ক্যাম্পাস

বৃহস্পতিবার সারা দেশে ওষুধের দোকান বন্ধ রাখার কর্মসূচি

শিক্ষাবার্তা ডেস্ক: বাংলাদেশ কেমিস্ট অ্যান্ড ড্রাগিস্ট সমিতি (বিসিডিএস) আগামী বৃহস্পতিবার সকাল থেকে রাত ১০টা পর্যন্ত দেশের সব ওষুধের দোকান বন্ধ রাখার কর্মসূচি দিয়েছে।
সাজাপ্রাপ্ত ওষুধ ব্যবসায়ীদের মুক্তির দাবিতে রোববার দিনভর পুরান ঢাকার মিটফোর্ড রোডের ওষুধ ব্যবসায়ীরা দোকান বন্ধ করে প্রায় দিনভর বিক্ষোভ করেন। গ্রেফতারকৃতদের মুক্তি এবং জব্দ করা ওষুধ ফেরত না দেয়া পর্যন্ত ধর্মঘট চলবে বলেও জানান তারা। তবে দোকান খুলতে আজ সম্মত হয়েছেন ওষুধ ব্যবসায়ীরা।
বৃহস্পতিবারের মধ্যে গ্রেফতারকৃতদের মুক্তি, জব্দ করা ওষুধ ফেরত এবং সরকার আলোচনায় না বসলে অনির্দিষ্টকালের জন্য সারা দেশের সব ওষুধের দোকান বন্ধ করে দেয়ার হুমকি দিয়েছেন আন্দোলনকারীরা।
গত শনিবার পুরান ঢাকার মিটফোর্ড এলাকার নয়টি মার্কেটে ভেজাল ও মেয়াদোত্তীর্ণ ওষুধ বিক্রির অভিযোগে ১০৩ জনকে গ্রেফতার করে র্যা ব। তাদের মধ্যে ২০ জনকে এক বছর করে কারাদণ্ড দেন র্যা বের ভ্রাম্যমাণ আদালত। বাকি ৮৩ জনকে সোয়া কোটি টাকা জরিমানা করা হয়। এ সময় ২৮টি ওষুধের দোকান সিলগালা করে দেয়া হয়। একই দিন রাতে ৮২ জন ওষুধ ব্যবসায়ী ভ্রাম্যমাণ আদালতে প্রায় সোয়া কোটি টাকা জরিমানা দিয়ে মুক্তি পান। রোববার রফিকুল ইসলাম নামের আরেক ব্যবসায়ী দুই লাখ টাকা জরিমানা দিয়ে মুক্তি পেয়েছেন ।

Facebooktwittergoogle_plusredditpinterestlinkedinmail

আজ থেকে বিদ্যুৎ আমদানি শুরু ভারত থেকে

কুষ্টিয়া, ২৭ সেপ্টেম্বর : ভারত থেকে প্রথমবারের মতো বিদ্যুৎ আমদানি শুরু হয়েছে। আজ শুক্রবার সকাল পৌনে ১১টায় কুষ্টিয়ার ভেড়ামারায় এই বিদ্যুৎ আমদানি কার্যক্রম শুরু হয়। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আগামী ৫ অক্টোবর কুষ্টিয়ার ভেড়ামারায় গিয়ে বিদ্যুৎ আমদানির আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করবেন বলে আশা করা হচ্ছে।

আন্তঃসংযোগ প্রকল্পের ব্যবস্থাপক মো. আলমগীর হোসেন জানান, পরীক্ষামূলকভাবে আগামী ৩০ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত প্রতিদিন ৫০ মেগাওয়াট করে বিদ্যুৎ জাতীয় গ্রিডে যোগ হবে।

অন্যদিকে ভারতে বসে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে এই উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে যোগ দেবেন সে দেশের প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিং। তিনি ভারত থেকে বিদ্যুৎ সঞ্চালন কার্যক্রমের উদ্বোধন করবেন।

এর আগে পাওয়ার গ্রিড কোম্পানি অব বাংলাদেশের (পিজিসিবি) ব্যবস্থাপনা পরিচালক চৌধুরী আলমগীর হোসেন জানিয়েছেন, এ মাসের মধ্যেই সিস্টেমের পরীক্ষা শেষ হবে। শুরুতে কম বিদ্যুৎ পাওয়া গেলেও অক্টোবরের শেষ নাগাদ আড়াইশ’ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ পাওয়া যাবে। নভেম্বরের মধ্যে তা বেড়ে ৫০০ মেগাওয়াটে উন্নীত হবে।

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, ভারত থেকে নভেম্বরে ৫০০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ এলে লোডশেডিং অনেকটাই কমে যাবে। পাশাপাশি ভারতের বিদ্যুৎ এলে ডিসেম্বরে সেচ মৌসুম শুরু হলেও লোডশেডিং সহনীয় পর্যায়ে থাকবে।

