক্ষার্থীদের অভিযোগ, বাংলাদেশ রেলওয়ের টিকিট কালেক্টর গ্রেড-২ পদের জন্য নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি ছাড়া হয় গত বছরের নভেম্বর মাসে। এরপর পরীক্ষার তারিখ জানানো হয় আরও দুই মাস পর। পরীক্ষার নির্ধারিত দিন ধার্য হয় শুক্রবার (২০ জুলাই)। পরীক্ষার্থীরা আগের দিন (বৃহস্পতিবার) রাত থেকেই ভিড় জমায় রাজশাহীর বিভিন্ন হোটেল এবং স্টেশন এলাকায়। দুপুরে তারা নিজ নিজ কেন্দ্রে গেলে জানতে পারেন তাদের পরীক্ষা কেন্দ্রে কোনও সিট বসানো হয়নি। এরপর তারা নগরীর রেলগেট সংলগ্ন রেলভবনে এসে দেখেন পরীক্ষা স্থগিতের নোটিশ ঝোলানো আছে।

পটুয়াখালী জেলা থেকে নিয়োগ পরীক্ষায় অংশ নিতে আসা শামীম হোসেন বলেন, ‘আমরা তো আর ক্লাস এইটে পড়ি না যে আমাদের পরীক্ষার প্রশ্ন ফাঁস হবে। এই অনিয়মের কোনও প্রতিকার কী রেলওয়ে বা সরকার দিতে পারবে?’

ঢাকার নবীনগর থেকে আসা রুবেল ইসলাম বলেন, ‘এখানে আসতেও অনেক অর্থ, শ্রম আমাদের দিতে হয়েছে। যাদের ১৫ বা ২০ লাখ টাকা আছে, তাদের নিয়োগ দেওয়ার জন্য হুট করে সিদ্ধান্ত নিয়েছে রেলওয়ে।’

এদিকে নিয়োগ পরীক্ষার্থীদের শান্ত করতে প্রথমে পুলিশ এবং পরে র‌্যাব রাজশাহী রেলভবনের সামনে এসে উপস্থিত হয়। তাদের কথায় না সরলে সেখানে রাজশাহী রেলওয়ের কর্মকর্তা (সিএসটি) অসিম কুমার তালুকদার সেখানে পৌঁছে পরীক্ষার্থীদের পুনরায় পরীক্ষা নেওয়া হবে বলে আশ্বাস দিলে পরিস্থিতি শান্ত হয়। এরপর হতাশ হয়ে একে একে ফিরে যেতে থাকেন পরীক্ষার্থীরা।

জানা গেছে, বরিশাল থেকে ১৪ হাজার, দিনাজপুর থেকে ছয় হাজার এবং নওগাঁ থেকে দুই হাজারসহ দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে প্রায় ৩০ হাজার পরীক্ষার্থী অংশ নিতে এসেছিল। কিন্তু পরীক্ষা শুরু হওয়ার মাত্র আধঘণ্টা আগে তারা জানতে পারেন পরীক্ষা স্থগিত করা হয়েছে। এতে ক্ষোভে ফুঁসে ওঠেন পরীক্ষার্থীরা।

Facebooktwittergoogle_plusredditpinterestlinkedinmail

পুলিশি পাহারায় শিক্ষক নিয়োগ বোর্ড অনুষ্ঠিত

অনলাইন ডেস্ক,৩ জুন:

কঠোর নিরাপত্তা ও পুলিশি পাহারায় ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ে বিভিন্ন বিভাগের শিক্ষক নিয়োগ নির্বাচনী বোর্ড অনুষ্ঠিত হয়েছে। চাকরি প্রত্যাশী ছাত্রলীগের সাবেক নেতাদের চাপ এবং সুষ্ঠুভাবে নিয়োগ বোর্ড সম্পন্ন করাতে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন ক্যাম্পাসে বহিরাগত প্রবেশে জিরো টলারেন্স জারি করেছে।

রোববার ক্যাম্পাসে সব ধরনের মিছিল মিটিং, বহিরাগতের প্রবেশ ও শিক্ষার্থীদের পরিচয়পত্র বিহীন চলাচলে নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। এদিন থেকে বিশ্ববিদ্যালয়ের আটটি বিভাগ ও আইসিটি সেলে মোট ৩৮ জন শিক্ষক-কর্মকর্তা নিয়োগের নির্বাচনী বোর্ড শুরু হয়।

