Home » Author Archives: editor

Author Archives: editor

প্রাথমিকের টেলিভিশনে পাঠদান কার্যক্রম খুব শীঘ্রই।।

প্রাথমিক সহকারী শিক্ষক সমিতির সভাপতির বক্তব্যের প্রতিবাদ

নিজস্ব প্রতিবেদক,৩ এপ্রিল:

করোনাভাইরাসের কারণে সৃষ্ট পরিস্থিতিতে দেশের সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ রয়েছে। অনাকাঙ্ক্ষিত এ ছুটিতে মাধ্যমিকের শিক্ষার্থীদের ক্ষতি পুষিয়ে নিতে সংসদ বাংলাদেশ টেলিভিশনে পাঠদান কার্যক্রম শুরু হয়েছে। মাধ্যমিকের মতো প্রাথমিকেরও পাঠদান কার্যক্রম টিভিতে স্প্রচারের উদ্যোগ নেয় প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়। তবে অনিশ্চয়তার মধ্যে পড়েছে প্রাথমিক স্তরে টেলিভিশনে শ্রেণি পাঠদান কার্যক্রম।

প্রথমিক স্তরের প্রথম শ্রেণি থেকে পঞ্চম শ্রেণির শিক্ষার্থীদের জন্য টেলিভিশনে শ্রেণি পাঠদান কার্যক্রম শুরুর ঘোষণা দেয় প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়। এটি বাস্তবায়নে বিশেষজ্ঞ ও সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিদের নিয়ে একাধিক জরুরি সভা করে টেলিভিশন ও একটি ওয়েব পোর্টালের মাধ্যমে ক্লাস প্রচারের সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।

তার মধ্যে রয়েছে- প্রথম থেকে দ্বিতীয় শ্রেণির জন্য বর্ণ ও বানান শিক্ষার ওপর শিক্ষকদের মাধ্যমে ভিডিও ধারণ করে প্রচার এবং তৃতীয় থেকে পঞ্চম শ্রেণির শিক্ষার্থীদের সিলেবাসের সঙ্গে সমন্বয় করে শ্রেণি পাঠ বাস্তবসম্মত করে তা প্রতিদিন টেলিভিশনে প্রচার করা।

জানা গেছে, গত সপ্তাহে প্রাথমিক শিক্ষা অধিদফতরের (ডিপিই) ওয়েবসাইটে শিক্ষকদের কাছে শ্রেণি পাঠের ভিডিও ধারণ কার্যক্রমে যুক্ত হতে নিবন্ধন করতে বলা হয়। সেখানে শতাধিক শিক্ষক নাম নিবন্ধন করলেও ৪০ জন শিক্ষককে নির্বাচন করে ডিপিই। নির্বাচিতদের কাছে রেকর্ডিং করা ভিডিও চাওয়া হলে শিক্ষকরা যে সব ভিডিও পাঠিয়েছেন তা এডিটি করে টেলিভিশনে সম্প্রচার করা যাচ্ছে না। তবে বেশির ভাগ শিক্ষকের পাঠ সন্তোসজনক। ছোট খাট সমস্যার কারণে সম্পচার করতে সমস্যা হচ্ছে।

প্রধান শিক্ষক সমিতির সিনিয়ার যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক স্বরুপ দাস বলেন, সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় সহকারী শিক্ষক সমিতির সভাপতি মো. শামছুদ্দিন মাসুদ যে বক্তব্য দিয়েছেন তা মোটেও ঠিক না। প্রাথমিকের বেশিরভাগ শিক্ষক এখন দক্ষ। আর যারা আইসিটিতে দক্ষ তারাই জেলা এম্বাসেডর। কিন্তু বেশিরভাগ শিক্ষক নিজের ফোন দিয়ে ভিডিও করার জন্য অনেক ক্ষেত্রে রেজুলেশন বা এডিটিং সমস্যা হয়। আর যিনি এ কাজে দক্ষ তিনি অবশ্যয় আবেদন করতেন। আবেদন তো সবার জন্য উন্মুক্ত ছিল!

নানা প্রতিবন্ধকতার কারণে প্রাথমিকের শ্রেণি পাঠদান কার্যক্রম শুরু করতে কিছুটা দেরি হচ্ছে বলে জানিয়েছেন ডিপিই’র মহাপরিচালক মো. ফসিউল্লাহ। তবে দ্রুত এ পাঠদান শুরু হবে বলে তিনি জানান।

Facebooktwitterlinkedinrssyoutubemailby feather

সরকার বাড়ি ভাড়া মওকুফ, ব্যাংক লোন ও বিদ্যুৎ বিল স্থগিতের সিদ্ধান্ত নেয়নি

নিজস্ব প্রতিবেদক | ০৩ এপ্রিল, ২০২০

বাড়ি ভাড়া মওকুফ, ব্যাংক লোন ও বিদ্যুৎ বিল তিন মাসের জন্য স্থগিত করা, সব অফিসে এক মাসের ছুটির বিষয়ে কোনো সিদ্ধান্ত নেয়নি সরকার। বিষয়গুলোকে গুজব হিসেবে উল্লেখ করে এসব অপপ্রচারকারীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার নির্দেশ দিয়েছে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়।

বৃহস্পতিবার (২ এপ্রিল) প্রধানমন্ত্রীর প্রেস সচিব ইহসানুল করীম স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, বাড়ি ভাড়া মওকুফ, ব্যাংক লোন ও বিদ্যুৎ বিল তিন মাসের জন্য স্থগিত, সকল অফিসে এক মাসের ছুটি সংক্রান্ত যে গুজবটি ফেসবুকে ভাইরাল করা হচ্ছে তা পুরোপুরি মিথ্যা ও বানোয়াট। যারা অপপ্রচার চালাচ্ছেন তা অপরাধের পর্যায়ে পরে। অপপ্রচারকারীদের বিরুদ্ধে কঠোর আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