পরীক্ষামূলকভাবে বিদ্যুৎ সঞ্চালনের লক্ষ্যে ভারতের সরকারি বিদ্যুৎ সংস্থা ন্যাশনাল থার্মাল পাওয়ার লিমিটেডের (এনটিপিসি) সঙ্গে গত সপ্তাহে একটি সম্পূরক চুক্তি করেছে পিডিবি।

ক্ষমতায় আসার পর বর্তমান সরকার বিদ্যুৎ সংকট মোকাবেলায় নতুন নতুন কেন্দ্র স্থাপনের পাশাপাশি প্রতিবেশী দেশ ভারত থেকে বিদ্যুৎ কেনার উদ্যোগ নেয়।

প্রথম পর্যায়ে ভারতের সরকারি খাত থেকে আড়াইশ’ মেগাওয়াট এবং পরে বেসরকারি খাত থেকে আরও আড়াইশ’ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ কিনতে এশীয় উন্নয়ন ব্যাংকের (এডিবি) অর্থায়নে ২০১১ সালে উভয় দেশে প্রয়োজনীয় অবকাঠামো নির্মাণকাজ শুরু হয়।

Facebooktwittergoogle_plusredditpinterestlinkedinmail

প্রধানমন্ত্রীর সফরের তারিখ পরিবর্তন

আহমেদ নাসিম আনসারী, ২৪ সেপ্টেম্বর:প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ঝিনাইদহ সফর পিছিয়েছে। ৫ অক্টোবর নয়, ৮ অক্টোবর আসছেন তিনি।

এখানে তিনি বেশ কিছু উন্নয়নমূলক কাজের উদ্বোধন ও ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করবেন। সংশোধিত সফরসূচি প্রধানমন্ত্রীর দপ্তর থেকে ঝিনাইদহ জেলা প্রশাসকের দপ্তরে পাঠনো হয়।

ঝিনাইদহের নেজারত ডেপুটি কালেক্টর (এনডিসি) মাসুম আলী বেগ জানান, রাষ্ট্রীয় গুরুত্বপূর্ণ কাজ থাকায় প্রধানমন্ত্রী ৮ অক্টোবর ঝিনাইদহে আসছেন।

Facebooktwittergoogle_plusredditpinterestlinkedinmail

ঝিনাইদহে অটো রাইচ মিলের ব্রয়লার বিস্ফোরণে ২ শ্রমিক নিহত, আহত ২

ঝিনাইদহ প্রতিনিধি, ২০ সেপ্টে:: ঝিনাইদহ সদর উপজেলার ডাকবাংলা বাজারের ত্রিমোহনী এলাকায় বৃহস্পতিবার রাতে ইফাদ অটো রাইচ মিলের ব্রয়লার বিস্ফোরিত হয়ে দুই শ্রমিক নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় আহত হয়েছেন আরও দুই শ্রমিক।

নিহতরা হলেন, শৈলকুপা শহরের তক্কেল হোসেনের ছেলে আসলাম হোসেন (৪০) ও ঝিনাইদহ সদর উপজেলার নওদাপাড়া গ্রামের বাসিন্দা সফিউদ্দীন (৩৫)।

পুলিশ ও এলাকাবাসী জানান, রাত সাড়ে ১০টার দিকে পানি স্বল্পতার কারণে ডাকবাংলা বাজারের নারায়নপুর ত্রিমোহনী এলাকায় স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান আলাউদ্দীন আল মামুনের অটো রাইচ মিলের ব্রয়লার প্রচন্ড শব্দে বিস্ফোরিত হয়। এ সময় অটো রাইচ মিলের একটি গোডাউনের ছাদ ধ্বসে পড়লে ভবনের নিচে চাপা পড়েন কয়েকজন শ্রমিক। খবর পেয়ে কুষ্টিয়া ও ঝিনাইদহ থেকে ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা উদ্ধার কাজে অংশ নেন। এলাকাবাসীও তাদের সাথে উদ্ধার কাজে যোগ দেন। রাত ১২টার দিকে উদ্ধার কাজ শেষ হয়।

ঝিনাইদহ ফায়ার সার্ভিসের স্টেশন অফিসার লুৎফর রহমান খান জানান, ভবনের নিচ থেকে চাপা পড়া দুইজন শ্রমিকের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। আব্দুল্লাহ ও খায়রুল নামে দুইজনকে মারাত্মক দগ্ধ অবস্থায় উদ্ধার করে ঝিনাইদহ সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়। পরে আব্দুল্লাহকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে রেফার্ড করা হয়েছে। তবে কি কারণে দুর্ঘটনা ঘটেছে তা তদন্ত ছাড়া বলা যাচ্ছে না বলে তিনি জানান।