এদিকে চাকরি প্রত্যাশী ছাত্রলীগের সাবেক নেতাকর্মীরা তাদের চাকরি নিশ্চিত না হওয়া পর্যন্ত বিশ্ববিদ্যালয়ে কোন প্রকার নিয়োগ বোর্ড অনুষ্ঠিত হতে দেবে না বলে ঘোষণা দেন। একই দাবিতে শনিবার রাত ৮টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধান ফটকে তালা ঝুলিয়ে অবস্থান কর্মসূচি পালন করে তারা। এসময় ক্যাম্পাসে ইবি থানা ও কুষ্টিয়া থেকে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করে কর্তৃপক্ষ। পরে রাত সাড়ে ১১টার দিকে আন্দোলনকারীদের সরাতে পুলিশ অ্যাকশনে যাবার প্রস্তুতি নিলে সকাল ১০টা পর্যন্ত আন্দোলন স্থগিত করে ফিরে যায় চাকরি প্রত্যাশীরা। এর আগে গত ৭ মে চাকরি প্রত্যাশীদের বাধার মুখে ওই বিভাগগুলোর নিয়োগ বোর্ড স্থগিত করে কর্তৃপক্ষ।

রেজিস্টার অফিস সূত্রে জানা যায়, রোববার থেকে বিশ্ববিদ্যালয়ের আটটি বিভাগে ৩১ জন শিক্ষক এবং আইটি সেলে ৭ জন কর্মকর্তা নিয়োগ বোর্ড শুরু হয়। সকাল ১০টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের  ফার্মেসি বিভাগের শিক্ষক নিয়োগ বোর্ড শুরু হয়। নিয়োগ পরীক্ষায় ৩১ জন আবেদনকারীর মধ্যে ২৫ জন পরীক্ষায় অংশ নেয়। আগামী ২৬ জুন পর্যন্ত এ নিয়োগ নির্বাচনী বোর্ড অনুষ্ঠিত হবে।

 

এ বিষয়ে ইবি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা রতন শেখ জানান, ‘নিয়োগ বোর্ড সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন করতে ক্যাম্পাসে বিভিন্ন স্থানে পোশাকধারী এবং সাদা পোশাকে শতাধিক পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।’

 

বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর ড. মাহবুবর রহমান জানান, ‘ক্যাম্পাসে বহিরাগতদের প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে। প্রয়োজন ছাড়া কেউ প্রবেশ করলে তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে। ক্যাম্পাসের পরিবেশ সম্পূর্ণ শান্ত রয়েছে। নিয়োগ বোর্ড সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন হবে বলে আশা করছি।’

Facebooktwittergoogle_plusredditpinterestlinkedinmail

সোনালী ব্যাংকের সিনিয়র অফিসার পদে নিয়োগ পরীক্ষা ১ জুন

ডেস্কঃ

সোনালী ব্যাংক লিমিটেডের সিনিয়র অফিসার পদে নিয়োগ পরীক্ষা আগামী ১ জুন অনুষ্ঠিত হবে। ব্যাংকার্স সিলেকশন কমিটি এই দিন ধার্য করেছে। এ-সংক্রান্ত বিজ্ঞপ্তি বাংলাদেশ ব্যাংকের ওয়েবসাইটে দেওয়া হয়েছে।

১ জুন সকাল সাড়ে ১০টা থেকে বেলা সাড়ে ১১টা পর্যন্ত ঢাকা সিটি করপোরেশনের ৪০টি কেন্দ্রে এই লিখিত পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। এতে ১ লাখ ৬ হাজার ৭৭১ জন পরীক্ষার্থী অংশ নেবেন।

বাংলাদেশ ব্যাংক থেকে বলা হয়েছে, প্রার্থীকে পরীক্ষা শুরুর কমপক্ষে এক ঘণ্টা আগে কেন্দ্রে উপস্থিত হতে হবে। প্রবেশপত্র ছাড়া কোনো প্রার্থীকে পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করতে দেওয়া হবে না। এক ঘণ্টা পরীক্ষা চলবে। পরীক্ষার হলে মোবাইল ফোন, ক্যালকুলেটর, স্মার্ট ঘড়ি ও অন্যান্য ইলেকট্রনিক ডিভাইস নিয়ে প্রবেশ করতে পারবেন না প্রার্থীরা। এ বিষয়ে কঠোর নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে বাংলাদেশ ব্যাংকের পক্ষ থেকে।

Facebooktwittergoogle_plusredditpinterestlinkedinmail

বাংলাদেশ ব্যাংকের অফিসার পদের নিয়োগ পরীক্ষা ২৭ এপ্রিল

অফিসার পদে নিয়োগ পরীক্ষার তারিখ ঘোষণা করেছে বাংলাদেশ ব্যাংক। আগামী ২৭ এপ্রিল শুক্রবার সকাল ১০টায় এমসিকিউ পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। রাজধানীর ৬১টি কেন্দ্রে এ পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে।

এদিকে, প্রার্থীদের পরীক্ষা শুরুর ৩০ মিনিট পূর্বে পরীক্ষার কেন্দ্রে উপস্থিত হওয়ার জন্য নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। পরীক্ষার হলে যেকোনো ধরনের ইলেকট্রনিক ডিভাইস যেমন মোবাইল ফোন, ক্যালকুলেটর ও স্মার্টওয়াচ নিষিদ্ধ করা হয়েছে।

