Author Archives: editor

ছাগলের সঙ্গে প্রণয়, অতঃপর বিয়ে!

প্রেম মানুষের সহজাত আবেগেরই পরিচায়ক। পোষা প্রাণীর জন্য এই ভালোবাসাও ব্যতিক্রম নয়। কিন্তু তাই বলে কোন ছাগলের প্রেমে হাবুডুবু খাওয়া মোটেই স্বাভাবিক নয়।অথচ এই বিচিত্র প্রেমে পড়েছে ব্রাজিলের ৭৪ বছর বয়সী অবসরপ্রাপ্ত এক বিপত্নীক বৃদ্ধ। শুধু প্রেম নয়, ছাগলের সঙ্গে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধও হতে যাচ্ছেন তিনি। সব ঠিক থাকলে আগামী মাসেই তিনি মন্ত্র পড়ে ওই ছাগলের গলায় মালা পরাবেন।

খবরটা ফলাও করে প্রকাশ করেছে স্থানীয় সংবাদমাধ্যম। অ্যাপারেসিডো ক্যাসটালডো নামের ওই বৃদ্ধ ইতিমধ্যেই বিয়ের সব প্রস্তুতি শেষ করেছেন।

আট সন্তানের জনক ক্যাসটালডো ব্রাজিলিয়ান স্থানীয় দৈনিক প্যারাইবাকে জানান, ‘যখন কেউ বলে এটা করা ঠিক হচ্ছে না, তখন আমি বলি, ওই ছাগল কথা বলবে না, শপিং করার জন্য টাকা চাইবে না আর অন্তঃসত্ত্বাও হবে না।’
এরকম শক্ত যুক্তি দাড় করানোর পর আর কিই বা বলার থাকে।

Facebooktwittergoogle_plusredditpinterestlinkedinmail

পাঠ্যপুস্তুক বর্তি ট্রাক উল্টে পানিতে পড়ে ১ লক্ষ টাকার বই নষ্ট

নিজস্ব প্রতিবেদক,৫ সেপ্টেম্বর:কক্সবাজারের মহেশখালীতে ঢাকা থেকে নিয়ে আসা প্রাথমিক শিক্ষার এক লক্ষ দু’হাজার বই নিয়ে একটি ট্রাক উল্টে সড়কের পার্শ্ববর্তি পুকুরের পানিতে ডুবে বইগুলি নষ্ট হয়ে গেছে বলে জানা গেছে। ঘটনাটি ঘটেছে ৩ সেপ্টেম্বর রাত্রে উপজেলার শাপলাপুর ইউনিয়নের সাদেকের কাটাঁ গ্রামে। ঢাকা মেট্রে ট -১১-৪৪১১ primaryনং ট্রাকটি ঢাকা হইতে মহেশখালী উপজেলা শিক্ষা অফিসে পৌছে দেওয়ার জন্য বই নিয়ে রওনা হয় ।
জানা যায় , ৩ সেপ্টেম্বর মঙ্গলবার রাত্রে প্রমা প্রেস এন্ড পাবলিকেশনন্স কর্তৃপক্ষ মহেশখালী উপজেলায় ২০১৪ সালের শিক্ষা বর্ষে প্রাথমিক স্তরের ছাত্রদের মধ্যে বিনামূল্যে বিতরণের জন্য প্রাথমিক শিক্ষার এক লক্ষ দু’হাজার বই ঢাকা থেকে একটি ট্রাক (যাহার নং-মেট্রে ট -১১-৪৪১১) যোগে মহেশখালীতে নিয়ে আসার পথিমধ্যে উক্ত ট্রাকটি উপজেলার শাপলাপুর ইউনিয়নের ছাদেকের কাটা এলাকায় পৌছলে ড্রাইভার নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ফেল্লে ট্রাকটি সড়কের পাশ্ববর্তী পুকুরে পড়ে ডুবে যায়। এতে সরকারী এক লক্ষ দুই হাজার বই পুকুরের পানিতে ভিজে নষ্ট হয়ে যায় । ঘটনার পরই ড্রাইভার কৌশলে পালিয়ে যায়। খবর পেয়ে উপজেলা নিবার্হী অফিসার আনোয়ারুল নাসের ঘটনাস্থল পরিদর্শণ করেন। প্রমা প্রেস এন্ড পাবলিকেশনন্স কর্তৃপক্ষের চরম অবহেলা এবং অনভিজ্ঞ চালক কারণে উক্ত ঘটনাটি ঘটেছে বলে সচেতন মহলের অভিমত।এ ব্যাপারে কর্তপক্ষ থানায় সাধারণ ডাইরী করেছে।

Facebooktwittergoogle_plusredditpinterestlinkedinmail

কুমিল্লা মেডিকেল কলেজে উচ্চতর প্রশিক্ষণ কোর্স উদ্বোধন করলেন অধ্যাপক ডা. প্রাণ গোপাল দত্ত

কুমিল্লা প্রতিনিধি : বুধবার কুমিল্লা মেডিকেল কলেজে উচ্চতর প্রশিক্ষণ (ডিপ্লোমা) কোর্স- ডিএলও, ডিজিও, ডিসিএইচ উদ্বোধন করেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ডা. প্রাণ গোপাল দত্ত।