তবে মিলের মালিক স্থানীয় সাগান্না ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আলাউদ্দীন আল মামুনকে দুর্ঘটনাস্থলে পাওয়া যায়নি।

এদিকে হতাহতের খবর পেয়ে পুলিশের খুলনা রেঞ্জের ডিআইজি এসএম মনিরুজ্জামান, ঝিনাইদহ জেলা প্রশাসক শফিকুল ইসলাম ও পুলিশ সুপার আলতাফ হোসেন ঘটনাস্থলে পরিদর্শন করেন। এ ঘটনায় এখনও কোন মামলা হয়নি।

Facebooktwittergoogle_plusredditpinterestlinkedinmail

ঝিনাইদহে কষ্টি পাথরের ৩ বিষ্ণু মূর্তি উদ্ধার

আহমেদ নাসিম আনসারী,ঝিনাইদহ,২০ সেপ্টেম্বর:ঝিনাইদহের মহেশপুর থেকে বৃহস্পতিবার কষ্টি পাথরের ৩টি বিষ্ণু মূর্তি উদ্ধার করেছে বিজিবি। সীমাšতবর্তী মহেশপুর উপজেলার বাশবাড়িয়া ইউনিয়নের রুলি গ্রামের একটি বাড়ি থেকে এগুলো উদ্ধার করা হয় ।
যশোর ২৬ ব্যাটালিJhenidah kosti pathor newsয়নের সিও লে. কর্নেল মতিউর রহমান জানান, ভোরের দিকে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে বাঁশবাড়িয়া গ্রামে অভিযান চালিয়ে একটি বাড়িতে মূল্যবান কষ্টি পাথরের ৩টি বিষ্ণুমূর্তি পাওয়া যায়। তবে কাউকে গ্রেফতার করা যায়নি।

Facebooktwittergoogle_plusredditpinterestlinkedinmail

মহেশখালীতে ডায়রিয়া রোগির প্রকোপ, ফার্মেসীতে ঔষধ সংকট

অসীম দাশ,কক্সবাজার প্রতিনিধি,১৬ সেপ্টেম্বর: কক্সবাজারের মহেশখালী  স্বাস্থ্যকমপ্লেক্স এ ডায়রীয়া রোগী দিন দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে এবং রোগীদের স্যালাইন সংকটাপন্ন অবস্থা বিরাজ করছে। ডাক্তারা ডায়রীয়ার স্যালাইন প্রদানের প্রেসক্রিপশন প্রদান করলেও সকল ফার্মেসীতে স্যালাইন পাওয়া যাচ্ছে না। হাসপাতাল বা গ্রামের ফার্মেসীতে ডায়রীয়া স্যালাইন খুজতে হাহাকার হয়ে পড়েছে রোগীরা। হাসপাতাল সুত্রে জানাযায়, বেক্্িরমকো ,অরিয়ন, অপসোনিন ,কোম্পানী দেশে স্যালাইন তৈরী ও সরবরাহ করে থাকে। ফামের্সী মালিকরা জানান বাজারে ডায়রিয়া স্যালাইন সাপলায় কম ,সে জন্য স্যালাইন সংকটাপন্ন অবস্থা। ডায়রীয়ার একটি ৫শ মিলি স্যালাইন এর গায়ে এম আর পি মূল্য ৪৫টাকা, ১হাজার মিলি স্যালাইন এর গায়ে ৫৫-৬৫ টাকা। স্যালাইন সংকটের কারণ দেখিয়ে ফারমের্সী মালিকরা হাতিয়ে নিচ্ছে উচ্চ মূল্য ৪৫টাকার স্যালাইন ৮০টাকা,৫৫টাকার স্থলে ১২০-১৫০টাকা পর্যন্ত। অনেকে বিপুল পরিমান স্যালাইন বিভিন্ন স্থানে মজুদ রেখে উচ্ছ মূল্যে বিক্রয় করছে বলে অভিযোগ রয়েছে। এ অভিযোগটি প্রতিনিয়ত মহেশখালী হাসপাতাল সড়কে ফামের্সী মালিকদের বিরোদ্ধে। সাধারণ রোগিদের অভিযোগ স্যালাইন এর পাশাপাশি প্রেসক্রিপশনের ঔষুধ ফামেসী থেকে কিনতে গেলে অসাধু ঔষুধ বিক্রেতারা প্রদানের সময় নিন্মমানের ঔষুধ ধরিয়ে দেয় । হাসপাতালে ভর্তি রেজিষ্ট্রার্ড  সুত্রে জানাযায় ৫০জন রোগি ভর্তি হলে ২২জন রোগিই ডায়রিয়া আর ৪০ জন রোগির ক্ষেত্রে ১৬জন ।মহেশখালী হাসপাতালের চিকিৎসক ও পল্লী চিকিৎসক এবং ফামের্সী মালিক সুত্রে জানায় মহেশখালীতে গত এক সপ্তায় ডায়রিয়া রোগীর সংখ্যা দিন দিন বেডে চলছে।