যারা ইতোমধ্যে প্রবেশপত্র ডাউললোড করার পর হারিয়ে ফেলেছেন কেবল তারাই আগামী ২০ এপ্রিল থেকে পুনরায় প্রবেশপত্র ডাউনলোড করতে পারবেন। প্রার্থীদের আসন বিন্যাস প্রকাশ করা হয়েছে। বাংলাদেশ ব্যাংকের ওয়েবসাইটে গিয়ে আসন বিন্যাস দেখার জন্য প্রার্থীদের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

বাংলাদেশ ব্যাংকের মহাব্যবস্থাপক (হিউম্যান রিসোর্স ম্যানেজমেন্ট-১) নূর-উন-নাহার স্বাক্ষরিত এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে বিষয়টি জানানো হয়েছে।

Facebooktwittergoogle_plusredditpinterestlinkedinmail

২৫৮ জনের চাকরি পল্লী সঞ্চয় ব্যাংকে স্থানান্তরে হাইকোর্টের রায়

নিজস্ব প্রতিবেদক,১৩ এপ্রিল: একটি বাড়ি একটি খামার প্রকল্পে কর্মরত ২৫৮ জন মাঠ সহকারীর চাকরি পল্লী সঞ্চয় ব্যাংকে স্থানান্তরে নির্দেশনা দিয়ে রায় দিয়েছেন হাইকোর্ট। বৃহস্পতিবার (১২এপ্রিল) পল্লী সঞ্চয় ব্যাংকে স্থানান্তরের নির্দেশনা চেয়ে দায়ের করা একটি রিট পিটিশনের চূড়ান্ত শুনানী শেষে বিচারপতি মোঃ আশফাকুল ইসলাম ও বিচারপতি কে.এম.কামরুল কাদের এর সমন্বয়ে গঠিত ডিভিশন বেঞ্চ রিটকারীদের চাকরি পল্লী সঞ্চয় ব্যাংকে স্থানান্তরের নির্দেশনা প্রদান করে রীট পিটিশনটি চূড়ান্ত নিষ্পত্তি করেন।

রিট আবেদনকারীদের পক্ষে মামলাটি শুনানী করেন- সুপ্রীম কোর্টের আইনজীবী এ্যাডভোকেট মোহাম্মদ ছিদ্দিক উল্যাহ মিয়া এবং রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন-ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল খন্দকার বশির আহমেদ ও আল আামীন সরকার।

রিটকারীদের আইনজীবী এ্যাডভোকেট মোহাম্মদ ছিদ্দিক উল্যাহ মিয়া বলেন, স্থানীয় সরকার, পল্লী ও সমবায় মন্ত্রণালয়ের অধীনে ২০০৯ সাল থেকে ‘‘একটি বাড়ি একটি খামার নামে প্রকল্প চালু করে। পরবর্তীতে পল্লী এলাকার দরিদ্র ও সুবিধাবঞ্চিত মানুষের সঞ্চয় ও অর্জিত অর্থ লেনদেন ও রক্ষণাবেক্ষণ, ঋণ ও অগ্রিম প্রদান এবং বিনিয়োগের জন্য পল্লী সঞ্চয় ব্যাংক নামে একটি বিশেষায়িত ব্যাংক প্রতিষ্ঠা লক্ষে পল্লী সঞ্চয় ব্যাংক আইন, ২০১৪ পাস করা হয়।

২০১৪ ইং সালের ৮ ই জুলাই উক্ত আইনটি গেজেট আকারে প্রকাশ করা হয়। এ লক্ষ্যে পল্লী সঞ্চয় ব্যাংক চাকরি প্রবিধানমালা-২০১৫ চূড়ান্ত করে অর্থ মন্ত্রণালয়ের ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগ। পরবর্তীতে একটি বাড়ি একটি খামার প্রকল্পে কর্মরত মাঠ সহকারী দের পল্লী সঞ্চয় ব্যাংকে স্থানান্তর করে ২০১৬ সালের ২৮ জুন ও ৩ আগষ্ট পৃথক দুটি অফিস আদেশ জারি করেন সংশ্লিষ্ট ব্যাংক। একটি বাড়ি একটি খামার প্রকল্পে কর্মরত মাঠ সহকারীদের পল্লী সঞ্চয় ব্যাংকে স্থানান্তর হওয়ার পর ২০১৬ সালের জুলাই মাসের বেতনও প্রদান করা হয় উক্ত ব্যাংক হতে।

২০১৬ সালে ৩১ ইং অক্টোবর একটি বাড়ি একটি খামার প্রকল্প চলমান থাকবে বলে পূনরায় অফিস আদেশ জারি করেন ব্যাংক কর্তপক্ষ। উক্ত আদেশের পর পল্লী সঞ্চয় ব্যাংকে স্থান্তারের নির্দেশনা চেয়ে হাইকোর্টে রীট পিটিশনটি দায়ের করেন ভুক্তভুগি মাঠ সহকারীরা। উক্ত রুলের চূড়ান্ত শুনানী শেষে গগতকাল বৃহস্পতিবার হাইকোর্ট তাদের পক্ষে রায় দেন।