এতে বলা হয়, করোনা পরিস্থিতি মোকাবিলায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তার গৃহীত পদক্ষেপ নিজেই অথবা যথাযথ কর্তৃপক্ষের মাধ্যমে জানাবেন।

Facebooktwitterlinkedinrssyoutubemailby feather

প্রাথমিকের ক্লাস শুরু ৫ এপ্রিল

নিজস্ব প্রতিবেদক,২এপ্রিলঃ
করোনাভাইরাস পরিস্থিতিতে স্কুল বন্ধ থাকায় আগামী ৫ এপ্রিল থেকে টেলিভিশনে শুরু হবে প্রাথমিক স্তরের তৃতীয়, চতুর্থ ও পঞ্চম শ্রেণির পাঠদান। সংসদ বাংলাদেশ টেলিভিশনের মাধ্যমে ওইদিন রেকর্ডিং ক্লাস সম্প্রচার করা হবে। পরবর্তী সময়ে বিটিভিতেও এসব ক্লাস সম্প্রচার করার চিন্তা সরকারের আছে বলে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. আকরাম-আল হোসেন জানিয়েছেন।
সচিব বলেন, প্রাক-প্রাথমিক থেকে দ্বিতীয় শ্রেণির শিশুদের ডিজিটাল পাঠদানের জন্যও কনটেন্ট প্রস্তুত করছি। টিভিতে এই পাঠদান কার্যক্রম স্থায়ী করার চিন্তা করছি। এ লক্ষ্যে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের এটুআই প্রকল্প কাজ করছে।
জানা গেছে, প্রাথমিকের শিশুদের জন্য পাঠদানের লেকচার রাজধানীতে দুটি স্টুডিওতে রেকর্ডিং করা হচ্ছে। বৃহস্পতিবার এই রেকর্ডিং কার্যক্রম শুরু হবে। উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়, ব্যানবেইস, বিয়ামসহ রাজধানীতে অনেক সরকারি স্টুডিও খালি পড়ে থাকলেও বেসরকারি স্টুডিওতে এই ক্লাস রেকর্ডিং করার উদ্যোগের সমালোচনা হয়েছে।
এ ব্যাপারে সচিব বলেন, আর কোনো স্টুডিও পাওয়া যায়নি বলে আমরা ওই স্টুডিও বাছাই করেছি।
এদিকে শিক্ষার্থীদের ক্ষতি পুষিয়ে নিতে টিভিতে শুরু হয়েছে মাধ্যদিমকের পাঠদান। গত ২৯ মার্চ সকাল থেকে সংসদ টিভিতে ‘আমার ঘরে আমার ক্লাস’ শিরোনামে মাধ্যমিকের শিক্ষার্থীদের ক্লাস সম্প্রচার শুরু হয়েছে। এসব ক্লাস শিক্ষকদেরও দেখা নির্দেশ দিয়েছে মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তর। অধিদপ্তর থেকে জারি করা এক বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধের সময় ষষ্ঠ থেকে দশম শ্রেণির শিক্ষার্থীদের পাঠদানের ধারাবাহিকতা রক্ষা করতে সংসদ বাংলাদেশ টেলিভিশনে নির্দিষ্ট একাডেমিক ক্যালেন্ডার অনুযায়ী পাঠদান চলমান আছে। শিক্ষার্থীদের পাশাপাশি মাধ্যমিক পর্যায়ের সকল শিক্ষক-শিক্ষিকা কে পাঠদান দেখার জন্য নির্দেশনা দেয়া হল।
জানা গেছে, টেলিভিশনে মাধ্যমিক শিক্ষার্থীদের জন্য পরিচালিত বিষয়ভিত্তিক ক্লাস দেখলেই কাজ শেষ নয়। টিভিতে প্রচারিত প্রতিটি ক্লাসের পর দেয়া হবে বাড়ির কাজ। আর প্রতিটি বিষয়ের আলাদা খাতায় সেই বাড়ির কাজ শেষ করতে হবে। করোনার তা-ব শেষ হলে যখন স্কুল খোলা হবে তখন শিক্ষকদের সেই বাড়ির কাজের খাতা দেখাতে হবে। বাড়ির কাজের প্রাপ্ত নম্বর ধারাবাহিক মূল্যায়নের অংশ হিসেবে বিবেচিত হবে। যতদিন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকবে ততদিনই টেলিভিশনের মাধ্যমে পাঠদান কার্যক্রম অব্যাহত রাখা হবে।

Facebooktwitterlinkedinrssyoutubemailby feather

বাম হাতে বিসিজি টিকার দাগ থাকলে পাচ্ছেন করোনার সুখবর

ডেস্ক,২এপ্রিলঃ
আমাদের দেশে অধিকাংশ মানুষের শরীরে দেয়া হয়েছে বিসিজি বা ব্যাসিলাস ক্যালমেট-গুউরিন টিকা। এ মুহূর্তে নিজেকে খুব সৌভাগ্যবান ভাবতে পারেন যদি আপনার বাম হাতে থাকে বিসিজি টিকার দাগ। এটি যক্ষার প্রতিষেধক হিসেবে শৈশবে দেয়া হয়েছিল। আর এই টিকাই প্রতিরোধ করতে পারে প্রাণঘাতী করোনা ভাইরাস। বিশ্বে বিভিন্ন দেশ থেকে করোনা আক্রান্ত রোগীদের প্রাপ্ত তথ্য বিশ্লেষণ করে যুক্তরাষ্ট্রের নিউ ইয়র্ক ইন্সটিটিউট অব টেকনোলজি কলেজ অফ অস্টিওপ্যাথিক মেডিসিনের এক গবেষণায় এমনটি জানানো হয়েছে।

