বিশ্বকাপের স্বাগত জানাতে অপেক্ষায় ১৫ লাখ পতিতা…

এস কে দাসcabdriver-watching-novela-615_37557 : ১২ জুন ফুটবল বিশ্বকাপ শুরু হবে। বিশ্বকাপ টুর্নামেন্ট ১ মাস ধরে চলবে। ব্রাজিলে যৌন ব্যবসা বৈধ। ফলে এ ব্যবসা ফুলেফেঁপে উঠবে এটাই স্বাভাবিক। ব্রাজিলের অন্ধকার গলিতেই শুধু নয়, এই বিশ্বকাপে রাস্তার মোড়ে মোড়ে পর্যটকদের স্বাগত জানাতে অপেক্ষায় থাকবেন ১৫ লাখ দেহপসারিনি। বিশ্বকাপ উপলক্ষ্যে দক্ষিণ আমেরিকার দেশগুলো ছাড়াও রাশিয়া, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র, ভারত, চীনসহ পৃথিবীর বিভিন্ন দেশ থেকে হাজার হাজার পতিতা ব্রাজিলে ইতোমধ্যে ভীড় জমাতে শুরু করেছে। পর্যটকদের কাছ থেকে ডলার খসাতে প্রস্তুত রয়েছে পতিতারা।

যুক্তরাষ্ট্রের বিশ্বখ্যাত ফোর্বস ম্যাগাজিনের মতে, বিশ্বকাপ উপলক্ষে এক পর্যটন খাতেই ব্রাজিলের অর্থনীতিতে যোগ হবে ৩০৩ কোটি ডলার। বিশ্বকাপে ব্রাজিলে ভ্রমণ করবেন ৩৭ লাখ বিদেশি পর্যটক। প্রত্যেকে গড়ে চারটি করে ম্যাচ দেখবেন। সব মিলিয়ে ব্রাজিলে অবস্থানকালে প্রত্যেকের খরচ হবে প্রায় দুই হাজার ৪৮৮ ডলার।

ব্রাজিল হচ্ছে দক্ষিণ আমেরিকার সর্ববৃহৎ রাষ্ট্র। এছাড়াও জনসংখ্যা ও ভৌগোলিক আয়তনের দিক থেকে এটি বিশ্বের পঞ্চম বৃহত্তম দেশ। দেশটিতে বসবাসকৃত মানুষের সংখ্যা প্রায় ২৩ কোটি। ব্রাজিলের সাথে চিলি ও ইকুয়েডর ছাড়া দক্ষিণ আমেরিকার সকল দেশেরই সীমান্ত-সংযোগ রয়েছে। বিশ্বের পঞ্চম বৃহত্তম দেশ হিসেবে রাশিয়া, কানাডা, চীন, ও মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের পরেই ব্রাজিলের অবস্থান।

দেশটিতে পাহাড়, পর্বত, সমভূমি, উচ্চভূমি, চরণভূমি প্রভৃতি বৈচিত্রের ভূভাগ বিদ্যমান। তিন লাখ ৪০ হাজার কয়েদী ধারণে সক্ষম ব্রাজিলের কারাগারগুলোতে বর্তমান সময়ে পাঁচ লাখ ৪৮ হাজারেরও বেশি কয়েদী রয়েছে।

১৮২২ সালে ব্রাজিল, পর্তুগালের কাছ থেকে স্বাধীনতা লাভ করে। স্বাধীন হবার পর একজন সম্রাট ব্রাজিল শাসন করতেন। ১৮৮৮ সালে দাসপ্রথা নিষিদ্ধ করা হয়। ব্রাজিলে বিভিন্ন জাতের লোকের বাস। দেশটি দক্ষিণ আমেরিকার একমাত্র পর্তুগিজ উপনিবেশ। ১৬শ শতকে পর্তুগিজদের আগমনের আগে বহু আদিবাসী আমেরিকান দেশটির সর্বত্র ছড়িয়ে ছিটিয়ে ছিল।

ব্রাজিল নামটির বুৎপত্তি পরিষ্কার নয়। ঐতিহ্যগতভাবে ধারণা করা হয় ‘ব্রাজিল’ নামটি এসেছে ব্রাজিলউড থেকে, যা এক প্রকার কাঠ উৎপাদনকারী গাছ। ১৬ শতকের দিকে ব্রাজিল থেকে নাবিকরা ইউরোপে এই কাঠ রপ্তানি করতো।

ব্রাজিলে প্রায় আড়াই হাজার বিমানবন্দর ও বিমান অবতরণের স্থান রয়েছে। যা যুক্তরাষ্ট্রের পর বিশ্বের দ্বিতীয় সর্বোচ্চ।

ফিফা বিশ্বকাপের ইতিহাসে সবচেয়ে সফলতম দলটি হচ্ছে ব্রাজিল। এ পর্যন্ত দলটি পাঁচবার (১৯৫৮, ১৯৬২, ১৯৭০, ১৯৯৪ ও ২০০২) বিশ্বকাপ জয় করেছে যা একটি রেকর্ড। ব্রাজিলের জাতীয় দল তাদের প্রথম খেলাটি খেলে ১৯১৪ সালে। ব্রাজিল দল আন্তর্জাতিক ফুটবলে ১৯৭০ সালের পর দীর্ঘ ২৪টি বছর বিশ্বকাপ জয় করতে পারেনি, এমন কী ফাইনালেও উঠতে পারেনি।