Facebooktwittergoogle_plusredditpinterestlinkedinmail

সুন্দরবন রক্ষায় রামপাল তাপ বিদ্যুৎ কেন্দ্র নির্মানের প্রতিবাদ

ঝিনাইদহ প্রতিনিধি: ১৪ সেপ্টেম্বর: সুন্দরবন রক্ষায় রামপাল তাপ বিদ্যুৎ কেন্দ্র নির্মানের প্রতিবাদে শনিবার দুপুরে ঝিনাইদহ প্রেসক্লাবে এক আলোচনা সভা জাতীয় যুব পরিষদের সদস্য সচিব মো: হাবিবুর রহমানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত হয়।

আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে পাওয়ার সেলের সাবেক মহাপরিচালক বিডি রহমতুল্লাহ বলেন, মরাত্মক পরিবেশ দুষনের হাত থেকে চির সবুজ সুন্দরবনকে বাঁচানোর আন্দোলনে শরীক হওয়া দেশপ্রেমিক নাগরিকের কর্তব্য।

তিনি বলেন, সুন্দরবনের সন্নিকটে এই প্রকল্প বাস্তবায়নের মাধ্যমে দেশের স্বার্থ বিপন্ন করবে এবং ভারতীয় শাসক গোষ্ঠির স্বার্থ রক্ষা হবে। আর এই পরিকল্পনা বাস্তবায়নের মধ্য দিয়ে ধ্বংস করা হবে পৃথিবীর বৃহত্তম ম্যানগ্রোভ সুন্দরবনকে।

আলোচনা সভায় অন্যান্যের মধ্যে তেলগ্যাস খনিজ সম্পদ ও বিদ্যুৎ বন্দর রক্ষা জাতীয় কমিটির সদস্য প্রকৌশলী কল্লোল মোস্তফা, অধ্যক্ষ আমিনুর রহমান ুটুক, মাসুদ আহম্মদ সনজু, কাজী ফারুক, খায়রুল এনাম পিন্টু, এড আসাদ ও শাহাদত হোসেন বক্তব্য রাখেন।

আলোচনা সভায় অন্যান্য বক্তাগন দেশী বিদেশী বিশেষজ্ঞদের অভিমত তুলে ধরে বলেন, এই প্রকল্প বাস্তবায়িত হলে প্রতিদিন প্রায় ১৪২ টন বিষাক্ত সালফার ও ৮৫ টন নাইট্রোজেন ডাই অক্সাইড পশুর দনীতে ফেলা হবে।

পরিবেশ দুষনের মাধ্যমে সুন্দরবনের মধ্য দিয়ে প্রবাহিত পশুর নদীর জীব বৈচিত্র হুমকীর মধ্যে পড়বে এবং জাহাজের তেল নির্গত হয়ে সুন্দরবনের ইকো সিস্টেম ভঙ্গে যাবে।

Facebooktwittergoogle_plusredditpinterestlinkedinmail

শিক্ষকদের দাবি না মানলে কঠোর আন্দোলন

ঢাকা : সরকারি প্রাথমিক শিক্ষকদের ৭ দফা দাবী না মানলে কঠোর আন্দোলনের ঘোষনা দেওয়া হবে এবং সরকারকে আন্দোলনের মুখোমুখি করা হবে বলে জানিয়েছে বাংলাদেশ সরকারি প্রথমিক বিদ্যালয় শিক্ষক সমিতি।
শনিবার ঢাকা রিপোর্টারস ইউনিটিতে এক সংবাদ সম্মেলনে একথা জানায় সংগঠনটি।
59721সংবাদ সম্মেলনে বক্তারা বলেন, আমাদের সাত দফা দাবী বাস্তবায়নের জন্য আমরা অনেক আন্দোলন করেছি। এর প্ররিপ্রেক্ষিতে সর্বশেষ গত ১৬ এপ্রিল  প্রাথমিক ও গনশিক্ষা মন্ত্রনালয় থেকে একটি চিঠি জন প্রশাসন মন্ত্রনালয়ে পাঠানো হয়। কিন্তু আজ অবধি আমাদের দাবী বাস্তবায়নে দৃশ্যমান কিছু পাচ্ছি না। অপর দিকে প্রাথমিক শিক্ষা অধিদফতরের  উচ্চ পদস্থ কিছু কর্মকর্তাদের পক্ষ থেকে কতিপয় শিক্ষককে একটি বে-আইনী সংগঠনের ব্যানারে সংগঠন পরিচালনায় উৎসাহিত করে শিক্ষকদের মধ্যে অনৈক্য সৃষ্টির মাধ্যমে দাবী আদায়ের অন্তরায় সৃষ্টির অপচেষ্ট করছেন। এতে সরকারি প্রাথমিক শিক্ষকগন দায়িত্ব পালনে উদ্যোম হারিয়ে ফেলেছেন এবং তাদের নৈতিকতা বিবর্জিত কার্যকলাপে শিক্ষক সমাজ আজ প্রচন্ড ভাবে ক্ষুব্ধ।