এ বিষয়ে নিউ ইয়র্ক ইন্সটিটিউট অব টেকনোলজি কলেজ অফ অস্টিওপ্যাথিক মেডিসিনের পক্ষ থেকে বলা হয়, পৃথিবীর যে সব দেশে বিসিজি টিকাদান কর্মসূচি নেই যেমন ইতালি, নেদারল্যান্ড ও যুক্তরাষ্ট্রের মানুষের করোনায় আক্রান্ত হওয়ার সম্ভাবনা বেশি। তবে দীর্ঘস্থায়ী টিকাদান কর্মসূচি যে সব দেশে চালু আছে ওইসব দেশের মানুষের করোনায় আক্রান্ত হওয়ার প্রবণতা কম।
গবেষণায় দাবি করা হয়, বিসিজি টিকা আসার পর থেকে বিশ্বে মৃত্যুর হার উল্লেখযোগ্য হারে কমে গেছে। উদাহরণ স্বরূপ বলা হয়, মৃত্যুর হার বেশি হওয়ায় ১৯৮৪ সালে বিসিজি কার্যক্রম শুরু করে ইরান। দেশটিতে বিসিজি টিকা দেয়া মানুষের মধ্যে করোনা ভাইরাসের উপস্থিতি তেমন একটা পাওয়া যায়নি। এছাড়া ইউরোপ এবং যুক্তরাষ্ট্রে বিসিজি টিকা না দেয়ার কারণে চীন এবং ভারতের চেয়ে করোনায় বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হবে বলে গবেষণায় দাবি কর হয়। কারণ চীন এবং ভারতে বহুকাল ধরে বিসিজি টিকার প্রচলন রয়েছে।

আর এমন দাবির সঙ্গে মিলে যাচ্ছে বর্তমান পরিস্থিতিও । চীন থেকে করোনা ভাইরাসের উৎপত্তি হলেও এই ভাইরাসে সবচেয়ে বেশি মারা গেছে ইতালিতে। আর সবচেয়ে বেশি আক্রান্ত হয়েছে যুক্তরাষ্ট্রে। বিশ্বে এ পর্যন্ত করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে ৮ লাখ ৩ হাজার ১৮০ জন। মারা গেছেন ৩৯ হাজার ৩৩ জন।

সূত্র: হিন্দুস্তান টাইমস

Facebooktwitterlinkedinrssyoutubemailby feather

শিক্ষকদেরও সংসদ টিভিতে ক্লাস দেখার নির্দেশ

নিজস্ব প্রতিবেদক | ০১ এপ্রিল, ২০২০

দেশে করোনা ভাইরাস সংক্রমণ ঠেকাতে সব স্কুল-কলেজ, মাদরাসা ও ইংলিশ মিডিয়াম স্কুলসহ দেশের সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ও কোচিং সেন্টার বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। এ অবস্থায় গত ২৯ মার্চ সকাল থেকে সংসদ টিভিতে ‘আমার ঘরে আমার ক্লাস’ শিরোনামে মাধ্যমিকের শিক্ষার্থীদের ক্লাস সম্প্রচার শুরু হয়েছে। আর সব শিক্ষকদের এসব ক্লাস দেখা নির্দেশ দিয়েছে মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তর। অধিদপ্তর থেকে জারি করা এক বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধের সময় ষষ্ঠ থেকে দশম শ্রেণির শিক্ষার্থীদের পাঠদানের ধারাবাহিকতা রক্ষা করতে সংসদ বাংলাদেশ টেলিভিশনে নির্দিষ্ট একাডেমিক ক্যালেন্ডার অনুযায়ী পাঠদান চলমান আছে। শিক্ষার্থীদের পাশাপাশি মাধ্যমিক পর্যায়ের সকল শিক্ষক-শিক্ষিকা কে পাঠান দেখার জন্য নির্দেশনা দেয়া হল।

করোনার বন্ধে শিক্ষার্থীদের ক্ষতি পুষিয়ে নিতে টিভিতে পাঠদান চালিয়ে যাওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের তত্ত্বাবধায়নে সে সিদ্ধান্ত বাস্তবায়ন করছে মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদপ্তর। সহযোগিতা করছে এটুআই, ব্যানবেইসসহ অন্যান্যরা।প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে টিভিতে ৬ষ্ঠ থেকে ১০ম শ্রেণির শিক্ষার্থীদের পাঠদানের সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী ডা: দীপু মনি। দীর্ঘ ছুটিতে লাখ লাখ শিক্ষার্থীকে পড়াশোনার মধ্যে রাখার সরকারি এ উদ্যোগকে স্বাগত জানিয়েছেন অভিভাবক ও শিক্ষার্থীরা।

শিক্ষার্থীরা সংসদ টিভিতে এসব ক্লাস দেখতে পারবেন। এটুআইয়ের ফেসবুক পেজে ক্লাস সম্প্রচার করা হবে।

টেলিভিশনে মাধ্যমিক শিক্ষার্থীদের জন্য পরিচালিত বিষয়ভিত্তিক ক্লাস দেখলেই কাজ শেষ নয়। টিভিতে প্রচারিত প্রতিটি ক্লাসের পর দেয়া হবে বাড়ির কাজ। আর প্রতিটি বিষয়ের আলাদা খাতায় সেই বাড়ির কাজ শেষ করতে হবে। করোনার তাণ্ডব শেষ হলে যখন স্কুল খোলা হবে তখন শিক্ষকদের সেই বাড়ির কাজের খাতা দেখাতে হবে। বাড়ির কাজের প্রাপ্ত নম্বর ধারাবাহিক মূল্যায়নের অংশ হিসেবে বিবেচিত হবে।