রিটকারীগণ হলেন সিরাজগঞ্জ জেলার শাহজাদপুর উপজেলার মোঃ মনিরুজ্জামান, মোঃ শাহিন আলম, মোঃ জহিরুল ইসলাম, মোঃ আলমগীর হোসাইন, মোঃ ফরিদুল ইসলাম ও উল্লাপাড়া উপজেলার মোঃ গোলাম মোস্তফা, কৃষ্ণা চন্দ্র, মোঃ নজরুল ইসলামসহ একটি বাড়ি একটি খামার প্রকল্পে কর্মরত ২৫৮ জন মাঠ সহকারী।

Facebooktwittergoogle_plusredditpinterestlinkedinmail

আর্থিক সংকটের কারণে নিয়োগ বাতিল – বাংলাদেশ চিনি ও খাদ্য শিল্প করপোরেশন।

ডেস্ক,২ এপ্রিল: তিন পদে ৬৯ জন কর্মকর্তা নিয়োগ দিতে প্রায় পাঁচ বছর আগে বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করেছিল বাংলাদেশ চিনি ও খাদ্য শিল্প করপোরেশন। প্রার্থীরা সেই পদে আবেদনও করেছিলেন। দীর্ঘ সময়ে নিয়োগের লিখিত পরীক্ষা হয়েছে। সেখান থেকে প্রার্থী বাছাই করে মৌখিক পরীক্ষাও নেওয়া হয়েছে। কিন্তু চূড়ান্ত নিয়োগ হবে—এমন সময় নিয়োগ বাতিল করল কর্তৃপক্ষ। প্রতিষ্ঠানটি থেকে বলা হচ্ছে, আর্থিক সংকটের কারণে নিয়োগ বাতিল করা হয়েছে।

বাংলাদেশ চিনি ও খাদ্য শিল্প করপোরেশনের এ ধরনের বিজ্ঞপ্তি দিয়ে নিয়োগ বাতিল করাকে অন্যায় বলে মনে করেন সাবেক মন্ত্রিপরিষদ সচিব আলী ইমাম মজুমদার। তিনি বলেন, ওই প্রতিষ্ঠান নিয়োগপ্রার্থীদের সঙ্গে এ ধরনের কাজ করতে পারে না। এটা তাঁদের সঙ্গে অন্যায় হয়েছে।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, বাংলাদেশ চিনি ও খাদ্য শিল্প করপোরেশন ২০১৩ সালে অক্টোবর ও নভেম্বরে দৈনিক যুগান্তর, ইত্তেফাক ও ডেইলি স্টার—এই তিনটি দৈনিক পত্রিকায় সহকারী ব্যবস্থাপক (উৎপাদন), সহকারী ব্যবস্থাপক (সম্প্রসারণ/বীজ পরিদর্শন) এবং সহকারী ব্যবস্থাপক (জেনারেল ক্যাডার)—এই তিন পদে ৬৯ জনকে নেওয়ার নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করে। এসব পদে কয়েক হাজার প্রার্থী আবেদন করেন। পরে ২০১৪ সালের ১৪ নভেম্বর লিখিত পরীক্ষা এবং ২০১৫ সালের সেপ্টেম্বরে মৌখিক পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। এরপর প্রথম শ্রেণির এই তিনটি পদের নিয়োগের ফলাফল ঝুলে আছে দীর্ঘ দিন ধরে।

চাকরিপ্রার্থীরা জানান, তাঁদের প্রতিবাদের ফলে দফায় দফায় ফলাফল প্রকাশের তারিখ দেওয়া হলেও তা প্রকাশ করা হয়নি। এরপর চাকরিপ্রার্থীরা ক্ষুব্ধ হয়ে গত ৫ মার্চ চিনি শিল্প ভবন ঘেরাও ও অবস্থান ধর্মঘট পালন করেন। কিন্তু নিয়োগ চূড়ান্ত না করে উল্টো নিয়োগ বাতিল করে দেয় কর্তৃপক্ষ। গত বুধবার এ নিয়োগ বাতিলসংক্রান্ত এক বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করে চিনি ও খাদ্য শিল্প করপোরেশন।

একাধিক ভুক্তভোগী প্রার্থী  বলেন, তাঁরা এই পদে আবেদন থেকে শুরু করে চূড়ান্ত নিয়োগ পাওয়া পর্যন্ত প্রায় পাঁচ বছর ধরে অপেক্ষা করছেন। অনেকে ঢাকার বাইরে থেকে এসে পরীক্ষায় অংশ নিয়েছিলেন। লিখিত পরীক্ষা ও মৌখিক পরীক্ষা দিলেন। দীর্ঘদিন ধরে নিয়োগের আশায় বসে আছেন। কিন্তু এখন শোনেন, সেটি বাতিল। কোনো সভ্য দেশে এটা হতে পারে? এটি মেনে নেওয়া যায় না।