বক্তারা আরো বলেন, মন্ত্রনালয়ের আশ্বাসে আমরা আমাদের আন্দোলন স্থগিত করেছিলাম। আরা সরকারি কর্মচারি, কোন রাজনৈতিক দল করিনা। তারপরও আমাদের দাবী বাস্তবায়নে কোন কর্মসূচী দিলে আমাদের সাথে বিরোধীদলের আতাত আছে বলে দোষ চাপানো হয়। আমরা বুঝতে পারছি যে, দাবী বাস্তবায়নের বিষয়ে দ’  একটি পত্র লিখে মূলা ঝুলিয়ে সরল প্রাণ শিক্ষকদের দাবী আদায়ের আন্দোলন কর্মসূচীকে বাধাগ্রস্থ করা হচ্ছে মাত্র। তাই বাধ্য  হয়েই আমরা নতুন কর্মসূচী ঘোষনা করছি। এতও কাজ না হলে আমরা কঠোর আন্দোলনের ঘোষনা দেব।

সংগঠনের নতুন কর্মসূচী হল- ২৬ সেপ্টেম্বর দেশের সকল উপজেলা সদরে শিক্ষক সমাবেশ, ১-৩ অক্টোবর সকাল  ১০-১২টা পর্যন্ত কর্মবিরতি, ৫-১০ অক্টোবর সকাল ১০-১টা পর্যন্ত কর্মবিরতি, ১২-২৪ অক্টোবর ঈদের ছুটির সময় জেলায় জেলায় শিক্ষক সমাবেশ এবং ২৬ অক্টোবর থেকে দাবী আদায় না হওয়া পর্যন্ত পূর্ণ দিবস কর্মবিরতি।

সংগঠনের সভাপতি মো: আ: আউয়ালের সভাপতিত্বে সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন সংগঠনের মহা-সম্পাদক মিসেস সালেহা আক্তার। এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন সংগঠনের সহ-সভাপতি জাহিদুর রহমান, যুগ্ম-সাধারন সম্পাদক  কামরুল ইসলাম শাহীন, প্রচার সম্পাদক আলাউদ্দিন মোল্লা, আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক  শফিকুর রহমান, কেন্দ্রিয় সদস্য রেবেকা সুলতানা প্রমুখ।

Facebooktwittergoogle_plusredditpinterestlinkedinmail

ঝিনাইদহের শৈলকুপায় নদের ভাঙ্গন এ বিলিন হচ্ছে গ্রামের পর গ্রাম

আহমদে নাসমি আনসারী, ঝিনাইদহ, ১৩সেপ্টেম্বর:ঝিনাইদহের শৈলকুপায় প্রতিবছর বর্ষা মৌসুমে খরস্রোতা গড়াই নদের ভাঙ্গন বাড়ি-ঘর হারিয়ে পথে বসেছে শত শত পরিবার । বছরের পর বছর অব্যহত ভাঙ্গনে বিলিন হয়েছে ৪/৫টি গ্রাম। ধান, আখ, কলা সহ মাঠের পর মাঠ চাষাবাদের ফসলী জমিও নদী গর্ভে বিলিন হচ্ছে।

ভাঙ্গন রোধে পানি উন্নয়ন বোর্ডের কার্যকর পদক্ষেপ নেই বলে ভাঙ্গন কবলিত নদপাড়ের বাসিন্দা ও কৃষকদের অভিযোগ। তবে পানি উন্নয়ন বোর্ডের কর্মকর্তারা জানান নদের নক্সা একে জলবায়ু পরিবর্তন ট্রাস্টে প্রকল্প জমা দেয়া হয়েছে, অনুমোদন পেলে ভাঙ্গনরোধে কাজ করা যাবে।

কুষ্টিয়া থেকে ভাটিতে আসা গড়াই নদ ঝিনাইদহের শৈলকুপা থেকে লাঙ্গলবাধ পর্যন্ত প্রায় ৪০ কিলোমিটার অংশে প্রবাহিত। শুষ্ক মৌসুমেও খরস্রোতা এ নদের ভাঙ্গনে সারুটিয়া ইউনিয়নের বড়–রিয়া, বাখরবা, কৃষ্ণনগর, কৃত্তিনগর, গোসাইডাঙ্গা, সারুটিয়া, শাহবাড়িয়া ও গাংকুলা গ্রামের মানচিত্র প্রায় বদলে গেছে।