যতদিন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকবে ততদিনই টেলিভিশনের মাধ্যমে পাঠদান কার্যক্রম অব্যাহত রাখা হবে। দীর্ঘসময় শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকলে বাসায় অবস্থান করেই ছাত্র-ছাত্রীরা যাতে ক্ষতি কিছুটা পুষিয়ে নিতে পারে সে বিষয়টি বিবেচনায় নিয়েই সংসদ টেলিভিশনে রেকর্ড করা শিক্ষা কার্যক্রম সম্প্রচারের উদ্যোগ নেয়া হয়েছে।

Facebooktwitterlinkedinrssyoutubemailby feather

করোনাভাইরাস চিকিৎসায় প্লাজমা থেরাপি

প্রথম আলো ডেস্ক,১ এপ্রিল:
কোভিড-১৯ চিকিৎসায় চীনা বিজ্ঞানীরা সম্ভাব্য ওষুধ খুঁজতে গিয়ে কার্যকর অ্যান্টিবডির সন্ধান পেয়েছেন। তাঁদের আলাদা করে ফেলা এসব অ্যান্টিবডি নতুন করোনাভাইরাসকে কোষে প্রবেশে বাধা দেওয়ার বেলায় অত্যন্ত কার্যকর হতে পারে। এ উদ্ভাবন কোভিড-১৯ চিকিৎসা বা প্রতিরোধে সাহায্য করতে পারে।

এ পর্যন্ত করোনাভাইরাসের ক্ষেত্রে প্রমাণিত কার্যকর কোনো চিকিৎসা নেই। চীনে গত বছরের ডিসেম্বরে উৎপত্তির পর থেকে এখন সারা বিশ্বে মহামারিতে রূপ নিয়েছে। জনস হপকিনস ইউনিভার্সিটির তথ্য অনুযায়ী, বিশ্বজুড়ে ৮ লাখ ৫৭ হাজার মানুষের করোনা সংক্রমণ শনাক্ত হয়েছে। করোনায় আক্রান্ত হয়ে ৪২ হাজার মানুষ মারা গেছে।

বেইজিংয়ের সিনহুয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের ঝাং লিংকি বলেন, তাঁর দলের সন্ধান পাওয়া অ্যান্টিবডির মতো অ্যান্টিবডি দিয়ে তৈরি ওষুধ বর্তমান পদ্ধতির চেয়ে অধিক কার্যকরভাবে ব্যবহার করা যেতে পারে। চিকিৎসার ক্ষেত্রে এটিকে তিনি ‘বর্ডারলাইন’ বা ‘সীমান্তরেখা’ বলছেন। এর আগে এ রকম প্লাজমা বা রক্তরস পদ্ধতিতে চিকিৎসা করার নজির রয়েছে।

এর আগে যুক্তরাষ্ট্রের কলাম্বিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের সংক্রামক রোগ বিশেষজ্ঞ ইয়ান লিপকিন করোনাভাইরাসের চিকিৎসায় নতুন পদ্ধতি হিসেবে ‘ব্লাড-প্লাজমা থেরাপি’র কথা বলেন। তাঁর দাবি, নভেল করোনাভাইরাস (কোভিড-১৯) চিকিৎসায় ব্যবহার করা যেতে পারে প্লাজমা থেরাপি। এ চিকিৎসাপদ্ধতিকেও আশার আলো হিসেবে দেখছেন বিশেষজ্ঞরা।

Facebooktwitterlinkedinrssyoutubemailby feather

১১ এপ্রিল পর্যন্ত ছুটি বাড়িয়ে প্রজ্ঞাপন জারি

অনলাইন রিপোর্টার ॥ দেশব্যাপী করোনা ভাইরাস (কোভিড-১৯) সংক্রমণ মোকাবিলা এবং এর বিস্তার রোধে সতর্কতামূলক ব্যবস্থা হিসেবে আগামী ৫ থেকে ৯ এপ্রিল পর্যন্ত সাধারণ ছুটি বাড়িয়ে আদেশ জারি করেছে সরকার।

আজ বুধবার (০১ এপ্রিল) জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় এ সংক্রান্ত প্রজ্ঞাপন জারি করে। তবে এতে বলা হয়েছে, ১০ ও ১১ এপ্রিল (শুক্র ও শনিবার) সাপ্তাহিক ছুটিও এর সঙ্গে যুক্ত থাকে। এর মানে হলো ১১ এপ্রিল পর্যন্ত ছুটি।

Facebooktwitterlinkedinrssyoutubemailby feather

ঋণের এক অঙ্কের সুদহার কার্যকর

অর্থনৈতিক রিপোর্টার ॥ এক অঙ্কের ঋণের সুদহার কার্যকর করেছে দেশের কার্যরত সকল ব্যাংক। বুধবার থেকে ক্রেডিট কার্ড ছাড়া সব ধরনের ঋণের সুদহার সর্বোচ্চ ৯ শতাংশ নির্ধারণ করা হয়েছে। ব্যাংকাররা জানিয়েছেন, বাংলাদেশ ব্যাংকের নির্দেশনা মোতাবেক ঋণের এক অঙ্কের সুদহার কার্যকর করা হয়েছে। নির্দেশনা অনুযায়ী আগের নেয়া ঋণের ক্ষেত্রেও নয় শতাংশ হারে এখন থেকে সুদ পরিশোধ করা যাবে।