কুমিল্লা মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষ অধ্যাপক ডা. মোসলেহ উদ্দিন আহমেদের সভাপতিত্বে এ অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন বিএমডিসি’র চেয়ারম্যান অধ্যাপক ডা. আবু সুফি আহমেদ আমিন, বিএমএ’র কেন্দ্রীয় সহ-সভাপতি ডা. মহসিনুজ্জামান চৌধুরী, বিএসএমএমইউ’র গাইনী বিভাগীয় প্রধান অধ্যাপক ডা. সালেহা বেগম চৌধুরী, বিএসএমএমইউ’র ইএনটি বিভাগের অধ্যাপক ডা. মোঃ বেলায়েত হোসেন সিদ্দিকী, ইএনটি সমিতির কেন্দ্রীয় নেতা ডা. কামরুল হাসান তরফদার, অধ্যাপক ডা. মোঃ খবির উদ্দিন, ডা. মাহমুদ হাসান, কুমিল্লা বিএমএ’র সভাপতি ডা. গোলাম মহিউদ্দিন দীপু, জেলা স্বাচিপের সভাপতি ডা. মোঃ শহীদুল্লাহ, জেলা বিএমএ’র সাধারণ সম্পাদক আলহাজ্ব ডা. মোহাম্মদ আজিজুর রহমান সিদ্দিকী, জেলা স্বাচিপের সাধারণ সম্পাদক ডা. আব্দুল বাকী আনিছ, হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক ডা. হাবিব আবদুল্লাহ সোহেল, উপ-পরিচালক ডা. স্বপন কুমার বর্দ্ধন। স্বাগত বক্তব্য রাখেন কলেজের উপাধ্যক্ষ ডা. কেএ মান্নান।
বিভাগীয় প্রধানদের মাঝে বক্তব্য রাখেন গাইনীর প্রধান অধ্যাপক ডা. মোসাম্মৎ নুরুন্নাহার, ইএনটি বিভাগীয় প্রধান ডা. রতন কুমার দাস চৌধুরী। অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন ডা. আরিফ মোর্শেদ খাঁন ও ডা. রুমানা বেগম সুইটি। আলোচনা সভার পূর্বে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন সার্জারী বিভাগীয় প্রধান অধ্যাপক ডা এবিএম খুরশীদ আলম।
সহযোগীতায় ছিলেন জেলা বিএমএ’র সাংস্কৃতিক সম্পাদক ডা. অমিত সিনহা, অংশ গ্রহণ করেন- ডা. তৌহিদুর রহমান, ডা. টুটুল চৌধুরী, ডা. তানজিনা আফরিন, সুদীপ্তা পাল, নওশীন বিনতে হাবিব, তাপস চৌধুরী, নিশি, মৈত্রী, চৈতী, সাদমান প্রমুখ। অনুষ্ঠানে অতিথিবৃন্দকে কুমিল্লা মেডিকেল কলেজে খুব শীঘ্রই আরও উচ্চতর প্রশিক্ষণ কোর্স-এমডি,এমএস চালু করার জন্য কলেজ কর্তৃপক্ষ থেকে অনুরোধ জানানো হয়।

Facebooktwittergoogle_plusredditpinterestlinkedinmail

সাজাপ্রাপ্ত আসামী গ্রেফতার

ঝিনাইদহ,৫ সেপ্টেম্বর: ঝিনাইদহের কালীগঞ্জ উপজেলার বড়ঘিঘাটি গ্রাম থেকে বুধবার রিনা বেগম (৩৮) নামের এক সাজাপ্রাপক্ষত পলাতক আসামীকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। সে একই গ্রামের মোহাম্মদ টিক্কা হোসেনের স্ত্রী।

কালীগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) লিয়াকত হোসেন জানান, কালীগঞ্জ উপজেলার ঘিঘাটি গ্রামের টিক্কা হোসেনের স্ত্রী রিনা বেগমকে মাদকদ্রব্য আইনের মামলায় এক বছরের সাজা ও ৫ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরো ৩ মাসের কারাদন্ড দেয় আদালত। এ রায়ের পর থেকে তিনি দীর্ঘ দিন পলাতক ছিলেন।

বুধবার সকালে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে তাকে বড়ঘিঘাটি গ্রামের নিজ বাড়ি থেকে গ্রেফতার করা হয়।

গ্রেফতারকৃত রিনা বেগমকে আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে।

Facebooktwittergoogle_plusredditpinterestlinkedinmail

ঝিনাইদহে স্কুল অ্যান্ড কলেজের শিক্ষকের বিরুদ্ধে অসামাজিক কাজে লিপ্ত থাকার অভিযোগ

ঝিনাইদহ প্রতিনিধি, ০৪.০৯.২০১৩: ঝিনাইদহ সদর উপজেলার বাজারগোপালপুর স্কুল অ্যান্ড কলেজের শিক্ষক শাহাবুদ্দিন অসামাজিক কাজে লিপ্ত থাকার অভিযোগে গণপিটুনির শিকার হয়েছেন। এলাকাবাসী প্রথমে গণপিটুনি দিয়ে পুলিশে দেয়। পরে সালিসে ১৮ হাজার টাকা জরিমানা করে ছেড়ে দেয়া হয়।

ঘটনাটি ঘটেছে গতকাল বাজারগোপালপুর হাসপাতাল রোডের রেজাউল ইসলামের ছাত্রাবাসে।

শাহাবুদ্দিন কোটচাঁদপুর উপজেলার সাফদারপুর গ্রামের আলী হোসেনের ছেলে।

অভিযোগসূত্রে জানা গেছে, শিক্ষক শাহাবুদ্দিন চুয়াডাঙ্গা রেলস্টেশনপাড়ার সেলিনাকে বিয়ের অশ্বাস দিয়ে প্রেম করে আসছিলেন।

সেলিনা জানান, শাহাবুদ্দিন বিয়ে করবে বলে আংটি বদল করে এবং তাকে নিয়ে বিভিন্ন জায়গায় নিয়ে ঘুরে বেড়িয়েছেন। এলাকাবাসী এই শিক্ষকের শাস্তির দাবি করেছে।