এক দশকের ভাঙ্গনে বাড়ি-ঘর হারিয়েছে কয়েকশ পরিবার।

স্থানীয় কৃষকরা জানান, শুধু বাড়ি-ঘর নয় প্রায় দেড় হাজার বিঘা ফসলী জমি বিলিন হয়েছে নদী গর্ভে। এসব জমিতে কৃষকেরা কলা,আখ, ধান, হলুদ, পিয়াজ বিভিন্ন ফসলের আবাদ করে আসছে। বাড়ি-ঘর, জমা-জমি সব হারিয়ে তারা এখন নিঃস্ব ভূমিহীন।

এদিকে ভাঙ্গন রোধে পানি উন্নয়ন বোর্ডের পক্ষ থেকে জরুরী অবস্থায় অস্থায়ী বাধ দেয়া হচ্ছে তবে স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের অভিযোগ এটা কার্যকর কোন পদক্ষেপ না।

সারুটিয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান রায়হান উদ্দিন জানান, এভাবে ভাঙ্গতে থাকলে দু এক বছরের মধ্যে শৈলকুপার প্রধান সেচ খালও চলে যাবে নদী গর্ভে, তাই স্থায়ী বাধ বা টি চ্যানেলের মাধ্যমে নদীর গতিপথ পরিবর্তন করতে হবে।

ঝিনাইদহ পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী লুৎফর রহমান জানান, স্থায়ী প্রতিরক্ষা মুলক ব্যবস্থা না নিলে ভাঙ্গন রোধ করা সম্ভব নয় বলে জানান পানি উন্নয়ন বোর্ডের কর্মকর্তারাও।

এব্যাপারে জলবায়ু পরিবর্তন ট্রাস্টে প্রকল্প জমা দেয়া হয়েছে, অনুমোদন পেলে কাজ শুরু করা যাবে বলে জানান তারা।

Facebooktwittergoogle_plusredditpinterestlinkedinmail

মেয়েকে হত্যার পর বাবার আত্মহত্যা

সিলেট প্রতিনিধি,১১ সেপ্টেম্বর: সিলেট শহরের দরগা গেট এলাকায় অবস্থিত হোটেল আকসা থেকে আজ বুধবার বাবা ও দুই বছর বয়সী মেয়ের লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

সিলেট কোতোয়ালি থানার পুলিশ জানায়, কুমিল্লা সদরের বাসিন্দা আলীম উল্লাহ (৩৭) তাঁর স্ত্রী ফাতেমা আফরিন ও শিশুকন্যা সাদিয়াকে নিয়ে আজ সকাল ছয়টার দিকে হোটেল আকসায় ওঠেন।

আলীমের স্ত্রী ফাতেমা পুলিশের কাছে দাবি করেন, আজ সকাল পৌনে নয়টার দিকে আলীম মেয়ে সাদিয়াকে গলা টিপে হত্যা করেন। তিনি সেটি দেখেছেন।

ফাতেমার বরাত দিয়ে পুলিশ জানায়, এরপর ফাতেমা দৌড়ে হোটেলের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের ডাকতে যান। ফিরে দেখেন, আলীম ব্লেড দিয়ে গলার রগ কেটে আত্মহত্যা করেছেন।

খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠিয়েছে।

সিলেট কোতোয়ালি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আহমেদ নাসির উদ্দিন ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন। এ ব্যাপারে অপমৃত্যু মামলা হয়েছে।

Facebooktwittergoogle_plusredditpinterestlinkedinmail

যেকোনো মূল্যে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি রক্ষার আহ্বান- উখিয়ায় প্রধানমন্ত্রী

