২৫৮ জনের চাকরি পল্লী সঞ্চয় ব্যাংকে স্থানান্তরে হাইকোর্টের রায়

নিজস্ব প্রতিবেদক,১৩ এপ্রিল: একটি বাড়ি একটি খামার প্রকল্পে কর্মরত ২৫৮ জন মাঠ সহকারীর চাকরি পল্লী সঞ্চয় ব্যাংকে স্থানান্তরে নির্দেশনা দিয়ে রায় দিয়েছেন হাইকোর্ট। বৃহস্পতিবার (১২এপ্রিল) পল্লী সঞ্চয় ব্যাংকে স্থানান্তরের নির্দেশনা চেয়ে দায়ের করা একটি রিট পিটিশনের চূড়ান্ত শুনানী শেষে বিচারপতি মোঃ আশফাকুল ইসলাম ও বিচারপতি কে.এম.কামরুল কাদের এর সমন্বয়ে গঠিত ডিভিশন বেঞ্চ রিটকারীদের চাকরি পল্লী সঞ্চয় ব্যাংকে স্থানান্তরের নির্দেশনা প্রদান করে রীট পিটিশনটি চূড়ান্ত নিষ্পত্তি করেন।

রিট আবেদনকারীদের পক্ষে মামলাটি শুনানী করেন- সুপ্রীম কোর্টের আইনজীবী এ্যাডভোকেট মোহাম্মদ ছিদ্দিক উল্যাহ মিয়া এবং রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন-ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল খন্দকার বশির আহমেদ ও আল আামীন সরকার।

রিটকারীদের আইনজীবী এ্যাডভোকেট মোহাম্মদ ছিদ্দিক উল্যাহ মিয়া বলেন, স্থানীয় সরকার, পল্লী ও সমবায় মন্ত্রণালয়ের অধীনে ২০০৯ সাল থেকে ‘‘একটি বাড়ি একটি খামার নামে প্রকল্প চালু করে। পরবর্তীতে পল্লী এলাকার দরিদ্র ও সুবিধাবঞ্চিত মানুষের সঞ্চয় ও অর্জিত অর্থ লেনদেন ও রক্ষণাবেক্ষণ, ঋণ ও অগ্রিম প্রদান এবং বিনিয়োগের জন্য পল্লী সঞ্চয় ব্যাংক নামে একটি বিশেষায়িত ব্যাংক প্রতিষ্ঠা লক্ষে পল্লী সঞ্চয় ব্যাংক আইন, ২০১৪ পাস করা হয়।

২০১৪ ইং সালের ৮ ই জুলাই উক্ত আইনটি গেজেট আকারে প্রকাশ করা হয়। এ লক্ষ্যে পল্লী সঞ্চয় ব্যাংক চাকরি প্রবিধানমালা-২০১৫ চূড়ান্ত করে অর্থ মন্ত্রণালয়ের ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগ। পরবর্তীতে একটি বাড়ি একটি খামার প্রকল্পে কর্মরত মাঠ সহকারী দের পল্লী সঞ্চয় ব্যাংকে স্থানান্তর করে ২০১৬ সালের ২৮ জুন ও ৩ আগষ্ট পৃথক দুটি অফিস আদেশ জারি করেন সংশ্লিষ্ট ব্যাংক। একটি বাড়ি একটি খামার প্রকল্পে কর্মরত মাঠ সহকারীদের পল্লী সঞ্চয় ব্যাংকে স্থানান্তর হওয়ার পর ২০১৬ সালের জুলাই মাসের বেতনও প্রদান করা হয় উক্ত ব্যাংক হতে।

২০১৬ সালে ৩১ ইং অক্টোবর একটি বাড়ি একটি খামার প্রকল্প চলমান থাকবে বলে পূনরায় অফিস আদেশ জারি করেন ব্যাংক কর্তপক্ষ। উক্ত আদেশের পর পল্লী সঞ্চয় ব্যাংকে স্থান্তারের নির্দেশনা চেয়ে হাইকোর্টে রীট পিটিশনটি দায়ের করেন ভুক্তভুগি মাঠ সহকারীরা। উক্ত রুলের চূড়ান্ত শুনানী শেষে গগতকাল বৃহস্পতিবার হাইকোর্ট তাদের পক্ষে রায় দেন।

রিটকারীগণ হলেন সিরাজগঞ্জ জেলার শাহজাদপুর উপজেলার মোঃ মনিরুজ্জামান, মোঃ শাহিন আলম, মোঃ জহিরুল ইসলাম, মোঃ আলমগীর হোসাইন, মোঃ ফরিদুল ইসলাম ও উল্লাপাড়া উপজেলার মোঃ গোলাম মোস্তফা, কৃষ্ণা চন্দ্র, মোঃ নজরুল ইসলামসহ একটি বাড়ি একটি খামার প্রকল্পে কর্মরত ২৫৮ জন মাঠ সহকারী।

Facebooktwittergoogle_plusredditpinterestlinkedinmail

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

প্রাথমিকে প্রতিমন্ত্রীর নির্দেশনা নিয়ে বিতর্ক

প্রাথমিক ও গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রী গত ১৫ দিনে চিহ্নিত কিছু কর্মকর্তাকে বদলির নির্দেশনা দিলেও, তা এখনো বাস্তবায়ন হয়নি। তার মধ্যে বিধি-বহির্ভূতভাবে ভ্রমণ ভাতা নেয়ার দায়ে চিহ্নিত ১২ কর্মকর্তাকে এবং বুধবার (১৭ ...

প্রশ্নপত্রে পর্নোতারকাদের নাম আসার বিষয়টি তদন্ত করে ব্যবস্থা

ডেস্ক,১৯ এপ্রিল: ঢাকার রামকৃষ্ণ মিশন উচ্চ বিদ্যালয়ের নবম শ্রেণির প্রশ্নপত্রে পর্নোতারকাদের নাম আসার বিষয়টি তদন্ত করে ব্যবস্থা নেয়ার কথা জানিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি। শুক্রবার সকালে ১৫তম শিক্ষক নিবন্ধনের প্রিলিমিনারি ...

নুসরাতকে নিয়ে ছোট ভাই রায়হানের আবেগঘন স্ট্যাটাস

শীর্ষ কাগজডেস্কঃ  পাঁচদিন একটানা মৃত্যুর সাথে লড়াই করে ১১ এপ্রিল দুনিয়া ছেড়ে চলে গেছেন নুসরাত জাহান রাফি। এই একটি মৃত্যু নাড়িয়ে দিয়ে গেছে পুরো দেশকে। যে শিক্ষকের কাছে শিক্ষার্থীরা সবচেয়ে ...

আর কোনো প্রাথমিক বিদ্যালয় সরকারি হবে না

ডেস্ক,১৯এপ্রিলঃ প্রাথমিক বিদ্যালয় সরকারিকরণের কোন প্রস্তাব আপাতত বিবেচনা করার সুযোগ নেই বলে জানিয়েছে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়। তাই বেসরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় সরকারিকরণের কোন প্রস্তাব, সুপারিশ বা আবেদন না পাঠানোর জন্য ...