Facebooktwittergoogle_plusredditpinterestlinkedinmail

এসজেএএম অ্যাওয়ার্ড পেতে যাচ্ছেন শচিন

ডেস্ব: আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে শততম সেঞ্চুরি করার জন্য ভারতের মাস্টার ব্লাস্টার শচিন টেন্ডুলকারকে বিশেষ অ্যাওয়ার্ড দেবে স্পোর্টস জার্নালিস্ট অ্যাসোসিয়েশন অব মুম্বাই (এসজেএএম)। আগামী রোববার মুম্বাই ক্রিকেট ক্লাবে এক অনুষ্ঠানে টেন্ডুলকারকে

বিশেষ অ্যাওয়ার্ড দেবে এসজেএএম। গেল ২৩ বছর টেস্ট ও ওয়ানডে ক্রিকেটে ব্যাট হাতে আলো ছড়িয়েছেন টেন্ডুলকার। দু’ধরনের ক্রিকেটের বেশিরভাগ রেকর্ডই নিজের করেছেন তিনি। সেইসঙ্গে সেঞ্চুরির সেঞ্চুরিও দখলে নিয়েছেন টেন্ডুলকার।

গেল বছরের মার্চে এশিয়া কাপে বাংলাদেশের বিপক্ষে ১১৪ রানের ইনিংস খেলে সেঞ্চুরির সেঞ্চুরি করেন টেন্ডুলকার। তাই আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে সেঞ্চুরির সেঞ্চুরি পাওয়ায় টেন্ডুলকারকে অ্যাওয়ার্ডে ভূষিত করবে এসজেএএম। ক্রিকেটের সর্বোচ্চ অর্জনের জন্য তাকে বিশেষ সম্মাননা দেবে তারা।

এছাড়া বছরের সেরা খেলোয়াড়ের পুরস্কার পাবেন অভিষেক নায়ার। রঞ্জিতে মুম্বাইকে শিরোপা এনে দিতে মূখ্য ভূমিকা রাখেন তিনি। সর্বশেষ মৌসুমে ব্যাট হাতে ৯৬৬ রান করেন নায়ার। মহিলা ক্রিকেটে বর্ষসেরা খেলোয়াড়ের ভূষিত হলেন ওপেনার পুনম রাউত। আর তরুণ উদীয়মান খেলোয়াড় হিসেবে নির্বাচিত হয়েছেন আরমান জাফর। হ্যারিস শিল্ড ইন্টার-স্কুল টুর্নামেন্টের ফাইনালে ৪৭৩ রান করেন জাফর।

Facebooktwittergoogle_plusredditpinterestlinkedinmail

যেকোনো মূল্যে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি রক্ষার আহ্বান- উখিয়ায় প্রধানমন্ত্রী

অসীম দাশ,৪ সেপ্টেম্বর:প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, ‘আমি পিতা মাতা ভাই বোনকে হারালেও দেশের জনগণের টানে রাজনীতির হাল ছাড়িনি। স্বাধীনতার পর থেকে এ দেশের মানুষের সেবার জন্য সর্বশক্তি নিয়োগ করেছি। দেশকে সন্ত্রাস, জঙ্গিবাদ ও ক্ষুধা দারিদ্রমুক্ত করতে সবাতœক চেষ্টা করেছি। দেশে শিক্ষার হার বাড়ানোর লক্ষে সর্ব পর্যায়ে বিনামূল্যে পাঠ্যপুস্তক বিতরণের ব্যবস্থা করেছি। এ সরকারের আমলে দীর্ঘ দিনের অমীমাংসিত সমুদ্র সীমা বিজয় করেছি।
মঙ্গলবার বিকালে কক্সবাজারের উখিয়া হাইস্কুল মাঠে আয়োজিত আওয়ামীলীগের জনসভায় ভাষণ দানকালে প্রধানমন্ত্রী বলেন, অসমাপ্ত কাজ সমাপ্ত করার জন্য আমরা আরেকবার সুযোগ চাই। যদি আপনারা আরেকটি বারের জন্য আওয়ামীলীগকে নৌকা মার্কায় ভোট দেন তাহলে দেশের সার্বিক অবকাঠামোর চেহারা পাল্টে দেয়া হবে। গড়ে তোলা হবে বিশ্ব মানচিত্রে শীর্ষস্থান দখলকারী একটি দেশ।
তিনি বলেন, আওয়ামীলীগ সরকার ইসলাম ধর্ম রক্ষার কাজ সবচেয়ে বেশি করেছে। দেশের গ্রাম পর্যায়ে স্বাস্থ সেবা নিশ্চিত কারার জন্য কমিউনিটি ক্লিনিক স্থাপন করেছে। ঘরে ঘরে মোবাইল সেবা পৌঁছিয়ে দিয়েছে। ইউনিয়ন তথ্য সেবার মাধ্যমে দেশের সর্বস্থরে প্রযুক্তির সেবা ছড়িয়ে দিয়েছে।
সভা মঞ্চ থেকে প্রধানমন্ত্রী উখিয়ার ৭টি বৌদ্ধ বিহারসহ ১৬টি নতুন ভবন ও উন্নয়ন কাজের উদ্বোধন ঘোষণা দেন। একই সঙ্গে তিনি ১৮টি নতুন প্রকল্পের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন। এ সময় শেখ হাসিনা সুইচ টিপে একযোগে জেলার বিভিন্ন এলাকায় নব নির্মিত অর্ধশতাধিক ভবন, স্থাপনা ও শিক্ষা প্রতিষ্ঠান উদ্বোধন করেন।

Facebooktwittergoogle_plusredditpinterestlinkedinmail

ঝিনাইদহে চরমপন্থি নেতাদের লাশ মিলছে ।মাঠে ঘাটে ৮ মাসে ৫০ খুন!