অসীম দাশ,৪ সেপ্টেম্বর:প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, ‘আমি পিতা মাতা ভাই বোনকে হারালেও দেশের জনগণের টানে রাজনীতির হাল ছাড়িনি। স্বাধীনতার পর থেকে এ দেশের মানুষের সেবার জন্য সর্বশক্তি নিয়োগ করেছি। দেশকে সন্ত্রাস, জঙ্গিবাদ ও ক্ষুধা দারিদ্রমুক্ত করতে সবাতœক চেষ্টা করেছি। দেশে শিক্ষার হার বাড়ানোর লক্ষে সর্ব পর্যায়ে বিনামূল্যে পাঠ্যপুস্তক বিতরণের ব্যবস্থা করেছি। এ সরকারের আমলে দীর্ঘ দিনের অমীমাংসিত সমুদ্র সীমা বিজয় করেছি।
মঙ্গলবার বিকালে কক্সবাজারের উখিয়া হাইস্কুল মাঠে আয়োজিত আওয়ামীলীগের জনসভায় ভাষণ দানকালে প্রধানমন্ত্রী বলেন, অসমাপ্ত কাজ সমাপ্ত করার জন্য আমরা আরেকবার সুযোগ চাই। যদি আপনারা আরেকটি বারের জন্য আওয়ামীলীগকে নৌকা মার্কায় ভোট দেন তাহলে দেশের সার্বিক অবকাঠামোর চেহারা পাল্টে দেয়া হবে। গড়ে তোলা হবে বিশ্ব মানচিত্রে শীর্ষস্থান দখলকারী একটি দেশ।
তিনি বলেন, আওয়ামীলীগ সরকার ইসলাম ধর্ম রক্ষার কাজ সবচেয়ে বেশি করেছে। দেশের গ্রাম পর্যায়ে স্বাস্থ সেবা নিশ্চিত কারার জন্য কমিউনিটি ক্লিনিক স্থাপন করেছে। ঘরে ঘরে মোবাইল সেবা পৌঁছিয়ে দিয়েছে। ইউনিয়ন তথ্য সেবার মাধ্যমে দেশের সর্বস্থরে প্রযুক্তির সেবা ছড়িয়ে দিয়েছে।
সভা মঞ্চ থেকে প্রধানমন্ত্রী উখিয়ার ৭টি বৌদ্ধ বিহারসহ ১৬টি নতুন ভবন ও উন্নয়ন কাজের উদ্বোধন ঘোষণা দেন। একই সঙ্গে তিনি ১৮টি নতুন প্রকল্পের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন। এ সময় শেখ হাসিনা সুইচ টিপে একযোগে জেলার বিভিন্ন এলাকায় নব নির্মিত অর্ধশতাধিক ভবন, স্থাপনা ও শিক্ষা প্রতিষ্ঠান উদ্বোধন করেন।

Facebooktwittergoogle_plusredditpinterestlinkedinmail

ঝিনাইদহে চরমপন্থি নেতাদের লাশ মিলছে ।মাঠে ঘাটে ৮ মাসে ৫০ খুন!

ঝিনাইদহ প্রতিনিধি : ঝিনাইদহের মাঠে ঘাটে চরমপন্থিদের লাশ মিলছে। হঠাৎ বাড়ি বা এলাকা থেকে নিখোঁজ হয়ে যাচ্ছে চরমপন্থি দলের নেতা, ক্যাডার ও সন্ত্রাসীরা। তারপর তাদের গলাকাটা বা গুলিবিদ্ধ লাশ পাওয়া যাচ্ছে মাঠে-ঘাটে। একের পর এক চরমপন্থি ক্যাডার খুন হলেও কারা খুন করছে তা রয়ে যাচ্ছে অজানা।

জেলার পশ্চিামাঞ্চলে এই হত্যাকান্ডের প্রবনতা বেশি। তবে গ্রামের নিরীহ মানুষ এ ঘটনায় স্বস্তি পাচ্ছে। এভাবে চার মাসে হঠাৎ নিখোঁজ হওয়া ১০ জন চরমপন্থি ক্যাডার খুন হয়েছে। এ ছাড়া গত ৮ মাসে জেলায় ৫০ জন বিভিন্ন ভাবে নিহত হয়েছে।

পুলিশ সুত্রে জানা গেছে, গত ২৯ এপ্রিল ঝিনাইদহ সদর উপজেলার সুতি দুর্গাপুর গ্রামের মাঠে ইউসুফ নামে এক সন্ত্রাসীর লাশ পাওয়া যায়। খুন হাওয়ার আগে তাকে ১৮ এপ্রিল পানি উন্নয়ন র্বোডের মাঠ থেকে মাইক্রোবাসে তুলে নিয়ে যায় কে বা কারা।

১৭ জুলাই ঝিনাইদহ সদর উপজেলার শংকরপুর গ্রামের মাঠে পূর্ববাংলার কমিউনিস্ট পাটির দুই ক্যাডার উজ্জল হোসেন ও আসাদুল ইসলামকে হত্যা করে প্রতিপক্ষ সন্ত্রাসীরা। এদের বিরুদ্ধে হত্যা, অপহরণ করে মুক্তিপণ আদায় বাণিজ্য ও চাঁদাবাজির অভিযোগ ছিল বলে পুলিশ জানায়। তাদের বাড়ি সদর উপজেলার হাজিডাঙ্গা গ্রামে। খুন হওয়ার আগ থেকে তারা নিখোঁজ ছিল।

গত ৪ আগস্ট রাতে কাশিমনগর গ্রামের পূর্ববাংলার কমিউনিস্ট পাটির শীর্ষ কমান্ডার লিটন খুন হয়। তার গুলিবিদ্ধ লাশ পাওয়া যায় সুতি দুর্গাপুর গ্রামের মাঠে।