তাঁরা বলেন, চাকরি পাওয়ার জন্য ২০ থেকে ২২ বার তাদের সঙ্গে দেখা করেছেন। ওই সময় কর্তৃপক্ষ বলেছিল, তাদের আরও লোক দরকার। জনবলের অভাবে তারা মিলগুলো চালাতে পারছে না। আর এখন বলছে টাকার অভাব। এটা কখনো গ্রহণযোগ্য হতে পারে না। এই নিয়োগ বাতিল নিয়ম অনুসারে হয়নি বলেও অভিযোগ তাঁদের।

আরেক প্রার্থী বলেন, ‘দীর্ঘ দিন ধরে আমরা নানা প্রক্রিয়ার মধ্য দিয়ে চূড়ান্ত নিয়োগ পেতে যাব, সেই সময় নিয়োগ বাতিল করা হলো। এটা কী ধরনের অন্যায়?

প্রার্থীরা জানান, তাঁদের অনেকের চাকরির বয়স শেষ হয়ে গেছে। কেউ ৩০ বছর বয়সে এই চাকরির আবেদন করেছিলেন। এখন তাঁদের বয়স ৩৫ পেরিয়ে গেছে। এই নিয়োগ না হলে তাদের বেকার থাকতে হবে।

করপোরেশনের চিফ অব পার্সোনেল মো. আবুল রফিক বলেন, ‘আমাদের প্রতিষ্ঠানের অবস্থা ভালো না। আমরা আর্থিক সমস্যায় জর্জরিত। দুই-তিন মাস ধরে আর্থিক সংকটের কারণে আমাদের বেতন বকেয়া পড়ে আছে। চাষিদের আখের দাম দিতে পারছি না। আবার চিনির বাজারও ভালো না। সব মিলে নিয়োগ দিলে তাঁরা আর্থিক সমস্যায় পড়বেন। এই জন্য আমাদের বোর্ড সভায় ওই নিয়োগ বাতিল করা হয়েছে।’ এভাবে একটি বিজ্ঞপ্তি দিয়ে নিয়োগ বাতিল করতে পারেন কি না জানতে চাইলে তিনি এর কোনো সঠিক উত্তর দিতে পারেননি।