ঝিনাইদহ প্রতিনিধি : ঝিনাইদহের মাঠে ঘাটে চরমপন্থিদের লাশ মিলছে। হঠাৎ বাড়ি বা এলাকা থেকে নিখোঁজ হয়ে যাচ্ছে চরমপন্থি দলের নেতা, ক্যাডার ও সন্ত্রাসীরা। তারপর তাদের গলাকাটা বা গুলিবিদ্ধ লাশ পাওয়া যাচ্ছে মাঠে-ঘাটে। একের পর এক চরমপন্থি ক্যাডার খুন হলেও কারা খুন করছে তা রয়ে যাচ্ছে অজানা।

জেলার পশ্চিামাঞ্চলে এই হত্যাকান্ডের প্রবনতা বেশি। তবে গ্রামের নিরীহ মানুষ এ ঘটনায় স্বস্তি পাচ্ছে। এভাবে চার মাসে হঠাৎ নিখোঁজ হওয়া ১০ জন চরমপন্থি ক্যাডার খুন হয়েছে। এ ছাড়া গত ৮ মাসে জেলায় ৫০ জন বিভিন্ন ভাবে নিহত হয়েছে।

পুলিশ সুত্রে জানা গেছে, গত ২৯ এপ্রিল ঝিনাইদহ সদর উপজেলার সুতি দুর্গাপুর গ্রামের মাঠে ইউসুফ নামে এক সন্ত্রাসীর লাশ পাওয়া যায়। খুন হাওয়ার আগে তাকে ১৮ এপ্রিল পানি উন্নয়ন র্বোডের মাঠ থেকে মাইক্রোবাসে তুলে নিয়ে যায় কে বা কারা।

১৭ জুলাই ঝিনাইদহ সদর উপজেলার শংকরপুর গ্রামের মাঠে পূর্ববাংলার কমিউনিস্ট পাটির দুই ক্যাডার উজ্জল হোসেন ও আসাদুল ইসলামকে হত্যা করে প্রতিপক্ষ সন্ত্রাসীরা। এদের বিরুদ্ধে হত্যা, অপহরণ করে মুক্তিপণ আদায় বাণিজ্য ও চাঁদাবাজির অভিযোগ ছিল বলে পুলিশ জানায়। তাদের বাড়ি সদর উপজেলার হাজিডাঙ্গা গ্রামে। খুন হওয়ার আগ থেকে তারা নিখোঁজ ছিল।

গত ৪ আগস্ট রাতে কাশিমনগর গ্রামের পূর্ববাংলার কমিউনিস্ট পাটির শীর্ষ কমান্ডার লিটন খুন হয়। তার গুলিবিদ্ধ লাশ পাওয়া যায় সুতি দুর্গাপুর গ্রামের মাঠে।

১৪ জুলাই রাতে সদর উপজেলার বড়বাড়ি গ্রামের শহিদুল ইসলামকে গুলি করে হত্যা করে সন্ত্রাসীরা।

গত ৩ এপ্রিল হরিণাকুন্ডু উপজেলার দোলখালী গ্রামের মাঠে আলমডাঙ্গার নওলামারী এলাকার সন্ত্রাসী শাহাবুলকে গলা কেটে হত্যা করা হয়। নিহত হওয়ার আগে সে ৩-৪ দিন নিখোঁজ ছিল।

২৮ মে রাতে ফারুক হোসেন ওরফে বোমা ফারুক নামে এক শীর্ষ চরমপন্থি ক্যাডার খুন হন হরিণাকুন্ডু উপজেলার পায়রাডাঙ্গা গ্রামের মাঠে। তাকেও গলা কেটে হত্যা করা হয়। তার বাড়ি চুয়াডাঙ্গার জীবননগর উপজেলার খয়েরতলা গ্রামে। খুন হওয়ার ২-৩ দিন আগে তাকে কে বা কারা তুলে নিয়ে যায়।

২০ আগস্ট রাতে সদর উপজেলার হরিপুর গ্রামের মফিজুল ইসলাম মফি খুন হয়। সদর উপজেলার চাঁদেরপোল গ্রামের মাঠে তার গুলিবিদ্ধ লাশ পাওয়া যায়। সে চরমপন্থি সংগঠন পূর্ববাংলার কমিউনিস্ট পার্টি (জনযুদ্ধ)’র আঞ্চলিক কমান্ডের দায়িত্ব পালন করছিল।

সর্বশেষ গত বৃহস্পতিবার আলামপুর গ্রামে একটি মরিচ ক্ষেতে পাওয়া যায় ৬৫ বছরের বৃদ্ধ চরমপন্থি ক্যাডার মনজের আলী মন্ডলের লাশ। পুলিশ রেকর্ড ঘেঁটে জানতে পারে তার বিরুদ্ধে কুঠি দুর্গাপুরের ফাইভ মার্ডারসহ ৩টি হত্যা মামলা রয়েছে।

এ সব বিষয় নিয়ে ঝিনাইদহের পুলিশ সুপার আলতাফ হোসেন মিডিয়াকে বলেন, এ সব নিহত চরমপন্থিদের ব্যাপারে তদন্ত করে দেখা গেছে তারা হত্যা, অপহরণ ও চাঁদাবাজির মামলার আসামি। নিজ দলের অভ্যন্তরীণ কোন্দল ও প্রতিপক্ষ দলের হাতে পূর্ব শত্রুতার জন্য খুন হচ্ছে।

এদিকে চাঞ্চল্যকর কিছু হত্যাকান্ড নিয়ে ক্ষগ্রস্থের পরিবাররা হতাশা প্রকাশ করেছে। পুলিশ ক্লু উদ্ধার বা আসামী গ্রেফতার করতে না পারায় এ অবস্থার সৃষ্টি হয়েছে। হরিণাকুন্ডু উপজেলার কাপাশহাটিয়া গ্রামের মাঠে আসাদ নামে এক শিশুর গলিত লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। কিন্তু এ ঘটনার রহস্য এখনো হরিণাকুন্ডু থানার পুলিশ উদ্ধার করতে পারেনি।