বাংলাদেশ ব্যাংকের প্রতিবেদনে দেখা যায়, ২০১৯ সালের ডিসেম্বর পর্যন্ত ব্যাংকগুলোর বিতরণ করা ঋণের পরিমাণ ১০ লাখ ১১ হাজার ৮২৮ কোটি টাকা। এরমধ্যে রাষ্ট্রায়ত্ত ছয় বাণিজ্যিক ব্যাংকের বিতরণ করা ঋণের পরিমাণ ১ লাখ ৮৪ হাজার ৪০৪ কোটি টাকা। গত ২৪ ফেব্রুয়ারি ঋণের সুদহার বিষয়ে বাংলাদেশ ব্যাংক নতুন একটি সার্কুলার জারি করে। এতে বলা হয়, ক্রেডিট কার্ড ছাড়া সব ঋণে সর্বোচ্চ ৯ শতাংশ সুদ কার্যকরের নির্দেশ দেয় বাংলাদেশ ব্যাংক। এতে ক্ষুদ্র ও মাঝারিসহ সব ধরনের শিল্প, গাড়ি, বাড়ি, আবাসনসহ কোনো ঋণে আর সিঙ্গেল ডিজিটের বেশি সুদ নিতে পারবে না ব্যাংকগুলো। আগে দেওয়া ঋণের সুদহার এক অঙ্কে নামিয়ে আনতে বলা হয়। তবে আমানতের ক্ষেত্রে নিজেদের মতো করে সুদহার নির্ধারণ করতে পারবে। অধিকাংশ ব্যাংক এ নিয়ে কয়েক দফা বৈঠক করে শাখা পর্যায়ে নির্দেশনাও দেয়। তবে করোনার কারণে অনেক ব্যাংকের কর্মকর্তারা বিষয়টি বাস্তবায়নে খুব বেশি আগ্রহী নয়। তাদের ধারণা, কেন্দ্রীয় ব্যাংক এক্ষেত্রে হয়তো শিথিলতা দেখাতে পারে। যদিও এর আগে ব্যাংকগুলো নিজেরা বসে গত ১ ফেব্রুয়ারি থেকে মেয়াদি আমানতে আর ৬ শতাংশের বেশি সুদ না দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেয়। তবে এ সিদ্ধান্ত অনেক ব্যাংক মানছে না বলে জানা গেছে। আর এ জন্য অনেক ব্যাংক এখনও আমানত নিচ্ছে ৮ থেকে ৯ শতাংশ সুদে। বিশেষ করে নতুন ও আর্থিকভাবে দুর্বল ব্যাংকগুলো আমানতে উচ্চ সুদ দিয়ে গ্রাহক আকর্ষণের চেষ্টা করছে।

Facebooktwitterlinkedinrssyoutubemailby feather

১১ এপ্রিল পর্যন্ত ছুটি বাড়ছে

ডেস্ক,৩১ মার্চ:
করোনাভাইরাস মোকাবিলায় সরকারি-বেসরকারি অফিসে ছুটির মেয়াদ আগামী ৯ এপ্রিল পর্যন্ত বাড়ছে। তবে যেসব অফিস খুবই প্রয়োজন, সেগুলো চালু থাকবে।

আরো পড়ুন

প্রাথমিকসহ সকল শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে ছুটি বাড়ছে ঈদ পর্যন্ত!

আজ মঙ্গলবার মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ, বিভাগীয় কমিশনার এবং জেলা প্রশাসকদের সঙ্গে ভিডিও কনফারেন্সের সময় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, ছুটির মেয়াদ ৯ এপ্রিল পর্যন্ত বাড়াতে হবে। প্রধানমন্ত্রী তাঁর সরকারি বাসভবন গণভবন থেকে এই কনফারেন্সে যোগ দেন।

আরো পড়ুন

প্রাথমিকের প্রথম সাময়িক পরীক্ষা স্থগিত

৯ এপ্রিল পর্যন্ত বলা হলেও কার্যত ছুটির মেয়াদ ১১ এপ্রিল পর্যন্ত হচ্ছে। কারণ ৯ এপ্রিল পবিত্র শবে বরাত। এর পরের দুদিন শুক্র ও শনিবার সাপ্তাহিক ছুটি। জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন প্রথম আলোকে বলেছেন, আজ-কালের মধ্যেই ছুটির বিষয়ে প্রজ্ঞাপন জারি হতে পারে।

Facebooktwitterlinkedinrssyoutubemailby feather

প্রাথমিকের প্রথম সাময়িক পরীক্ষা স্থগিত

নিজস্ব প্রতিবেদক | ৩১ মার্চ, ২০২০
করোনা ভাইরাসের প্রাদূর্ভাবের কারণে সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রথম সাময়িক পরীক্ষা স্থগিত হতে পারে। আগামী ১৫ এপ্রিল থেকে ২৪ এপ্রিলের মধ্যে প্রাথমিকের প্রথম সাময়িক পরীক্ষা হওয়ার কথা। কিন্তু করনা ভাইরাস সংক্রমণ রোধে স্কুল বন্ধ থাকা প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রথম সাময়িক পরীক্ষা স্থগিত বা বাতিল করা হতে পারে বলে দৈনিক শিক্ষাবার্তা ডটকমকে জানিয়েছে প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তর সূত্র। কিছু দিনের মধ্যেই পরীক্ষা স্থগিত করার বিষয়ে অধিদপ্তর সবাইকে জানিয়ে দেবে।
প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক মো. ফসিউল্লাহ প্রাথমিকের প্রথম সাময়িক পরীক্ষা স্থগিত করার বিষয়ে বলেন, ‘পড়াতেই পারছি না আবার পরীক্ষা কিসের? এ পরিস্থিতিতে পরীক্ষা পেছালে কী এমন ক্ষতি হবে।’
টিভি ও অনলাইন পোর্টালে শ্রেণি কার্যক্রম সম্প্রচারের বিষয়ে মহাপরিচালক বলেন, আমরা এনিয়ে কাজ করছি। এখন শিক্ষকদের একসঙ্গে করার সুযোগ না থাকায় বিষয়ভিত্তিক গ্রুপ করে দিয়ে তাদের নির্দেশনা দিয়েছি। টিভি বা অনলাইন পোর্টালে ক্লাস দেখে শিক্ষার্থীদের বাড়ির কাজ করতে হবে। স্কুল খোলার পর তা সংশ্লিষ্ট শিক্ষকের কাছে জমা দিতে হবে। বাড়ির কাজের উপর প্রাপ্তনম্বর শিক্ষার্থীদের ধারাবাহিক মূল্যায়নের অংশ হিসেবে বিবেচিত হবে।