Facebooktwittergoogle_plusredditpinterestlinkedinmail

ফায়ার সার্ভিসে ৪৮০ নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি

দুর্যোগ-দুর্ঘটনায় জীবন ও সম্পদ রক্ষার মাধ্যমে নিরাপদ বাংলাদেশ গড়ে তোলার লক্ষ্যে নিয়ে কাজ করছে ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স অধিদফতর। অগ্নিকাণ্ডসহ সব দুর্যোগ মোকাবেলা করে থাকে এই প্রতিষ্ঠানের সদস্যরা। সম্প্রতি এই প্রতিষ্ঠানের জনবল নিয়োগের জন্য বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করেছে। বিজ্ঞপ্তিটি www.fireservice.gov.bd এই ঠিকানায় পাওয়া যাবে। এখানে শুধুমাত্র অবিবাহিত বাংলাদেশি নাগরিকরা আবেদন করতে পারবেন
কোন পদে কতজন : বিজ্ঞপ্তি অনুযায়ী স্টেশন অফিসার পদে ৬২ জন। স্টাফ অফিসার পদে ২৪ জন। জুনিয়র প্রশিক্ষক পদে ১ জন। ফায়ারম্যান পদে ৩৮৭ জন। ডুবুরি পদে ১ জন এবং নার্সিং অ্যাটেন্ডেট পদে ৫ জনসহ মোট ৪৮০ জনকে নিয়োগ দেয়া হবে।
আবেদনের যোগ্যতা : ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স অধিদফতর বিজ্ঞপ্তি অনুযায়ী স্টেশন অফিসার, স্টাফ অফিসার ও জুনিয়র প্রশিক্ষক পদে নিয়োগের জন্য প্রার্থীর কোন স্বীকৃত বিশ্ববিদ্যালয় হতে স্নাতক বা সমমানের ডিগ্রি থাকতে হবে। ফায়ারম্যান, ডুবুরি ও নার্সিং অ্যাটেন্ডেট পদে নিয়োগের জন্য প্রার্থীকে কোনো স্বীকৃত বোর্ড হতে এসএসসি বা সমমানের পাস হতে হবে। এছাড়াও এই পদগুলোতে নিয়োগের জন্য প্রার্থীর উচ্চতা হতে হবে ৫ ফুট ৪ ইঞ্চি এবং বুকের মাপ ৩২ ইঞ্চি। ত্রুটিমুক্ত শরীরিক গঠনসহ ওজন হতে হবে ১১০ পাউন্ড। ফায়ারম্যান পদে নিয়োগের জন্য ড্রাইভিং লাইসেন্সধারীদের অগ্রাধিকার দেয়া হবে।
আবেদনকারীর বয়স: আবেদনকারীর বয়স ১ মার্চ, ২০১৮ তারিখে ১৮ থেকে ৩০ বছর হতে হবে। তবে মুক্তিযোদ্ধা কোটায় বয়সসীমা ৩২ বছর পর্যন্ত শিথিলযোগ্য। এক্ষেত্রে কোনো এফিডেভিট গ্রহণযোগ্য নয়।
আবেদন প্রক্রিয়া: এই পদেগলোতে নিয়োগের জন্য অনলাইনে আবেদন করতে হবে। এ জন্য প্রার্থীকে http://fscd.teletalk.com.bd এর মাধ্যমে নির্ধারিত ফরম পূরণ করে আবেদন করতে হবে। অনলাইনে আবেদনপত্র যথাযথভাবে পূরণপূর্বক নির্দেশমতো ছবি এবং স্বাক্ষর আপলোডের পর আবেদনপত্র সাবমিশন সম্পন্ন হলে কম্পিউটারে ছবিসহ Application Preview দেখা যাবে। নির্ভুলভাবে আবেদনপত্র সাবমিট করা হলে প্রার্থী ইউজার আইডিসহ ছবি এবং স্বাক্ষরযুক্ত একটি অ্যাপ্লিকেন্টস কপি পাবেন। অ্যাপ্লিকেন্টস কপি ডাউনলোড ও প্রিন্ট করে সংরক্ষণ করতে হবে। ইউজার আইডি নম্বরটি ব্যবহার করে ৭২ ঘণ্টার মধ্যে টেলিটকের মাধ্যমে পরীক্ষা ফি বাবদ স্টেশন অফিসার, স্টাফ অফিসার ও জুনিয়র প্রশিক্ষক পদের জন্য ১০০ টাকা অন্যসব পদের জন্য ৫০ টাকা এসএমএস করে পাঠাতে হবে। এসএমএস পাঠাতে প্রথমে FSCD<স্পেস> UserID লিখে ১৬২২২ নম্বরে সেন্ড করতে হবে। এরপর ফিরতি এসএমএসে তাকে একটি PIN নম্বর দেয়া হবে। সেই PIN নম্বর দিয়ে তাকে আরও একটি এসএমএস পাঠাতে হবে। এজন্য প্রার্থীকে FSCD <স্পেস> Yes <স্পেস> PIN লিখে আবার ১৬২২২ নম্বরে এসএমএস পাঠাতে হবে। পরে মোবাইল ব্যালেন্স থেকে ফি কেটে ফিরতি এসএমএসে UserID ও Password জানিয়ে দেয়া হবে। পরবর্তী ধাপের জন্য এটি সংরক্ষণ করতে হবে, যা দিয়ে পরীক্ষার প্রবেশপত্র ডাউনলোড করতে হবে।
আবেদন করতে পারবেন : ইতিমধ্যে শুরু হয়েছে আবেদন প্রক্রিয়া অনলাইনে আবেদন করা যাবে আগামী ১৫ এপ্রিল, বিকাল ৫টা পর্যন্ত।
বেতন ভাতা: প্রার্থীদের আবেদন যাচাই-বাছাইয়ের পরে লিখিত ও মৌখিক পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করতে হবে। চূড়ান্তভাবে নির্বাচিতরা জাতীয় বেতন স্কেল ২০১৫ অনুযায়ী বেতন ভাতা পাবেন। এক্ষেত্রে স্টেশন অফিসার, স্টাফ অফিসার ও জুনিয়র প্রশিক্ষক পদে নিয়োগ প্রাপ্তরা ১১ হাজার টাকা থেকে ২৬ হাজার ৫৯০ টাকা। ফায়ারম্যান, ডুবুরি ও নার্সিং অ্যাটেন্ডেট পদে নিয়োগ প্রাপ্তরা ৮ হাজার ৮০০ টাকা থেকে ২১ হাজার ৩১০ টাকা হারে বেতন ভাতা পাবেন। এছাড়াও বিধি অনুযায়ী অন্যান্য সুবিধা থাকবে।
Facebooktwittergoogle_plusredditpinterestlinkedinmail

পল্লী সঞ্চয় ব্যাংকে ৪৮৫ নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি

ক্যাশ সহকারী পদে ৪৮৫ জন লোক চেয়ে বিজ্ঞপ্তি দিয়েছে পল্লী সঞ্চয় ব্যাংক। অনলাইনে আবেদন করা যাবে ২৯ মার্চ পর্যন্ত।

► লিখিত পরীক্ষায় প্রশ্ন করা হবে বাংলা, ইংরেজি, গণিত ও সাধারণ জ্ঞান থেকে

► মৌখিক পরীক্ষায় ব্যাংকিং খাত, অর্থনীতি, সমসাময়িক বিষয়, নিজ জেলা, নিজের সম্পর্কে জানতে চাওয়া হতে পারে