গত ৩০ জুন শহরের উপকন্ঠে উদয়পুর গ্রামে খুন হয় ঠিকাদার সুলতান। এ হত্যা মামলাটিও পুলিশ ডিটেক্ট করতে পারেনি। আবার কিছু জলজ্যন্ত ডাকাতির ঘটানাও পুলিশ ধামাচাপা দিয়েছে বলে অভিযোগ। এর মধ্যে রয়েছে সদর উপজেলার কুমড়াবাড়িয়া ইউনিয়নের ঝপঝপিয়ে গ্রাম ও ঝিনাইদহ শহরের পানি উন্নয়ন বোর্ডের মধুর বাড়িতে ডাকাতির বিষয়টি। শহর বা গ্রামে ডাকাতির ঘটনা ঘটলেই সেটি ধাপাচাপা দেওয়া হচ্ছে।

এ সব বিষয়ে পুলিশের কতিপয় কর্মকর্তার চরম উদাসিনতাকে দায়ী করছে ক্ষতিগ্রস্থ পরিবার গুলো।

Facebooktwittergoogle_plusredditpinterestlinkedinmail

মহেশখালীর হোয়ানক যুবলীগের অফিসে পুলিশের অভিযান, ২৪ জুয়াটি গ্রেপ্তার।

অসীম দাশ,মহেশখালী প্রতিনিধি:মহেশখালীর হোয়ানক ইউনিয়ন যুবলীগ অফিস থেকে গতকাল রাত প্রায় ১১.০০ ঘটিকার সময় পুলিশ অভিযান চালিয়ে জুয়ার খেলার আসর থেকে ২৪ জনকে আটক করছে। স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, ইউনিয়ন যুবলীগের সাবেক সভাপতি বানিয়া কাটা গ্রােেমর হাজী আহমদ হোসেনের পুত্র খোরশেদ আলম খুশির তত্ত্বাবধানে টাইম বাজারে অবস্থিত তার মালিকানাধীন যুব লীগের অফিস খ্যাত একটি দোকান ঘরে বিশাল জুয়ার আসর চলে আসছিল। এ আসরে প্রতি দিন উপজেলার হোয়ানক ও কালারমার ছড়া ইউনিয়নের বেশ কিছু নামী দামী জুয়াড়ীদের উপস্থিতিতে দৈনিক ৫লাখ থেকে ১০ লাখ টাকার পর্যন্ত জুয়ার লেনদেন হয়। আর আসরের ভাড়া বাবদ খোরশেদ আলমের দৈনিক আয় ২৫ হাজার থেকে অর্ধ লক্ষাধিক টাকা। তার এই সব অপ-কর্মের কারণে পুরো আওয়ামীলীগ দলের বধনাম হয়েছে। কিন্তু এ ব্যাপারে আওয়ামীলীগের উর্ধŸতন মহলা তাকে কিছু বলছে না। দিনের পর দিন এভাবে জুয়ার আসর সহ নানা ধরনের কাজ চালিয়ে যাচ্ছে।
প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছেন, সেখানে রাত দিনের অধিকাংশ সময় চলে এ জুয়ার আসর। জুয়ার আসরটি হোয়ানক ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান এনামুল করিম চৌধুরীর বসতবাড়ির সাথে একেবারেই সংযুক্ত হলেও তিনিও এসব দেখেও না দেখার ভান করে আসছেন। চেয়ারম্যান এনামুল করিম চৌধুরীর স্থানীয় সাংবাদিকদের বলেন, ‘প্রভাবশালী হওয়ার তাদের কিছু বলা যাচ্ছে না। প্রয়োজনে তিনি যতটুকু সাহায্য-সহযোগিতা করতে হয় তা করবে।
মহেশখালী থানার এস আই ফরিদের নেতৃত্বে এক দল পুলিশ যুব লীগের ওই জৃয়ার আড্ডায় আচমকা অভিযান চালিয়ে ২৪ জুয়াড়ীকে আটক করে থানায় নিয়ে যায়। গ্রেপ্তারকৃতরা হচ্ছে, শাহাব উদ্দিন (৩৫) কাজিম উদ্দিন (৩৬) দৌলত খাঁন (৩০ মোঃ জকির (৪২)সরওয়ার (২৯) মাহমুদুল করিম (৩০) ওসমান (৩২) আইয়ুব আলী (৪০) শাহাব উদ্দিন (৩৬) মোঃ জাবের (৪১)নাছির (২৮) সুখু দে (৪০) ভুইল্যা (৩৪)রফিক (৩২) খোকন (৩৪) কামাল (২৭)সরওয়ার (২৪) উকিল আহমদ (৩৮)নবাব মিয়া (৩০) সহ অজ্ঞাত নামা আরো ৫জন। গতকাল ১ সেপ্টেম্বর গ্রেপ্তারকৃতদের আদালতে চালান দিলে আদালত তাদেরকে জেল হাজতে প্রেরণ করেন। তবে এ ক্ষেত্রে পুলিশের বিরুদ্ধেও এলাকাবাসীর অভিযোগ রয়েছে, এসব জুয়ার আসর থেকে পুলিশ নিয়মিত মাসোহারা নেয়। এব্যাপারে পুলিশের কতিপয় দুর্নীতিবাজ কর্মকর্তাকে নিয়মিত মাসোহারা দিয়ে অসাধু ব্যক্তিরা অবৈধ কর্মকা- চালিয়ে আসছিল।