Facebooktwitterlinkedinrssyoutubemailby feather

করোনার বন্ধে প্রাইমারির ক্লাস হবে সংসদ টিভি ও অনলাইন পোর্টালে

নিজস্ব প্রতিবেদক | ৩০ মার্চ, ২০২০

মাধ্যমিকের পর এবার সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের জন্যও ক্লাস ভিডিও করে সংসদ টিভিতে প্রচারের উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। এছাড়া শ্রেণি কার্যক্রমের এসব এসব ভিডিও সারাবছর শিক্ষার্থীদের জন্য উন্মুক্ত রাখতে আলাদা অনলাইন পোর্টাল তৈরি উদ্যোগ নিয়েছে। প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তর। অধিদপ্তরের কর্মকর্তারা দৈনিক শিক্ষাবার্তা ডটকমকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

অধিদপ্তরের মহাপরিচালক মো. ফসিউল্লাহ দৈনিক শিক্ষাবার্তা ডটকমকে বলেন, আমরা ভিডিও ক্লাসের জন্য কাজ শুরু করেছি। যেসব ভিডিও ক্লাস শিক্ষার্থীদের জন্য তৈরির ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। ৪০ জন শিক্ষক কাজ করছেন। সেগুলো সম্পাদনার পর সংসদ টেলিভিশনে প্রচার করা হবে। ইতোমধ্যে সংসদ টেলিভিশনের সঙ্গে কথা হয়েছে। এখন বিষয়টি সমন্বয়ের জন্য শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সঙ্গে কথা বলতে হবে।

তিনি দৈনিক শিক্ষাবার্তা ডটকমকে আরও বলেন, প্রাথমিক শিক্ষার্থীদের লেখাপড়ার সার্বিক উন্নয়নে জরুরি ও গুরুত্ব বিষয়গুলোর শ্রেণি কার্যক্রমের ভিডিও অনলাইনে আপলোড করার উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। আমরা ভিডিও ধারণ শুরু করার সব ব্যবস্থা নিয়েছি। কিছু কাজ শুরু করেছি। ভিডিও ক্লাস সংসদ টেলিভিশনে প্রচারের পাশাপাশি অনলাইন পোর্টালে আপলোড করবো। শিশুদের জন্য আকর্ষণীয় হয় এমন একটি নাম দিয়ে পোর্টাল তৈরি করে আপলোড করে রাখবো। এসব ভিডিও ইউটিউবেও সংরক্ষণ করা হবে। যাতে শিক্ষার্থীরা যখন প্রয়োজন মনে করবে তখনই ভিডিও ক্লাস থেকে তারা বিষয়ভিত্তিক পাঠ নিতে পারবে।

মহাপরিচালক দৈনিক শিক্ষাবার্তা ডটকমকে আরও জানান, প্রথম ও দ্বিতীয় শ্রেণির জন্য ২০ মিনিটের একটি করে এবং তৃতীয় থেকে পঞ্চম শ্রেণির জন্য একটি করে ক্লাস সংসদ টিভিতে প্রচারের জন্য উদ্যোগ নেয়া হয়েছে।

অধিদপ্তর সূত্র দৈনিক শিক্ষাবার্তা ডটকমকে জানায়, পরিস্থিতি বিবেচনায় শ্রেণি কার্যক্রমের ভিডিও প্রচারের জন্য সংসদ টেলিভিশনের জন্য উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। যেহেতু মাধ্যমিক পর্যায়ের ষষ্ঠ থেকে দশম শ্রেণির শ্রেণি কার্যক্রম সংসদ টেলিভিশনে প্রচার করা হচ্ছে। সে কারণে কবে থেকে এটি সংসদ টেলিভিশনে প্রচার করা যাবে তা নিয়ে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সঙ্গে আলোচনা করা হচ্ছে।

দেশে করোনা ভাইরাস সংক্রমণ ঠেকাতে আগামী ৯ এপ্রিল পর্যন্ত স্কুল-কলেজ, মাদরাসা ও ইংলিশ মিডিয়াম স্কুলসহ দেশের সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ও কোচিং সেন্টার বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। গত ২৯ মার্চ সকাল থেকে সংসদ টিভিতে মাধ্যমিকের শিক্ষার্থীদের ক্লাস সম্প্রচার শুরু হয়েছে।

যতদিন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকবে ততদিনই টেলিভিশনের মাধ্যমে পাঠদান কার্যক্রম অব্যাহত রাখা হবে। দীর্ঘসময় শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকলে বাসায় অবস্থান করেই ছাত্র-ছাত্রীরা যাতে ক্ষতি কিছুটা পুষিয়ে নিতে পারে সে বিষয়টি বিবেচনায় নিয়েই সংসদ টেলিভিশনে রেকর্ড করা শিক্ষা কার্যক্রম সম্প্রচারের উদ্যোগ নেয়া হয়েছে।

Facebooktwitterlinkedinrssyoutubemailby feather

প্রাথমিকসহ সকল শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে ছুটি বাড়ছে ঈদ পর্যন্ত!