অনেকরই পছন্দের তালিকায় শীর্ষে থাকে ব্যাংক জব। ভালো বেতন কাঠামো ও সম্মান উভয়ই মেলে এ পেশায়। এইচএসসির পরই কাজের সুযোগ দিতে নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি দিয়েছে পল্লী সঞ্চয় ব্যাংক। ৪৮৫ জন ক্যাশ সহকারী নেবে ব্যাংকটি। নিয়োগ দেওয়া হবে দেশের ৪৮৫টি উপজেলায়। বিজ্ঞপ্তিটি প্রকাশিত হয়েছে ১৩ মার্চ বাংলাদেশ প্রতিদিন পত্রিকায়। অনলাইনে পাওয়া যাবে পল্লী সঞ্চয় ব্যাংকের ওয়েবসাইটে (www.pallisanchaybank.gov.bd)। সরাসরি বিজ্ঞপ্তিটি পাওয়া যাবে drive.google.com/file/d/ 1IDnSs4cqI_SBLBOijhSk30R-5SUGoIOg/view ঠিকানায় ও goo.gl/HHAXCC লিংকে।

Facebooktwittergoogle_plusredditpinterestlinkedinmail

দৈনিক ১ ঘন্টা কাজ করে মাসে ৫/১০ হাজার টাকা আয় করুন

দৈনিক শিক্ষাবার্তা পত্রিকায় সাংবাদিক নিয়োগ

শিক্ষকতার পাশাপাশি অবসর সময়ে সাংবাদিকতায় কাজ করে নিজেকে তৈরী করুন।

শিক্ষা বিষয়ক দেশের একমাত্র অনলাইন জাতীয় পত্রিকা দৈনিকশিক্ষাবার্তা  http://shikkhabarta.com সাংবাদিকতায় আকর্ষণীয় ক্যারিয়ার গড়ার সুযোগ দিচ্ছে। যারা শুদ্ধভাবে বাংলা ও ইংরেজি লিখতে, বলতে ও পড়তে পারেন এবং সোশ্যাল মিডিয়ায় এ্যাকটিভ শুধু তাদেরকেই খুঁজছে দৈনিকশিক্ষাবার্তা পত্রিকা।

এর জন্য ঢাকা সহ সারাদেশে সাংবাদিক, ও বিজ্ঞাপন প্রতিনিধি আবশ্যক । শিক্ষাগত যোগ্যতা নুন্যতম এইচ.এস.সি। শিক্ষকদের অগ্রাধিকার।

বেতন: মাসিক ৫০০০ টাকা ।

আবেদন পাঠানোর ইমেইল: info@shikkhabarta.com, shikkhabarta@gmail.com
সরাসরী আবেদন গ্রহন যোগ্য নই

যোগাযোগ : বরাবর, নির্বাহী সম্পাদক. “দৈনিক শিক্ষাবার্তা” ।
মোবাইলঃ ০১৫৫৭৬৩১০৯৭,

আবেদনের শেষ তারিখঃ 15/4/2018

 

Facebooktwittergoogle_plusredditpinterestlinkedinmail

জাতীয়করন শিক্ষকতায় পিএসসি উত্তীর্ণ হতে হবে: প্রধানমন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক,১৫ মার্চ: প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, এখন থেকে যেসব মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা প্রতিষ্ঠান সরকারি সুযোগ-সুবিধার আওতায় আসবে, সেসব শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে শিক্ষক হতে হলে সরকারি কর্মকমিশন (পাবলিক সার্ভিস কমিশন-পিএসসি)পরীক্ষায় অংশ নিয়ে উত্তীর্ণ হতে হবে। অন্যথায় প্রতিষ্ঠান সরকারি সুযোগ-সুবিধা পেলেও শিক্ষকরা পাবেন না।

বুধবার সন্ধ্যায় প্রধানমন্ত্রীর সরকারি বাসভবন গণভবনে অনুষ্ঠিত আওয়ামী লীগের কার্যনির্বাহী সংসদের জরুরি সভায় তিনি এসব কথা বলেন। সভায় উপস্থিত দলটির একাধিক নেতা এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

সূত্র জানায়, সম্প্রতি শিক্ষকদের বিভিন্ন সুযোগ-সুবিধা সংক্রান্ত আন্দোলনের বিষয়টি সভার আলোচনা আসলে প্রধানমন্ত্রী এসব কথা বলেন। তিনি বলেন, সামনে নির্বাচন এই ভয়-ভীতি দেখিয়ে অযৌক্তিক দাবি আদায় করা যাবে না। মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিকের শিক্ষকদের সরকারি সুযোগ-সুবিধা পেতে হলে পিএসসির মাধ্যমে নিয়োগপ্রাপ্ত হতে হবে।