Facebooktwittergoogle_plusredditpinterestlinkedinmail

লালমনিরহাটে শিক্ষকের নির্যাতনে ৬ষ্ঠ শ্রেনীর ছাত্র হাসপাতালে

লালমনিরহাট,২ সেপ্টেম্বর: শিক্ষকের নির্মম নির্যাতনে লালমনিরহাট সদর হাসপাতালের জীবন মৃত্যু সন্ধিনে লড়ছে ৬ষ্ঠ শ্রেনির ছাত্র আলমগীর হোসেন (১২)

ঘটনাটি ঘটেছে শনিবার বিকাল ৩টায় জেলা শহরের অদুরে ভাটিবাড়ি উচ্চ বিদ্যালয়ে।

জানগেছে, শনিবার বিকাল ৩টায় ভাটিবাড়ি উচ্চ বিদ্যালয়ের ৬ষ্ট শ্রেনির ছাত্র আলমগীর হোসেন (১২) শ্রেনি কে অন্য সহপাটিদের সঙ্গে দুষ্টমির ছলে একই শ্রেনির এক সহপাটি ছাত্রীকে বই ছুড়ে মারে ।  এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে স্কুলের সকল ছাত্রছাত্রী ও শিক্ষকদের সামনে ৬ষ্ঠ শ্রেনির এই অবুঝ শিশুটিকে নির্মম ভাবে ব্যাত্রাঘাত করে। নির্মম ব্যাত্রাঘাতে ছেলেটি স্কুলের মাঠে লুটিয়ে পড়ে। তাকে বাঁচাতে সহপাটি স্কুল ছাত্র সাজেদুল আলম শিক্ষকের পায়ে ধরে। শিক্ষক নামের এই পাষন্ড সাহেব আলী সেই ছাত্রটিকেও অমানুষিক ভাবে পেটায়। শিক্ষকের গুরুতর পিটুনিতে ৬ষ্ঠ শ্রেনির ছাত্র আলমগীর অজ্ঞান হলে তাকে স্কুল ক্যাম্পাসে ভাটিবাড়ি বাজারের পল্লী চিকিৎসক দিনেশ চন্দ্র কে দিয়ে স্যালাইন দেয়া হয়। তার অবস্থার অবনতি হলে তাঁকে লালমনিরহাট সদর হাসপাতালে ভর্তি করায়। বর্তমানে শিশুটি হাসপাতালে ভর্তি রয়েছে।

Facebooktwittergoogle_plusredditpinterestlinkedinmail

দর্শনা ও জীবননগরে বিএনপির প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালন

নিজেস্ব প্রতিবেদক,১ সেপ্টেম্বর : বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল বিএনপির ৩৫তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী দর্শনা ও জীবননগরে ৩টি গ্র“প পৃথক ভাবে পালন করেছে।  বিএনপি ১ গ্রুপ বাবু খান  সকালে এ উপলক্ষে জীবননগর শহরে বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা বের করে এবং দলীয় অফিসে এসে জন্মদিনের কেক কেটে কাটে। বিকেলে উথলীতে বিশাল এক জনসভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন যুবদলের কেন্দ্রীয় শিল্প বিষয়ক সম্পাদক শিল্পপতি মাহমুদ হাসান খান বাবু। উপজেলা বিএনপির একাংশ নোয়াব আলী গ্র“প পতাকা উত্তোলন, মিলাদ-মাহফিল ও আলোচনা সভার আয়োজন করে। সভাপতি পৌর মেয়র নোয়াব আলী এতে সভাপতিত্ব করেন। পৌর বিএনপি মোজাম্মেল গ্র“প বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা, জন্মদিনের কেক কাটা, মিলাদ-মাহফিল ও আলোচনাসভার আয়োজন করেন। এতে প্রধান অতিথি ছিলেন জেলা বিএনপির সভাপতি সাবেক সাংসদ হাজী মো. মোজাম্মেল হক।

দর্শনায় বিএনপি এক  গ্রুপ টিপু তরফদার প্রধান প্রধান শহর বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা বের করে এবং শেষে দলীয় অফিসে এসে জরো হয়। এছারা  নানান আয়োজন আর আনুষ্ঠানিকতার মধ্য দিয়ে রোববার  পালিত হয়েছে বিএনপির ৩৫ তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী।

Facebooktwittergoogle_plusredditpinterestlinkedinmail

হরিণাকুন্ডু ইউএনও অফিস ক্যাম্পাসে ককটেল বিস্ফোরণ

ঝিনাইদহ প্রতিনিধি ,১ সেপ্টেম্বর: ঝিনাইদহের হরিণাকুন্ডু উপজেলা পরিষদ চত্বরে শনিবার মধ্যরাতে দুবৃর্ত্তরা ককটেল বিস্ফোরণ ঘটিয়েছে। তবে এ ঘটনায় কেই হতাহত না হলেও আতংকের সৃষ্টি হয়েছে। হরিণাকুন্ডু থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মহিবুল ইসলাম জানান, শনিবার দিনগত রাত সাড়ে ১২টার দিকে হরিণাকুন্ডু উপজেলা পরিষদের শিক্ষা ভবনের পাশে কে বা করা ককটেল বিস্ফোরণ ঘটায়। তিনি আরো জানান, খবর পেয়ে পুলিশ রাতেই দুর্বৃত্তদের আটক করতে অভিযান চালাচ্ছে পুলিশ। বিষয়টি নিয়ে হরিণাকুন্ডু উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আবুল বশার জানান, আতংক সৃষ্টির জন্য দুর্বৃত্তরা পটকা জাতীয় কিছু ফোটায়। বিষয়টি তদন্ত করতে পুলিশকে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে বলে তিনি জানান। এদিকে হরিণাকুন্ডু উপজেলা বিএনপির সভাপতি আবুল হোসেন অভিযোগ করেন, বিএনপির শান্তিপূর্ণ প্রতিষ্ঠা বার্ষিকীর কর্মসূচী বানচাল করতেই সরকারী দলের সমর্থকরা এই ককটেল বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটিয়েছে। তিনি আরো জানান, বিএনপির হরিণাকুন্ডুর দুইটি মাঠে জনসভার জন্য প্রশাসনের কাছ থেকে অনুমতি লাভ করার পরও আওয়ামীলীগ পাল্টা সমাবেশ ডেকে ১৪৪ ধারা জারীর জন্য প্রশাসনকে চাপ দিচ্ছে। প্রশাসন তাদের কথা না শোনায় এই ককটেল হামলা করা হয়। তবে হরিণাকুন্ডু উপজেলা আওয়ামীলীগের আহবায়ক মশিয়ার রহমান জোয়ারদার বিএনপির অভিযোগ নাকচ করে দিয়ে বলেন, যারা দেশে অস্থিতিশীল পরিবেশ কামনা করেন, তারাই এ ঘটনার সঙ্গে জড়িত।