ডেস্ক,৩০ মার্চ:

করোনাভাইরাসের কারণে দেশের সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়সহ সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের চলমান ছুটি বাড়ানো হতে পারে। এই ছুটির মেয়াদ বাড়িয়ে ঈদুল ফিতর পর্যন্ত বাড়ানোর চিন্তাভাবনা করছে শিক্ষা মন্ত্রণালয় এবং মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদফতর (মাউশি)। তবে এ বিষয়ে এখনও চূড়ান্তভাবে সিদ্ধান্ত হয়নি।

চলমান করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাবে কয়েকটি ধাপে আগামী ৯ এপ্রিল পর্যন্ত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান ছুটি ঘোষণা করা হয়েছে। বিশ্বব্যাপী বর্তমান পরিস্থিতির ভয়াভয়তা বেড়ে যাচ্ছে। ঘরের বাইরে বের হওয়াটা আরও ঝুকিপূর্ণ হয়ে পড়েছে। এমন পরিস্থিতিতে শিক্ষার্থীদের ঝুঁকির মধ্যে না ফেলে তাদের নিরাপত্তায় শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান দীর্ঘ সময়ের জন্য বন্ধ রাখার চিন্তা-ভাবনা করা হচ্ছে। বর্তমান ছুটি শেষ হওয়ার আগেই আগামী রমজান ও ঈদের ছুটি পর্যন্ত বাড়ানো হতে পারে।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগের সচিব মো. মাহবুব হোসেন বলেন, ‘সামগ্রিক বিষয় বিবেচনা করে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নেয়া হবে। সবার আগে শিক্ষার্থীদের নিরাপত্তা ও স্বাস্থ্যঝুঁকির বিষয়টি বিবেচনা করা হবে। করোনাভাইরাসের সংক্রমণ পরিস্থিতি স্বাভাবিক না হওয়া পর্যন্ত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ রাখা হবে। প্রয়োজনে ঈদুল ফিতরের পর শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলা হতে পারে।’

সচিব বলেন, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ রাখা হলে শিক্ষা কার্যক্রম চালিয়ে রাখতে বেশ কিছু বিকল্প পন্থা হাতে নেয়া হয়েছে। তার মধ্যে সংসদ টেলিভিশনে শ্রেণি পাঠ কার্যক্রম শুরু করা হয়েছে। ভিন্ন আরও কিছু পন্থা আমরা চিন্তা-ভাবনা করেছি। দীর্ঘসময় শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকলে সেসব বাস্তবায়ন করা হবে।

‘এমনিতে বছরের অর্ধেক সময় বিভিন্ন কারণে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে ছুটি থাকে। তাই শিক্ষার্থীদের দীর্ঘ শিক্ষাজীবনে যাতে কোনো ব্যাঘাত না হয়, তাও আমাদের বিবেচনায় নিতে হবে। প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সঙ্গে আলোচনা করে ছুটি বৃদ্ধির বিষয়ে দ্রুত সিদ্ধান্ত নেয়া হবে’-যোগ করেন সচিব মাহবুব হোসেন।

অন্যদিকে প্রাথমিক শিক্ষা অধিদফতরের (ডিপিই) মহাপরিচালক মো. ফসিউল্লাহ বলেন, সকল আগে শিক্ষার্থীদের নিরাপত্তা আমাদের কাছে গুরুত্বপূর্ণ। এই বিবেচনায় শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলার সিদ্ধান্ত নেয়া হবে। করোনা পরিস্থিতি স্বাভাবিক না হওয়া পর্যন্ত বিদ্যালয় বন্ধ রাখা হবে।

Facebooktwitterlinkedinrssyoutubemailby feather

১৪ এপ্রিল পর্যন্ত বাড়তে পারে সাধারণ ছুটি

নিজস্ব প্রতিবেদক | ৩০ মার্চ, ২০২০

বিশ্বব্যাপী বিস্তৃত কোভিড-১৯-এর বিস্তার থেকে দেশবাসীকে রক্ষা করতে সাধারণ ছুটি আরও বাড়ানো হতে পারে। ইতিপূর্বে ২৬ মার্চ থেকে ৪ এপ্রিল পর্যন্ত ১০ দিনের সাধারণ ছুটি ঘোষণা করা হলেও তা বাড়িয়ে ১৪ এপ্রিল পর্যন্ত করা হতে পারে বলে সরকারসংশ্লিষ্ট একাধিক সূত্র জানিয়েছে। সোমবার (৩০ মার্চ) যায়যায়দিন পত্রিকায় প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানা যায়।

প্রতিবেদনে আরও জানা যায়, দেশে কোভিড-১৯ বা করোনাভাইরাসের বিস্তার কতটা ঘটেছে বা ঘটছে সে বিষয়ে নিবিড় পর্যবেক্ষণ করছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি প্রতিদিনই সংশ্লিষ্ট স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় এবং বিভাগের কর্তব্যক্তিদের সঙ্গে কথা বলছেন। সর্বশেষ আপডেট জানছেন, দিচ্ছেন প্রয়োজনীয় নির্দেশনা। একাধিক বিশেষজ্ঞের সঙ্গে বিষয়টি নিয়ে আলোচনার পাশাপাশি প্রধানমন্ত্রী বিশ্ব পরিস্থিতিও পর্যালোচনা করছেন। পরিস্থিতির অন্যান্য বিশ্লেষণের ওপর নির্ভর করে ছুটি বাড়ানো হতে পারে।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক গতকাল রোববার সকালে অনলাইন ব্রিফিংয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে জানিয়েছেন, ছুটি বাড়া বা না বাড়া পরিস্থিতির ওপর নির্ভর করছে। এ বিষয়ে প্রধানমন্ত্রী সিদ্ধান্ত নেবেন। মন্ত্রী বলেন, স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় ও স্বাস্থ্য বিভাগ করোনা বিষয়ক পুরো পরিস্থিতির দিকে নজর রাখছে। পরিস্থিতি বিবেচনায় বিভিন্ন সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হবে।

Facebooktwitterlinkedinrssyoutubemailby feather

করোনা মোকাবেলায় ১দিনের বেতন কর্তনের পোষ্টে উর্ধতন কর্তৃপক্ষকে নিয়ে বিরুপ মন্তব্য!