Facebooktwittergoogle_plusredditpinterestlinkedinmail

খাদ্য মন্ত্রণালয়ের শূন্য পদে দ্রুত লোক নিয়োগের তাগিদ জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদ,১৫মার্চ:

খাদ্য মন্ত্রণালয় ও খাদ্য অধিদফতরের অধীনে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের শূন্য পদে দ্রুত লোকবল নিয়োগের সুপারিশ করেছে সংসদীয় কমিটি। শূন্যপদের কারণে কাজে ধীরগতি দেখা দিচ্ছে জানিয়ে এ নিয়োগের সুপারিশ করে কমিটি।

বৃহস্পতিবার জাতীয় সংসদ ভবনে অনুষ্ঠিত খাদ্য মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির ২২তম বৈঠকে এ সুপারিশ করা হয়।

বৈঠক শেষে কমিটির সভাপতি মো. আবদুল ওয়াদুদ বলেন, দীর্ঘদিন ধরে বলা হচ্ছে খাদ্য মন্ত্রণালয় ও খাদ্য অধিদফতরের বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের শূন্য পদে লোকবল নিয়োগ দেয়া প্রক্রিয়াধীন। বাস্তবে তা দেখা যাচ্ছে না। তাই দ্রুত লোকবল নিয়োগের সুপারিশ করেছে কমিটি। মন্ত্রণালয়কে এ ব্যাপারে ব্যবস্থা নেয়ার জন্য বলা হয়েছে।

বৈঠকে নিরাপদ খাদ্য কর্তৃপক্ষের কার্যক্রমের অগ্রগতি সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা হয় এবং দেশের জনগণের জন্য নিরাপদ খাদ্য নিশ্চিত করতে গঠিত কমিটির কার্যক্রম জোরদার, খাদ্যে ভেজালরোধে ব্যবস্থা গ্রহণ, গঠিত মোবাইল কোর্টের কার্যক্রম জোরদার এবং দায়ীদের চিহ্নিত করে ব্যবস্থা গ্রহণের সুপারিশ করে কমিটি।

বৈঠকে নির্মণাধীন সাইলো ও খাদ্য গুদাম নির্মাণের অগ্রগতি নিয়ে আলোচনা হয়। নির্মাণাধীন সাইলো ও খাদ্য গুদামগুলোর নির্মাণ দ্রুত শেষ করার পাশাপাশি অধিক পরিমান খাদ্য মজুদ রাখার সুপারিশ করা হয়।

বৈঠক আরও উপস্থিত ছিলেন কমিটির সদস্য ও খাদ্যমন্ত্রী মো. কামরুল ইসলাম, সদস্য আ ক ম বাহাউদ্দীন, মো. হাসিবুর রহমান স্বপন, খন্দকার আবদুল বাতেন এবং বেগম শিরিন নাঈম।

Facebooktwittergoogle_plusredditpinterestlinkedinmail

পরিবার পরিকল্পনা অধিদপ্তরে নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি

নিজস্ব প্রতিবেদক,২৮ ফেব্রুয়ারী : মিডওয়াইফ নেবে পরিবার পরিকল্পনা অধিদপ্তর। মৌলভীবাজার জেলার শ্রীমঙ্গল ও কমলগঞ্জ উপজেলার ১১টি ইউনিয়ন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ কেন্দ্র এবং মৌলভীবাজার মা ও শিশু কল্যাণ কেন্দ্রের জন্য অস্থায়ী ভিত্তিতে তাদের নিয়োগ দেওয়া হবে।

যোগ্যতা:
পদটিতে আবেদনের জন্য তিন বছর মেয়াদী ডিপ্লোমা ইন মিডওয়াইফারী কোর্স উত্তীর্ণ এবং বাংলাদেশ নার্সিং ও মিডওয়াইফারী কাউন্সিলের (বিএনএমসি) সার্টিফিকেটধারী হতে হবে। প্রার্থীকে কম্পিউটার পরিচালনা, ইমেইল, ইন্টারনেট ব্রাউজিংয়ে দক্ষ হতে হবে। ৮ মার্চ ২০১৮ তারিখে সাধারণ প্রার্থীদের বয়স অনূর্ধ্ব ৩০ বছর, মুক্তিযোদ্ধার সন্তান এবং তাদের পোষ্যদের সর্বোচ্চ ৩২ বছর হতে হবে।

আবেদনের নিয়ম:  আগ্রহী প্রার্থীদের আবেদনপত্র, হালনাগাদ বায়োডাটা এবং প্রয়োজনীয় সার্টিফিকেটের স্ক্যান কপি ইমেইল করতে হবে

Facebooktwittergoogle_plusredditpinterestlinkedinmail

Responsive WordPress Theme Freetheme wordpress magazine responsive freetheme wordpress news responsive freeWORDPRESS PLUGIN PREMIUM FREEDownload theme free