Facebooktwittergoogle_plusredditpinterestlinkedinmail

ঝিনাইদহের বাগুটিয়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে চার কক্ষের স্কুল ভবনটি পরিত্যক্ত

ঝিনাইদহ প্রতিনিধি, ১ সেপ্টেবর: চার মাস পূর্ব থেকেই স্কুলের চার কক্ষের একমাত্র ভবনটি রয়েছে পরিত্যক্ত ঘোষিত। আর স্কুলের মাঠে জমে আছে পানি-কাঁদা। ক্লাস নেওয়ার কোন জায়গা না পেয়ে শিক্ষকরা মাঝে মধ্যে ক্লাস নেন পাশ্ববর্তী রাস্তার উপর। এখন পরীক্ষার কারনে অত্যান্ত ঝুঁকি নিয়ে তারা শিক্ষার্থীদের বসিয়েছেন পরিত্যক্ত ওই স্কুল ভবনের বারান্দায়। এই অবস্থা ঝিনাইদহ সদর উপজেলার বাগুটিয়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের।

শিক্ষকরা জানান, তাদের ক্লাস নেওয়ার কোন জায়গা নেই। কবে তাদের স্কুলে ভবন হবে তাও কেউ বলতে পারেন না। শুধু শুনছেন প্রস্তাব পাঠানো হয়েছে, অনুমোদন হয়ে আসলে কাজ শুরু হবে। তাদের বক্তব্য এই দীর্ঘ সময় কি পাঠদান বন্ধ থাকবে। বিকল্প কোন ব্যবস্থা করার দাবি জানিয়েছেন শিক্ষকরা।

২৬ আগষ্ট সরেজমিনে স্কুলটিতে গিয়ে দেখা গেছে, শিশুরা বারান্দায় বসে পরীক্ষা দিচ্ছে। ইসলাম শিক্ষা পরীক্ষা নিচ্ছেন শিক্ষকরা। শিক্ষকরা জানান, ভবনটি ভেঙ্গে পড়ার ভয়ে ভিতরে বসতে পারেন না। বাইরে সারাক্ষন পানি-কাঁদা জমে থাকে। ক্লাস নেন পাশ্ববর্তী রাস্তায়। কিন্তু পরীক্ষা সেখানে নেওয়া সম্ভব না হওয়ায় জীবনের ঝুঁকি নিয়ে পরিত্যক্ত ভবনের বারান্দায় পরীক্ষা নিচ্ছেন।

বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষিকা রেকসনা খাতুন জানান, এলাকার কিছু শিক্ষানুরাগী এলাকার শিশু-কিশোরদের পড়ালেখার কথা চিন্তা করে ১৯৭১ সালে বাগুটিয়া গ্রামে ৩৩ শতক জমির উপর প্রতিষ্ঠা করেন প্রাথমিক বিদ্যালয়টি। সেই থেকে বিদ্যালয়টি এলাকার শিশুদের শিক্ষার আলো দিয়ে আসছে। বর্তমানে ১৭৪ জন শিক্ষ পড়ালেখা করছে। ৪ জন শিক্ষক নিয়মিত পাঠদান করছেন।

প্রধান শিক্ষক জানান, প্রথম দিকে চাটাই-আর টিন দিয়ে ক্লাস রুম বানানো হলেও ১৯৮০ সালের দিকে সেমিপাঁকা ঘর নির্মান করেন এলাকার মানুষ। পরে ১৯৯৪ সালে এলজিইডি চার রুমের একটি পাঁকা ভবন নির্মান করে দেন। সেখানে শিক্ষকরা বসতেন এক রুমে আর তিনটি রুমে ক্লাস নেওয়া হতো। এভাবে দীর্ঘদিন চলে আসছিল।

তিনি জানান, মাঝে বিদ্যালয়ে বিভিন্ন স্থানে ফাটল দেখা দেয়। ছাদের সিমেন্ট-বালি খুলে খুলে পড়তে থাকে। এই অবস্থায় বিদ্যালয়ের পক্ষ থেকে উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষকে অবহিত করানো হয়। প্রধান শিক্ষিকা রেকসনা খাতুন আরো জানান, গত ৬ মে ঝিনাইদহ এলজিইডি থেকে একজন প্রকৌশলী এসে ভবনটি নানা ভাবে পরীক্ষা-নিরিক্ষা করে পরিত্যক্ত ঘোষনা করেন।

বাদশা মিয়া নামের ওই প্রকৌশলী তাদের ভবনটি ব্যবহার না করার জন্য বলে যান। ক্লাস বাইরে নেবার পরামর্শ দেন ওই কর্মকর্তা। সেই থেকে তারা বাইরে ক্লাস নিচ্ছেন। প্রধান শিক্ষিকা জানান, বাইরে স্কুলের যে মাঠ আছে সেখানে সারাক্ষন পানি-কাঁদা থাকায় রাস্তার উপর ক্লাস নিতে হয় তাদের। তিনি জানান, স্কুলে ক্লাস রুমের অভাবে শিক্ষা কার্যক্রম ব্যহত হচ্ছে।