প্রায় ৩ হাজার বাংলাদেশির বসবাস এখন ব্রাজিলে, যাদের বেশির ভাগই নিজেদের সম্পৃক্ত রেখেছেন ছোট-বড় বিভিন্ন ব্যবসা-বাণিজ্যের সঙ্গে। প্রধান বাণিজ্যিক নগরী সাও পাউলো, রাজধানী ব্রাসিলিয়া, রিও দে জেনেইরো সহ পুরো ব্রাজিল জুড়ে এমনকি দেশটির অনেক প্রত্যন্ত এলাকাতেও আজ বাংলাদেশিদের বসবাস। দেশটিতে অবস্থানরত বাংলাদেশিদের গড় মাসিক আয় এক লাখ টাকা বলে জানা গেছে।

ব্রাজিলের উত্তর-পূর্বাঞ্চলের প্রায় ১৫০০ বর্গকিলোমিটার এলাকাজুড়ে অবস্থিত ন্যাশনাল পার্ক। আমাজান বনের পাশে হওয়ায় ন্যাশনাল পার্কে রয়েছে হরেক প্রজাতির উদ্ভিদ ও প্রাণীবৈচিত্র্য। এই পার্কের বাসিন্দাদের মূল পেশা হলো মাছ ধরা। তবে সবচেয়ে মজার বিষয় হলো পুরো পার্কে নেই কোনো সোজা রাস্তা। আঁকাবাঁকা মাটির রাস্তা পেরিয়ে পার্কের সৌন্দর্য অবলোকন করতে হয়। এটি সংরক্ষিত বনাঞ্চল হওয়া সত্ত্বেও পর্যটকরা অনায়াসেই বন্য আমাজান স্বাদ নিতে পারবেন।

আমাজানের গভীর জঙ্গলের ভেতর বয়ে যাওয়া একটি নদীর নাম বেলেম। ৯৮৫ মাইল দীর্ঘ এই নদীটি বিশ্বের সবচেয়ে দীর্ঘ নদী। তবে নদীটিকে পর্যটকদের জন্য উন্মুক্ত করতে দেশটির সরকারকে টানা পাঁচ বছর কাজ করতে হয়েছে। এসময় নদীর ধারের অনেক আদিবাসী গোষ্ঠি বাস্তুচ্যুত হয়েছে। নতুন করে ড্রেনেজ ব্যবস্থা তৈরি করতে কাটা হয়েছে অনেক গাছ। তারপরেও জঙ্গলের সৌন্দর্য্য ধরে রাখতে সরকার নানামুখি পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে। বেলেম নদীতে নৌকা ছাড়া অন্য কোনো বাহন নিয়ে প্রবেশ নিষিদ্ধ করেছে দেশটির সরকার।

বেলেঁ উত্তর ব্রাজিলের শহর। বেলেঁ একটি পর্তুগিজ শব্দ যার অর্থ বেথলেহেম। নিরক্ষরেখার কাছে অবস্থিত এই শহরটি পারা রাজ্যের রাজধানী, এবং নিম্ন আমাজন নদীর প্রধান বন্দর। এ শহরে প্রায় ১৪ লাখ লোকের বসবাস। ১৭শ শতকের শুরুর দিকে পর্তুগিজেরা বেলেঁ প্রতিষ্ঠা করে। ব্রাজিলের কার্নিভাল হচ্ছে ব্রাজিলের একটি বাৎসরিক উৎসব, যা ইস্টারের চল্লিশ দিন আগে অনুষ্ঠিত হয়। কার্নিভাল ব্রাজিলের সবচেয়ে জনপ্রিয়় ছুটির দিন। এই দিনে সর্বোচ্চ সংখ্যক অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়। পুরো দেশের কাজকর্ম প্রায় এক সপ্তাহের জন্য সম্পূর্ণ বন্ধ হয়ে যায়। এই কার্নিভাল মূলত ১৮৫০ সাল থেকে শুরু হয়।

Facebooktwitterredditpinterestlinkedinmail

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

শিক্ষার মান বাড়াতে প্রাথমিকে চালু হচ্ছে নার্সারি

শিক্ষকরা বললেন সময় কমানো হলে প্রাথমিক শিক্ষার গুনগত মান বাড়বে। শিশির চক্রবর্তী: দেশের সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে প্রাক-প্রাথমিক শ্রেণির আগে নার্সারি শ্রেণি চালু করার পরিকল্পনা হাতে নিয়েছে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়। ...

প্রাথমিকের শিক্ষক বদলি প্রশ্নবিদ্ধ

সাব্বির নেওয়াজ ও ফসিহ উদ্দীন মাহতাব: মোছা. রাবেয়া সুলতানা ,যশোর জেলার শার্শা উপজেলার নাভারণ বেরি নায়াণপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষিকা। তার স্বামীও খুলনা মহানগরীতে একটি রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাংকের সিনিয়র প্রিন্সিপাল ...

কোচিং বাণিজ্য যেমন চলছিল, তেমনি চলছে

ড. ফ. র. মাহমুদ হাসান : গত ১৫ ফেব্রুয়ারি মুহম্মদ জাফর ইকবালের লেখা ‘এ দেশের কোচিং ব্যবসা’ পড়লাম। ভোরে হাঁটা আমার অভ্যাস। যেখানেই যাই না কেন, ভোরে হাঁটতে গিয়ে এখনও ...

নিয়োগ বিধি ।প্রাথমিক শিক্ষা কোন পথে

ডেস্ক,১০এপ্রিলঃ প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগ বিধিমালা ২০১৯ প্রকাশ হবার পর থেকে প্রাথমিক শিক্ষকদের মধে ্য নানা মত দেখা দিয়েছে।ফেসবুকের শালিক আহমেদের পোষ্ট থেকে হুবুহ তুলে ধরা হল। উন্নয়নের মহাসড়কে এগিয়ে যাচ্ছে ...

hit counter