ডেস্কঃ
করোনা মোকাবেলায় ১দিনের বেতন কর্তনের পোষ্টে উর্ধতন কর্তৃপক্ষকে নিয়ে বিরুপ মন্তব্য করেছেন একাধিক শিক্ষক। চুয়াডাঙ্গা জেলার Sarup das নামের এক শিক্ষক করোনা মোকাবেলা ও আমাদের করনীয় শিরোনামে শিক্ষকসহ সকল সরকারী কর্মচারী ও কর্মকর্তা, সংসদসদস্য সহএকাধিক ব্যক্তির কাছ থেকে আর্থিক সহযোগীতা নিয়ে একটি ফান্ড গঠনের প্রস্তাব দেন। তার পোষ্টে উর্ধত্বন কর্তৃপক্ষকে নিয়ে অশালিন মন্তব্য করেনএকাধিক শিক্ষক। বিষয়টি প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের দৃষ্টি গোচর হলে বিষয়টি তারা আমলে নেন।
talma gps নামে একজন লিখেছেন বন্টনকারীদের লুটার সুযোগ করে দেয়া।
Muslim ali sarker লিখেছেন কেন দেব? সরকার কি সাহায্য চেয়েছে? তেলবাজি বন্ধ করেন।
সরকার চাইলে দেখা যাবে।
মিজানুর রহমান লিখেছেন আমার বেতনের টাকায় অন্য জন ফুর্তি করবে তা হবেনা। প্রয়োজন হলে আমি নিজে আমার প্রতিবেশিকে সাহায্যে করব।

প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের উপপরিচালক বদরুল আলম বলেন বিষয়টি অত্যন্ত দৃষ্টিকটু। যদি আমাদের শিক্ষক হয়ে থাকে তদন্ত করে বিভাগীয় ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।
পাঠকের সুবিধার জন্য পোষ্টটি তুলে ধরা হল।

ক‌রোনা মোকা‌বেলায় আমা‌দের করনীয়
মাননীয় প্রধানমন্ত্রী,
সারা দে‌শে আমরা ২১ লাখ সরকারী কর্মচারী। জাতীর এ ক্লা‌ন্তিল‌গ্নে আমা‌দের ১ দি‌নের বেতন রাষ্ট্রীয় ‌কোষাগা‌রে জমা কর‌তে পার‌লে আমা‌দের প্রায় ২০০ কো‌টি টাকা জমা হ‌বে। যা দি‌য়ে পথ‌শিশু এবং যারা দিন আ‌নে দিন খায় তা‌দের খাবারের ব্যবস্থা কর‌া যা‌বে। পথ শিশু‌দের জন্য এখন বিদ্যালয়গু‌লো খু‌লে দি‌তে হ‌বে। ও‌দের‌কে বা‌হি‌রে রাখা ঠিক না। প্র‌তি‌টি সংসদসদস্য ব্য‌ক্তিগত তহ‌বিল থে‌কে একটা অর্থ সংগ্রহ করা যে‌তে পা‌রে। স্কয়ার, বে‌ক্সিমকো সহ বড় বড় প্র‌তিষ্ঠা‌নের কাছ থে‌কে অর্থ সংগ্রহ কর‌তে হ‌বে।
সব অর্থ ব্যয় হ‌বে গরীব দুস্থ‌দের মা‌ঝে। যারা দিন আ‌নে দিন খায়। তারপ‌রেও আমা‌দের কমপ‌ক্ষে ১৪ দিন সারা দেশ লক ডাউন কর‌তে হ‌বে। এ কা‌জের নেতৃত্ব আমা‌দের সেনাবা‌হিনীর হা‌তে ন্যস্ত কর‌লে আমরা ক্লা‌ন্তিলগ্ন থে‌কে মুক্ত হ‌তে পারব।
আমা‌দের অনু‌রোধ আপ‌নি দ্রুত ব্যবস্থা নিন।
লক ডাউন মা‌নে লক ডাউন। ঘর থে‌কে বের হ‌লে শা‌স্তি।
কারন আমরা কেও কোন নিয়ম মান‌ছি না।
স্বরুপ‌ দাস
প্রধান শিক্ষক
আজমপুর সপ্রা‌বি,দর্শনা
‌সি‌নিয়ার যুগ্ন সাধারন সম্পাদক কে‌ন্দ্রিয় ক‌মি‌টি
প্রধান শিক্ষক স‌মি‌তি।

Facebooktwitterlinkedinrssyoutubemailby feather

কুষ্টিয়ায় শিশু আইসোলেশনে, বাবা সিঙ্গাপুর থেকে এসেছেন

কুষ্টিয়া প্রতিনিধিঃ
কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি এক শিশুকে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ সন্দেহে আইসোলেশন ওয়ার্ডে নেওয়া হয়েছে। ওই শিশুর বয়স মাত্র ৭ মাস। কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালের আবাসিক চিকিৎসা কর্মকর্তা তাপস কুমার সরকার প্রথম আলোকে এ তথ্যের সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

তাপস কুমার বলেন, ২৩ মার্চ শিশুটিকে হাসপাতালে আসেন পরিবারের সদস্যরা। ওই সময় তার জ্বর, ঠান্ডা, কাশি ছিল। ওই দিনই পরিবারের সদস্যরা জানান, তাঁদের কেউ বিদেশে থেকে আসেননি বা প্রবাসী কারও সংস্পর্শে কেউ যাননি। ওই শিশুটিকে শিশু ওয়ার্ডে চিকিৎসার জন্য ভর্তি করা হয়। তার অবস্থা আজ বৃহস্পতিবার অবনতির দিকে যায়। তাকে নিউমোনিয়ার চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছিল। বিষয়টি আইইডিসিআরকে জানানো হয়েছে। তারা নমুনা সংগ্রহ করবে।

Facebooktwitterlinkedinrssyoutubemailby feather
hit counter