রেকসনা খাতুন জানান, নতুন ভবনের জন্য তারা জেলা শিক্ষা অফিসে যোগাযোগ করে যাচ্ছেন। কিন্তু এখন পর্যন্ত কোন সুরহা হয়নি। দ্রুত ভবন না হলে স্কুল বন্ধ হয়ে যাবার সম্ভবনা রয়েছে বলে শিক্ষকরা দাবি করেন।

এলজিইডি’র ঝিনাইদহ সদর অফিসের উপ-সহকারী প্রকৌশলী বাদশা মিয়া জানান, তিনি ভবনটি পরীক্ষা করে যা পেয়েছেন তাতে যে কোন সময় ধসে পড়তে পারে। যে কারনে পরিত্যক্ত ঘোষনা করেছেন। ওই ভবনের ভিতর-বারান্দা কোথাও বসা নিরাপদ না। নতুন ভবন নির্মানের বিষয়ে তিনি জানান, প্রস্তাব পাঠিয়েছেন। আশা করছেন দ্রুত অনুমোদন হয়ে আসবেন।

বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সভাপতির দায়িত্বে থাকা উপজেলা সহকারী শিক্ষা কর্মকর্তা প্রবীর কাঞ্জিলাল জানান, তারা চেষ্টা করছেন সল্প সময়ের জন্য বিকল্প কিছু করার।

এ ব্যাপারে ঝিনাইদহ অতিরিক্ত জেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা রুহুল আমিন জানান, বিষয়টি তারা অবগত। শিক্ষকরা কষ্ট করে এখানে-সেখানে ক্লাস নিয়ে যাচ্ছেন। তারা চেষ্টা করছেন দ্রুত ওই স্থানে একটি নতুন ভবন নির্মানের। সে জন্য তারা চেষ্টা করে যাচ্ছেন। আশা করছেন দ্রুত এই সমস্যার সমাধান হবে।

Facebooktwittergoogle_plusredditpinterestlinkedinmail

চুয়াডাঙ্গায় ট্রেনে কাটায় অজ্ঞাতনামা নিহত

চুয়াডাঙ্গা প্রতিনিধি,১ সেপ্টেম্বর: চুয়াডাঙ্গায় ট্রেনে কাটা পড়ে অজ্ঞাতনামা (৫৫) এক ব্যক্তি নিহত হয়েছেন। নিহত ওই ব্যক্তি মানসিক প্রতিবন্ধী বলে জানিয়েছেন প্রত্যক্ষদর্শীরা।
রোববার সকাল সাতটার দিকে চুয়াডাঙ্গার গাইদঘাট-বেলগাছি মধ্যবর্তী স্থানে রেল লাইন পার হওয়ার সময় ট্রেনে কাটা পড়েন তিনি। ‘গোয়ালন্দ এক্সপ্রেস’ ট্রেনটি খুলনা থেকে গোয়ালন্দ যাচ্ছিল।
প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, আহত অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে নিয়ে গেলে সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় সকাল সাড়ে ১০টার তার মৃত্যু হয়।
চুয়াডাঙ্গা সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) গাজী ইব্রাহিম জানান, অজ্ঞাত ওই ব্যক্তির লাশ চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতাল মর্গে রাখা হয়েছে। কোন পরিচয় পাওয়া না গেলে সোমবার আঞ্জুমান মফিদুল অজ্ঞাত হিসেবে তার লাশ দাফন করবে বলেও জানান তিনি।
Facebooktwittergoogle_plusredditpinterestlinkedinmail

ঝিনাইদহের মহেশপুরে প্রতিবন্ধি ধর্ষন,গ্রাম্য শালিসে ১০০ জুতা মারার নির্দেশ, থানায় মামলা

ঝিনাইদহ প্রতিনিধি ১সেপ্টেবর:ঝিনাইদহের মহেশপুর উপজেলার উজ্জলপুর গ্রামে প্রতিবন্ধি কিশোরী ধর্ষিত হয়েছে। ধর্ষক একই গ্রামের এই গ্রামের মঈনুদ্দিন মিস্ত্রির ছেলে শফিকুল ইসলাম (৪০) নামে এক লম্পট ।

ঘটনা জানাজানির পর স্থানীয় মাতব্বররা গ্রামে শালিস বৈঠক করে। বৈঠকে ধর্ষনকারীকে প্রকাশ্যে ১০০ জুতার বাড়ি মারার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। তবে জুতা মারার সিদ্ধান্ত সন্তোষজনক না হওয়ায় ধর্ষিতার পিতা আশরাফ আলী শনিবার দুপুরে মহেশপুর থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন।

মামলার বিবরণে জানা যায়, ২৮ আগষ্ট বুধবার বিকালে মহেশপুর উপজেলার নাটিমা ইউনিয়নের উজ্জলপুর গ্রামের শফিকুল ইসলাম মাঠে কাজ করছিল। এসময় প্রতিবন্ধি ঐ কিশোরীকে একা পেয়ে শফিকুল তাকে উজ্জলপুর গ্রামের মাঠের মধ্যে শ্যলোমেশিন নিয়ে ধর্ষন করে।

মহেশপুর থানার অফিসার ইনচার্জ আকরাম হোসেন জানান, প্রতিবন্ধি কিশোরী ধর্ষনের ঘটনায় শনিবার শফিকুল নামের এক ব্যক্তিকে আসামি একটি মামলা হয়েছে। মামলা নম্বর ৩২।

Facebooktwittergoogle_plusredditpinterestlinkedinmail