১৪ জুলাই রাতে সদর উপজেলার বড়বাড়ি গ্রামের শহিদুল ইসলামকে গুলি করে হত্যা করে সন্ত্রাসীরা।

গত ৩ এপ্রিল হরিণাকুন্ডু উপজেলার দোলখালী গ্রামের মাঠে আলমডাঙ্গার নওলামারী এলাকার সন্ত্রাসী শাহাবুলকে গলা কেটে হত্যা করা হয়। নিহত হওয়ার আগে সে ৩-৪ দিন নিখোঁজ ছিল।

২৮ মে রাতে ফারুক হোসেন ওরফে বোমা ফারুক নামে এক শীর্ষ চরমপন্থি ক্যাডার খুন হন হরিণাকুন্ডু উপজেলার পায়রাডাঙ্গা গ্রামের মাঠে। তাকেও গলা কেটে হত্যা করা হয়। তার বাড়ি চুয়াডাঙ্গার জীবননগর উপজেলার খয়েরতলা গ্রামে। খুন হওয়ার ২-৩ দিন আগে তাকে কে বা কারা তুলে নিয়ে যায়।

২০ আগস্ট রাতে সদর উপজেলার হরিপুর গ্রামের মফিজুল ইসলাম মফি খুন হয়। সদর উপজেলার চাঁদেরপোল গ্রামের মাঠে তার গুলিবিদ্ধ লাশ পাওয়া যায়। সে চরমপন্থি সংগঠন পূর্ববাংলার কমিউনিস্ট পার্টি (জনযুদ্ধ)’র আঞ্চলিক কমান্ডের দায়িত্ব পালন করছিল।

সর্বশেষ গত বৃহস্পতিবার আলামপুর গ্রামে একটি মরিচ ক্ষেতে পাওয়া যায় ৬৫ বছরের বৃদ্ধ চরমপন্থি ক্যাডার মনজের আলী মন্ডলের লাশ। পুলিশ রেকর্ড ঘেঁটে জানতে পারে তার বিরুদ্ধে কুঠি দুর্গাপুরের ফাইভ মার্ডারসহ ৩টি হত্যা মামলা রয়েছে।

এ সব বিষয় নিয়ে ঝিনাইদহের পুলিশ সুপার আলতাফ হোসেন মিডিয়াকে বলেন, এ সব নিহত চরমপন্থিদের ব্যাপারে তদন্ত করে দেখা গেছে তারা হত্যা, অপহরণ ও চাঁদাবাজির মামলার আসামি। নিজ দলের অভ্যন্তরীণ কোন্দল ও প্রতিপক্ষ দলের হাতে পূর্ব শত্রুতার জন্য খুন হচ্ছে।

এদিকে চাঞ্চল্যকর কিছু হত্যাকান্ড নিয়ে ক্ষগ্রস্থের পরিবাররা হতাশা প্রকাশ করেছে। পুলিশ ক্লু উদ্ধার বা আসামী গ্রেফতার করতে না পারায় এ অবস্থার সৃষ্টি হয়েছে। হরিণাকুন্ডু উপজেলার কাপাশহাটিয়া গ্রামের মাঠে আসাদ নামে এক শিশুর গলিত লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। কিন্তু এ ঘটনার রহস্য এখনো হরিণাকুন্ডু থানার পুলিশ উদ্ধার করতে পারেনি।

গত ৩০ জুন শহরের উপকন্ঠে উদয়পুর গ্রামে খুন হয় ঠিকাদার সুলতান। এ হত্যা মামলাটিও পুলিশ ডিটেক্ট করতে পারেনি। আবার কিছু জলজ্যন্ত ডাকাতির ঘটানাও পুলিশ ধামাচাপা দিয়েছে বলে অভিযোগ। এর মধ্যে রয়েছে সদর উপজেলার কুমড়াবাড়িয়া ইউনিয়নের ঝপঝপিয়ে গ্রাম ও ঝিনাইদহ শহরের পানি উন্নয়ন বোর্ডের মধুর বাড়িতে ডাকাতির বিষয়টি। শহর বা গ্রামে ডাকাতির ঘটনা ঘটলেই সেটি ধাপাচাপা দেওয়া হচ্ছে।

এ সব বিষয়ে পুলিশের কতিপয় কর্মকর্তার চরম উদাসিনতাকে দায়ী করছে ক্ষতিগ্রস্থ পরিবার গুলো।

Facebooktwittergoogle_plusredditpinterestlinkedinmail

Responsive WordPress Theme Freetheme wordpress magazine responsive freetheme wordpress news responsive freeWORDPRESS PLUGIN PREMIUM FREEDownload theme free